Logo
শিরোনাম

ইউটিউবার হওয়ার ঝোঁক বাড়ছে ছোটদের মধ্যে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৫ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ১৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইন্টারনেট ও মোবাইল। নয়া প্রজন্মের এই দুই অপরিহার্য জিনিসকে হাতিয়ার করে বিশ্ব জুড়ে বিনোদনের সংজ্ঞাই বদলে দিয়েছে ইউটিউব। ক্রমশ লাফিয়ে বাড়ছে ইউটিউবের দর্শক সংখ্যা। শুধু দর্শক হিসাবেই নয়, নতুন প্রজন্ম ইউটিউবকে উপার্জনের মাধ্যম হিসাবেও ব্যবহার করছে। এখন অনেকেই অন্য পেশা ছেড়ে ইউটিউবার হতে চান।

নিজস্ব একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করেন। সেখানেই বিভিন্ন ধরনের বিনোদনমূলক কর্মকাণ্ড করে থাকেন। যাঁরা ইউটিউবের নিয়মিত দর্শক, এই ধরনের বিনোদন পেতে নিজেদের সেই চ্যানেলের সদস্য করে নেন। চ্যানেলের সদস্য সংখ্যা অনুযায়ী প্রতি মাসে আয়ের পরিমাণ নির্ভর করে। অর্থাৎ সাবস্ক্রাইবার বেশি হলে ইউটিউব সংস্থাও সংশ্লিষ্ট চ্যানেলটিকে বেশি টাকা দেয়।

টেলিভিশনের জনপ্রিয়তাকে প্রায় ছুঁয়ে ফেলেছে ইউটিউব। কোনও কোনও ক্ষেত্রে টেলিভিশনকেও ছাপিয়ে গিয়েছে। এমনকি, প্রতিদিন টেলিভিশনের পর্দায় যাঁরা ফুটে ওঠেন, তাঁদের অনেকেই এক-একটি করে ইউটিউব চ্যানেল চালান। নিজেদের জীবনের রোজনামচা ইউটিউব চ্যানেলের দর্শকদের সামনে তুলে ধরেন।

দ্রুত জনপ্রিয়তা পেতে এবং আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল হতে এই প্রজন্মের অনেকেই তাই পেশা হিসাবে বেছে নিচ্ছেন ইউটিউব। ঝাঁপ দিচ্ছেন অনিশ্চিতের দিকে। বিশেষজ্ঞদের মতে, সব জিনিসেরই ভাল এবং খারাপ, দুটি দিক আছে। ইউটিউবার হতে চাওয়ার ইচ্ছা খারাপ নয়। কিন্তু তার উপরেই যেন জীবন নির্ভরশীল না হয়ে পড়ে। বিকল্প কোনও ভাবনা ভেবে রাখা জরুরি। কিংবা অন্য কোনও কাজ করার পাশাপাশি, এটি করা যেতে পারে। তাতে মানসিক চাপ কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

নেটমাধ্যমে প্রভাবী (ইনফ্লুয়েন্সার) হওয়ার স্বপ্ন দেখেন তরুণ প্রজন্মের অনেকেই। প্রচুর পরিশ্রমও দরকার হয়। দশর্কের পছন্দ বুঝে সেই মতো অনুষ্ঠান তাঁদের সামনে নিয়ে আসে একেবারেই সহজসাধ্য নয়। সেই সঙ্গে তো রয়েছে পারস্পরিক প্রতিযোগিতা। এর ফলে মাঝেমাঝেই শিল্পের মান কিছুটা হলেও কমে যায়। তা ছাড়া সাফল্য-ব্যর্থতা তো লেগেই আছে।

সমীক্ষা বলছে, ১৮ থেকে ২৬ বছর বয়সিদের মধ্যে ইউটিউবকে পেশা হিসাবে বেছে নেওয়ার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি। সোশ্যাল মিডিয়ার অর্থনীতি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কম সময়ে বিপুল জনপ্রিয়তা এবং অর্থ এই দুইয়ের কারণেই মূলত এই পেশার প্রতি ঝোঁক বাড়ছে। সেই সঙ্গে বাড়ছে প্রতিযোগিতা ও মানসিক চাপ। এর প্রভাব পড়ছে ব্যক্তিগত জীবনেও। তাঁদের মতে, ইউটিউবকে আয়ের একমাত্র উৎস হিসাবে না দেখে নিজেদের শিল্পী সত্ত্বা প্রকাশের মাধ্যম হিসাবে দেখাই শ্রেয়।

নিউজ ট্যাগ: ইউটিউবার

আরও খবর



গ্যাসের অপচয় বন্ধে আমরা বদ্ধপরিকর: নসরুল হামিদ

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাষ্ট্রীয় সম্পদ গ্যাসের অপচয় বন্ধে আমরা বদ্ধপরিকর। এ ব্যাপারে কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ন্যূনতম ছাড় দেওয়া হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর)  ঢাকার কামরাঙ্গীর চর, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ, গাজীপুরের চন্দ্রা এবং জামালপুরে বিশেষ অভিযান চালায় তিতাস কর্তৃপক্ষ। জরিমানা আদায়ের পাশাপাশি উচ্ছেদ করা হয়েছে শতাধিক অবৈধ এবং অনুমোদনের অতিরিক্ত গ্যাস সংযোগ। এ অভিযানের বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী তার ফেসবুক পেজে এ মন্তব্য করেন।

এর আগের এক পোস্টে তিনি জানিয়েছিলেন, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ছয় মাসে  তিতাস ১৬৪টি অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে ২ লাখ ২৩ হাজার ৩২৯টি অবৈধ ও বকেয়াজনিত সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। এছাড়া অভিযানে ২২০.৬৩ কিলোমিটার অবৈধ লাইন উচ্ছেদ করা হয়।


আরও খবর



মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় খলিলুর রহমানের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আরও একজনকে মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ওই আসামি হলেন নেত্রকোণার খলিলুর রহমান। বর্তমানে তিনি পলাতক রয়েছেন।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন ট্রাইব্যুনাল এ রায় ঘোষণা করেন।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, খলিলুর রহমান ইসলামী ছাত্র সংঘের সদস্য ছিলেন। যুদ্ধের সময় তিনি রাজাকার বাহিনীতে যোগ দেন। পরে চণ্ডিগড় ইউনিয়নে আল বদর বাহিনীর কমান্ডার হন। এর আগে গত ১৮ জুলাই শুনানি শেষে মামলাটির রায় ঘোষণার জন্য অপেক্ষমান (সিএভি) রেখে আদেশ দেন ট্রাইব্যুনাল।

এ আসামির বিরুদ্ধে শুনানিতে প্রসিকিউটর ছিলেন রানা দাশগুপ্ত ও রেজিয়া সুলতানা চমন। আসামিপক্ষে ছিলেন রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী গাজী এমইএচ তামিম। ২০১৭ সালের ৩০ জানুয়ারি রাজধানীর ধানমন্ডিতে তদন্ত সংস্থার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মামলার পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

পাঁচ আসামি হলেন- রমজান আলী, মো. খলিলুর রহমান, তার ভাই মো. আজিজুর রহমান, আশক আলী ও মো. শাহনেওয়াজ। এর মধ্যে চার আসামি রমজান আলী, আজিজুর রহমান, আশক আলী ও মো. শাহনেওয়াজ মৃত্যুবরণ করেন।

এ মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে ১৯৭১ সালে দুর্গাপুর ও কলমাকান্দা থানা এলাকায় অবৈধ আটক, নির্যাতন, অপহরণ, লুণ্ঠন, অগ্নিসংযোগে ধ্বংস করা, ধর্ষণের চেষ্টা, ধর্ষণ, হত্যা ও গণহত্যার অভিযোগ আনা হয়।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, ২২ জনকে হত্যা, একজনকে ধর্ষণ, একজনকে ধর্ষণের চেষ্টা, অপহৃত চারজনের মধ্যে দুজনকে ক্যাম্পে নির্যাতন, ১৪-১৫টি বাড়িতে লুটপাট ও সাতটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগে তার সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।


আরও খবর



চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে চুমু খেতেও আপত্তি নেই

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টলিউডের গণ্ডি পার করে বলিউডে পা রাখছেন ভারতীয় বাংলা সিনেমার অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকা মিমি চক্রবর্তী। টলিউডের পোস্ত সিনেমার রিমেক নির্মিত হয়েছে বলিউডে; আর তাতে অভিনয় করেছেন তিনি। তবে এখনো ওটিটি প্ল্যাটফর্মে অভিষেক হয়নি তার। এবার হিন্দি ভাষার একটি কনটেন্টের মধ্য দিয়ে অভিষেক হচ্ছে যাদবপুরের এই সংসদ সদস্যের।

সম্প্রতি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দি হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কলকাতা ও মুম্বাইয়ের কাজের ধরন ও সাহসী দৃশ্যে অভিনয় নিয়ে কথা বলেছেন এই অভিনেত্রী। তখন তাকে প্রশ্ন করা হয়, পর্দায় চুমু খেতে এখনো আপত্তি আছে কিনা?

মিমি চক্রবর্তী বলেন, আমি বরাবর একটাই মানুষ, বদলায়নি। কিন্তু আমরা অভিনেত্রী। আমাদের যে পাত্রে ঢেলে দেবে, সেই পাত্রের আকার ধারণ করা আমাদের কর্তব্য। চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে যদি আমাকে এমন কিছু করতে হয়, তাহলে সেটা সেই চরিত্র, সেটা আমি নই। যদি চরিত্রের জন্য এটা প্রয়োজন হয় তখন দেখা যাবে; এমন নয় যে করব না। আমার কাছে এখন গুরুত্বপূর্ণ হলো চিত্রনাট্য। চিত্রনাট্যে যেটা গুরুত্বপূর্ণ, সেটা আমার যদি মনে হয় করতে পারব, তবে কাজটি করব।

মিমির ওটিটি কনটেন্টের বিষয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানা যায়নি। তবে এতে তার সহশিল্পী হিসেবে কাজ করবেন আলী ফজল। মিমি অভিনীত মুক্তিপ্রতীক্ষিত সিনেমা খেলা যখন। সিনেমাটিতে তার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন অর্জুন চক্রবর্তী। এটি পরিচালনা করেছেন অরিন্দম শীল।

নিউজ ট্যাগ: মিমি চক্রবর্তী

আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




রানির মৃত্যুর ৪৫০ বছর আগেই ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন নস্ত্রাদামুস

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৬১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যু নিয়ে ৪৫০ বছর আগেই ভবিষ্যদ্বাণী করে গেছেন ষোড়শ শতকের পৃথিবী বিখ্যাত ফরাসি ভবিষ্যদ্বক্তা নস্ত্রাদামুস। ডেইলি মেইলের এক খবরে জানা যায়, নস্ত্রাদামুস ভবিষ্যদ্বানী করেছিলেন ২০২২ সালে ৯৬ বছর বয়সে ব্রিটেনের রানি মারা যাবেন।

এর আগে নস্ত্রাদামুসের লন্ডনের গ্রেট ফায়ার, হিটলারের ক্ষমতায় উত্থান এবং ইউরোপ যুদ্ধের ভবিষ্যদ্বাণী সত্য বলে প্রশংসিত হয়।

এদিকে রানি এলিজাবেথ সম্পর্কে এমন ভবিষ্যদ্বানী জানার পর মারিও রিডিং-এর নস্ট্রাডামাস: দ্য কমপ্লিট প্রফেসিস ফর দ্য ফিউচার বইয়ের বিক্রি নাটকীয়ভাবে বেড়ে গেছে। রানির মৃত্যুর আগের সপ্তাহে, বইটি মাত্র পাঁচ কপি বিক্রি হয়। কিন্তু ১৭ সেপ্টেম্বর শেষ হওয়া সপ্তাহে প্রায় ৮ হাজার কপি বিক্রি হয়ে গেছে। এটি পেপারব্যাক চার্টের শীর্ষে পৌঁছেছে, জানিয়েছে দ্য সানডে টাইমস।

বইটিতে, একটি কোয়াট্রেনকে ব্যাখ্যা করে বলা হয়, কুইন এলিজাবেথ দ্বিতীয় মারা যাবেন, ৯৬ বছর বয়সে ২০২২ সালে। রানির মৃত্যু ছাড়াও নস্ত্রাদামুস ইউক্রেনের যুদ্ধের ভবিষ্যদ্বাণী করে গেছেন। সেই সঙ্গে তিনি অস্পষ্ট পরামর্শ দিয়েছেন ফ্রান্স হুমকির সম্মুখীন হতে পারে।

নস্ত্রাদামুস বিশেষজ্ঞ ববি শাইলার পরামর্শ দিয়েছেন, নস্ত্রাদামুস তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের কথা উল্লেখ করছেন, যা আগামী কয়েক বছরের মধ্যে সংঘটিত হতে পারে।

নস্ত্রাদামুসের বেশিরভাগ ভবিষ্যদ্বাণী তার বিখ্যাত বই Les Prophéties-এ রয়েছে। এতে কোয়াট্রেন আকারে ৯৪২টি ভবিষ্যদ্বাণী রয়েছে।


আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




জর্ডানে ভবন ধসে নিহত বেড়ে ১৪

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জর্ডানের রাজধানীতে শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) একটি ধসে পড়া ভবনের ধ্বংসাবশেষ থেকে সর্বশেষ মৃতদেহটি উদ্ধার করা হলে, চার দিনের অনুসন্ধান প্রচেষ্টা সমাপ্ত হয়। এতে মোট নিহতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৪ জনে। এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

দেশটির জননিরাপত্তা বিভাগের মুখপাত্র আমের আল-সারতাউই বলেন, শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) উদ্ধারকারী দলগুলি সর্বশেষ নিখোঁজ ব্যক্তির মৃত দেহটি খুঁজে পেতে সক্ষম হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) আম্মানের প্রাচীনতম বসতি এলাকা জাবাল আল-ওয়েবদেহে একটি চার তলা আবাসিক ভবন ভেঙে পড়লে ব্যপক উদ্ধার অভিযান শুরু করা হয়।

চিকিৎসা সূত্র বলেছে, উদ্ধারকৃত সর্বশেষ মৃতদেহটি একজন নারীর। এর আগে, বৃহস্পতিবার জরুরী কর্মীরা ধ্বংসস্তুপ থেকে একটি চার মাস বয়সী মেয়ে শিশুকে উদ্ধার করে। তার গায়ে সামান্য আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়।

দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে বলা হয়, জর্ডানের পাবলিক প্রসিকিউটর তদন্তের অংশ হিসেবে বিল্ডিং ম্যানেজার ও সংস্কার কাজের সাথে জড়িত আরও দুজন ব্যক্তিসহ তিনজনকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছেন। দুর্ঘটনাস্থলটি রাজধানীর মধ্য জাবাল আল-ওয়েবদেহ এলাকায় অবস্থিত। এলাকাটি অত্যন্ত প্র্রাণবন্ত একটি সাংস্কৃতিক জীবনঘন বসতি এবং বিপুল সংখ্যক প্রবাসীর আবাসস্থল হিসেবে পরিচিত। 

নিউজ ট্যাগ: ভবন ধসে নিহত

আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২