Logo
শিরোনাম

কিশোরগঞ্জ যুবককে গলা কেটে হত্যা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কিশোরগঞ্জ শহরে এক যুবককে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত আবির হাসান রাহাত (২২) কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল সরকারি কলেজের অনার্সের শিক্ষার্থী। তিনি ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার রাজগাতি এলাকার আনোয়ারুল হকের ছেলে।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে কিশোরগঞ্জ শহরের উকিলপাড়া সিএনজি স্ট্যান্ড এলাকার আশরাফ উদ্দিনের বাড়ির তিনতলা ফ্ল্যাটে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। এ ঘটনায় হত্যার অভিযোগ উঠেছে তারই চাচাতো ভাই জোবায়ের হাসানের (২৬) বিরুদ্ধে। জোবায়ের বসবাস করেন শহরের গাইটাল এলাকায়।

জোবায়ের হাসানের বড় বোন আরিফা সুলতানা জানান, রাহাত তার ছেলেকে প্রাইভেট পড়ায়। বুধবার সন্ধ্যার দিকে রাহাত প্রতিদিনের ন্যায় তার ছেলেকে পড়াতে এসেছিল। এসময় জোবায়ের হঠাৎ বাসায় এসে রাহাতের সঙ্গে তর্কে জড়ায়। এক পর্যায়ে তাকে বাসা থেকে বের করে দিয়ে ভিতর থেকে দরজা বন্ধ করে দেয়। পরে রাহাতের গলায় ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, হত্যাকাণ্ডের পর জোবায়ের পালিয়ে গেছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে প্রাথমিক অবস্থায় জানা যায়নি। জোবায়ের হাসানকে গ্রেফতার করতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।


আরও খবর



পাগলা মসজিদের দানবাক্সে ১৫ বস্তা টাকা

প্রকাশিত:শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ১৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কিশোরগঞ্জের পাগলা মসজিদের দানবাক্স খোলা হয়েছে। এবার ২ মাস ২৯ দিন পর দান বাক্স খোলা হয়েছে। আটটি দানবাক্স খুলে পাওয়া গেছে ১৫ বস্তা টাকা, বিভিন্ন স্বর্ণালঙ্কার ও বৈদেশিক মুদ্রা।

আজ শনিবার সকাল ৮টায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এ টি এম ফরহাদের নেতৃত্বে প্রশাসনের কর্মকর্তা ও কমিটির সদস্যদের উপস্থিতিতে মসজিদের আটটি দানবাক্স খোলা হয়। এর আগে সর্বশেষ ২ জুলাই  দানবাক্স খোলা হয়েছিল। তখন তিন কোটি ৬০ লাখ ২৭ হাজার ৪১৫ টাকা পাওয়া গিয়েছিল।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, শনিবার দানবাক্স থেকে টাকা খুলে প্রথমে বস্তায় ভরা হয়। এরপর শুরু হয় দিনব্যাপী টাকা গণনার কাজ। বর্তমানে টাকা গণনার কাজ চলছে।

কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এটিএম ফরহাদ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জোহরা সুলতানা যূথী, মোছা. নাবিলা ফেরদৌস, পাগলা মসজিদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শওকত উদ্দীন ভূঞা, রূপালী ব্যাংকের এজিএম মো. রফিকুল ইসলাম প্রমুখ টাকা গণনার কাজ তদারকি করছেন। এছাড়া পাগলা মসজিদের সদস্য, সিনিয়র সিটিজেনসহ জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা উপস্থিত রয়েছেন।

প্রতিদিনই অসংখ্য মানুষ মসজিদটির দানসিন্দুকগুলোতে নগদ টাকা-পয়সা ছাড়াও স্বর্ণালঙ্কার দান করেন। এছাড়া গবাদিপশু, হাঁস-মুরগিসহ বিভিন্ন ধরনের জিনিসপত্রও মসজিদটিতে দান করা হয়। সাধারণের বিশ্বাস, খাস নিয়তে এই মসজিদে দান করলে মনের আশা পূরণ হয়। সেজন্য দূর-দূরান্ত থেকেও অসংখ্য মানুষ এখানে দান করে থাকেন।

মসজিদের আয় থেকে বিভিন্ন সেবামূলক খাতে অর্থ সাহায্য করা হয়। বর্তমানে পাগলা মসজিদকে একটি অন্যতম আধুনিক ইসলামিক স্থাপত্য হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। এ লক্ষ্যে কাজ চলছে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম জানান, ১২০ কোটি টাকায় একটি আধুনিক স্থাপত্যে ৩০ হাজার মুসুল্লি একসাথে নামাজ আদায়ের একটি প্রকল্প ইতোমধ্যে গ্রহণ করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: পাগলা মসজিদ

আরও খবর



ভারতে উৎপাদিত আইফোনের দাম কী কম হবে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চীনে আইফোন উৎপাদন নিয়ে বেশ ঝুঁকিতে রয়েছে টেক জায়ান্ট অ্যাপল। ঝুঁকি হ্রাসেই ভারতে আইফোন ১৪এর উৎপাদন শুরু করতে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। আইফোনের সাপ্লাই চেইন চীন থেকে সরিয়ে নিয়ে নিজেদের সরবরাহ ব্যবস্থা ঠিক রাখতেই এই উদ্যোগ। তবে ভারতে উৎপাদন শুরু করলেও এই অঞ্চলে কী আইফোনের দাম কমবে?

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অ্যাপলের অধিকাংশ ফোনই উৎপাদিত হয় চীনে। কিন্তু অ্যাপলের সাম্প্রতিক সিদ্ধান্ত অনুসারে প্রতিষ্ঠানটি তাদের সর্বশেষ মডেলের ফোন তৈরি করতে যাচ্ছে ভারতে। স্থানীয় সময় সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে বলেছে, যুগান্তকারী প্রযুক্তি এবং গুরুত্বপূর্ণ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে বাজারে এসেছে আইফোন ১৪। আমরা ভারতে আইফোন ১৪ উৎপাদন শুরু করতে পেরে আনন্দিত। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আইফোনের মোট উৎপাদনের ২৫ শতাংশই নিয়ে আসা হবে ভারতে।

প্রাথমিকভাবে ভারতের চেন্নাইয়ে অ্যাপলের ফোনগুলো উৎপাদন করবে তাইওয়ানের প্রতিষ্ঠান ফক্সকন, উইসট্রন এবং পেগাট্রন। তবে সাধারণত অ্যাপল তাদের নতুন মডেলের ফোন বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দেওয়ার সাত থেকে আট মাস পর ভারতে উৎপাদন শুরু করে। তবে এবার আইফোন ১৪ বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দেওয়ার ৩ সপ্তাহের মাথায় এই ঘোষণা দিল বলে সিএনএনকে জানিয়েছেন বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান কাউন্টারপয়েন্টের পরিচালক তরুণ পাঠক।

তবে যাই হোক না কেন, ভারতে আইফোনের উৎপাদন শুরু হলেও দাম কমবে কিনা সে নিয়ে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। ভারতে মাত্র চার ভাগের একভাগ উৎপাদন করা হবে এবং এখানেও উৎপাদন করতে গিয়ে গুরুত্বপূর্ণ অনেক যন্ত্রাংশের জন্য অ্যাপলকে চীন নির্ভরই থাকতে হবে। ফলে ভারত কিংবা আশপাশের দেশগুলোতে অ্যাপলের দাম কমার কোনো সম্ভাবনা দেখেন না বিশেষজ্ঞরা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আউটলুক ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে যেসব ফোন বাইরে থেকে আনা হয় সেগুলোর ওপর একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ কাস্টম শুল্ক আরোপ করা হয়। কিন্তু ভারতে উৎপাদন করা হলে সেই শুল্ক দিতে হবে না। সেই বিবেচনায় দাম অনেকটা কমে আসতে পারে। তবে, তা আসলে কতটা কমে সেটাই প্রশ্ন। কারণ, অ্যাপল সাধারণত বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলের সঙ্গে উৎপাদক দেশে আইফোনের দামের পার্থক্য করে না।

দাম না কমার পেছনে আরও একটি কারণ সামনে এনেছে আউটলুক। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অ্যাপল ভারতে উৎপাদন করলেও সারা দেশে এমনকি বিশ্বজুড়ে বিপণনের জন্য তৃতীয় একটি পক্ষকে বেছে নেয়। ফলে তাদের লভ্যাংশ বিবেচনায় নিলেও দাম কমার সম্ভাবনা অনেকটাই হ্রাস পায়। তবে শেষ পর্যন্ত ভারত এবং আশপাশের দেশগুলোতে আইফোনের দাম বিশেষ করে নতুন মডেল আইফোন ১৪ এর দাম কমবে কিনা এবং কমলে কতটা কমবে তা আসলে পুরোপুরি নির্ভর করছে অ্যাপলের সিদ্ধান্তের ওপর।

নিউজ ট্যাগ: আইফোন আইফোন ১৪

আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




ওষুধ মনে করে কীটনাশক পানে কিশোরীর মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন

Image

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীল দ্বীপ উপজেলা হাতিয়াতে কাশের ওষুধ মনে করে ঘরে থাকা কীটনাশক পানে এক কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে। মৃত লিমা আক্তার (১২) উপজেলার ৬নং চরকিং ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের মধ্য শুল্যাকিয়া গ্রামের মো.এমরানের মেয়ে। 

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার ৬নং চরকিং ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের মধ্য শুল্যাকিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আমির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, সোমবার সকাল ৮টার দিকে লিমা কাশের ওষুধ মনে করে ভুল করে ধান খেতে প্রয়োগ করা কীটনাশক পান করে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে পরিবারের লোকজন দেখতে পেয়ে  তাকে হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্মরত চিকিৎসক দুপুর ১২টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। কোন অভিযোগ না থাকায় মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


আরও খবর

বিয়ে বাড়িতে কিশোরীকে ধর্ষণ

বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২




আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস। গণতন্ত্রের গুরুত্ব চিহ্নিত করতে এবং গণতান্ত্রিক অধিকার সম্পর্কে মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য প্রতিবছর ১৫ সেপ্টেম্বর বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালন করা হয়।

২০০৭ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে সদস্যভুক্ত দেশগুলোতে গণতন্ত্র সম্পর্কে আগ্রহ সৃষ্টি এবং গণতন্ত্র চর্চাকে উৎসাহিত করার জন্য প্রচলিত একটি বিশেষ দিন পালনের সিদ্ধান্ত হয়। এর পর থেকেই প্রতি বছর ১৫ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস পালিত হয়ে আসছে। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য- গণতন্ত্র, শান্তি এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার গুরুত্ব।

এ বছর দিবসটিতে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন, যেখানে তিনি বলেছেন, গণতন্ত্র হলো এমন একটি ধারণা যা আমাদেরকে একটি মুক্ত, ন্যায্য এবং আদর্শ সমাজ গঠন করতে দেয়, যেখানে একটি নিরাপদ এবং সুখী স্থান গঠন করে প্রত্যেকে সমান হিসাবে বিবেচিত হতে এবং একে অপরের সাথে একত্রিত হয়ে বসবাস করতে চায়। বিশ্বে রাজনৈতিক অস্থিরতা বাড়ার সাথে সাথে একটি গণতান্ত্রিক সমাজের গুরুত্ব বোঝা যায় এবং এ কারণেই আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস পালন করা হয়।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবসের বার্তায় বলেন, এবার আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবসের ১৫তম বার্ষিকী চলছে। তবুও সারা বিশ্বে গণতন্ত্র পিছিয়ে যাচ্ছে। নাগরিক অধিকার সংকুচিত হচ্ছে। অবিশ্বাস ও অপতৎপরতা বাড়ছে। আর মেরুকরণ গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানকে ক্ষুন্ন করছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব বলেন, গণতন্ত্র, উন্নয়ন এবং মানবাধিকার যে পরস্পর নির্ভরশীল এবং পারস্পরিকভাবে শক্তিশালীকরণের এখনই সময়। এখনই সময় সাম্য, অন্তর্ভুক্তি এবং সংহতির গণতান্ত্রিক নীতির পক্ষে দাঁড়ানোর।

ইউনেস্কোর প্রতিবেদন বলছে, গত ৫ বছরে বিশ্বের জনসংখ্যার ৮৫ শতাংশ মানুষ তাদের দেশে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা হ্রাস পেতে দেখেছে। অনলাইন অফলাইনে দুভাবেই গোটা বিশ্বেই গণমাধ্যমের ওপর আক্রমণ বেড়েছে।


আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




আ. লীগের ভিতরে অনেক বহুরূপী সুবিধা ভোগী মানুষ এখনও বিচরণ করে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মৎস্য ও প্রানিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম বলেন, সুধাংশু শেখর হালদার ছিলেন অকুত ভয়সাহসী এবং বাংলাদেশের যে মৌলিক চিত্র যেখানে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান বসবাস করে এই ধারাকে ফিরিয়ে আনার ক্ষেত্রে তিনি অপরিসীম সাহসের পরিচয় দিয়েছেন।  তাকে নির্যাতনের স্বিকার হতে হয়েছে। তাকে গ্রেপ্তার হতে হয়েছে।  অমানবিক শারীরিক নির্যাতনের স্বিকার হতে হয়েছে।

তিনি পিরোজপুর-১ আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে একজন গৌরবময় দক্ষতার পরিচয় দিয়ে তিনি খ্যাতিমান পার্লামেন্টেরিয়ান হিসেবে অবিহিত হয়ে ছিলেন। সুধাংশু শেখর হালদার চেয়েছিলেন সাম্প্রদায়িকতার বাংলাদেশ থেকে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশকে ফিরিয়ে আনতে। সেজন্য অনেকের চেয়ে অনেক বেশী সাহস সঞ্জয় করে কাজ করে গেছেন। তিনি যে লক্ষ নিয়ে রাজনীতি করে ছিলেন সেটা যেনো আমরা ধারন করতে পারি।

মন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবিধান বিশেষজ্ঞ, সুপ্রিম কোর্টের খ্যাতনামা আইনজীবি,  দুইবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতা সুধাংশু শেখর হালদারের ১৮তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে  শ্রীরামকৃষ্ণ মিশনের হল রুমে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্ট্রান ঐক্য পরিষদ জেলা শাখার আয়োজনে স্মরন সভায় এ সব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সুধাংশু শেখর হালদার কে সংসদ নির্বাচনে ষড়যন্ত্র করে কারা হারিয়ে দিয়েছিলেন তা সবাইকে  স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, কারা সেদিন যুদ্ধাপরাধী দেলওয়ার হোসেনে সাঈদীর পক্ষে ছিলো তা আপনারা ভালো করেই জানেন।  সেই মানুষ গুলো আবার কিন্তু লোক জনকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। আওয়ামীলীগের ভিতরে অনেক বহুরূপী সুবিধাভোগী মানুষ কিন্তু এখনও বিচরনকরে। তারা যাতে আর বিভ্রান্ত করতে না পারে। পিরোজপুর -১ আসনের এমপি হিসেবে, সুধাংশু শেখর হালদারের একজন কর্মী  হিসেবে তাঁর স্বপ্ন, তাঁর অভিষ্ট লক্ষ বাস্তবায়নে কাজ করছি।

স্মরণ সভায় জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদেও সিনিয়রসহ-সভাপতি সুভাস চন্দ্র সরকারের সভাপতিত্বে বক্তব্য  রাখেন রামকৃষ্ণ মিশনের সভাপতি প্রফেস রনরেন্দ্র নাথ রায় জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা গৌতম নারায়ন রায় চৌধুরী, পুজাউদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট হরেন্দ্র নাথ অধিকারী, জেলাহিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদেরসহ-সভাপতি সুনিল চক্রবর্তী, নাজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যন অমূল্যরঞ্জন হালদার, হিন্দু ধর্মীয়কল্যান ট্রষ্টের ট্রাষ্টি সুরঞ্জীত দত্ত লিটুপ্রমূখ।

তাঁর মৃত্যুবার্ষিকীতে তার নিজের অর্থে প্রতিষ্ঠিত মোড়েলগঞ্জের শৌলখালীমাধ্যমিক বিদ্যালয়, নাজিরপুরের ঘোষকাঠীতে সুধাংশু শেখর হালদার টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ, ঘোষকাঠী মহাবিদ্যালয় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। এছাড়া ঢাকার ফরাসগঞ্জের অনাথ আশ্রমে শিশুদের মধ্যে উন্নত মানের খাবার বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি আয়োজন করা হয়েছে।

উল্লেখ, সুধাংশু শেখর হালদার ২০০৪ সালের এ দিনে দুরারোগ্য ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে দিল্লী, ক্যালির্ফোনিয়াএবং সিঙ্গাপুরে  চিকিৎসা শেষে ঢাকার বারডেম হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। প্রথিতযশা এ রাজনীতিবিদ সংবিধানের দ্বাদশ সংশোধনী বিল প্রণয়ণে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদ ও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা।

 

 


আরও খবর