Logo
শিরোনাম

জনসেবায় কাজ করলে শান্তি পাবেন, ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) জনসেবায় আত্মনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এতে কাজ করে শান্তি পাবেন। কর্মকর্তাদের মধ্যে জনমুখী মনোভাব ও মানুষকে সেবার দেওয়ার যে আন্তরিকতা সৃষ্টি হয়েছে তা ধরে রাখতে হবে।

আজ মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে তিন দিনব্যাপী জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, আপনাদের দায়িত্ব অনেক। শুধু চাকরি করা না, জনসেবা দেওয়া। এটা ছিল সংস্থাপন মন্ত্রণালয়। আমি নাম দেই; জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। নামেরও একটা প্রভাব থাকে। আপনাদের যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, উপজেলা পর্যায়ে পর্যাপ্ত আন্তরিকতার সঙ্গে পালন করেছেন। দুর্যোগে মানুষের জন্য যে মানুষ, সেটা আপনারা প্রমাণ করেছেন। করোনায় আপনজন পাশে না থাকলেও আপনারা ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা না এলে আমরা অনেক দূরে এগিয়ে যেতাম। যুদ্ধের ফলে পণ্যের দাম এত বেড়ে গেছে যেটা ক্রয় করাই আমাদের জন্য কঠিন। এজন্য সাশ্রয়ী হওয়ার জন্য বলেছি।

বর্তমান সরকারের শেষ জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন এটি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ডিসিদের উদ্দেশ্য দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সম্মেলন ২৬ জানুয়ারি শেষ হবে।

গত রোববার (২২ জানুয়ারি) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগে এ সম্মেলনকে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, সম্মেলনকে কেন্দ্র করে রীতি অনুযায়ী সব জেলার ডিসিদের কাছ থেকে প্রস্তাব নিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। প্রস্তাবগুলো যাচাই-বাছাই করা হয়েছে। এছাড়া গত ডিসি সম্মেলনের সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়নের অগ্রগতি প্রতিবেদন মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলো থেকে সংগ্রহ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর কার্য অধিবেশনগুলো গত সম্মেলনের মতো এবারও রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে।

কার্য-অধিবেশনগুলোতে মন্ত্রণালয় ও বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সিনিয়র সচিব ও সচিবরা উপস্থিত থাকেন। সম্মেলন উপলক্ষে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনাররা রীতি অনুযায়ী লিখিতভাবে মাঠ প্রশাসনের সমস্যাগুলো নিয়ে প্রস্তাব দেন। অধিবেশনের সময় এগুলো ছাড়াও ডিসিরা তাৎক্ষণিক বিভিন্ন প্রস্তাব তুলে ধরেন। কার্য অধিবেশনগুলোতে সভাপতিত্ব করবেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

এ সম্মেলনের মাধ্যমে দেশের মাঠ প্রশাসন তৃণমূলের জনগণের ভাবনাগুলো কেন্দ্রকে অবহিত করবেন। এ আলোকে সরকারের নির্দেশনা ডিসিগণ মাঠ প্রর্যায়ে নিয়ে যাবেন।

এবারের সম্মেলনে ২৬টি কার্য অধিবেশনে ২৪৫টি প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হতে পারে।


আরও খবর



বিপিএল: ঢাকাকে উড়িয়ে টানা চতুর্থ জয় সিলেটের

প্রকাশিত:বুধবার ১১ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) সন্ধ্যার ম্যাচে ঢাকা ডমেনিটর্সকে ৬২ রানে হারিয়েছে সিলেট। টস হেরে ব‌্যাটিং করতে নেমে ৮ উইকেটে ২০১ রান করে মাশরাফির দল। যা এবারের বিপিএলে প্রথম দুইশ রানের ইনিংস। বিশাল লক্ষ‌্য তাড়া করতে গিয়ে ৩ বল আগে ১৩৯ রানে থেমে যায় ঢাকা। বিপিএলে যা তাদের প্রথম পরাজয়।

দল জয় পেলেও মাঠে থেকে দেখতে পারেননি ম‌্যাচ জয়ের নায়ক হৃদয়। নাসিরের কাট শট পয়েন্টে দাঁড়িয়ে ক‌্যাচ ধরতে গিয়ে মিস করেন। জোরালো শটে আঙুলে ব‌্যথা পান। আঙুল ফেটে রক্তও ঝরতে থাকে। তাকে সঙ্গে সঙ্গে তুলে নেয়া হয়। আঙুলে সেলাইও লাগতে পারে।

আগের দুই ম‌্যাচে ৫৫ ও ৫৬ রান করা হৃদয় এবার ৮৪ রান করেন। ৪৬ বলে ৫টি করে চার ও ছক্কায় সাজান ঝড়ো ইনিংসটি। আল-আমিন ও সৌম‌্য সরকারকে মারা তার ছক্কা গ‌্যালারির দ্বিতীয় তলায় গিয়ে পড়ে যা এর আগে একমাত্র ক্রিস গেইলই পেরেছিলেন। হৃদয়ের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৮৮ রানের জুটি গড়েছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ৩৯ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৫৭ রান করেন তিনি। বল হাতে আল-আমিন হোসেন ৪৫ রানে নেন ৩ উইকেট।

লক্ষ‌্য তাড়ায় ঢাকার টপ অর্ডারে কেউ রান করেনি। ৩০ রানে তারা হারায় ৩ উইকেট। সেখান থেকে নাসির ও মিথুনের ব‌্যাটে প্রতিরোধ পায়। দুজনের ব‌্যাটে লড়াইয়েও ছিল ঢাকা। কিন্তু এ জুটি ভাঙার পর সবশেষ। পেরেরার বল উড়াতে গিয়ে লং অফে মিথুন ক‌্যাচ দেন ৪২ রানে। ২৮ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় সাজান ইনিংসটি। এছাড়া ৩৫ বলে ৪৪ রান করেন নাসির।

মাশরাফি ৩ ওভারে ১৪ রানে পেয়েছেন ২ উইকেট। ইমাদ ওয়াসিম ও আমিরও ২ উইকেট পেয়েছেন। তবে রান দিয়েছেন মাশরাফির চেয়ে সামান‌্য বেশি। রাজা, পেরেরা ও শান্তর পকেটে গেছে ১টি করে উইকেট।

চার ম‌্যাচে চার জয়ে মাশরাফির সিলেট রীতিমত চমকে দিয়েছে সবাইকে। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থেকে তারা ঢাকার প্রথম পর্ব শেষ করেছে। 

নিউজ ট্যাগ: সিলেটের জয়

আরও খবর



এবার চঞ্চলের নায়িকা মনামী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কলকাতার বিনোদন অঙ্গনে মনামী ঘোষ বেশ আলোচিত নাম। সমরেশ মজুমদারের সাতকাহন অবলম্বনে নির্মিত সিরিয়াল দিয়ে ১৯৯৭ সালে তাঁর অভিনয়জীবন শুরু। এরপর এক আকাশের নিচে, ইরাবতীর কথাসহ অনেক ধারাবাহিকে দেখা গেছে তাঁকে। অনেক সিনেমায়ও অভিনয় করেছেন মনামী। তাঁকে পাওয়া যায় বেলাশেষে, ওগো বধূ সুন্দরী, ভূতের ভবিষ্যৎ, বেলাশুরু সিনেমাগুলোতে। নতুন খবর হলো, এবার মনামীকে দেখা যাবে বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীর নায়িকা হিসেবে।

বিশ্ববিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা মৃণাল সেনের জন্মশতবার্ষিকী পালিত হবে এ বছর। এ উপলক্ষে অঞ্জন দত্ত, কৌশিক গাঙ্গুলি ও সৃজিত মুখোপাধ্যায় আলাদা তিনটি সিনেমা বানাচ্ছেন। সৃজিতের সিনেমার নাম পদাতিক, এতে মৃণাল সেনের চরিত্রে দেখা যাবে চঞ্চল চৌধুরীকে। এ সিনেমায় মৃণাল সেনের স্ত্রী গীতা সেনের চরিত্রে অভিনয় করবেন মনামী।

অনেক দিন দেশের বাইরে ছিলেন মনামী। নতুন বছরে তাঁর জন্য এত বড় চমক অপেক্ষা করে আছে, ভাবতেই পারেননি। ইতিমধ্যেই লুক সেট হয়ে গেছে তাঁর। জানালেন, সিনেমায় তাঁকে গীতা সেনের অল্প বয়স থেকে বেশি বয়স পর্যন্ত ধারণ করতে হবে। সে কারণে প্রস্থেটিক মেকআপের সাহায্য নিতে হতে পারে। এ মাসের মাঝামাঝি থেকে কলকাতায় শুরু হবে পদাতিক সিনেমার শুটিং।

হাওয়া, কারাগারসহ অনেক কাজের সুবাদে চঞ্চল চৌধুরী এখন কলকাতার জনপ্রিয় মুখ। তাঁর সঙ্গে অভিনয় করার সুযোগ পেয়ে ভীষণ আপ্লুত মনামী। পদাতিক সিনেমায় গীতা সেন চরিত্রটি নিয়ে মনামী বলছেন, গীতা সেন বরাবরই আড়ালে থাকতে পছন্দ করা ব্যক্তিত্ব। এই ধরনের চরিত্র ফুটিয়ে তোলা বেশ কঠিন। সৃজিতদা একটি ভিডিও ক্লিপস দিয়েছেন। সেখানে খুব অল্প সময়ের জন্য গীতা সেনকে দেখা গেছে।  সেগুলো দেখে আমি আমার মতো করে গীতা সেন হয়ে ওঠার চেষ্টা চালাচ্ছি।


আরও খবর

আপাতত দেশে আসছে না 'পাঠান'

বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩




প্রার্থিতা ফিরে পেয়ে হিরো আলম যা বললেন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হাইকোর্টে গিয়ে বগুড়ার দুটি আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম; তিনি বলেছেন, আদালত ন্যায়বিচার দিয়েছে, এখন তিনি সিংহ মার্কায় ভোট করতে চান।

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) এবং বগুড়া-৫(সদর) আসনে তার মনোনয়নপত্র বাতিলের যে সিদ্ধান্ত রিটার্নিং কর্মকর্তারা দিয়েছিলেন, নির্বাচন কমিশনের আপিল বোর্ডও তা বহাল রাখে। ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেই হিরো আলম হাইকোর্টে গিয়েছিলেন। 

মঙ্গলবার সেই রিট মামলার শুনানি শেষে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করে তাকে প্রতীক বরাদ্দের নির্দেশ দিয়েছে বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের বেঞ্চ।

হিরো আলমের পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন আইনজীবী কাজী রেজাউল হোসেন এবং ইয়ারুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সেলিম আজাদ।

হাইকোর্টের এ আদেশের ফলে হিরো আলমের উপ-নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আইনগত আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী ইয়ারুল ইসলাম।

প্রার্থিতা ফিরে পেয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় হিরো আলম বলেন, আদালতে সুবিচার পাবেন বলে আশা করেছিলেন, তাই পেয়েছেন।

তিনি বলেন, ন্যায়বিচার পেয়েছি, যা প্রত্যাশা করেছিলাম। মাঝ পথে শুধু হয়রানি এবং সময়ক্ষেপণ হল।

হিরো আলম জানালেন, তিনি সিংহ মার্কা নিয়ে ভোট করতে চান। মঙ্গলবারই তিনি ঢাকা থেকে রওনা হয়ে বগুড়ায় নির্বাচনী এলাকায় পৌঁছাবেন। 


আরও খবর



কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ শ্রমিক নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কুমিল্লার লালমাই উপজেলায় অজ্ঞাতনামা গাড়ির চাপায় দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় উপজেলার বড় ধর্মপুর এলাকায় দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ফরিদ মিয়া ও জাহাঙ্গীর হোসেন বরুড়া উপজেলার শীলমুড়ি উত্তর ইউনিয়নের দীঘলগাঁও (রং বাড়ি) গ্রামের বাসিন্দা। তারা দুজন পেশায় পাইপ ফিল্টারের মিস্ত্রি ছিলেন।

লাকসাম হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে দুজন কাজের উদ্দেশ্যে বের হয়ে লালমাইয়ের বড় ধর্মপুর জামান ব্রিকস ফিল্ড (ফাঁকা এলাকা) এলাকায় রাস্তা পার হওয়ার সময় অজ্ঞাতনামা গাড়ি চাপা দেয়। তখন ঘটনাস্থলে দুজন নিহত হন। পরে স্থানীয়রা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে লাকসাম হাইওয়ে থানার আইসি মনজুরুল আহসান ভূঁইয়া বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে রাস্তায় মরদেহগুলো দেখে পুলিশকে জানান স্থানীয়রা। পরে সেখানে গিয়ে মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।


আরও খবর

কড়াইয়ের গরম তেলে পড়ে শিশুর মৃত্যু

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩




পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল চেয়ে ফের হাইকোর্টে রিট

প্রকাশিত:বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচলের নির্দেশনা চেয়ে ফের রিট করা হয়েছে। বুধবার (২৫ জানুয়ারি) ওই রিটের শুনানি আট সপ্তাহের জন্য মুলতবি করেছেন বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী তৈমুর আলম খন্দকার ও আইনজীবী ইয়ারুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

পরে তৈমুর আলম খন্দকার জানান, মোটরসাইকেলের লাইসেন্স নেওয়ার সময় আলাদা কোনো স্থানে চলাচলে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়নি। এছাড়া দেশের কোনো ব্রিজেও মোটরসাইকেলে চলাচলে নিষেধাজ্ঞা নেই। এখানে বলা হচ্ছে দুর্ঘটনা ঘটছে। দুর্ঘটনা-তো অন্যান্য স্থানেও হয়। তাই নিষেধাজ্ঞা না দিয়ে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়া দরকার ছিল। যেমন ব্রিজে স্পিড গভর্নর বসিয়ে দেওয়া যেতে পারে।

তিনি আরও বলেন, রিট আবেদনটি আট সপ্তাহের জন্য মুলতবি করা হয়েছে। আদালত দেখবেন এই সময়ে এ বিষয়ে কোনো ভূমিকা নেওয়া হয় কি না।

আবু হানিফ হৃদয় নামের যাত্রাবাড়ীর এক বাসিন্দা এ রিট করেন। এর আগেও তিনি এ সংক্রান্ত একটি রিট করেছিলেন। যেটি গত ১৫ জানুয়ারি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই আদেশ দিয়েছিলেন।

রিটে পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করে সরকারের নেওয়া সিদ্ধান্তের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হয়। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের রিটে বিবাদী করা হয়।

এরপর নতুন করে তিনি আবার রিট করেন।


আরও খবর