শিরোনাম

কম বয়সি পুরুষদের প্রতি মহিলাদের কেন আকর্ষণ বাড়ছে

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সমীক্ষা বলছে, ৪০ ছুঁই ছুঁই মহিলাদের সম্পর্কে জড়ানোর ক্ষেত্রে তাঁদের প্রথম পছন্দ কম বয়সি পুরুষরা। জীবনের এই মধ্যবর্তী বয়সে এসে মহিলারা খোঁজেন এমন কাউকে যিনি অভিজ্ঞতায় নয়, তাঁকে সমৃদ্ধ করবে উছ্বাস আর উন্মাদনায়। সঙ্গীর হাত ধরে আরও এক বার ফিরে যাওয়া যাবে ফেলে আসা মুহূর্তের আছে। এগুলি ছাড়াও আরও কতগুলি কারণ সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় উঠে এসছে।

আকর্ষণীয় দেহসৌষ্ঠব :

অল্পবয়সি পুরুষদের পেশিবহুলতা, সুদৃঢ় ব্যক্তিত্ব বয়সে বড় মহিলাদের আকর্ষণ করে বেশি। শারীরিক ঘনিষ্ঠতার ক্ষেত্রে বয়সে বড় নারীদের প্রথম পছন্দ কম বয়সিরা।

ভরপুর উদ্দীপনা :

যখন অসম বয়সি দুজন মানুষ শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হচ্ছেন, অভিজ্ঞ সঙ্গীর সামনে স্বাভাবিক ভাবেই নিজেকে প্রমাণ করার একটা অকপট চেষ্টা থাকে। সেটা প্রতিফলিত হয় অল্পবয়সির উদ্দীপনায়।

মন মতো গড়ে নেওয়ায় সুযোগ :

বয়সে বড় এবং অভিজ্ঞ হওয়ার সুবাদে কম বয়সি সঙ্গীকে সম্পর্কের টানাপোড়েন, চড়াই-উতরাই নিয়ে নিজের মতো শেখানো যায়। এমনকি শারীরিক আমোদের নানা কলা কৌশল শিখিয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকে। অধিকাংশ নারীরা যেটা পছন্দ করেন।

অহংকে বাড়িয়ে দেয় :

নিজের থেকে কম বয়সি পুরুষদের সঙ্গে সম্পর্কের ফলে নারীরা অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠেন। সে সম্পর্ক প্রেমের হোক বা শরীরী। নিজের সঞ্চিত অভিজ্ঞতার দ্বারা আরেক জন মানুষকে সমৃদ্ধ করতে পেরে পরিতৃপ্তি লাভ করেন নারীরা।

 


আরও খবর

মুখে স্বাদ ফেরাতে বানান মুরগির পুলি

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২

চাইনিজ সবজি রান্নার সহজ রেসিপি

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




পাবনায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পাবনা সদর উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক শিক্ষার্থীসহ তিন জন নিহত হয়েছেন। রবিবার (৯ জানুয়ারি) সকাল সাতটা থেকে সাড়ে সাতটার মধ্যে পৃথক দুর্ঘটনায় তারা নিহত হন।

সদর উপজেলার আতাইকুলায় ট্রাকের ধাক্কায় ভ্যানের চালকসহ দুই জন নিহত হন। আহত হয় আরেকজন। এছাড়া একই উপজেলার জোতআদম এলাকায় করিমনের চাপায় নিহত হন এক শিক্ষার্থী।

নিহতরা হলেন, সদর উপজেলার পুটিগাড়া গ্রামের মৃত তারন আলী বিশ্বসের ছেলে ভ্যানচালক রবিউল ইসলাম বিশ্বাস (৬৫), একইগ্রামের কফিল উদ্দিনের ছেলে আব্দুল মোমিন (৪৫) ও শ্রীকৃষ্টপুর গ্রামের আসাদুল ইসলামের ছেলে সাজ্জাদ হোসেন (১৮)।

মাধপুর হাইওয়ে পুলিশের ওসি আবুল কাশেম বলেন, সকাল সাড়ে সাতটার দিকে ভ্যানযোগে দুজন যাত্রী ধান ভাঙানোর জন্য মিলের দিকে যাচ্ছিলেন। তেলকুপি নামক স্থানে রাস্তার মাঝে হঠাৎ ভ্যানটি ভেঙে পড়ে। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ভ্যানকে চাপা দিয়ে রাস্তার পাশে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ভ্যানচালক রবিউল মারা যান। আহত অপর দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে মোমিনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। 

খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ ও পাবনা দমকল বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও ট্রাকটি জব্দ করে। ট্রাকের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে।

অপরদিকে, সকাল সাতটার দিকে পাবনা সদর উপজেলার দাপুনিয়া ইউনিয়নের জোতআদম এলাকায় শ্যালোইঞ্জিনচালিত করিমনের সঙ্গে সংঘর্ষে মোটরসাইকেল চালক সাজ্জাদ হোসেনের মৃত্যু হয়।

শহীদ রফিজ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক নুর মোহাম্মদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নিহত সাজ্জাদ মোটরসাইকেল নিয়ে টেবুনিয়ার দিকে যাচ্ছিলেন। পথে বিপরীতমুখী করিমনের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জোতআদম শহীদ রফিজ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবছর এসএসসি পাশ করেছেন সাজ্জাদ।


আরও খবর



সালমনর-এর সঙ্গে কাজ করে প্রকাশ্যে ক্ষোভ উগরে দিলেন আমির

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আন্দাজ আপনা আপনা ছবিতে তাঁদের রসায়নে বুঁদ হয়েছিলেন দর্শক। বলিউড পেয়েছিল নতুন জুটি। আমির খান এবং সলমন খান। কিন্তু জানেন কি, টাইগার-এর সঙ্গে প্রথম বারের কাজের অভিজ্ঞতা খুব একটা সুখকর হয়নি মিস্টার পারফেকশনিস্টের?

এক সাক্ষাৎকারে নিজের অসন্তোষের কথা জানিয়েছিলেন আমির স্বয়ং। ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছিলেন, সলমনের সঙ্গে আন্দাজ আপনা আপনা ছবিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা খুব খারাপ। তখন ওকে আমার একদমই ভাল লাগেনি। আমার ওকে খুবই রূঢ় এবং বিবেচনাহীন বলে মনে হয়েছিল। সলমনের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতার পর ওর থেকে দূরত্ব বজায় রাখতে চেয়েছিলাম।

সময়ের সঙ্গে সলমনের প্রতি আমিরের এই ধারণা বদলায়। ২০০২ সালে যখন আমিরের বিবাহ বিচ্ছেদ হচ্ছিল, তখন সলমন ছিলেন তাঁর পাশে। জীবনের সেই টালমাটাল পরিস্থিতিতে ভাইজান-এর সঙ্গে বন্ধুত্ব হয় আমিরের। তিনি বলেন, আমার জীবনের খুব খারাপ সময়ে সলমন বন্ধু হয়ে এসেছিল। আমার বিবাহ বিচ্ছেদ চলছিল তখন। আমরা দেখা করতাম, মদ্যপান করতাম। এ ভাবেই আমাদের বন্ধুত্ব শুরু। সময়ের সঙ্গে সেই বন্ধুত্ব আরও দৃঢ় হচ্ছে।

শোনা যাচ্ছে, আমিরের লাল সিং চড্ডা ছবিতে ক্যামিও চরিত্রে দেখা যাবে সলমনকে। পর্দায় ফের দুজনকে একসঙ্গে দেখার অপেক্ষায় অনুরাগীরা।


আরও খবর



শাওমি স্মার্টফোনে ৩ মিনিটেই ৫০ শতাংশ চার্জ!

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দ্রুততম চার্জিং প্রযুক্তির ওপর বর্তমানে একাধিক স্মার্টফোন সংস্থা কাজ করছে। ইনফিনিক্স তাদের ১৬০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি জনসমক্ষে এনেছে। শাওমিও গতবছর তাদের ২০০ ওয়াট হাইপারচার্জ ফাস্ট চার্জিং সিস্টেমের উপর থেকে পর্দা সরিয়েছে।

শাওমির এই দ্রুততম চার্জিং প্রযুক্তির মাধ্যমে ৮ মিনিটের মধ্যে ফোনের ৪ হাজার এমএএইচ ব্যাটারি শতভাগ চার্জ সম্পূর্ণ হয়, আর ৫০ শতাংশে যেতে মাত্র ৩ মিনিট এবং ১০ শতাংশ হতে মাত্র ৪৪ সেকেন্ড সময় নেয়।

নতুন এই চার্জিং প্রযুক্তি বাজারজাতের বিষয়ে প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে এখনো কিছু জানানো হয়নি। তবে পূর্বে প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে শাওমি ২০০ ওয়াট চার্জিং প্রযুক্তির উৎপাদন শুরু করবে।

তবে এখন এক জনপ্রিয় চীনা টিপস্টার দাবি করেছে, ২০০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তিকে শীঘ্রই বাণিজ্যিকীকরণ করা হবে।

টিপস্টার ডিজিট্যাল চ্যাট স্টেশন জানিয়েছে, শাওমি ও অপো এই দুই চীনা সংস্থা এই মুহুর্তে ২০০ ওয়াট চার্জিং সলিউশন নিয়ে পরীক্ষা করছে। আশা করা হচ্ছে, সংস্থাগুলো বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য ২০০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি বাজারে আনবে।

জানা যাচ্ছে, পূর্বে শাওমি তাদের ২০০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তিকে শাওমি এমআই ১১ প্রো ফোনের ওপর প্রদর্শন করেছিল। সেখানে এই দ্রুততম চার্জিং প্রযুক্তির মাধ্যমে ৮ মিনিটের মধ্যে ফোনের ৪ হাজার এমএএইচ ব্যাটারির ১০০ শতাংশ চার্জ সম্পূর্ণ হয়, আর ৫০ শতাংশে যেতে মাত্র ৩ মিনিট এবং ১০ শতাংশ হতে মাত্র ৪৪ সেকেন্ড সময় নেয়।

বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য এই ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তিটি কবে বাজারে আসবে, সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিতভাবে কিছু জানা যায়নি।


আরও খবর



করোনায় শনাক্ত বাড়ছে, মৃত্যু ২ জনের

প্রকাশিত:সোমবার ২০ ডিসেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় তার আগের ২৪ ঘণ্টার তুলনায় করোনায় নতুন শনাক্ত ও মৃত্যু বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ২৬০ জন। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ২১১ জন শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন দুই জন, গতকাল একজনের মৃত্যুর কথা জানানো হয়েছিল।

সোমবার (২০ ডিসেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, নতুন শনাক্ত হওয়া ২৬০ জনকে নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হলেন ১৫ লাখ ৮১ হাজার ৩৪৩ জন। মারা যাওয়া দুই জনকে নিয়ে মোট মৃত্যু হলো ২৮ হাজার ৫০ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২৩৬ জন। তাদের নিয়ে মোট ১৫ লাখ ৪৫ হাজার ৮০৭ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন বলে জানিয়েছে অধিদফতর।

গত ২৪ ঘণ্টায় রোগী শনাক্তের হার এক দশমিক ৩০ শতাংশ, গতকাল ছিল এক দশমিক ২২ শতাংশ। দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় রোগী শনাক্তের হার ১৪ দশমিক এক শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৭৫ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ২০ হাজার ১০৫টি, আর পরীক্ষা করা হয়েছে ১৯ হাজার ৯৫৫টি। দেশে এখন পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে এক কোটি ১২ লাখ ৮৬ হাজার ২৯টি। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৭৯ লাখ ৪২ হাজার ৩০৭টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৩ লাখ ৪৩ হাজার ৭২২টি।

অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া দুই জনই পুরুষ। তাদের নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মোট পুরুষ মারা গেলেন ১৭ হাজার ৯৪৫ জন আর নারী ১০ হাজার ১০৫ জন।

মারা যাওয়া দুই জনের বয়সই ৬১ থেকে ৭০ বছরের ভেতরে। তাদের মধ্যে একজন ঢাকা আর আরেকজন রংপুর বিভাগের। দুই জনই সরকারি হাসপাতালে মারা যান।


আরও খবর

দেশে মোট ৫৫ জনের দেহে ওমিক্রন শনাক্ত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




খালেদা জিয়াই দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা : মির্জা ফখরুল

প্রকাশিত:সোমবার ২০ ডিসেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

খালেদা জিয়াকে প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা দাবি করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, খালেদা জিয়াই হলেন দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা। তাকে বেআইনিভাবে আটকে রেখে সরকার স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিতে পরিণত হয়েছে।

আজ সোমবার রাজধানীর গুলিস্তানের মহানগর নাট্যমঞ্চে বিজয় দিবসের এক আলোচনা সভায় তিনি এই দাবি করেন। ফখরুল বলেন, বিজয় দিবস উদযাপন না করে ৫০ বছর পর পরাজয়ের গ্লানি বহন করতে হচ্ছে। বর্তমান অবৈধ সরকার বাকস্বাধীনতা, কথা বলা ও লেখার অধিকার কেড়ে নিয়েছে। জনগণের ভোটাধিকার নেই, গণতন্ত্র বিতাড়িত।

তিনি আরও বলেন, বিজয় দিবসের র‍্যালির মতো ভবিষ্যতে নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে থাকলে এই সরকার গদি ছেড়ে পালাতে বাধ্য হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংস করে বাকশাল প্রতিষ্ঠা করছে সরকার।

বিএনপির এই মহাসচিব বলেন, আমরা রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। জান-প্রাণ দিয়েছিলাম একটি নিরাপদ রাষ্ট্র পাবো বলে। কিন্তু এই সরকার বাকশালী রাষ্ট্র কায়েমের লক্ষ্যে জনগণকে জিম্মি করে ক্ষমতার বসে আছে।

নিউজ ট্যাগ: মির্জা ফখরুল

আরও খবর