Logo
শিরোনাম

খালেদা জিয়ার জন্য আবার বসছে মেডিকেল বোর্ড

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৬৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনার জন্য আবার মেডিকেল বোর্ড বসছে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান জানান, সোমবার (১৩ জুন) বিকেলে বোর্ড বসবে।

এর আগে মেডিকেল বোর্ড জানায়, খালেদা জিয়ার হার্ট অ্যাটাকের পর রিং পরানো হয়েছে।

গত শুক্রবার (১০ জুন) গভীর রাতে গুলশানের বাসা ফিরোজায় হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করলে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় খালেদা জিয়াকে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের নেতারা এ সময় হাসপাতালে ছিলেন।


আরও খবর



কমলাপুরে দ্বিতীয় দিনেও টিকিট প্রত্যাশীদের উপচেপড়া ভিড়

প্রকাশিত:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দ্বিতীয় দিনেও রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট প্রত্যাশীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। শনিবার সকালে এমন চিত্র দেখা যায়।

শনিবার (২ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে ঈদযাত্রার দ্বিতীয় দিনের টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। এদিন টিকিট পেতে আরও দুদিন আগে থেকেই রেলস্টেশনে অবস্থান নিয়েছেন কেউ কেউ। এদের মধ্যে কেউ কেউ আছেন যারা প্রথম দিন লাইনে দাঁড়িয়েও টিকিট পাননি।

ঈদের আগে সড়কপথে অনেক বেশি যানজট থাকবে এমন আশঙ্কায় ট্রেনের টিকিট পেতে আগ্রহী মানুষ। যাত্রাপথের ভোগান্তি এড়াতে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করতে এসেছেন তারা।

শুক্রবার (১ জুলাই) থেকে ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। ১ জুলাই দেওয়া হয় রেলের ৫ জুলাইয়ের ট্রেনের টিকিট, ২ জুলাই দেওয়া হচ্ছে ৬ জুলাইয়ের টিকিট, ৩ জুলাই দেওয়া হবে ৭ জুলাইয়ের ট্রেনের টিকিট, ৪ জুলাই দেওয়া হবে ৮ জুলাইয়ের ট্রেনের টিকিট এবং ৫ জুলাই দেওয়া হবে ৯ জুলাইয়ের ট্রেনের টিকিট।

এছাড়া ফিরতি টিকিট বিক্রি শুরু হবে ৭ জুলাই থেকে। ওইদিন ১১ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি হবে। ৮ জুলাই ১২ জুলাইয়ের টিকিট, ৯ জুলাই ১৩ জুলাইয়ের টিকিট, ১১ জুলাই ১৪ এবং ১৫ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি হবে। তবে ১১ জুলাই সীমিত কয়েকটি আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করবে। ১২ জুলাই থেকে সব ট্রেন চলাচল করবে।

ঢাকায় ছয়টি স্টেশন এবং গাজীপুরের জয়দেবপুর রেলওয়ে স্টেশনে থেকে ঈদের ট্রেনের টিকিট পাওয়া যাচ্ছে। ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে সমগ্র উত্তরাঞ্চলগামী আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট বিক্রি হচ্ছে। কমলাপুর শহরতলী প্লাটফরম থেকে রাজশাহী ও খুলনাগামী ট্রেনের টিকিট পাওয়া যাচ্ছে। ঢাকা বিমানবন্দর থেকে চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীগামী সব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট পাওয়া যাচ্ছে। তেজগাঁও রেলওয়ে স্টেশনে পাওয়া যাচ্ছে ময়মনসিংহ, জামালপুর, দেওয়ানগঞ্জগামী ট্রেনের টিকিট।

এছাড়া ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেলওয়ে স্টেশনে পাওয়া যাচ্ছে মোহনগঞ্জগামী মোহনগঞ্জ ও হাওর এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট। রাজধানীর ফুলবাড়িয়া রেলস্টেশন থেকে পাওয়া যাচ্ছে সিলেট ও কিশোরগঞ্জগামী ট্রেনের টিকিট। গাজীপুরের জয়দেবপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে পঞ্চগড়ের ঈদ স্পেশাল ট্রেন ছাড়বে।


আরও খবর

ভিড় নেই লঞ্চে, ভাড়াও কমেছে

শনিবার ০২ জুলাই 2০২2




প্রিজনভ্যানে বাসের ধাক্কা, পুলিশসহ আহত ৯

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর উপকণ্ঠ কেরানীগঞ্জে প্রিজন ভ্যানে বাসের ধাক্কায় দুই পুলিশ সদস্য ৭ কয়েদি গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের কারো নাম জানা যায়নি।

সোমবার (০৬ জুন) রাতে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার রাজেন্দ্রপুর এলাকায় সিরাজদিখান পরিবহনের একটি বাসের ধাক্কায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি শাহ জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আহত পুলিশ সদস্যদের রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে এবং কয়েদিদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত থেকে আসামিদের নিয়ে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের উদ্দেশে রওনা দেয় প্রিজনভ্যানটি। দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক থেকে বাম দিকে মোড় নেওয়ার পর সিরাজদিখান পরিবহনের একটি দ্রুতগামী বাস ভ্যানটিকে পেছন থেকে সজোরে ধাক্বা দিলে প্রিজনভ্যানটি উল্টে যায়। বাসটি দ্রুত পালিয়ে গেছে।


আরও খবর



দুর্ঘটনার শিকার রোনালদোর বিলাসবহুল গাড়ি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর বিলাসবহুল গাড়ি। পরিবার সহ ছুটি কাটাতে এখন স্পেনের বেলেরিক দ্বীপে অবস্থান করছেন পর্তুগিজ মহাতারকা, সেখানেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম এল পিরিওডিকো মেডিটেরানিও জানিয়েছে, রোনালদোর একজন ড্রাইভার তার বুগাত্তি ভেইরন গাড়িটি নিয়ে সোমবার সকালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্পেনের মায়োর্কা অঞ্চলের একটি বাড়ির গেটে আছড়ে পড়ে। দুর্ঘটনায় ড্রাইভার অক্ষত থাকলেও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গাড়ির অগ্রভাগ। দুর্ঘটনার সময় রোনালদো বা তার পরিবারের কেউ গাড়িতে ছিলেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। স্থানীয় পুলিশ দুর্ঘটনার ব্যাপারটি খতিয়ে দেখছে।

গত সপ্তাহে ব্যক্তিগত বিমানে পরিবার নিয়ে স্পেনের বেলেরিক দ্বীপে ছুটি কাটাতে যান রোনালদো। সেখানে রোনালদো তার সঙ্গে দুটি গাড়ি নিয়ে যান, যার একটি দুর্ঘটনার শিকার বুগাত্তি ভেইরন। বিলাসবহুল গাড়ির প্রতি রোনালদোর ঝোঁক অনেকদিনের। পর্তুগিজ মহাতারকার সংগ্রহে আছে প্রায় ১৯৩ কোটি টাকার বিলাসবহুল গাড়ি।

ছুটি কাটিয়ে চলতি মাসের শেষের দিকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রাক-মৌসুম ক্যাম্পে যোগ দেবেন রোনালদো। নতুন ম্যানেজার এরিক টেন হাগের অধীনে শুরু হবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের নতুন যুগ।


আরও খবর



ঝুঁকিতে হাইড্রোজেন শিল্প

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হুমকির মুখে পড়েছে দেশের হাইড্রোজেন পার অক্সাইড শিল্প। সম্প্রতি সীতাকুণ্ডে কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের পর সিঙ্গাপুর বন্দর দিয়ে হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের চালান পরিবহন সীমিত করার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। শিপিং কোম্পানিগুলোর কাছে পাঠানো এক নোটিশে সিঙ্গাপুর বন্দর কর্তৃপক্ষ এ কথা জানায়। ফলে ১৪টি দেশে এই কেমিক্যালে রফতানি এখন অনেকটাই ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। যদিও বিপত্তি এড়িয়ে কলম্বো বন্দর ব্যবহার করা যাবে এমন আশা করছেন ব্যবসায়ীরা। তবে সেটি দ্রুত সমাধান করতে না পারলে বিপাকে পড়তে যাচ্ছে দেশের ৬টি হাইড্রোজেন পার অক্সাইড তৈরিকারক প্রতিষ্ঠান। অথচ চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের জুলাই থেকে এপ্রিল পর্যন্ত ১০ মাসে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড রফতানি করে আয় হয়েছে ২ কোটি ৩৩ লাখ ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ২০৭ কোটি টাকার সমান। এদিকে জাহাজে হাইড্রোজেন পার অক্সাইডভর্তি কনটেইনার না নেয়ার কারণে বিপত্তিতে পড়েছে বেসরকারি কনটেইনার ডিপোগুলো। বর্তমানে ডিপোতে রফতানির অপেক্ষায় থাকা হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের কনটেইনারগুলো সরানোও সম্ভব হচ্ছে না। আবার শিপেও দেয়া যাচ্ছে না। বন্ডের কারণে এসব কনটেইনার নিরাপদ জায়গায় সরানো নিয়ে আইনি জটিলতা তৈরি হয়েছে।

জানতে চাইলে মিউচুয়াল শিপিং লাইনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পারভেজ জানান, বিভিন্ন এজেন্টের কাছে শিপ ওনাররা বার্তা পাঠাচ্ছেন জাহাজে বাংলাদেশ থেকে কনটেইনার বুকিংয়ের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতে। শনিবার (১১ জুন) থেকে অধিকাংশ এজেন্ট রফতানির জন্য হাইড্রোজেন পার অক্সাইড ভর্তি কনটেইনার বুকিং নেয়া বন্ধ রেখেছে। এর বেশ প্রভাব পড়বে রফতানি পণ্য জাহাজীকরণে। দেশের বন্দর সংশ্লিষ্ট স্থাপনায় আইএমডিজি কোড না মানার বিষয়টি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে প্রতিষ্ঠিত হলে নতুন বিপত্তি যোগ হবে দেশের রফতানি পণ্য পরিবহনে।

বেসরকারি কনটেইনার ডিপো মালিক সমিতির সভাপতি নুরুল কাইয়ূম খান বলেন, সীতাকুণ্ডের কনটেইনার ডিপোতে দুর্ঘটনার সঠিক কারণ উদ্ঘাটন করতে না পারলে চট্টগ্রাম বন্দর, বেসরকারি কনটেইনার ডিপো সম্পর্কে খারাপ ধারণা তৈরি হবে আন্তর্জাতিক বাজারে। দেশের আমদানি-রফতানি অবকাঠামো বিশ্বমানের সেটি প্রমাণ করতে না পারলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে এ খাতের ব্যবসায়ীরা।

জানা গেছে, সীতাকুণ্ডের বেসরকারি কনটেইনার ডিপোতে কনটেইনার বিস্ফোরণের কারণে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন বন্দরে রফতানি পণ্য পরিবহন নিয়ে কঠোর বিধিনিষেধের আওতায় পড়বে বাংলাদেশ এমন আশঙ্কায় ছিলেন আমদানি-রফতানি খাতের ব্যবসায়ীরা। তাদের সেই আশঙ্কা সত্যি হয়েছে। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া জরুরি বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

তাদের দেয়া তথ্যমতে, সিঙ্গাপুর বন্দরের সিদ্ধান্তে বিপাকে পড়বে বাংলাদেশের রফতানি খাত। কারণ, বাংলাদেশের রফতানি পণ্যের প্রায় অর্ধেকই রফতানি হয় সিঙ্গাপুর বন্দর ব্যবহার করে। চট্টগ্রাম থেকে ছোট জাহাজে করে পণ্যভর্তি কনটেইনার নিয়ে রাখা হয় সিঙ্গাপুর বন্দরে। সেখান থেকে বড় জাহাজে তুলে আমদানিকারক দেশগুলোতে পাঠানো হয় পণ্য। সিঙ্গাপুর ছাড়াও শ্রীলঙ্কার কলম্বো বন্দর দিয়ে এভাবে কনটেইনারে রফতানির পণ্য পরিবহন করা হয়। চট্টগ্রাম বন্দর থেকে কনটেইনারে রফতানি পণ্য পরিবহন কার্যক্রম কঠোর সতর্কতার আওতায় আসতে পারে অন্যান্য বন্দর থেকেও। বিপদের আশঙ্কায় এরই মধ্যে বিভিন্ন শিপিং লাইন্সের পাশাপাশি বেসরকারি কনটেইনার ডিপোগুলো নতুন করে হাইড্রোজেন পার অক্সাইডভর্তি কনটেইনার নেয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

হাইড্রোজেন পার অক্সাইড নিয়ে বিধিনিষেধ শীর্ষক সিঙ্গাপুর বন্দরের নোটিশে বলা হয়, ৪ জুন রাতে বাংলাদেশে কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর সিঙ্গাপুর বন্দরে হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের উল্লেখযোগ্যসংখ্যক কনটেইনার খালাস হয়। নোটিশে বলা হয়, সিঙ্গাপুর বন্দরে হাইড্রোজেন পার-অক্সাইডের কতটি কনটেইনার মজুদ করা যাবে, সেটির সীমা রয়েছে। বর্তমানে বন্দরটিতে হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের চালানের মজুদ বেড়ে গেছে। সিঙ্গাপুর বন্দরকে নিরাপদ সীমার মধ্যে রাখতে নতুন করে হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের চালান গ্রহণ না করার পদক্ষেপ নিতে হচ্ছে।

জানা গেছে, হাইড্রোজেন পার অক্সাইড দেশের টেক্সটাইল শিল্পে ব্যবহার করা হয়। এ পণ্য একসময় বিদেশ থেকে আমদানি করা হলেও বর্তমানে এটি রফতানি হচ্ছে। ৪ জুন চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুন, প্রবল শক্তিমাত্রার বিস্ফোরণে রূপ নেয়ার কারণ হিসেবে কোনো ধরনের প্রমাণ ছাড়াই এই কেমিক্যালটিকে দায়ী করা হচ্ছে। অথচ হাইড্রোজেন পার অক্সাইড রফতানির বৈশ্বিক অবস্থানে ১৭তম বাংলাদেশ। দেশের ছয়টি প্রতিষ্ঠান নিজেদের উৎপাদিত হাইড্রোজেন পার অক্সাইড দেশের বাজারের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাজারে রফতানি করে থাকে। বর্তমানে দেশে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো হলো সামুদা কেমিক্যাল কমপ্লেক্স, তাসনিম কেমিক্যাল কমপ্লেক্স, এসএম কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ, এইচপি কেমিক্যালস লিমিটেড, ইনফেনিয়া কেমিক্যাল ও চট্টগ্রামের আল-রাজী কেমিক্যাল কমপ্লেক্স। এর মধ্যে আল-রাজী কেমিক্যাল কমপ্লেক্স ও বিএম কনটেইনার ডিপোর মালিকানা একই প্রতিষ্ঠানের। দেশের টেক্সটাইল ও গার্মেন্টস শিল্পের প্রয়োজনীয় হাইড্রোজেন পার অক্সাইড (H2O2) মোট চাহিদার বড় অংশই স্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলো জোগান দেয়। বিস্ফোরণের নেতিবাচক প্রভাবে এখন পুরোটাই দখলে যাবে বিদেশি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের হাতে। পাকিস্তান, নেপালসহ বেশ কিছু বাজারে বাংলাদেশ থেকে হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের ক্রেতা রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে বিস্ফোরণের সঠিক কারণ চিহ্নিত না হলে কেউই আমাদের দেশের উৎপাদিত কেমিক্যালটি ক্রয় করবে না বলে দাবি করছেন ব্যবসায়ীরা। কেমিক্যালের কনটেইনার থেকে ভয়াবহ বিস্ফোরণের মতো বড় ধরনের দুর্ঘটনা বিশ্বে প্রথম, ক্রেতাদের মাঝে তৈরি হওয়া আস্থা সংকট কাটতেও বেশ সময় লাগবে বলে মনে করছেন তারা।

বাংলাদেশ রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্যানুযায়ী, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের জুলাই থেকে এপ্রিল পর্যন্ত ১০ মাসে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড রফতানি করে আয় হয়েছে ২ কোটি ৩৩ লাখ ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ২০৭ কোটি টাকার সমান। এই খাতের রফতানি আয় দ্রুত বাড়ছে। চলতি অর্থবছরের প্রথম ১০ মাসে যে পরিমাণ রফতানি হয়েছে, তা আগের অর্থবছরের পুরো সময়ের চেয়ে ২৩ শতাংশ বেশি। ২০১৪-১৫ অর্থবছরের পুরো সময়ের তুলনায় চলতি অর্থবছরের এপ্রিল পর্যন্ত ১০ মাসে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড ( H2O2) রফতানি আয় বেড়েছে তিন গুণ। সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, এই কেমিক্যাল রফতানিতে সরকার ভর্তুকিও দেয় ১০ শতাংশ। বাংলাদেশ রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্য বলছে, চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি হাইড্রোজেন পার অক্সাইড রফতানি করেছে ভারত, পাকিস্তান ও ভিয়েতনামে। মোট ১৪টি দেশে রাসায়নিকটি রফতানি হয়।

খাতসংশ্লিষ্টরা বলছেন, এই বাজারের পুরোটাই আমরা হারাব। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বৃদ্ধির কারণে রফতানিতে এই কেমিক্যাল রফতানির প্রবৃদ্ধি আশাব্যঞ্জক ছিল। করোনাকালে স্যানিটাইজারসহ বিভিন্নভাবে হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের ব্যবহার বাড়ার কারণে যে বৈশ্বিক চাহিদার জোগান দেয়ার যে সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল, কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের পরে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড নিয়ে অতিরিক্ত প্রচারণার কারণে তার পুরোটাই ভেস্তে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন এই খাতের বিনিয়োগকারীরা। সীতাকুণ্ডে বিএম ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণের ঘটনার পর থেকে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড নিয়ে কিছু কিছু সংবাদমাধ্যমে নানা বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশ হওয়ার কারণে এমন বার্তা যাচ্ছে দেশ-বিদেশের ব্যবসায়ীদের কাছে। যদিও বিপত্তি এড়িয়ে কলম্বো বন্দর ব্যবহার করা যাবে এমন আশা রয়েছে। জানা গেছে, দেশের ছয়টি হাইড্রোজেন পার অক্সাইড শিল্প উৎপাদিত কেমিক্যালের ক্যাপ তৈরি করা হয় হাই ডেনসিটি পলি ইথিলিন (HDPE) দিয়ে। সেখানে গোর প্যাকিং ভ্যান্ট-উ-১৭ ব্যবহার করা হয়। এটি জার্মানি থেকে আমদানি করে ব্যবহার করেন শিল্পমালিকরা। যার প্যাকেজিং (UN)-২০১৪, ক্লাস ৫.১(৮), প্যাকিং গ্রুপ অনুসারে তৈরিকৃত।

জাহাজে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড ভর্তি কনটেইনার না নেয়ার কারণে বিপত্তিতে পড়েছে বেসরকারি কনটেইনার ডিপোগুলো। বর্তমানে ডিপোতে রফতানির অপেক্ষায় থাকা হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের কনটেইনারগুলো সরানোও সম্ভব হচ্ছে না। আবার জাহাজেও দেয়া যাচ্ছে না। বন্ডের কারণে এসব কনটেইনার নিরাপদ জায়গায় সরানো নিয়ে আইনি জটিলতা তৈরি হয়েছে।

যুক্তরাজ্যে বসবাসরত মেরিন খাতের ব্যবসায়ী মাস্টার মেরিনার আবুল ফয়েজ মনে করেন, বিপজ্জনক দ্রব্যের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের কনটেইনার ডিপোগুলো আইএমডিজি (ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম ডেঞ্জারাস গুডস)কোড মানছে না এমন বিষয়টি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে প্রতিষ্ঠিত হলে নতুন নতুন বিপত্তি যোগ হবে দেশের আমদানি-রফতানি পণ্যে। বিষয়টি দেশের বন্দরের সুনামের জন্যও খারাপ হবে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে, কাস্টমস কমিশনার ফখরুল আলম বলেন, দেশের প্রত্যেক শিল্প কারখানায় কোন না কোন কাজে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড ব্যবহার হচ্ছে। এটি যেমন বিদেশ থেকে আমদানি হয়, তেমনি দেশ থেকে রফতানিও হয়। আমাদের দেশের বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রফতানি করে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড। গত তিন বছরে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস সম্ভাবনাময় এই খাত থেকে ৪০৪ কোটি টাকা আয় করেছে।

উল্লেখ্য, গত ৪ জুন সীতাকুণ্ডের বিএম ডিপোতে একটি কনটেইনারে লাগা আগুন ভয়ানক বিস্ফোরণে রূপ নেয়। গার্মেন্টস পণ্যের একটি কনটেইনারে আগুন লাগার পর সেখানে রাসায়নিকভর্তি (H2O2) কনটেইনারে বিস্ফোরণ ঘটে। ভয়াবহ বিস্ফোরণে এখন পর্যন্ত ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রায় ২০০ জন চট্টগ্রাম ও ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পাশাপাশি কারণ অনুসন্ধানে একাধিক তদন্ত কমিটি কাজ করছে।


আরও খবর

পদ্মা সেতুর আদ্যোপান্ত

শনিবার ২৫ জুন ২০২২




রাজধানীতে ট্রাকের ধাক্কায় যুবকের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ২৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর গুলিস্তানে ট্রাকের ধাক্কায় অজ্ঞাত (২৫) এক যুবক মারা গেছেন। নিহতের পরিচয় সম্পর্কে এখনো জানতে পারেনি পুলিশ। শুক্রবার (১ জুলাই) দিনগত রাতে গুলিস্তান হল মার্কেটের সামনের রাস্তায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পরে প্রত্যক্ষদর্শীরা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। রাত ১২টার দিকে ওই যুবককে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

উদ্ধারকারীদের একজন রবিউল জানান, গুলিস্তান হলমার্কের সামনের রাস্তায় একটি ট্রাকের ধাক্কায় অজ্ঞাত যুবক প্রথমে আহত হযন। পরে তাকে কয়েকজন মিলে হাসপাতালে নিয়ে আসলে মারা যান।

রবিউল নিহতের নাম-ঠিকানা জানাতে না পারলেও গুলিস্তান এলাকায় তাকে ঘোরাফেরা করতে করতে দেখেছেন বলে জানান। 

ঢাকা মেডিক্যাল পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।


আরও খবর

ভিড় নেই লঞ্চে, ভাড়াও কমেছে

শনিবার ০২ জুলাই 2০২2