Logo
শিরোনাম

ইসতেগফারের ফজিলত

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

‘ইস্তেগফার’ শব্দের অর্থ কৃত পাপকর্মের জন্য আল্লাহর দরবারে ক্ষমা প্রার্থনা করা। আল্লাহর অসংখ্য মহান গুণাবলির একটি হলো ক্ষমা। আল্লাহ তাআলা ঘোষণা করেন, আমি অবশ্যই ক্ষমাশীল তার প্রতি, যে তওবা করে, ইমান আনে, সৎকর্ম করে ও সৎপথে অবিচলিত থাকে। (সূরা তাহা, আয়াত: ৮২) মানবজাতিকে শিক্ষা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে, তুমি তোমার প্রতিপালকের প্রশংসাসহ তাঁর পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করো এবং তাঁর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করো, নিশ্চয়ই তিনি তওবা কবুলকারী।

’ (সূরা নাসর, আয়াত: ৩)

ইস্তেগফারের গুরুত্ব:

রাসূল (সা.) ইস্তেগফারের প্রতি উৎসাহ প্রদান করে বলেন (অথচ তিনি মা’সুম-নিষ্পাপ), হে লোক সকল! তোমরা আল্লাহর কাছে ইস্তেগফার ও তাওবা করো। কারণ আমি নিজেও দৈনিক শতবার তাওবা-ইস্তেগফার করি। 

অন্য হাদীসে বর্ণিত আছে, রাসূল (সা.) বলেন, যার আমলনামায় ইস্তেগফার অধিক সংখ্যায় পাওয়া যাবে তার জন্য রইল সুসংবাদ।

হযরত লোকমান হাকীম তাঁর সন্তানকে উপদেশ দান করে বলেন, হে আমার পুত্র! আল্লাহুম্মাগ ফিরলী’ বলাকে অভ্যাসে পরিণত করে নাও। কারণ এমন কিছু সময় আছে যখন আল্লাহ তা’আলা যেকোনো দু’আকারীর দু’আ কবুল করেন।

হযরত আবু মূসা (রা.) বলেন, আমাদের সুরক্ষাদানকারী দুটি জিনিস ছিল, তন্মধ্যে হতে একটি চিরদিনের জন্য হারিয়ে গেছে। সেটা হলো আমাদের মাঝে রাসূল (সা.)-এর উপস্থিতি। আর দ্বিতীয় জিনিস ইস্তেগফার যা এখনো আমাদের মাঝে রয়ে গেছে। যেদিন এটিও চলে যাবে (করার মতো কেউ থাকবে না) তখন আমাদের ধ্বংস অনিবার্য। 

হযরত হাসান (রহ.) বলেন, তোমরা ঘরে-দুয়ারে, দস্তরখানে, রাস্তা-ঘাটে, হাটে-বাজারে, সভা-সমাবেশে বেশি বেশি ইস্তেগফার করো। কারণ ইস্তেগফার কবুল হওয়ার সময় তোমাদের জানা নেই।

ইস্তেগফারের ফজিলত:

ইস্তেগফারের ফজিলত অনেক। কোরআন-হাদীসের আলোকে কিছু উপকারের কথা নিচে তুলে ধরা হলো।

এক. গোনাহখাতা মাফ হয়। 

কোরআনে ইরশাদ হচ্ছে : তোমরা তোমাদের রবের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করো। নিশ্চয়ই তিনি অতিশয় ক্ষমাশীল। (সূরা নূহ-১০)

দুই. অনাবৃষ্টি দূর হবে।

ইরশাদ হচ্ছে : তিনি (আল্লাহ) আকাশ থেকে প্রচুর বৃষ্টি বর্ষণ করবেন। (নূহ-১১)

তিন. সন্তান ও সম্পদ লাভ হবে।

ইরশাদ হচ্ছে :  তোমাদের ধন-সম্পদ ও সন্তান-সন্ততিতে উন্নতি দান করবেন। (নূহ-১২)

চার. সবুজ-শ্যামল পরিবেশ লাভ হবে।

ইরশাদ হচ্ছে : তোমাদের জন্য সৃষ্টি করবেন উদ্যান। (নূহ-১২)

পাঁচ. নদ-নদীর ব্যবস্থা হবে। 

ইরশাদ হচ্ছে : তোমাদের জন্য নদ-নদীর ব্যবস্থা করে দেবেন। (নূহ-১২)


আরও খবর

আজ কৈলাসে ফিরবেন দেবী

বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২




বলিউডের গানে ইয়োহানির অভিষেক

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত বছর নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয় শ্রীলংকান তরুণী ইয়োহানি ডি সিলভার গাওয়া সিংহলী ভাষার গান মানিকে মাগে হিথে। তার কণ্ঠে এই গানে বুঁদ হয়ে যায় গোট দুনিয়া। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টিকটক সমস্ত সোশ্যাল সাইটের মাধ্যমে গায়িকাও পান ব্যাপক পরিচিতি।

এবার বলিউডের সিনেমার গানে অভিষেক হতে যাচ্ছে ইয়োহানির। মানিকে মাগে হিথে গানটিই হিন্দিতে গেয়েছেন তিনি। অজয় দেবগন ও সিদ্ধার্থ মালহোত্রার নতুন সিনেমা থ্যাংক গড-এ থাকছে শ্রীলংকান গায়িকার বিশ্বজয় করা গানটি। গত ৯ সেপ্টেম্বর সিনেমাটির ট্রেলার প্রকাশ্যে এসেছে।

সংবাদমাধ্যমকে ইয়োহানি জানান, হিন্দি ভাষা শেখা তার কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল। হিন্দি গান অনেক শুনেছেন। কিন্তু কোনো সিনেমার জন্য গান গাওয়া সম্পূর্ণ আলাদা বিষয়। এখানে আমাকে একজন অভিনেত্রীর গলায় গাইতে হয়েছে। উচ্চারণ, গলার ভঙ্গি, টান- সব ঠিকঠাক রাখতে হয়েছে। এর আগে এসব কখনো করিনি। তাই এটা আমার কাছে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল।

থ্যাংক গড সিনেমায় চিত্রগুপ্তর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অজয়। সাধারণ মানুষের চরিত্রেই দেখা যাবে সিদ্ধার্থ মলহোত্রকে, যার চরিত্রের বিশ্লেষণ করবেন চিত্রগুপ্ত। ইন্দ্র কুমার পরিচালিত সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে ২৫ অক্টোবর। এদিকে, আইনি ঝামেলায় পড়েছে সিনেমাটি। এর বিরুদ্ধে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগ আনা হয়েছে। উত্তরপ্রদেশের জওনপুর আদালতে এই অভিযোগ দায়ের করেছেন হিমাংশু শ্রীবাস্তব নামের এক আইনজীবী।


আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




চাকরির সুযোগ দিচ্ছে এসিআই মটরস

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

এসিআই মটরস লিমিটেডে জুনিয়র সার্ভিস ইঞ্জিনিয়ার’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: এসিআই মটরস লিমিটেড

বিভাগের নাম: ইয়ামাহা মটরসাইকেল

পদের নাম: জুনিয়র সার্ভিস ইঞ্জিনিয়ারিং

পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়

শিক্ষাগত যোগ্যতা: মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং

অভিজ্ঞতা: ০৩ বছর

বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম

প্রার্থীর ধরন: পুরুষ

বয়স: ২১-৩০ বছর

কর্মস্থল: যে কোনো স্থান

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

নিউজ ট্যাগ: চাকুরীর খবর

আরও খবর

কাজী ফার্মসে এক্সিকিউটিভ পদে চাকরি

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২

ঢাকায় চাকরির সুযোগ দিচ্ছে ওয়ালটন

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




ঢাকার চারপাশে চলবে স্পিডবোট, দুই রুটে উদ্বোধন

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যাত্রী পরিবহনের জন্য রাজধানীর চারপাশে বৃত্তাকার নৌপথে স্পিডবোট চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকালে টঙ্গী নদী বন্দর থেকে এ সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে। নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এবং যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল টঙ্গী নদী বন্দরে ঢাকা বৃত্তাকার নৌপথে স্পিডবোট সার্ভিসের উদ্বোধন করেন।

প্রাথমিকভাবে পাঁচটি দ্রুতগামী স্পিডবোট দিয়ে এই সার্ভিস চালু করা হয়েছে। বেসরকারি উদ্যোগে প্রথম পর্যায়ে আব্দুল্লাহপুর থেকে কড্ডা এবং আব্দুল্লাহপুর -উলুখুল (কালীগঞ্জ); এই দুইটি রুটে স্পিডবোট চলাচল করবে। আব্দুল্লাহপুর থেকে কড্ডা রুটে ভাড়া পড়বে ১৫০ টাকা। স্পিডবোটে এই রুটে চলাচলে সময় লাগবে ২৫ মিনিট। আর আব্দুল্লাহপুর থেকে উলুখুল (কালীগঞ্জ) যেতে ভাড়া গুনতে হবে ১২০ টাকা। এই যাত্রায় সময় লাগবে ১৯ মিনিট।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পর্যায়ক্রমে যাত্রী চাহিদার আলোকে কড্ডা-গাবতলী এবং গাবতলী-সদরঘাট; এই দুইটি নৌরুটেও স্পিডবোট চালু করা হবে।

উল্লেখ্য, ঢাকা শহরের চারিদিকে বৃত্তাকার নৌপথ চালু করে সড়কপথে যানবাহনের চাপ কমানো এবং নৌপথে সাশ্রয়ীমূল্যে যাত্রী ও মালামাল পরিবহন ব্যবস্থা চালু করার লক্ষ্যে কয়েকটি ধাপে ঢাকার চারটি নদীর ১১০ কিলোমিটারে নৌপথে নৌযান পরিচালনার পদক্ষেপ নেওয়া হয়। বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃক বৃত্তাকার নৌপথের নদী খননসহ ৯টি ল্যান্ডিং স্টেশন নির্মাণের মাধ্যমে নৌপথটি চালু করা হয়। বর্তমানে উক্ত নৌপথে মালামাল পরিবহন ব্যবস্থায় গুরুত্ব পেলেও লো-হাইটের ব্রিজ, অতিরিক্ত সময় এবং যাত্রীবান্ধব পরিবেশের অভাবে সাশ্রয়ীমূল্যে পরিবহন ব্যবস্থা যাত্রীবান্ধব করা সম্ভব হয়নি।

পরবর্তী সময়ে বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃক ওয়াটার বাস চালু করা হলেও বিভিন্ন কারণে তা বর্তমানে বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে টঙ্গী নদীবন্দর হতে বৃত্তাকার নৌপথে যাত্রী চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় দ্রুতগামী স্পিডবোট-চালুর পদক্ষেপ নেওয়া হয়। তাছাড়া যাত্রী চাহিদার আলোকে ঢাকা শহরের বৃত্তাকার নৌপথে নতুন নৌপথ সৃষ্টি করে দ্রুতগামী স্পিডবোট চালুর আরও পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঢাকার বৃত্তাকার নৌপথে স্পিডবোট চালু হলে উক্ত এলাকার জনগণ যানজটমুক্ত ও সাশ্রয়ীমূল্যে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবে এবং সড়ক পথে যানবাহনের চাপ কমাতে সহায়তা করবে।

এসময় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তফা কামাল, বিআডিব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক, নৌপুলিশ প্রধান মো. শফিকুল ইসলাম, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোল্লা নজরুল ইসলাম ও জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমানও উপস্থিত ছিলেন। এর আগে প্রতিমন্ত্রীরা টঙ্গী নদী বন্দরে বিআইডব্লিউটিএর ইকোপার্ক উদ্বোধন করেন।


আরও খবর



বিধিনিষেধ শিথিলে জাপানে ফ্লাইট বুকিং বেড়েছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কোভিড-১৯ বিধিনিষেধ শিথিল করায় আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে আগ্রহ বেড়েছে জাপানি ভ্রমণকারীদের। গত ২৪ আগস্ট বিধিনিষেধ শিথিলের বিষয়ে ঘোষণার পর দেশটির অভ্যন্তরীণ এবং বৈদেশিক ফ্লাইটের নতুন বুকিং সংখ্যাও দ্বিগুণ বেড়ে গিয়েছে। এ বৃদ্ধির সংখ্যা বিশেষ করে আগস্টের মাঝামাঝি সময়ের তুলনায় চলতি সপ্তাহে ২ দশমিক ৭ গুণ বেশি।

নিক্কেই এশিয়া প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জাপান সরকারের কোভিড-১৯ বিধিনিষেধ শিথিলে অল নিপ্পন এয়ারলাইনস (এএনএ) ও জাপান এয়ারলাইনসের (জেএএল) বুকিং রিজার্ভেশন দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। বিধিনিষেধের বিষয়ে সরকারের ঘোষণার পর আগামী অক্টোবরের আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের নতুন বুকিংও দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

মহামারীর কারণে জাপান সরকার এত দিন দেশটিতে দৈনিক ভ্রমণকারীর সংখ্যা ২০ হাজারে সীমাবদ্ধ রেখেছিল। গত বুধবার এ সংখ্যা বাড়িয়ে ৫০ হাজার করা হয়েছে। পাশাপাশি ভ্রমণকারীদের বিভিন্ন কোভিড পরীক্ষার প্রয়োজনীয়তাও বাতিল করা হয়েছে। এমনকি ব্যবসায়ের প্রয়োজনে বৈদেশিক ভ্রমণেও বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে। এসব কারণে দেশটির অভ্যন্তরীণ এবং বৈদেশিক ফ্লাইটে ভ্রমণকারীদের আগ্রহ বেড়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। পাশাপাশি দেশটি থেকে ছেড়ে যাওয়া ফ্লাইটের সংখ্যাও বেড়েছে। আগস্টের মাঝামাঝি সময়ের তুলনায় জেএএলের বুকিং সংখ্যাও চলতি সপ্তাহে ৬ দশমিক ৬ শতাংশ বেড়েছে। ব্যবসায়িক ভ্রমণকারীর পাশাপাশি বিদেশে বসবাসকারী জাপানিরা এ সময়ে বেশি ভ্রমণ করেছেন।

এএনএর নির্বাহী ভাইস প্রেসিডেন্ট আকিকো ওয়ামাদা বলেন, ভ্রমণে কোভিড পরীক্ষার প্রয়োজনীয়তা বাতিলের পর গ্রাহকদের এখন বিদেশ ভ্রমণে শঙ্কা দূর হয়েছে। এএনএ ও জেএএল উভয় উড়োজাহাজ প্রতিষ্ঠান দুটি তাদের আন্তর্জাতিক পরিষেবা সম্প্রসারণ করছে। বিশেষ করে ব্যবসায়িক রুটগুলোর জন্য ব্যাপকভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছে।

সিঙ্গাপুর থেকে ফিরে আসা টোকিও অফিসের এক কর্মী বলেন, বিদেশ থাকাকালে জাপান ভ্রমণে কোভিড পরীক্ষার ইতিবাচক ফলাফলের বিষয়ে চিন্তিত ছিলাম। তবে সরকারের ঘোষণার পর পরীক্ষা ছাড়াই দেশে আসতে পেরেছি।

জাপানের পূর্বাঞ্চলের চিবা প্রদেশের এক ব্যক্তি বলেন, পিসিআর পরীক্ষার জন্য আর অর্থ প্রদান করতে হবে না। এ কারণে বিদেশ ভ্রমণে আরো সুযোগ বেড়ে যাবে বলে আশা করছি। হানকিউ ট্রাভেল ইন্টারন্যাশনালের এক প্রতিনিধি বলেন, ভ্রমণ শিল্প খাত উন্নত করতে জাপান সরকার কোভিডজনিত বিধিনিষেধ শিথিল করেছে। কোভিড পরীক্ষার নেতিবাচক ফলাফল এ খাতে বড় বাধা সৃষ্টি করেছিল। এটি ভোক্তাদের মানসিকভাবেও ভ্রমণ থেকে দূরে রাখত। এএনএ ও জেএএল উভয় উড়োজাহাজ প্রতিষ্ঠান দুটির আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের যাত্রী সংখ্যা এখনো মহামারীপূর্ব স্তরের প্রায় ৪০ শতাংশে রয়ে গিয়েছে। তবে শতভাগ পুনরুদ্ধার করতে হলে বিধিনিষেধ সম্পূর্ণভাবে বাতিল করতে হবে বলে মনে করছেন দেশটির বিশেষজ্ঞরা।


আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




যুদ্ধে নিহত হলে পাপ মুছে যাবে: চার্চ প্রধান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাশিয়ার অর্থডক্স চার্চের প্রধান প্যাট্রিয়ার্ক কিরিল বলেছেন, ইউক্রেনের যুদ্ধে মৃত্যু হলে রুশ সেনাদের কোনো পাপ থাকবে না। রবিবার এক অনুষ্ঠানে  চার্চপ্রধান এই মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আমরা জানি ভয়ানক যুদ্ধের মাঠে অনেকে নিহত হচ্ছেন। যুদ্ধ যেন দ্রুত শেষ হয় চার্চ তার জন্য প্রার্থনা করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভ্রাতৃঘাতী এই যুদ্ধে কিছু ভাই সম্ভবত একে অপরকে হত্যা করবে।

এমন মন্তব্যের পাশাপাশি প্যাট্রিয়ার্ক কিরিল একই সময় বলেন, কর্তব্যের খাতিরে অনেকের যুদ্ধে দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে, চার্চ এটা অনুধাবন করছে।

তিনি বলেন, কোনো সেনা যদি কতর্ব্যের আহ্বানে সাড়া দিয়ে সত্য আকড়ে থাকে এবং তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে। এটা করতে গিয়ে মৃত্যু হলে নিঃসন্দেহে তা হবে আত্মত্যাগের মতো সুমহান কাজ। তারা (রুশ সেনারা) অন্যের জন্য নিজেদের জীবন উৎসর্গ করছেন। এমন আত্মত্যাগ সকল পাপ মুছে দেয়।

সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধে নতুন করে সেনা সমাবেশের ঘোষণার পর রাশিয়ার অর্থডক্স চার্চপ্রধান কিরিল এমন মন্তব্য করলেন।


আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২