শিরোনাম

জলপাইগুড়িতে রেল দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে-৯

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতের জলপাইগুড়িতে রেল দুর্ঘটনা নিহতের সংখ্যা বেড়ে নয়জনে দাঁড়িয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ৪৫ জন।

হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় বিকেল ৫টার দিকে জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়ি ও দোমোহনী এলাকার মাঝে যাত্রীবাহী গুয়াহাটি-বিকানের এক্সপ্রেস ট্রেনটি দুর্ঘটনায় পড়ে।

এ সময় ট্রেনের ১২টি কামরা লাইনচ্যুত হয় এবং চার থেকে পাঁচটি কামরা দুমড়েমুচড়ে যায়। ট্রেনের কামরা একটির ওপর আরেকটি উঠে পড়ে। এতে অনেকেই ভেতরে আটকা পড়েন।

দুর্ঘটনার সময় ট্রেনের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার। আহতদের অধিকাংশ জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতাল ও ময়নাগুড়ি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।


আরও খবর

আবুধাবিতে ড্রোন হামলায় তিনজন নিহত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




৫০ বছর হলেই দেওয়া যাবে বুস্টার ডোজ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে যাদের বয়স ৫০ বছর পার হয়েছে, তাদের সবাইকে করোনাভাইরাসের টিকার তৃতীয় বা বুস্টার ডোজের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার সচিবালয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বুস্টার ডোজ দেওয়ার বয়সসীমা এখন ৬০ বছর। এখন থেকে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি ৫০ বছর থেকেই বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে। এ বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন রয়েছে।

গত ২৮ ডিসেম্বর সারাদেশে করোনাভাইরাসের টিকার বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। যাদের বয়স ৬০ বছরের বেশি এবং যারা কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামনের সারিতে আছেন, তাদের করোনাভাইরাসের টিকার বুস্টার ডোজ দেওয়া হচ্ছে। টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার ছয় মাস পরে তারা বুস্টার ডোজ বা তৃতীয় ডোজ নিতে পারবেন।

যে আগে যে হাসপাতাল থেকে দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন, সেই হাসপাতাল থেকে তার মোবাইলে বুস্টার ডোজের তারিখ জানিয়ে এসএমএস পাঠানো হচ্ছে। সেই কেন্দ্রে নির্ধারিত দিনে গিয়ে তৃতীয় ডোজ নিতে হচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, রোববার পর্যন্ত সারাদেশে ৬ লাখ ৮৫ হাজারের বেশি মানুষকে করোনাভাইরাসের বুস্টার ডোজ দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



আজকের ভালো মন্দ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ আপনার জন্মদিন হলে পাশ্চাত্য জ্যোতিষে আপনি মকর রাশির জাতক/জাতিকা। আপনার জন্মসংখ্যা : ২। আপনার ওপর প্রভাবকারী গ্রহ : চন্দ্র ও শনি। আপনার শুভ সংখ্যা : ২ ও ৮। শুভ বার : শনি ও সোম। শুভ রত্ন : নীলা ও মুক্তা।

মেষ (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)

শরীর মোটামুটি ভালো থাকবে। মানুষিক প্রশান্তি বজায় থাকবে। ভালো ব্যবহার দিয়ে কাজ আদায় করতে পারবেন। কাউকে প্রথম দেখায় ভালো লাগতে পারে। দাম্পত্য সম্পর্ক ভালো থাকবে।

বৃষ (২১ এপ্রিল-২০ মে)

দিনটি মিশ্র সম্ভাবনাময়। গোপন শত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। আইনগত ঝামেলা এড়িয়ে চলুন। শরীর অসুস্থ হতে পারে। অবহেলা না করে চিকিৎসা গ্রহণ করুন।

মিথুন (২১ মে-২০ জুন)

পেশাগত যোগাযোগ চালিয়ে যান। সেক্ষেত্রে সাফল্য পেতে পারেন। আর্থিক দিক ভালো যাবে। জ্যেষ্ঠ ভাইবোনদের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকতে পারে। প্রয়োজনে তাদের সহযোগিতা পেতে পারেন।

কর্কট (২১ জুন-২০ জুলাই)

সামাজিক কাজে অংশ নিতে পারেন। পিতৃস্বাস্থ্য ভালো যাবে। বেকারদের কারো কারো চাকরি হতে পারে। কর্ম পরিবেশ অনুকূল থাকবে। পাবলিক ইমেজ বৃদ্ধি পাবে।

সিংহ (২১ জুলাই-২১ আগস্ট)

সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। কোনো আশা পূরণ হতে পারে। মন ভালো থাকবে। আধ্যাত্বিকতার প্রতি অনুরোধ করতে পারেন। ভ্রমণের সুযোগ পেতে পারেন।

কন্যা (২২ আগস্ট-২২ সেপ্টেম্বর)

দিনটি খুব একটা অনুকূল না-ও থাকতে পারে। ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে না। বিক্রয়-বাণিজ্যে লোকসান হতে পারে। কোনো ধরনের সামাজিক সমস্যার উদ্ভব হতে পারে। 

তুলা (২৩ সেপ্টেম্বর-২২ অক্টোবর)

দাম্পত্য সম্পর্ক ভালো থাকবে। কোনো ঘনিষ্ঠ বন্ধুর সহযোগিতা পেতে পারেন। আপনজন কেউ শত্রুতা করতে পারে। কারো সঙ্গে বিবাদে জড়াবেন না। ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।

বৃশ্চিক (২৩ অক্টোবর-২১ নভেম্বর)

শরীর খুব একটা ভালো যাবে না। আহারে বিহারে সতর্ক থাকুন। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করুন। কর্মস্থলে সহকর্মীদের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি এড়িয়ে চলুন। শত্রুদের সম্পর্কে সতর্ক থাকুন।

ধনু (২২ নভেম্বর-২০ ডিসেম্বর)

বিদ্যার্থীদের জন্য দিনটি শুভ। পড়াশোনায় মন বসাতে পারবেন। সম্ভাব্যক্ষেত্রে সন্তান লাভ হতে পারে। প্রেম ভালোবাসার জন্য সময় অনুকূল থাকতে পারে। রোমান্টিক প্রস্তাবে সাড়া পেতে পারেন।

মকর (২১ ডিসেম্বর-১৯ জানুয়ারি)

পারিবারিক পরিবেশ অনুকূল থাকতে পারে। মন ভালো থাকবে। কোনো আশা প্রত্যাশা পূরণ হতে পারে। মাতৃস্বাস্থ্য ভালো যাবে। অসুস্থ মায়ের আরোগ্য লাভ হতে পারে।

কুম্ভ (২০ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

ছোট ভাইবোনদের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকতে পারে। প্রয়োজনে তাদের সহযোগিতা পেতে পারেন। কাজকর্মে উৎসাহ বোধ করতে পারেন। আত্মীয়দের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। প্রাপ্ত তথ্যের উপর নির্ভর করতে পারেন।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

বাড়িতে অতিথি সমাগম হতে পারে। মূল্যবোধ বজায় রাখুন। কাউকে কোনো প্রদত্ত প্রতিশ্রুতি দিতে পারেন। পাওনা টাকা আদায়ের জন্য তাগাদা দিন। পড়াশোনায় আনন্দ পাবেন।

নিউজ ট্যাগ: আজকের রাশিফল

আরও খবর

মুখে স্বাদ ফেরাতে বানান মুরগির পুলি

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২

চাইনিজ সবজি রান্নার সহজ রেসিপি

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




১২ জানুয়ারি বিএনপিকে রাষ্ট্রপতির সংলাপে আমন্ত্রণ

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইসি গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আলোচনার জন্য আগামী ১২ জানুয়ারি বিএনপির জন্য সময় রেখেছে বঙ্গভবন। যদিও বিএনপি এই সংলাপে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত এরই মধ্যে জানিয়েছে।

গত ২০ ডিসেম্বর সংলাপ শুরুর পর এখনো পর্যন্ত ২৭টি দলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। আজ বুধবার নতুন যে কয়টি দলের সঙ্গে সংলাপসূচি চূড়ান্ত হওয়ার কথা বঙ্গভবনের প্রেস উইং জানায়, তাতে বিএনপির নাম রয়েছে। বিএনপির সঙ্গে সংলাপের সূচি নির্ধারিত হয়েছে ১২ জানুয়ারি বিকেল ৪টায়।

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপের চিঠি পেয়েছে বিএনপি। এই তথ্য জানিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। আজ বুধবার আড়াইটার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ চিঠি গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান রিজভী।

গত দুই বারের মতো এবারও সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের উদ্যোগ নিয়ে রাষ্ট্রপতি সংলাপ শুরু করেছেন। বিএনপি আগের দুই বার গেলেও এবার রাষ্ট্রপতির এই উদ্যোগে সাড়া না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বিএনপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবির বিষয়টি অমীমাংসিত রেখে ইসি গঠনের সংলাপ অর্থহীন। এবার বিএনপি ছাড়া আরও তিনটি দল রাষ্ট্রপতির আমন্ত্রণে সাড়া দেয়নি।

সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান নির্বাচন কমিশনে নিয়োগে আইন প্রণয়ন না হওয়ায় বিকল্প হিসেবে সার্চ কমিটি গঠন করে নিয়োগ দিচ্ছেন রাষ্ট্রপতি। কে এম নূরুল হুদা নেতৃত্বাধীন বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি শেষ হচ্ছে। তার মধ্যেই রাষ্ট্রপতিকে নতুন কমিশন গঠন করতে হবে। সেই ইসির পরিচালনায় আগামী সাধারণ নির্বাচন হবে।


আরও খবর



যে সব বিধিনিষেধ মানতে হবে

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নতুন ধরন ওমিক্রনসহ দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় আগামী ১৩ জানুয়ারি থেকে সারাদেশে বিধিনিষেধ জারি করেছে সরকার।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসজনিত রোগ (কোভিড-১৯)-এর নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব ও দেশে এই রোগের সংক্রমণ পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার সিদ্ধান্ত, দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সচল রাখা এবং সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় আগামী ১৩ জানুয়ারি হতে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সার্বিক কার্যাবলি/চলাচলে নিম্নবর্ণিত বিধিনিষেধ আরোপ করা হলো:

১. দোকান, শপিংমল ও বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতা এবং হোটেল-রেঁস্তোরাসহ সব জনসমাগমস্থলে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে মাস্ক পরিধান করতে হবে। অন্যথায় আইনানুগ শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে;

২. অফিস-আদালতসহ ঘরের বাইরে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে ব্যত্যয় রোধে সারাদেশে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে হবে;

৩. রেঁস্তোরায় বসে খাবার গ্রহণ এবং আবাসিক হোটেলে থাকার জন্য অবশ্যই করোনা টিকা সনদ প্রদর্শন করতে হবে;

৪. ১২ বছরের ঊর্ধ্বের সকল ছাত্র-ছাত্রীকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক নির্ধারিত তারিখের পরে টিকা সনদ ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না;

৫. স্থলবন্দর, সমুদ্রবন্দর ও বিমানবন্দরসমূহে স্ক্রিনিং-এর সংখ্যা বাড়াতে হবে। পোর্টসমূহে ক্রু-দের জাহাজের বাইরে আসার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করতে হবে। স্থলবন্দরগুলোতেও আগত ট্রাকের সাথে শুধুমাত্র ড্রাইভার থাকতে পারবে। কোনো সহকারী আসতে পারবে না। বিদেশগামীদের সঙ্গে আসা দর্শার্থীদের বিমানবন্দরে প্রবেশ বন্ধ করতে হবে,

৬. ট্রেন, বাস এবং লঞ্চে সক্ষমতার অর্ধেক সংখ্যক যাত্রী নেয়া যাবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কার্যকারিতার তারিখসহ সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা জারি করবে। সর্বপ্রকার যানের চালক ও সহকারীদের আবশ্যিকভাবে কোভিড-১৯ টিকা সনদধারী হতে হবে।

৭. বিদেশ থেকে আগত যাত্রীসহ সবাইকে বাধ্যতামূলক কোভিড-১৯ টিকা সনদ প্রদর্শন ও Rapid Antigen Test করতে হবে;

৮. স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন এবং মাস্ক পরিধানের বিষয়ে সকল মসজিদে জুমার নামাজের খুতবায় ইমামগণ সংশ্লিষ্টদের সচেতন করবেন। জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ এ বিষয়টি নিশ্চিত করবেন;

৯. সর্বসাধারণের করোনার টিকা এবং বুস্টার ডোজ গ্রহণ ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় প্রচার এবং উদ্যোগ গ্রহণ করবে। এক্ষেত্রে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সহায়তা গ্রহণ করবে;

১০. কোভিড আক্রান্তের হার ক্রমবর্ধমান হওয়ায় উন্মুক্ত স্থানে সর্বপ্রকার সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠান এবং সমাবেশসমূহ পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে হবে;

১১. কোনো এলাকার ক্ষেত্রে বিশেষ কোনো পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে সেক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নিতে পারবে।

এই বিধিনিষেধ কার্যকর করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সরকারের সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে।

নতুন বছরের শুরু থেকেই ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট চোখ রাঙাচ্ছিল। গত কয়েকদিন ধরে দেশে করোনার দৈনিক সংক্রমণও হঠাৎই বাড়তে শুরু করে। এরই প্রেক্ষাপটে আবারও সামনে আসে নতুন করে বিধিনিষেধ জারির বিষয়টি।

তবে গত ৩ জানুয়ারি সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির ধারা অব্যাহত থাকলেও লকডাউন দেওয়ার পরিস্থিতি এখনো হয়নি।


আরও খবর



দিনাজপুরে ঠান্ডাজনিত শিশু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কনকনে শীতে কাঁপছে দিনাজপুরবাসী। উত্তরের হিমেল হাওয়ায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। গতকাল শনিবার বিকেল থেকে আজ রোববার সকাল পর্যন্ত ঘন কুয়াশা পড়ছে। গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টির মতো পড়ছে শিশির।

শীত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ঠান্ডাজনিত রোগ নিউমোনিয়া, ব্রঙ্কাইটিস, শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধ মানুষ। দিনাজপুর শিশু হাসপাতাল এবং দিনাজপুর সদর হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

শিশু হাসপাতালে কর্মরত ডা. সাব্বির হোসেন রোববার সকালে বলেন, শীত বেড়ে যাওয়ায় ঠান্ডাজনিত শিশু রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। হাসপাতালে কোনো শয্যা খালি নেই। ধারণক্ষমতার চেয়ে বেশি শিশুকে চিকিৎসা দেওয়া লাগছে। অবস্থা গুরুতর অনেককে ভর্তি করতে হচ্ছে। আবার অনেককে চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে।

জেলার সড়কে যানবাহন চলাচল করছে হেডলাইট জ্বালিয়ে। ঘন কুয়াশার কারণে সড়ক দুর্ঘটনাও ঘটছে। খেটে খাওয়া মানুষজনের অনেকেই গরম কাপড়ের অভাবে ভোরে কাজে যেতে পারছেন না।

দিনাজপুর আবহাওয়া অফিসের ইনচার্জ তোফাজ্জুল হোসেন জানান, আজ রোববার দিনাজপুরের তাপমাত্রা ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আদ্রতা ৯৫ শতাংশ আর ছয় থেকে আট কিলোমিটার বেগে বয়ে চলেছে বাতাস।

আগামী কয়েকদিন তাপমাত্রা আরও কমতে পারে বলে পূর্বাভাসে জানিয়েছে জেলা আবহাওয়া অফিস।


আরও খবর

দিনাজপুরে বাসচাপায় ২ জন নিহত

রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২