Logo
শিরোনাম

ইউরোর সেরা একাদশে ইতালি-ইংল্যান্ড, জায়গা হয়নি রোনালদোর

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইউরো কাপের শেষ ষোল থেকে বিদায় নিয়েছে পর্তুগাল। তবে দলটির সবচেয়ে বড় তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো দারুণ সাফল্য পেয়েছেন। তিনি জিতেছেন গোল্ডেন বুট। অথচ ইউরোর সেরা একাদশে জায়গা হয়নি পর্তুগাল অধিনায়কের।

এই দলে বেশি জায়গা পেয়েছেন ইতালি ও ইংল্যান্ডের ফুটবলাররা। বেলজিয়ামের লুকাকু জায়গা পেয়েছেন উয়েফার সেরা একাদশে।

ইতালির চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পিছনে বড় অবদান গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি দোনারুমার। তাঁকে গোলরক্ষকে দায়িত্বে রাখা হয়েছে। ইতালির ডিফেন্ডার লিওনার্দো বোনুচ্চি ও লিওনার্দো স্পিনাজ্জোলা। তাঁরা আছেন এই দলে।

স্পেনের একমাত্র প্রতিনিধি হিসাবে আছেন তরুণ মিডফিল্ডার পেদ্রি। ইতালির আক্রমণভাগে দারুণ উজ্জ্বল ফেদেরিকো কিয়েজা।  এছাড়াও দলে আছেন  কাইল ওয়াকার ও হ্যারি ম্যাগুইয়ার।

রোনালদো এবারের ইউরোতে চার ম্যাচে পাঁচ গোল করেছেন এবং একটি গোলে পাস দিয়েছেন। চেক প্রজাতন্ত্রের প্যাট্রিকও পাঁচ গোল করেন, তবে পর্তুগীজ তারকা অ্যাসিস্টের নিরিখেই টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা হন, গোল্ডেন বুট জেতেন। তারপরও ইউরোর সেরা একাদশে জায়গা হয়নি তাঁর।

ইউরো ২০২০ একাদশ:

গোলকিপার: জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা (ইতালি)।

ডিফেন্ডার: কাইল ওয়াকার (ইংল্যান্ড), লিওনার্দো বোনুচ্চি (ইতালি), হ্যারি ম্যাগুয়ার (ইংল্যান্ড) ও লিওনার্দো স্পিনাৎসোলা (ইতালি)।

মিডফিল্ডার: পিয়ের-এমিল হইবিয়া (ডেনমার্ক), পেদ্রি (স্পেন) ও জর্জিনিও (ইতালি)।

ফরোয়ার্ড: ফেদেরিক কিয়েসা (ইতালি), রোমেলু লুকাকু (বেলজিয়াম) ও রাহিম স্টার্লিং (ইংল্যান্ড)।


আরও খবর



ইভ্যালির এমডি ও চেয়ারম্যানের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ১৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাসেল এবং চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিদেশযাত্রায় আদালতের অনুমতিক্রমে দুদক নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।

শুক্রবার দুদকের উপপরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গত নভেম্বরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ইভ্যালি কম লিমিটেডের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন দৈনিক পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদগুলোর পেপার কাটিংসহ একটি অভিযোগের সত্যতা যাচাই/অনুসন্ধানের জন্য দুর্নীতি দমন কমিশনে পাঠানো হয়।

এর পরেপ্রেক্ষিতে দুদকের মানিলন্ডারিং অনুবিভাগের দুই সদস্য বিশিষ্ট একটি টিম অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরু করেন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো অভিযোগের বিষয়বস্তু ছিল মূলত ইভ্যালি কম লিমিটেড নামীয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন লোভনীয় অফার দেয়ার মাধ্যমে তার গ্রাহকদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ অগ্রীম আদায় করছে। যদিও নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তারা গ্রাহকদের পণ্য দিচ্ছে না বা অন্য পণ্য দিচ্ছে। গ্রাহকের অর্ডারকৃত পণ্য সরবরাহ করতে ব্যর্থ হলেও যথাসময়ে গ্রাহকের টাকা ফেরত দিচ্ছে না ইত্যাদি।

পরবর্তীতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ইভ্যালি কম লিমিটেডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনের আলোকে আরও একটি অভিযোগ দুর্নীতি দমন কমিশনে পাঠানো হয়।

গত ৮ জুলাই ওই অভিযোগ পাওয়ার পর কমিশনের অনুমোদনক্রমে অভিযোগটি পূর্ববর্তী অভিযোগের সঙ্গে যুক্ত করে অনুসন্ধান কার্যক্রম পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

প্রাপ্ত অভিযোগ পর্যালোচনায় দেখা যায়, এ বছর ১৪ মার্চ ইভ্যালি কম লিমিটেডের চলতি সম্পদ প্রায় ৬৫.১৮ কোটি টাকা এবং মার্কেট দায় প্রায় ৪০৭.১৮ কোটি টাকা।

তার মধ্যে গ্রাহকদের কাছ থেকে অগ্রীম হিসেবে গৃহীত দায় প্রায় ২১৪ কোটি টাকা এবং ইভ্যালির মার্চেন্টদের কাছে দায় প্রায় ১৯০ কোটি টাকা।

ফলে স্বাভাবিক নিয়মে প্রতিষ্ঠানটির কাছে ৪০৪ কোটি টাকার চলতি সম্পদ থাকার কথা থাকলেও প্রতিষ্ঠানটির কাছে চলতি সম্পদ রয়েছে মাত্র ৬৫.১৮ কোটি টাকা। যা দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি তার চলতি দায়ের বিপরীতে মাত্র ১৬.১৪% গ্রাহককে পণ্য সরবরাহ করতে পারবে। তারপর গ্রাহক ও মার্চেন্টদের কাছ থেকে গৃহীত প্রায় ৩৩৯ কোটি টাকার কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছে না।

ফলে ওই সম্পূর্ণ অর্থ আত্মসাৎ অথবা অন্যত্র সরিয়ে ফেলার আশঙ্কা রয়েছে বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

ওই অভিযোগের বিষয়বস্তু আমলে নিয়ে কমিশনের নির্দেশক্রমে দুদকের অনুসন্ধান টিম কাজ শুরু করে। প্রয়োজনীয় রেকর্ডপত্র ও তথ্যাদি সংগ্রহ করে।

অনুসন্ধানকালে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, ইভ্যালি কম লিমিটেডের চেয়ারম্যান মিসেস শামীমা নাসরীন এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. রাসেল গোপনে দেশত্যাগের চেষ্টা করছেন।

অনুসন্ধান কার্যক্রম চলমান থাকা অবস্থায় অভিযোগসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা দেশ ছাড়লে সার্বিক অনুসন্ধান কার্যক্রম ব্যহত হতে পারে বলে নিশ্চিত হওয়ায় ৮ জুন তাদের বিদেশযাত্রার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়।

নিউজ ট্যাগ: ইভ্যালি দুদক

আরও খবর



করোনার টিকা নিতে নিবন্ধন করেছেন খালেদা জিয়া

প্রকাশিত:সোমবার ১২ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৮০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের টিকা নিচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। ইতিমধ্যে করেছেন নিবন্ধন। তবে কবে টিকা নিতে পারবেন তা এখনো নিশ্চিত হতে পারেননি সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। কারণ অনলাইন নিবন্ধনের পর এখনো তিনি ফিরতি এসএমএস পাননি।

সোমবার বিকালে টিকার জন্য খালেদা জিয়ার নিবন্ধন করার নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্যতম ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেনের বরাত দিয়ে শায়রুল বলেন, ডা. জাহিদ হোসেন জানিয়েছেন চেয়ারপারসন টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন।

জানা গেছে, গত ৯ জুলাই সুরক্ষা অ্যাপ থেকে টিকার নিবন্ধন করেছেন করোনা থেকে সেরে ওঠা বেগম খালেদা জিয়া। মহাখালীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে টিকা নেয়ার কথা রয়েছে।

খালেদা জিয়ার করোনা শনাক্ত হয় গত ১৪ এপ্রিল। প্রথম দিকে বাসায় চিকিৎসা নিলেও পরে শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে ২৭ এপ্রিল খালেদা জিয়াকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে গত ৯ মে তার করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ আসে। তারপরও শারীরিক সমস্যা থাকায় প্রায় দেড় মাস তাকে হাসপাতালে থাকতে হয়। কিছুদিন সেখানকার করোনারি কেয়ার ইউনিটেও (সিসিইউ) রাখা হয়েছিল বিএনপি চেয়ারপারসনকে।

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ৫৪ দিন চিকিৎসার পর গত ১৯ জুন রাতে তিনি গুলশানের বাসায় ফেরেন। পুরোপুরি সুস্থ না হলেও হাসপাতালে জীবাণু এবং দেশে করোনার ডেলটা ধরনের সংক্রমণের মধ্যে ঝুঁকি এড়াতে খালেদা জিয়াকে বাসায় নেওয়া হয়। বর্তমানে তিনি বাসাতেই আছেন।

এভারকেয়ার হাসপাতালের হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে এখনো খালেদা জিয়ার করোনাপরবর্তী চিকিৎসা চলছে।


আরও খবর



মহিলা ডাবলসের প্রথম রাউন্ডেই বাদ পড়ে গেলেন সানিয়া মির্জা

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ২৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টোকিও অলিম্পিকে ম্যাটে নেমেই অনন্য এক কীর্তি গড়েছেস ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। ভারতের প্রথম মহিলা অ্যাথলেট হিসেবে চারটি অলিম্পিকে নামার রেকর্ড গড়লেন তিনি।

আর এই কীর্তি গড়ার দিনেও আলো ছড়াতে পারলেন না অলিম্পিকের মঞ্চে। মহিলা ডাবলসের প্রথম রাউন্ডে বাদ পড়ে গেলেন তিনি। আশা জাগিয়েও সফল হতে পারল না সানিয়া মির্জা ও অঙ্কিতা রায়না জুটি।

মহিলা টেনিসের কথা উঠলেই আলোচনায় থাকেন ভারতীয় ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের স্ত্রী ভারতীয় সেনসেশন সানিয়া মির্জা। ক্যারিয়ারে ভুরিভুরি অর্জন থাকলেও অলিম্পিক মঞ্চে নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারলেন না তিনি। রবিবার আধিপত্য বিস্তার করে শুরুটা হলেও পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাকে।

ইউক্রেনের যমজ বোনের জুটি লাইয়ুড মাইলা কিচেনক ও নাদিয়া কিচেনকের কাছে হেরেছেন সানিয়া-অঙ্কিতা। নাটকীয়তায় ভরা এই ম্যাচ ইউক্রেনের এই যমজ বোন ০-৬, ৭-৬ (০), ১০-৮ জিতে নেন তারা।

লাস্যময়ী টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা তার ক্যারিয়ারে গ্র্যান্ড স্লাম জিতেছেন ছয়বার। এটি ছিল তার চতুর্থ অলিম্পিক। মহিলা ডাবলসে তিনি এবার বেছে নিয়েছিলেন তরুণ খেলোয়াড় অঙ্কিতা রায়নাকে। সানিয়াকে নিয়ে টেনিসে পদক জেতার স্বপ্ন দেখছিল ভারত, সেটা পূরণ হলো না। অবশেষে মহিলা ডাবলসের প্রথম রাউন্ডে বাদ পড়ে গেলেন তিনি। 


আরও খবর



গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনার ৪ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও ১১ মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৩২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

খুলনার ৪টি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ রবিবার (২৫ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় তাদের মৃত্যু হয়।

মারা যাওয়া ১১ জনের মধ্যে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে পাঁচজন, জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজন, বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৩জনও শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ৪ জন রয়েছেন।

করোনা হাসপাতালের ফোকালপার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে এক রোগী মারা গেছেন।

বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মালিক ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ৩ রোগী মারা গেছেন। শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের ফোকালপার্সন ডা. প্রকাশ দেবনাথ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চারজনের মৃত্যু হয়েছে।



আরও খবর



চট্টগ্রামে রেকর্ড ১৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৭০৯

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে প্রায় প্রতিটি জেলায় মহামারী করোনার প্রকোপ বেড়েই চলছে। এদিকে এবার করোনা শনাক্তে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করে চলছে চট্টগ্রাম। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৭০৯ জন, এ সময় করোনায় মৃত্যু হয়েছে আরও ১৪ জনের।

আজ রবিবার (১১ জুলাই) চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

দুই হাজার ৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭০৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নতুন রোগীদের মধ্যে ৪১৬ জন চট্টগ্রাম মহানগরী এলাকার এবং বাকি ২৯৩ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। মারা যাওয়া ১৪ জনের মধ্যে ৭ জন মহানগরীর এবং ৭ জন উপজেলার বাসিন্দা।

উপজেলাগুলোর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মীরসরাইয়ে ৩৩ জন, রাউজানে ১৯ জন, সীতাকুণ্ডে ৫৪ জন, হাটহাজারীতে ৪৮ জন, ফটিকছড়িতে ২৩ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ১৮ জন, সন্দ্বীপে ১৬ জন, বোয়ালখালীতে ১১ জন, বাঁশখালী ৮ জন, আনোয়ারা ১ জন, চন্দনাইশে ২৯ জন, পটিয়া ২৪ জন, সাতকানিয়া ১৫ জন, ও লোহাগাড়া ৪ জন রয়েছেন।

বিশ্বজুড়ে গেল ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৪ লাখ ৮৭ হাজার ৮০৬ জন প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে বিশ্বে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮ কোটি ৬৮ লাখ ১৫ হাজার ৩৭৬ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭ হাজার ২০০-র বেশি মানুষ। ফলে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪০ লাখ ৩৪ হাজার ৮১৫ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৭ কোটি ৮ লাখ ৭৩ হাজার ৯৩৩ জন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে রবিবার (১১ জুলাই) সকালে এই তথ্য জানা গেছে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৪৭ লাখ ১১ হাজার ৪১৩ জন আর মারা গেছেন ৬ লাখ ২২ হাজার ৭০৮ জন।

 


আরও খবর