Logo
শিরোনাম

ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার’ আর চলবে না

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৬২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দীর্ঘ ২৭ বছর পর বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফ্টের ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার। ২০০৩ সালে বিশ্বব্যাপী প্রায় ৯৫ শতাংশ মানুষ ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ব্যবহার করতে শুরু করেন। মাইক্রোসফ্টের প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থাগুলি অন্যান্য ব্রাউজার তৈরি করায় ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার-এর জনপ্রিয়তা কমতে শুরু করে।

২০২১ সালের অগাস্ট থেকেই মাইক্রোসফট ৩৬৫ থেকে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার বন্ধ হয়ে যাওয়ার কথা চলছিল। অবশেষে মাইক্রোসফ্ট সংস্থা ঘোষণা করল আগামী ১৫ জুন থেকে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার পুরোপুরি বন্ধ হতে চলেছে। ২০০৩ সাল নাগাদ এই ব্রাউজারটি জনপ্রিয় হয়ে উঠলেও এর পথচলা শুরু হয়েছে ১৯৯৫ সাল থেকে। উইন্ডোজ ৯৫ অপারেটিং সিস্টেমের সঙ্গে বাড়তি সুবিধা হিসাবে বাজারে আনা হয়েছিল এই ওয়েব ব্রাউজারটি।

২০১৬ সাল থেকেই এই ব্রাউজার বন্ধ করার পরিকল্পনা শুরু করে মাইক্রোসফ্ট সংস্থা। সেই সময়ে এর পরিবর্তে বাজারে আসে এর নতুন ব্রাউজার এজ। তখন থেকেই ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার বন্ধ করে দিয়ে নতুন ব্রাউজারটির উপর বাড়তি মনোযোগ দিতে শুরু করেছিল আমেরিকার এই সংস্থাটি।

 


আরও খবর



পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলা যুবকের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতু‌র রেলিং থেকে নাট খোলার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর গ্রেপ্তার বায়েজিদের বাড়িতে হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুর করা হয়েছে বলে দাবি বায়েজিদের পরিবারের। আজ সোমবার বিকেল ৫টার দি‌কে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

বায়েজিদের বাড়ি পটুয়াখালী সদর উপজেলার লাউকা‌ঠি ইউনিয়‌নের তে‌লিখালী গ্রামে।

ওই গ্রামের মো. আলাউদ্দিন মৃধা ও পিয়ারা বেগম দম্পতির তিন সন্তানের মধ্যে বায়েজিদ ছোট। তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানায়, বায়েজিদ পদ্মা সেতুর নাট খোলার পরেই সবাই জানতে পারে তার বাড়ি পটুয়াখালী। পরে সবাই খোঁজ খবর নিতে থাকে। সোমবার বিকেলে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মোটরসাইকেলে এসে বায়েজিদের বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। হামলাকারীরা বায়েজিদের ভাইয়ের মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে।

বায়েজিদের ভাবি হাদিসা আক্তার বলেন, বিকেলের দিকে আমি আমার মেয়েকে নিয়ে ঘরে ছিলাম। এ সময় রামদা, কুড়াল নিয়ে অনেক ছেলে প্রবেশ করলে আমরা ভয়ে পাশের ঘরে পালাইয়া যাই। আমার ঘরের বেড়া কোপাইছে, ঘরের মালামাল ভাঙচুর করছে।

লাউকাঠি ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য মো. আনোয়ার হোসেন মানিক বলেন, আমি শুনছি, এলাকা দিয়ে ফোন করে জানাইছে বায়েজিদের বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করছে। পুলিশ ও সাংবাদিকরা গেছিল। কারা হামলা করছে কেউ চিনতে পারেনি।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়েছিল। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। বড় কোনো ধরনের ঘটনা ঘটেনি।


আরও খবর



রাশিয়া ছাড়তে পারেন ১৫ হাজারের বেশি ধনকুবের

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ জুন ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পর অনেক ধনকুবের নিজ দেশে রাশিয়া থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে চাচ্ছেন। কারণ ইউক্রেনে আগ্রাসনের ফলে পশ্চিমা রাষ্ট্রগুলোর নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পড়েছে রাশিয়া। এ অবস্থায় আশঙ্কায় পড়েছেন রুশ কোটিপতিরা। তাই তারা দেশ ছাড়তে চাচ্ছেন।

দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, চলতি বছর ১৫ হাজারের বেশি রুশ ধনকুবের রাশিয়া ছেড়ে যেতে পারেন। ধনীদের অন্য দেশে নাগরিকত্ব বিক্রির ক্ষেত্রে মধ্যস্থতাকারী হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্স অভিবাসনের তথ্য বিশ্লেষণ করে বলেছে, যাদের ১০ লাখের বেশি সম্পদ রয়েছে তাদের অন্তত ১৫ শতাংশ এ বছরে  রাশিয়া ছেড়ে অন্য দেশে চলে যাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গবেষণা প্রতিষ্ঠান নিউ ওয়ার্ল্ড ওয়েলথের গবেষণা প্রধান অ্যান্ড্রু অ্যামোইলস বলেছেন, প্রায় এক দশক ধরে রুশ ধনীরা ক্রমবর্ধমান হারে দেশত্যাগ করছেন। দেশটি যে বর্তমানে ব্যাপক সমস্যার মধ্যে রয়েছে, এটি তার প্রাথমিক সঙ্কেত। আমরা যদি অতীত দেখি তাহলে দেখতে পাব, যখন কোনো বড় দেশের পতন অত্যাসন্ন হয়ে পড়ে, তখন ধনীদের মধ্যে দেশ ছাড়ার হিড়িক পড়ে।

অন্যদিকে যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনের ধনীরাও সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। ধারণা করা হচ্ছে, এ বছরের শেষ নাগাদ ২ হাজার ৮০০ কোটিপতি দেশ ছেড়ে চলে যাবেন।

হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্স জানিয়েছে, বিশ্বের ধনীরা ঐতিহ্যগতভাবেই যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমায়। তবে সম্প্রতি ধনীদের নতুন গন্তব্য হয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য ধনীদের আর আগের মতো আকর্ষণ করতে পারছে না। অনুমান করা হচ্ছে, পাড়ি জমানোর জন্য চলতি বছর বিশ্বের ধনীদের পছন্দের দেশ হিসেবে শীর্ষে উঠে আসবে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

নিউজ ট্যাগ: রাশিয়া

আরও খবর



মেসিদের নতুন কোচ হচ্ছেন গালটিয়ের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

লিওনেল মেসি, কিলিয়ান এমবাপে, নেইমার দা সিলভা স্যান্টোস জুনিয়রদের নতুন ম্যানেজার হচ্ছেন ক্রিস্টোফ গালটিয়ে। জানিয়ে দিলেন প্যারিস সাঁ জারমাঁর প্রেসিডেন্ট নাসের আল-খেলাইফি।

১৮ মাস আগে পিএসজির দায়িত্ব নেওয়া মৌরিসিয়ো পোচেত্তিনোর বিকল্প হিসেবে কে আসছেন, তা নিয়ে কয়েক দিন ধরেই জল্পনা তুঙ্গে ছিল। মেসি, নেমারদের নতুন গুরু হিসেবে শোনা যাচ্ছিল জ়িনেদিন জ়িদানের নামও। কিন্তু তিনি স্পষ্ট জানান পিএসজি নয়, ফ্রান্স জাতীয় দলের দায়িত্ব নিতেই বেশি আগ্রহী। এর পরেই নিসের ম্যানেজার গালটিয়েকে নেওয়ার জন্য ঝাঁপায় পিএসজি। ফরাসি সংবাদমাধ্যমের দাবি, সরকারি ভাবে গালটিয়ের নাম ঘোষণাই শুধু বাকি রয়েছে।

পিএসজি মালিক নাসের বলেছেন, ‘‘আমরা বেশ কয়েক জন কোচের নাম চূড়ান্ত তালিকায় রেখেছি। নিসের সঙ্গে আমাদের কথাবার্তা যে চলছে, তা গোপন করারও কিছু নেই।’’

গালটিয়ের কোচিংয়ে ২০১০-১১ মরসুমের পরে ২০২০-২১-এ ফরাসি লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল লিল। গত মরসুমে এই ৫৫ বছর বয়সি ফরাসি ম্যানেজার দায়িত্ব নিয়েছিলেন নিসের। পিএসজি প্রেসিডেন্ট অবশ্য দাবি করেছেন, জ়িদানকে প্রস্তাব না দেওয়ার কথা। তিনি বলেছেন, ‘‘আমি জ়িনেদিন জ়িদানকে ফুটবলার ও কোচ, দুই ভূমিকাতেই পছন্দ করি। অনেক ক্লাব ও জাতীয় দলই তাঁকে দায়িত্ব দিতে আগ্রহী। কারণ, জ়িদান অসাধারণ কোচ। তিনবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন। আমি তাঁকে সম্মান করি। তবে কখনওই আমরা পিএসজির কোচ হওয়ার ব্যাপারে জ়িদানের সঙ্গে কথা বলিনি।’’ আরও বলেছেন,‘‘আমরা জ়িদানের বিকল্প খুঁজে পেয়েছি। এমন একজনকে নিয়োগ করতে যাচ্ছি, যিনি আমাদের পরিকল্পনার জন্য উপযুক্ত।’’

একই সঙ্গে উঠেছে কিলিয়ান এমবাপের প্রসঙ্গও। পিএসজি মালিক জানিয়েছেন, ফরাসি তারকা কোনও সময়েই এই ক্লাব ছেড়ে দিতে মানসিক ভাবে তৈরি ছিলেন না। তিনি বলেছেন, সংবাদমাধ্যম বিষয়টিকে যে ভাবেই ব্যাখ্যা করুক, আমাদের এমবাপের এই ক্লাবে থাকা নিয়ে এক মুহূর্তের জন্য সংশয় তৈরি হয়নি।”


আরও খবর



পুরুষের চেয়ে ৮ গুণ বেশি মজুরিহীন গৃহকর্ম করেন নারীরা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গৃহস্থালি এবং পরিবারের সদস্যদের সেবা দেওয়ার কাজে পুরুষের তুলনায় নারীরা আট গুণ বেশি সময় ব্যয় করেন। এর জন্য তারা কোনো বেতন বা মজুরি পান না।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর নতুন জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। সোমবার (১৩ জুন) এ জরিপের প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।

টাইম ইউজ সার্ভে ২০২১ শিরোনামের ওই জরিপের তথ্য অনুযায়ী, পুরুষরা দিনে প্রায় ১ দশমিক ৬ ঘণ্টা ঘরোয়া ও যত্ন-আত্তির কাজে ব্যয় করেন, অথচ নারীরা প্রায় অর্ধেক দিন অর্থাৎ ১১ দশমিক ৭ ঘণ্টা এসব কাজ করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এসব কাজ উৎপাদনশীল হিসেবে ধরা হয় না, তাই এগুলো মজুরিহীন এবং স্বীকৃতিবিহীন থেকে যায়।

এতে আরও বলা হয়, যদিও ঘরোয়া কাজ এবং যত্ন-আত্তির দায়িত্ব আমাদের ভবিষ্যৎ অগ্রগতির জন্য প্রতিদিনের কাজের অংশ, তাই পুরুষ ও নারীদের সমানভাবে করা উচিত। কিন্তু নারীরা বাড়তি বোঝা বহন করে।

মজুরিহীন ঘরের কাজের পাশাপাশি নারীরা উৎপাদনশীল কাজ করেন ১ দশমিক ২ ঘণ্টা এবং পুরুষরা এ ধরনের কাজ করেন ৬ দশমিক ১ ঘণ্টা। ফলস্বরূপ, পুরুষের কাজ নারীদের তুলনায় পাঁচ গুণ বেশি স্বীকৃত পায়।

সময় ব্যবহারের ওপর গত বছর জাতীয় জরিপটি পরিচালনা করে বিবিএস। মূল উদ্দেশ্য ছিল ভালো পরিসংখ্যানের মাধ্যমে মজুরিহীন গৃহস্থালি এবং যত্ন-আত্তির কাজ এবং জাতীয় অর্থনীতির মধ্যে ঘাটতি পূরণ করা।

৫৯ বছর বয়স পর্যন্ত নারীদের এই মজুরিহীন গৃহকর্মের পরিমাণ বৃদ্ধি পায় এবং ৬০ বছরের বেশি বয়সীদের জন্য তা অবশ্য হ্রাস পায়। পুরুষদের জন্য এটি ধীরে ধীরে বাড়ে, তবে এর পরিমাণ খুব কম।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, পরিবার এবং পরিবারের সদস্যদের জন্য মজুরিহীন পরিষেবায় ২৫-৫৯ বছর বয়সী নারীরা দিনে ৫ দশমিক ২ ঘণ্টা ব্যয় করে। অথচ একই বয়সের পুরুষরা দিনে শূন্য দশমিক ৬ ঘণ্টা ব্যয় করে।

শহরাঞ্চলে নারীরা দিনে ৪ দশমিক ৪ ঘণ্টা এবং পুরুষরা শূন্য দশমিক ৬ ঘণ্টা মজুরিহীন পরিষেবা এবং পরিবারের সদস্যদের যত্ন-আত্তির জন্য ব্যয় করেন। এটি গ্রামীণ এলাকায় নারী ও পুরুষের জন্য যথাক্রমে ৪ দশমিক ৭ ঘণ্টা ও শূন্য দশমিক ৬ ঘণ্টা।

জরিপে আরও দেখা গেছে, বিয়ের পর আরও বেশি পুরুষ অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে যোগ দেয় এবং আরও বেশি নারী অবৈতনিক ঘরোয়া ও যত্ন-আত্তির পরিষেবাগুলোতে জড়িত হয়।

জরিপে দেখা গেছে, ৭২ দশমিক ৭৪ শতাংশ মতামতদাতা মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন। এখানেও নারীরা পুরুষের চেয়ে পিছিয়ে আছে। ৮৬ দশমিক ১০ শতাংশ পুরুষের তুলনায় মাত্র ৫৯ দশমিক ৯২ শতাংশ নারীর মোবাইল ফোন রয়েছে।

জরিপে আরও দেখা গেছে, নারীদের তুলনায় পুরুষেরা বেশি ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। মোট ২৮ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ মতামতদাতা ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। এদের মধ্যে ৩৫ দশমিক ১৫ শতাংশ পুরুষ এবং ২১ দশমিক ২৫ শতাংশ নারী।


আরও খবর



সীতাকুণ্ডে কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণ: নিহত বেড়ে ৪১

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোয় আগুন ও ভয়াবহ বিস্ফোরণে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৪১ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে সাত ফায়ার সার্ভিসকর্মী রয়েছেন।দগ্ধ হয়েছেন চার শতাধিক।

হতাহতদের মধ্যে শ্রমিক, পুলিশ সদস্য ও ফায়ার সার্ভিসকর্মীও রয়েছেন। এদের মধ্যে বেশিরভাগকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। অনেককে বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়। হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়েছে তিনজনকে।

শনিবার (৪ জুন) রাতে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোয় ভয়ানক বিস্ফোরণ ঘটে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ওই ডিপোতে ৫০ হাজারের বেশি কনটেইনার রয়েছে। কেমিক্যাল কনটেইনার থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে ধারণা করা হচ্ছে। আগুন লাগার পর কনটেইনারগুলো একের পর এক বিস্ফোরিত হতে থাকে। বিস্ফোরণে ঘটনাস্থল থেকে তিন-চার কিলোমিটার এলাকা কেঁপে ওঠে। আশপাশের বাড়ি-ঘরের জানালার কাচ ভেঙে পড়ে।

অগ্নিদগ্ধদের জরুরি চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামের সব চিকিৎসকের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সীতাকুণ্ডে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আহতদের চিকিৎসা দেওয়ার জন্য।

আগুনের সূত্রপাত কীভাবে হলো, তা এখনো জানা যায়নি। এ বিষয়ে বিএম কন্টেইনার ডিপোর পরিচালক মুজিবুর রহমান বলেন, ডিপো ব্যবস্থাপনার সঙ্গে জড়িতদের অনেকেই আহত থাকায় সঠিক কী কারণে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে কন্টেইনার থেকেই আগুন ধরেছে বলে ধারণা করছি।


আরও খবর