Logo
শিরোনাম

‘ইসি যে কয়টি আসনে ইভিএম দেবে আ.লীগ তাই মেনে নেবে’

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সামর্থ্য অনুযায়ী যে কয়টি আসনে ইভিএম দিতে পারবে; আওয়ামী লীগ তা মেনে নেবে বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে আমরা ৩০০ আসনেই ইভিএম চাই। তবে কমিশন সামর্থ্য অনুযায়ী যা করতে পারবে তাই আমরা মেনে নেবো।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে সোমবার (২৩ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্বর সংলগ্ন কচুক্ষেত রোডে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের একথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, জনগণ আওয়ামী লীগের সাথে রয়েছে, বিএনপির সাথে নেই। টেমস নদীর পাড় থেকে আসা অদৃশ্য নির্দেশে চলা বিএনপি রাজনীতিকে নষ্ট করেছে। এর অবসান হতে হবে। এ থেকে বের হয়ে আসতে না পারলে বিএনপি কখনো আন্দোলন ও নির্বাচনে সফল হবে না।

বিএনপিকে গণতন্ত্র এবং মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ হত্যাকারী অভিহিত করে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা কী করে রাষ্ট্র মেরামত করবে যারা এক কোটি ভুয়া ভোটার, ভুয়া ভোটের জন্ম দিয়েছে। রাষ্ট্র মেরামত করবে শেখ হাসিনার সরকার। এদেশে প্রথম নির্বাচন কমিশনকে আইনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত করেছে তার সরকার।

বিএনপি দেশের গণতন্ত্র ও নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে দাবি করে তিনি বলেন, তারা নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করেছে। আর মেরামত করেছেন শেখ হাসিনা। বিশ্ব সংকটে বিশ্বের বড় বড় দেশগুলো যেখানে সংকটে সেখানে বাংলাদেশের সুনাম করছে অনেকেই।

সারাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩০ লাখ শীতবস্ত্র দিয়েছেন জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, শীতে মানুষ কষ্টে আছে। আমরা মানুষের পাশে আছি। মানুষের যেকোনো কষ্টে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পাশে ছিলাম, আছি, থাকব।

আওয়ামী লীগের উন্নয়ন বিএনপি সহ্য করতে না পেরে অন্তর জ্বালায় ভুগছে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের অন্তর জ্বালা নাই। আমরা জনগণের জন্য কাজ করছি, জনগণ আমাদের সাথে আছে। জনগণ বিএনপির সাথে নেই, তাদের আন্দোলন দেখেই বোঝা যায়। বিএনপির ভুয়া আন্দোলন থেকে জনগণ মুখ ফিরিয়েছে।

মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোনাল্ড লুর ঢাকা সফরের বিষয়ে তিনি বলেন, ডোনাল্ড লু আসার পর বিএনপি নেতারা হাসপাতালে কেন গিয়েছে? অদৃশ্য নির্দেশে আন্তর্জাতিক মহলে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করার মিশনে বিএনপি আন্দোলন করেছিল। তারাই দেশে নষ্ট রাজনীতির জন্ম দিয়েছে। এই পথ থেকে বেরিয়ে আসতে না পারলে কখনোই আন্দোলনে সফল হবে না। নির্বাচনেও সফল হবে না বিএনপি। তারা ভন্ডামির রাজনীতি করছে। নির্বাচন মোকাবেলায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা রাজপথে আছে।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচির সঞ্চালনায় শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুর রউফ নান্নু প্রমুখ।


আরও খবর



মেট্রোরেল চালুতে সারা দেশ খুশি হলেও বিএনপি খুশি হতে পারেনি : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকায় মেট্রোরেল চালু হওয়ায় সারা দেশের মানুষ খুশি হলেও বিএনপি খুশি হতে পারেনি বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। আজ বুধবার বিকেলে রাজধানীর কাকরাইলে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের অনুদান চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'ভুল, অসত্য তথ্য নিয়ে গতকাল বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম খান সংবাদ সম্মেলন করলেন, বিভিন্ন দেশের মেট্রোর ভাড়া নিয়ে তিনি মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করেছেন। আজকে পুরো দেশ খুশি অথচ তারা খুশি হতে পারছে না। এই যে রাজনৈতিক দৈন্য, এটি দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধক।'

তিনি বলেন, আমি সাংবাদিক ভাইদের অনুরোধ জানাব, দায়িত্বশীলদের যেমন সমালোচনা হবে, যারা বিরোধী দলে থাকে তাদেরও একটা দায়িত্ব থাকে তাদেরও সমালোচনা হওয়া প্রয়োজন। আপনারা দুটি বিষয়ই দেখবেন।

'আওয়ামী লীগ সরকার সাংবাদিকদের একচোখা নীতি নিয়ে দেখে না এবং যে সাংবাদিকরা জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সরকারকে টেনে নামানোর আন্দোলনে ব্যস্ত, তাদেরও সরকারের অনুদান দেওয়া হয় এবং হচ্ছে' উল্লেখ করেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, 'বিএনপির আমলে ২০০১ সালে কলমের এক খোঁচায় বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার ২৬ জন সাংবাদিককে বরখাস্ত করা হয়েছিল, অথচ আওয়ামী লীগ আমলে ভিন্নমতের জন্য একজন সাংবাদিককেও বরখাস্ত করা হয়নি। সব সাংবাদিকের জন্য গণমাধ্যমবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৃষ্ট সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট দল-মত নির্বিশেষে সব সাংবাদিককে সহায়তা দিচ্ছে।'

সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুভাষ চন্দ বাদলের সভাপতিত্বে জাতীয় প্রেস ক্লাব সভাপতি ফরিদা ইয়াসমীন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) মহাসচিব দীপ আজাদ, সাবেক সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ, ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, দৈনিক সংবাদের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক কাশেম হুমায়ুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



হাসপাতালের লিফট ছিঁড়ে আহত ৭

প্রকাশিত:শনিবার ০৭ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩ | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মানিকগঞ্জ সেন্ট্রাল স্পেশালাইজড হাসপাতালের লিফট ছিঁড়ে নারীসহ আহত হয়েছেন সাতজন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত হয়ে তিনজন ওই হাসপাতালে ভর্তি থাকলেও বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি চলে গেছেন।

শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকার পৌর সুপার মার্কেটে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

গুরুতর আহতরা হলেন- মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার পালরা গ্রামের মনোরা বেগম (৬৫), বেতিলা গ্রামের জহিরুল ইসলাম (২৫) ও সাটুরিয়া উপজেলার দিঘুলিয়া গ্রামের আয়েশা (২১)।

আহত জহিরুল ইসলাম ইসলাম বলেন, ডাক্তার দেখানোর জন্য আমি একজন রোগী নিয়ে আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পৌর মার্কেটে মানিকগঞ্জ সেন্ট্রাল স্পেশালাইজড হাসপাতালে আসি। নিচ তালা থেকে আমরা ৭-৮ জন লোক ৩য় তলায় যাওয়ার জন্য লিফটে উঠি। ৩য় তলায় যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে লিফট ছিঁড়ে নিচে পড়ে যাই। আমরা নিচ তালায় পড়ে যাই। এতে করে কমবেশি সবাই আহত হই।

মানিকগঞ্জ সেন্ট্রাল স্পেশালাইজড হাসপাতালের ম্যানেজার মো. বাবুল আক্তার খান জানান, এই লিফট আমরা সময় মতোই সার্ভিসিং করি। কিন্তু কেন এমন হলো তা টেকনিশিয়ান না আসলে বোঝা যাবে না। এই দুর্ঘটনায় যারা আহত হয়েছেন সবাইকে আমরা চিকিৎসা দিয়েছি।

মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রউফ সরকার জানান, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয় এবং খোঁজখবর নেওয়া হয়। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ

বৃহস্পতিবার ২৯ ডিসেম্বর ২০২২




এক দশকে দুটি অর্থনৈতিক মন্দার মুখে বিশ্ব

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কোভিড ১৯ মহামারীর ধকল, বিশ্বের পরাশক্তির মধ্যকার শীতল যুদ্ধের জের ধরে ইউক্রেন-রাশিয়া সংঘাত ও রাজনৈতিক বাঁকবদল সব মিলিয়ে বিশ্ব একটি নাজুক পরিস্থিতির মধ্যে। মূল্যস্ফীতি বাড়ছে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো পরিস্থিতি সামাল দিতে একের পর এক কঠোর নীতি নিয়ে আসছে, তবু লাগাম টানা যাচ্ছে না প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে। ঝুঁকি তৈরি  হয়েছে বৈশ্বিক মন্দার। ঠিক এমন এক সন্ধিক্ষণে এসে বিশ্বব্যাংক সম্প্রতি সতর্ক করে বলছে, বিশ্ব অর্থনীতি এক দশকের মধ্যে দ্বিতীয় মন্দা থেকে মাত্র এক আঙুল দূরে। ৮০ বছরেরও বেশি সময় ধরে এ ধরনের নজিরবিহীন পরিস্থিতি দেখা যায়নি।

বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাসকে কমিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিশ্বব্যাংক। সংস্থাটি ধারণা করছে, বিশ্ব অর্থনীতি চলতি বছর মাত্র ১ দশমিক ৭ শতাংশ সম্প্রসারণ হবে। তবে ২০২৪ সাল নাগাদ প্রবৃদ্ধি ২ দশমিক ৭ শতাংশে উন্নীত হবে বলে মনে করছে সংস্থাটি। উচ্চ মূল্যস্ফীতি, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আক্রমণাত্মক নীতি, অবনতিশীল আর্থিক অবস্থা এবং ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রভাব পড়ছে প্রবৃদ্ধির ওপর। ফলে আরো নেতিবাচক ধাক্কা, উচ্চ মূল্যস্ফীতি, এমনকি কঠোর আর্থিক নীতি থেকে ভূরাজনৈতিক উত্তেজনা বৃদ্ধির ঘটনাগুলো বাড়ছে। বিশ্বব্যাংকের মতে, এগুলো মন্দা পরিস্থিতির তীব্রতা বৃদ্ধির জন্য যথেষ্ট।

২০২১ সালে খানিকটা পুনরুদ্ধারের পর ২০২০ সালের মহামারীজনিত মন্দার সময় বিশ্ব অর্থনীতি ৩ দশমিক ২ শতাংশ সংকুচিত হয়। তবে ইতিহাস অনুসারে, বিশ্ব সর্বশেষ ১৯৩০-এর দশকে ১০ বছরের ব্যবধানে এ ধরনের দুটি মন্দার সম্মুখীন হয়েছিল। ২০২৩ সালে মার্কিন অর্থনীতি মোটের ওপর শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সংস্থাটি আরো মনে করছে, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত যে ২০টি দেশ ইউরো ব্যবহার করে, তারা মোটেও কোনো অর্থনৈতিক সম্প্রসারণ দেখতে সক্ষম হবে না।

সংস্থাটি মনে করে, কোভিড-১৯ বিধিনিষেধ তুলে নেয়ায় ২০২৩ সালে চীনের প্রবৃদ্ধি বাড়বে ৪ দশমিক ৩ শতাংশ। যদিও পূর্বাভাসটি ছয় মাস আগের অনুমানের তুলনায় কম, যা দেশটির আবাসন বাজারের চলমান নড়বড়ে অবস্থা, চীনে তৈরি পণ্যের জন্য অন্যান্য দেশের দুর্বল চাহিদা এবং অব্যাহত মহামারীজনিত ব্যাঘাতগুলোকে প্রতিফলিত করে।

বিশ্বব্যাংক তাদের প্রতিবেদনে আরো বলে, বিশ্বের তিনটি প্রধান প্রবৃদ্ধির চালিকাশক্তি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউরো অঞ্চল ও চীনবর্তমানে পরিচ্ছন্ন দুর্বলতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এ অভিঘাত আক্রান্ত হবে দরিদ্র দেশগুলোও, যারা কিনা এরই মধ্যেই একটি অনিশ্চিত জলবায়ু অর্থনীতি, নিম্ন ব্যবসায়িক বিনিয়োগ এবং ক্রমবর্ধমান সুদহার ঘিরে টালমাটাল পরিস্থিতির মোকাবেলা করছে। তাছাড়া ঋণের ক্রমবর্ধমান খরচ বড় অংকের ঋণ গ্রহণের বিষয়গুলোকে আরো চ্যালেঞ্জিং করে তুলতে পারে।  ২০২৪ সালের শেষ নাগাদ উদীয়মান বাজার ও উন্নয়নশীল দেশের অর্থনৈতিক উৎপাদন মহামারীর আগে নির্ণয় করা মাত্রার থেকে প্রায় ৬ শতাংশ নিচে থাকবে। আরো ধারণা করা হচ্ছে, আয় বৃদ্ধিও হবে ধীরগতির, যা ধনী দেশগুলোর সঙ্গে অন্যদের ব্যবধান হ্রাসের বড় ধরনের অন্তরায়।

নিউজ ট্যাগ: অর্থনৈতিক মন্দা

আরও খবর



‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিরোধ করে আস্থা অর্জন করেছে পুলিশ’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩ | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে সকল ধরণের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিরোধ করে বাংলাদেশ পুলিশ জনগণের আস্থা অর্জন করেছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) সকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, পুলিশ সবসময় মানুষের পাশে রয়েছে। সবসময় জীবন বাজি রেখে দেশের জন্য কাজ করে যায় বাহিনীটির সদস্যরা। যেকোনো ধরনের ঝুঁকি নিতে তারা পিছপা হয় না। এটাই হচ্ছে পুলিশের সবচেয়ে বড় ভূমিকা। তাই পুলিশ বাহিনীকে আমি আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। বিশেষ করে ২০১৩, ১৪ ও ১৫ সালে বিএনপি-জামায়াতের অগ্নি সন্ত্রাসে বিরুদ্ধে পুলিশে ভূমিকা প্রশংসনীয় ছিল।

ওই তিন বছরে বিএনপি-জামায়াতের কর্মকাণ্ডের তথ্য তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেই সময় সাড়ে তিন হাজারের বেশি মানুষ অগ্নিদগ্ধ হয়েছিল। প্রায় ৫০০ এর বেশি মানুষ মৃত্যুবরণ করেছিল। ২৯ জন পুলিশ সদস্যও মৃত্যুবরণ করেছিল। খুব নির্দয়ভাবে বিএনপি-জামায়াতের লোকজন প্রকাশ্যে দিবালোকে পুলিশকে হত্যা করেছে। ওই সময় বাসেও অগ্নিসংযোগ করা হয়। প্রতিটি সরকারি অফিসেও হামলা করা হয়। এছাড়া সাড়ে ৩ হাজার বাস-ট্রাক, ১৯টি ট্রেন, ১১টি লঞ্চ পুড়িয়ে ধ্বংস করে। ৭০টি সরকারি ও ৬ ভূমি অফিস পুড়িয়ে দেয়। সে সময় পুলিশের সদস্যরা জীবন বাজি রেখে এই রকম ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডকে রুখে দিয়ে জনগণের নিরাপত্তা দিয়েছেন।

দুর্ভাগ্য হলো, অনেক পুলিশ সদস্য আগুনে দগ্ধ হয়ে বেঁচে আছেন, কিন্তু কারও চেহারা এতো বিকৃত হয়েছে যে তারা মানুষের সামনে যেতে পারেন না। তবে পুলিশ সেই সময় জীবন বাজি রেখে সকল ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড রুখে দিয়ে জনগণের নিরাপত্তা দিয়েছে। পুলিশ সদস্যরা তাদের জীবন বাজি রেখে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিল। অতীতের মতো আগামীতেও কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড যাতে না ঘটে সেজন্য পুলিশ বাহিনীকে সবসময় সজাগ থাকতে হবে।-যোগ করেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

শেখ হাসিনা বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের পাশাপাশি আমাদের দেশের পুলিশ বাহিনী নারী-শিশু পাচার রোধেও প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করেছে। সাইবার অপরাধ মোকাবিলা করার জন্য সাইবার পুলিশ ইউনিট গঠন করা হয়েছে।

পুলিশকে একটি কমিউনিটি ব্যাংক উপহার দেওয়ার কথা জানিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, এর ফলে পুলিশ সদস্যরা সহজেই সেখান থেকে ঋণ নিতে পারেন। সেখান থেকে ঋণ নিয়ে চাষাবাদ, ঘর-বাড়ি নির্মাণ ও ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারবেন।

পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসা প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, পুলিশের চিকিৎসার জন্য ঢাকায় হাসপাতাল তৈরি করা হয়েছে। এভাবে প্রতিটি বিভাগে পুলিশের জন্য আলাদা হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে। বিভাগীয় শহরে পুলিশের হাসপাতাল তৈরি করে তাদের চিকিৎসা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।

আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অনেক দেশ থেকে পুলিশ বাংলাদেশের পুলিশের কাছে ট্রেনিং নিতে চায় জানিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, গত ১৪ বছরে পুলিশের সাংগঠনিক কাঠামোতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক নতুন পদ সৃজন করে, জনবল নিয়োগ করেছি। তাছাড়া ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ, ট্যুরিস্ট পুলিশ, নৌ পুলিশ, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন, এন্টি টেরোরিজম ও কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটসহ বেশ কয়েকটি রেঞ্জ, মেট্রোপলিটন ইউনিট, সাইবার পুলিশ সেন্টার, ব্যাটালিয়ন, ইন-সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টার, থানা, তদন্ত কেন্দ্র, ফাঁড়ি এবং জাতীয় জরুরি সেবায় ৯৯৯ ইউনিট গঠন করেছি।

এর আগে সকালে পুলিশ সপ্তাহ-২০২৩ এর উদ্বোধন করেন বঙ্গবন্ধুকন্যা। পরে বার্ষিক পুলিশ প্যারেড পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন।

এবার বার্ষিক পুলিশ প্যারেডে অধিনায়ক হিসেবে নেতৃত্ব দেন খুলনা রেঞ্জের পুলিশ সুপার কাজী মইন উদ্দিন। তার নেতৃত্বে বিভিন্ন কন্টিনজেন্টের পুলিশ সদস্যরা প্যারেডে অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে বীরত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ২০২২ সালে ১৫ জন পুলিশ ও ২ র‌্যাব সদস্যকে বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম), ২৫ জনকে রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম) দেওয়া হয়।

গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দক্ষতা, কর্তব্যনিষ্ঠা, সততা ও শৃঙ্খলামূলক আচরণের মাধ্যমে প্রশংসনীয় অবদানের জন্য ২৫ জন পুলিশ সদস্যকে বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)-সেবা এবং ৫০ জনের হাতে রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম)-সেবা তুলে দেওয়া হয়।


আরও খবর



রাশিফল: আপনার দিন কেমন?

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মেষ (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)

কর্মস্থলে বসের মন জুগিয়ে চলতে পারলে দিনশেষে আপনিই লাভবান হবেন। ব্যবসায়ে আজ লাভের পরিমাণ বৃদ্ধি পেতে পারে। আজ হঠাৎ করেই হাতে টাকাপয়সা চলে আসতে পারে। রোমান্স ও বিনোদন শুভ।

বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

ব্যবসায়ে আগের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার সুযোগ পাবেন। আপনি একজন সংগীতশিল্পী হয়ে থাকলে আজ এ ক্ষেত্রে সম্মাননা পেতে পারেন। প্রেমের ব্যাপারে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিন। আর্থিক লেনদেন শুভ।

মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

চাকরিতে কারও কারও আটকে থাকা পদোন্নতির বিষয়ে নিষ্পত্তি হতে পারে। মামলা-মোকদ্দমা রায় আপনার পক্ষে যেতে পারে। প্রেমিক-প্রেমিকার জন্য আজ সুখবর আছে। রাজনৈতিক তৎপরতা শুভ।

কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

বিদেশযাত্রার ক্ষেত্রে হাতছাড়া হয়ে যাওয়া সুযোগ ফিরে আসতে পারে। রাজনৈতিক পরিমণ্ডলে আপনার গুরুত্ব বৃদ্ধি পেতে পারে। পাওনা আদায়ে অন্যের সহযোগিতা পেতে পারেন।

সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

চাকরিতে কারও কারও কর্মস্থল পরিবর্তনের সম্ভাবনা আছে। বিদেশযাত্রায় প্রবাসী আত্মীয়ের সহায়তা পেতে পারেন। জমিজমাসংক্রান্ত বিরোধের নিষ্পত্তি হতে পারে। প্রেমিক-প্রেমিকার জন্য আজ সুখবর আছে।

কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

ব্যবসায়ে আগের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার সুযোগ পাবেন। নতুন চাকরিতে কেউ কেউ গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পেতে পারেন। পারিবারিক দ্বন্দ্বের অবসানে আপনার উদ্যোগ ফলপ্রসূ হতে পারে। রোমান্স ও বিনোদন শুভ।

তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

শিক্ষা কিংবা গবেষণায় অবদানের জন্য সম্মাননা পেতে পারেন। আজ কারও কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা পেতে পারেন। জনসংযোগ ও প্রচারের কাজে সাফল্যের সম্ভাবনা আছে। প্রেমের ক্ষেত্রে ইতিবাচক সাড়া পাবেন।

বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

ব্যবসায়ে ঝুঁকি গ্রহণ করে লাভবান হতে পারেন। পরিবারের বয়স্ক কারও রোগমুক্তি ঘটতে পারে। আজ হঠাৎ করেই হাতে টাকাপয়সা চলে আসতে পারে। রোমান্স ও বিনোদন শুভ। সৃজনশীল কাজের স্বীকৃতি পাবেন।

ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

শিক্ষার্থীদের কারও কারও বিদেশে অধ্যয়নের প্রচেষ্টা সফল হতে পারে। ব্যবসায়ে আগের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার সুযোগ পাবেন। আজ আকস্মিকভাবে অর্থপ্রাপ্তির সম্ভাবনা আছে। সৃজনশীল কাজের স্বীকৃতির পাবেন।

মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

বেকারদের  কারও কারও ব্যবসায়িক উদ্যোগ আলোর মুখ দেখতে পারে। বিদেশযাত্রায় প্রবাসী আত্মীয়ের সহায়তা পেতে পারেন। যৌথ বিনিয়োগ শুভ। প্রেমের ক্ষেত্রে ইতিবাচক সাড়া পাবেন। দূরের যাত্রা শুভ।

কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

চাকরিতে কারও কারও ওপর আরোপিত শাস্তি মওকুফের সম্ভাবনা আছে। বেকারদের কেউ কেউ আজ নতুন কাজের সন্ধান পাবেন। সৃজনশীল পেশায় আপনার সুনাম ছড়িয়ে পড়তে পারে। রোমান্স ও বিনোদন শুভ।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

বৈদেশিক বাণিজ্যে বিদেশি প্রতিপক্ষের কাছ থেকে লোভনীয় প্রস্তাব পেতে পারেন। আপনি একজন সংগীতশিল্পী হয়ে থাকলে আজ নতুন অনুষ্ঠানের জন্য চুক্তিবদ্ধ হতে পারেন। প্রেমে সাফল্যের দেখা পেতে পারেন।


আরও খবর

আজকের রাশিফল: জেনে নিন কেমন কাটবে দিন ?

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩

অ্যাকনে যখন মাথার ত্বকে

বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩