Logo
শিরোনাম

মা হলেন কাজল

প্রকাশিত:বুধবার ২০ এপ্রিল ২০22 | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ১৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রথমবারের মতো মা হলেন দক্ষিণ ভারতীয় জনপ্রিয় অভিনেত্রী কাজল আগারওয়াল।  মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে অভিনেত্রী পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। মা ও ছেলে দুজনই এখন ভালো আছেন বলে জানিয়েছেন কাজলের বোন নিশা আগারওয়াল।

খবরটি ছড়িয়ে পড়ার পর সামাজিক মাধ্যমে কাজল-কিচলু শুভেচ্ছার বন্যায় ভাসছেন। ছোট্ট রাজপুত্রকে স্বাগত জানিয়েছেন কাজলভক্তরা। শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বলিউডের বেশ কয়েকজন তারকাও। তবে এখনও কাজল আগরওয়াল বা তার স্বামী এ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানাননি।

এর আগে, নতুন বছরের শুরুতেই ঘরে নতুন অতিথি আসছে, এমন সুখবর সবাইকে জানিয়েছিলেন কাজলের স্বামী গৌতম কিচলু। এপ্রিলে তার ঘর আলো করে এলো প্রথম সন্তান।

২০২০ সালের অক্টোবরে ইন্টেরিয়র ডিজাইনার গৌতম কিচলুর সঙ্গে ঘর বাঁধেন কাজল। সংসার জীবনের দুই বছরের মাথায় তারা দুই থেকে তিন হলেন।


আরও খবর



পোশাক রফতানিতে নগদ সহায়তা

মূল্যসংযোজন ২০ শতাংশ করে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রফতানিনির্ভর দেশের পোশাক শিল্পের বেশির ভাগ কাঁচামালই আমদানি করতে হয়। নিট পোশাকে এ নির্ভরতা কমে এলেও ওভেন পোশাকের বেশির ভাগ কাঁচামাল আসে বিদেশ থেকে। কিন্তু বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উত্তরণের পথে থাকায় শর্তে পরিবর্তন এনে নগদ সহায়তা পেতে ন্যূনতম মূল্যসংযোজনের হার নির্ধারণ করা হয় ৩০ শতাংশ। কিন্তু ব্যবসায়ীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সেটি পরিবর্তন করে সরকার। সে অনুযায়ী বস্ত্র খাতে বিদ্যমান হারে রফতানি প্রণোদনা বা নগদ সহায়তা দিতে স্থানীয় মূল্যসংযোজন ন্যূনতম ২০ শতাংশ করা হয়েছে। গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংকের মুদ্রানীতি বিভাগ এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

এর আগে বাণিজ্যমন্ত্রীর সম্মতি জানিয়ে মন্ত্রণালয়ের রফতানি-১ অধিশাখা থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর বরাবর একটি চিঠি পাঠানো হয়। পাশাপাশি চিঠিটি পাঠানো হয় অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব বরাবরও। চিঠিতে বলা হয়, তৈরি পোশাক খাতে মূল্যসংযোজনের হার ২০ শতাংশ ধরা হতো। ওভেন পোশাক খাতটি আমদানীকৃত কাঁচামালের ওপর নির্ভরশীল হওয়ায় অনেক ক্ষেত্রে ক্রেতার চাহিদা অনুযায়ী ৮০ শতাংশ কাঁচামাল আমদানি করতে হয়। ৩০ শতাংশ  দেশীয় মূল্যসংযোজনের শর্তারোপ করা হলে সব ক্ষেত্রে রফতানি প্রণোদনা পাওয়ার যোগ্যতা পূরণ করা সম্ভব হবে না। তাই আগের মতো ন্যূনতম ২০ শতাংশ মূল্যসংযোজন শর্ত নির্ধারণ করার লক্ষ্যে বিজিএমইএ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

চিঠিতে আরো বলা হয়, দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা প্রথা হঠাৎ করে পরিবর্তন করা হলে তা পলিসি প্রিডিক্টেবিলিটিকে (নীতি অনুমানযোগ্যতা) ক্ষতিগ্রস্ত করবে। মন্ত্রণালয়ের ওই চিঠির পর বাংলাদেশ ব্যাংক আবারো নতুন করে এ প্রজ্ঞাপন জারি করল।

জারি করা নতুন এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ২০২১-২২ অর্থবছরে জাহাজীকৃত রফতানি চালানের বিপরীতে দাখিলকৃত অনিষ্পন্ন আবেদনগুলোসহ এ সার্কুলার জারির তারিখ থেকে পরবর্তী সময়ে দাখিলযোগ্য আবেদনের ক্ষেত্রে আলোচ্য নির্দেশনা কার্যকর হবে। একই সঙ্গে বস্ত্র খাতে রফতানি প্রণোদনা/নগদ সহায়তা প্রদান সংশ্লিষ্ট সব এফই সার্কুলার/সার্কুলার পত্রের অন্যান্য প্রয়োজ্য নির্দেশনা অপরিবর্তিত থাকবে।

২০২১-২২ অর্থবছরের আগে পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলো ন্যূনতম ২০ শতাংশ মূল্যসংযোজন করলেই রফতানিতে নগদ সহায়তা পাওয়ার যোগ্য হতো। কিন্তু এ অর্থবছর শুরুর ঠিক আগমুহূর্তে শর্তে পরিবর্তন আসে। পরিবর্তিত শর্তে নগদ সহায়তা পেতে ন্যূনতম মূল্যসংযোজনের হার নির্ধারণ হয় ৩০ শতাংশ। তবে এ হার পরিবর্তন না করে পুরনো হার বজায় রাখতে অনুরোধ করেন দেশের শিল্পমালিকরা। যার পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি জানিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংককে চিঠি দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

এর আগে ২০২১ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের দেয়া এক সার্কুলারে মূল্যসংযোজনের হারে পরিবর্তন আসে। ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য জারি হওয়া ওই সার্কুলারে বলা হয়, রফতানির বিপরীতে প্রণোদনা/নগদ সহায়তাপ্রাপ্তির ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট রফতানির বিপরীতে ন্যূনতম ৩০ শতাংশ দেশীয় মূল্যসংযোজন থাকতে হবে।

নিউজ ট্যাগ: বাংলাদেশ ব্যাংক

আরও খবর



উখিয়ায় অভিযান, ২০৩ রোহিঙ্গা আটক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঈদুল ফিতর কেন্দ্র করে টেকনাফের উখিয়ায় ক্যাম্পে বসবাসকারী রোহিঙ্গাদের অবাধ বিচরণ বন্ধে সাঁড়াশি অভিযান চালায় দায়িত্বরত ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর তিনটা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ক্যাম্পের চেকপোস্ট থেকে ২০৩ রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ৮ এপিবিএন-এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গণমাধ্যম) মোঃ কামরান হোসেন।

তিনি জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে চলমান সাঁড়াশি অভিযানে ৮ এপিবিএন-এর ক্যাম্পসমূহের চেকপোস্ট সংলগ্ন বাইরের এলাকা এবং ক্যাম্প এলাকার বাইরে থেকে চেকপোস্ট দিয়ে ভেতরে অবাধে আসা-যাওয়া করার সময় ২০৩ রোহিঙ্গা সদস্যকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ক্যাম্প-ইন-চার্জদের (সিআইসি) মাধ্যমে মোবাইলকোর্ট পরিচালনা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারকরণ এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে রোহিঙ্গা সদস্যদের ক্যাম্প এলাকার বাইরে যাতায়াত রোধে এ সাড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ ধরনের অভিযান নিয়মিত পরিচালনা করা হলেও ঈদ উপলক্ষে তা জোরদার করা হয় যা চলমান থাকবে বলে তিনি জানান।

এর আগে ঈদ উপলক্ষে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ও আশপাশের এলাকায় ঘুরতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হয় ৪৪৩ রোহিঙ্গা। বুধবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এদিন আটককৃতদের কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়। পরে তাদের ক্যাম্প ভিত্তিক তালিকা তৈরি করে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনারের কাছে হস্তান্তর করার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম।

নিউজ ট্যাগ: রোহিঙ্গা আটক

আরও খবর



নাইজেরিয়ায় অবৈধ তেল শোধনাগারে বিস্ফোরণ, নিহত শতাধিক

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নাইজেরিয়ার রিভারস প্রদেশের একটি অবৈধ তেল শোধনাগারে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। শনিবার (২৩ এপ্রিল) স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তা এবং বেসরকারি একটি সংস্থা তেল শোধনাগারে এই প্রাণহানি ঘটেছে বলে জানিয়েছে।

রিভারস প্রদেশের পেট্রোলিয়াম সম্পদবিষয়ক কমিশনার গুডলাক ওপিয়াহ বলেছেন, ‌প্রদেশের একটি অবৈধ তেল শোধনাগার স্থাপনায় আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। এতে ১০০ জনের বেশি মানুষ মারা গেছেন। পুড়ে যাওয়ায় তাদের অনেকের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।

চরম বেকারত্ব এবং দারিদ্র্যের কারণে নাইজারিয়ায় অবৈধ তেল পরিশোধন আকর্ষণীয় ব্যবসায় পরিণত হয়েছে। তবে মাঝে মাঝেই এসব অবৈধ শোধনাগারে বিস্ফোরণ এবং অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

দেশটির প্রধান প্রধান বিভিন্ন তেল কোম্পানির পাইপলাইন থেকে তেল চুরির পর সেগুলো অবৈধ স্থাপনায় পরিশোধন করা হয়। বিপজ্জনক এই প্রক্রিয়ার কারণে অনেক সময় মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটে।

চোরাকারবারী অবৈধ এই তেল শোধন প্রক্রিয়ার ফেলে দেশটির একটি অঞ্চল ভয়াবহ দূষণের শিকার হয়েছে। ইতোমধ্যে ওই এলাকার কৃষিজমি, নদীনালা এবং এবং উপহ্রদও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।


আরও খবর



উত্তরে ঈদযাত্রায় নেই যানজট, স্বস্তি যাত্রীদের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাড়ীর চাপ থাকলেও সিরাজগঞ্জের বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কে নেই যানজট। ঈদের এই ব্যস্ত সময়ে মাত্র ৩ ঘন্টায় ঢাকা থেকে সিরাজগঞ্জ ফিরতে পেরে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন সাধারণ যাত্রীরা।

বৃহস্পতিবার ভোর থেকে ঈদে ঘরে ফেরা মানুষদের নিয়ে নির্বিগ্নে ছুটে যাচ্ছে উত্তর-দক্ষিণ অঞ্চলের ২২ জেলার গাড়ি। এই সড়কের ৩শ মিটার নলকা নব নির্মিত সেতুর দক্ষিণ পাশের এক লেন চালু করায় অনেকটাই কমে গেছে যানবাহনের দীর্ঘ জট। সড়কের ব্যবস্থাপনায় সন্তুষ্ট যাত্রীরা।

ঢাকার গাবতলী থেকে কড্ডার মোড় বাসে এসে নামেন সিরাজগঞ্জ শহরের আবুল হোসেন। তিনি জানান, মাত্র ৩ ঘন্টায় ঢাকা থেকে এলাকায় এসে পৌঁছেছি। এর চেয়ে আর স্বস্তির কিছু নেই। ভাড়াও তেমন বৃদ্ধি করা হয়নি। এরকমই যেন ঈদযাত্রা নির্বিগ্ন থাকে।

এদিকে, সিরাজগঞ্জের কড্ডা ট্রাফিক ফাঁড়ির ইনচার্জ শাহ মোঃ আবুল আলা মওদুদ জানান, বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম গোলচত্বর থেকে চান্দাইকোনা পর্যন্ত ৪০ কিলোমিটার মহসড়কে ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে জেলা পুলিশের ২৫টি ও ২০টি মোবাইল টিম কাজ করছে।

এবার মানুষের যাতায়াত নির্বিগ্ন হবে। তবে চালকদের সুশৃঙ্খল হয়ে স্ব-স্ব লেন ব্যবহার ও ওভারটেকিং না করে গাড়ী চালালে যানজট মুক্ত থাকবে বলে আশা ব্যক্ত করেন তিনি।


আরও খবর



চিংড়ির পাকোড়া তৈরির রেসিপি

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিকেলের নাস্তায় ঝটপট কিছু খেতে চাইলে তৈরি করতে পারেন চিংড়ি পাকোড়া। এটি রাখতে পারেন ঘরোয়া আড্ডায় কিংবা অতিথি আপ্যায়নে। ঝাল ঝাল এই পাকোড়া কিন্তু শিশুরাও খেতে পছন্দ করে। এটি তৈরির জন্য বাড়তি কিছুর প্রয়োজন পড়বে না, বাড়িতে থাকা নানা উপকরণে সহজেই তৈরি করতে পারবেন চিংড়ি পাকোড়া। চলুন জেনে নেওয়া যাক রেসিপি-

তৈরি করতে যা লাগবে: চিংড়ি কুচি- ১ কাপ, চিকেন কুচি- ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি- ১ কাপ, ডিম- ১টি, ময়দা- ১ কাপ, আদা বাটা- আধা চা চামচ, মরিচের গুঁড়া- আধা চা চামচ, জিরা বাটা- আধা চা চামচ, রসুন বাটা- আধা চা চামচ, লবণ- পরিমাণমতো, টেস্টিং সল্ট- স্বাদমতো, গোলমরিচের গুঁড়া- আধা চা চামচ, তেল- পরিমাণমতো।

যেভাবে তৈরি করবেন: একটি পাত্রে চিংড়ি কুচি, চিকেন কুচি, পেঁয়াজ কুচি, আদা বাটা, রসুন বাটা, মরিচের গুঁড়া, জিরা বাটা, লবণ, টেস্টিং সল্ট, গোলমরিচের গুঁড়া, ডিম ও ময়দা মাখিয়ে রেখে দিন আধা ঘণ্টার মতো। এরপর চুলায় ফ্রাইপ্যান বসিয়ে তাতে তেল দিয়ে গরম করে নিন। তেল গরম হলে তাতে মিশ্রণ থেকে পাকোড়া আকৃতিতে ছাড়ুন। সোনালি করে ভেজে তুলুন। পছন্দের সস বা চাটনি দিয়ে পরিবেশন করুন।

নিউজ ট্যাগ: চিংড়ি পাকোড়া

আরও খবর