Logo
শিরোনাম

মা যদি আত্মগোপন করেন তাকে এনে শাস্তি দিন: মরিয়ম

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩৮১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

খুলনার নিখোঁজ গৃহবধূ রহিমা বেগম উদ্ধারের পর মায়ের আত্মগোপনে মেয়ে জড়িত বলে প্রচার হওয়ার কথা জানিয়ে ফেসবুকে এক পোস্টে মরিয়ম মান্নান বলেন, মাকে খোঁজার কারণেই আমাকে এখন অপরাধী বানানোর চেষ্টা হচ্ছে। মায়ের আত্মগোপনে আমি জড়িত বলে বলা হচ্ছে। মা আমার, খুঁজবো তো আমিই। আমার কী তাহলে চুপ করে থাকা উচিত ছিল?

রবিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) ভোর রাত ৪টা ৮ মিনিটের দিকে মরিয়ম মান্নান তার ফেসবুক পোস্টে লিখেন, সন্তান তার মাকে খুঁজবে খুব স্বাভাবিক। আপনার মা হারিয়ে গেলে আপনিও খুঁজতেন। ফুলপুরের লাশ পর্যন্ত গিয়েছি মাকেই খুঁজতেই। ফুলপুর থানার ওসিকে আমি তাদের দেওয়া একটা বিজ্ঞাপনের মাধ্যমেই কল দেই। ওখানে যাই, ডিএনএ টেস্টের জন্য আবেদন করি। আমার মাকে আমি খুঁজেছি, সব জায়গায় যেয়ে একটা কথাই বলেছি আমার মাকে চাই। মা যদি আত্মগোপন করেন তাকে এনে শাস্তি দিন, তাও আমার মাকে আমার চোখের সামনে এনে দিন দয়া করে। আজকে মাকে পাওয়া গেছে, আমি মায়ের উদ্দেশে যাচ্ছি। মায়ের সাথে এখনও দেখা হয়নি, কথাও হয়নি। মায়ের কোনও ভিডিও অথবা অডিও পাইনি যেখানে মা বলেছেন তিনি আত্মগোপন করেছেন। সকলের কাছে গিয়েছি মাকে খুঁজে পেতে, যাদের কাছে গিয়েছি তারা জানেন কী চেয়েছি আমি। মাকে ছাড়া আর কিছু চাওয়া আমার ছিল না। এখনও নেই। দয়া করে মায়ের সাথে দেখা না হওয়া পর্যন্ত আমাকে ভুল বুঝবেন না। আমি মাকে খুঁজেছি, সন্তান হিসেবে আমার দায়িত্ব তাকে খোঁজা। মা এই তিরিশ দিন কোথায় ছিল, কীভাবে ছিল সেটা আপনাদের মতো আমারও প্রশ্ন। আমার মায়ের সাথে আমাকে কথা বলতে দিন। আমার মায়ের কাছে পৌঁছানো পর্যন্ত আমাকে সহযোগিতা করুন।মা যদি আত্মগোপন করেও থাকেন তবুও তাকে খোঁজার দায়িত্ব আমার।

তিনি পোস্টে লিখেন, আমি মাকে খুঁজতেছি বলে আমাকে বলা হচ্ছে মায়ের আত্মগোপনে আমি জড়িত? তাহলে আমার কী করা উচিত ছিল? যখন শুনেছি আমার মা নিখোঁজ, তখন চুপ করে বসে থাকা উচিত ছিল? যারা প্রথম দিন থেকে বলছিলেন মা আত্মগোপন করেছেন তাদের কথা শুনে মাকে আর খুঁজতাম না? মাকে খুঁজেছি বলে আমাকে দোষী করা হবে? আপনারা আমাকে যে যাই দোষ দিন না কেন, প্রথম দিন থেকে আমি ছুটেছি মায়ের জন্য। আজকে পেয়েও গেছি। বারবার বলেছি মা আত্মগোপন করলে সামনে আনুন, শাস্তি দিন, আমার কলিজা জুড়াক। আমার কলিজা শান্ত হয়েছে। মায়ের চেহারাটা দেখেই আমার শান্তি। আপনারা যে যাই বলেন, এখন আমার মা আমার সামনে। মাকে খুঁজে পাওয়ার লড়াই ছিল আমার। আপনারা সহযোগিতা করেছেন। আপনাদের সহযোগিতায় আজকে আমার মাকে খুঁজে পেয়েছি। প্রথম দিনের মতোই আজকেও আমার একটাই চাওয়া মাকে ছাড়া কিছুই চাই না। মাকে নিয়ে এই খুলনা শহর ছেড়ে দিবো, মাকে নিয়ে দূরে চলে যাবো। মাকে চাওয়া ছাড়া কিছুই চাওয়ার নাই। যে জায়গা নিয়ে মামলা সেই জায়গাও চাই না। শুধু মাকে চাই। মাকে আমার কাছে না পাওয়া পর্যন্ত আপনাদের সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। এবং আমি জানি একজন মাকে তার সন্তানদের কাছে ফিরিয়ে দিতে পৃথিবীর সকল মানুষ আমার পাশে থাকবেন। আমি খুশি, এক মুহূর্তের জন্যও বিচলিত নই। মাকে খুঁজতে যেয়ে যদি আমাকে দোষী হতে হয় আমি সেই দোষ মাথা পেতে নেওয়ার শক্তি এবং সাহস রাখি, ইনশাআল্লাহ।

নিউজ ট্যাগ: মরিয়ম মান্নান

আরও খবর



৪১তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ১৩ হাজার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

৪১তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ করেছে সরকারি কর্ম-কমিশন। এতে ১৩ হাজার চাকরিপ্রার্থী উত্তীর্ণ হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে পিএসসির ওয়েবসাইটে এক বিজ্ঞপ্তিতে এ ফল প্রকাশ করা হয়।

উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে শুরু হবে জানিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে- মৌখিক পরীক্ষার বিস্তারিত সময়সূচি যথাসময়ে সংবাদমাধ্যমে, ওয়েবসাইটে ও এসএমএসের মাধ্যমে জানানো হবে।

৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, শিক্ষা ক্যাডারে ৯১৫ জন এবং প্রশাসনে ৩২৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। এছাড়া পুলিশে ১০০ জন, স্বাস্থ্যে ১৪০ জন পররাষ্ট্রে ২৫ জন, আনসারে ২৩ জন, অর্থ মন্ত্রণালয়ে ১১৬ জন নিয়োগ দেওয়া হবে। বাকিরা অন্যান্য ক্যাডারে নিয়োগ পাবেন।

এর মধ্যে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগে পরিসংখ্যান কর্মকর্তা ১২ জন, রেলপথ মন্ত্রণালয়ে সহকারী যন্ত্র প্রকৌশলী ৪ জন, সহকারী ট্রাফিক সুপারিনটেনডেন্ট ১ জন, সহকারী সরঞ্জাম নিয়ন্ত্রক একজন, সহকারী প্রকৌশলী (সিভিল) ২০ জন, সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) হিসেবে ৩ জন, তথ্য মন্ত্রণালয়ে সহকারী পরিচালক বা তথ্য কর্মকর্তা বা গবেষণা কর্মকর্তা ২২ জন, সহকারী পরিচালক (অনুষ্ঠান) ১১ জন, সহকারী বার্তা নিয়ন্ত্রক ৫ জন, সহকারী বেতার প্রকৌশলী ৯ জন, স্থানীয় সরকার বিভাগে বিসিএস জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলে সহকারী প্রকৌশলী ৩৬ জন, সহকারী বন সংরক্ষক ২০ জন, সহকারী পোস্টমাস্টার জেনারেল পদে ২ জন, বিসিএস মৎস্যে ১৫ জন, পশুসম্পদে ৭৬ জন, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ১৮৩ জন, কৃষি বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ৬ জন, বিসিএস বাণিজ্যে সহকারী নিয়ন্ত্রক ৪ জন, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ৪ জন, বিসিএস খাদ্যে সহকারী খাদ্য নিয়ন্ত্রক ৬ জন ও সহকারী রক্ষণ প্রকৌশলী ২ জন, বিসিএস গণপূর্তে সহকারী প্রকৌশলী (সিভিল) ৩৬ জন ও সহকারী প্রকৌশলী (ই/এম) হিসেবে ১৫ জন কর্মকর্তাকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

২০২১ সালের ১৯ মার্চ আটটি বিভাগীয় শহরে একযোগে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা হয়, তাতে অংশ নিতে আবেদন করেছিলেন পৌঁনে পাঁচ লাখ প্রার্থী।গত বছরের ১ আগস্ট ২১ হাজার ৫৬ জনকে লিখিত পরীক্ষার জন্য যোগ্য ঘোষণা করে প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করে পিএসসি।

পরে ২৯ নভেম্বর থেকে ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৪১তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।এই বিসিএসের মাধ্যমে সাধারণ ক্যাডারে ৬৪২ জন, টেকনিক্যাল ক্যাডারে ৬১৯ জন ও সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে ৯০৫ জন সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়ার সুযোগ পাবেন।


আরও খবর



বিএনপির সমাবেশস্থল থেকে রুমিনের ফোন চুরি

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিএনপির কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানার মোবাইল ফোনসেট চুরি হয়ে গেছে। শুক্রবার রাত ৯টায় কুমিল্লা বিভাগীয় সমাবেশস্থল টাউন হল মাঠে যাওয়ার পর কোনো একসময় তার ব্যাগ থেকে মোবাইল ফোনটি চুরি যায়।

বিষয়টি অনুমান করতে পেরে রুমিন তার ব্যাগ খুলে দেখেন। তবে মোবাইল ফোন ছাড়া অন্য কিছু খোয়া যায়নি।

মোবাইল চুরির বিষয়টি রুমিন ফারহানা বিএনপি নেতা সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কুকে জানান।

সাক্কু বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনা জানতে পেরে আমি সেখানে হ্যান্ডমাইকে সবাইকে জানিয়ে দেই। কেউ যদি মোবাইল ফোনটি ফেরত দেন তাকে পুরস্কৃত করা হবে।’


আরও খবর



রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৪

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ১৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে ২৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। রোববার (৪ ডিসেম্বর) সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

ডিএমপি জানায়, নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে শনিবার ভোর ৬টা থেকে রোববার ভোর ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এ সময় গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে ৪৬০ পিস ইয়াবা, ২০ গ্রাম হেরোইন, ১৬ কেজি ৫১০ গ্রাম গাঁজা ও ২১০ লিটার দেশিমদ উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ১৮টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।


আরও খবর



ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে ঐতিহাসিক লকমা রাজবাড়ি

প্রকাশিত:বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জয়পুরহাটের পাঁচবিবির ঐতিহাসিক লকমা রাজবাড়ি ধীরে ধীরে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। এক দাপটশালী জমিদার হাদী মামুন চৌধুরীর প্রাসাদসম বিলাস-বহুল বাড়ি, হাতি-ঘোড়া, লোক-লস্কর, সৈন্য-সামন্ত আর বিশাল এলাকাজুড়ে ছিল রমরমা জমিদারি। জয়পুরহাটের পাঁচবিবি শহর থেকে ৮ কিলোমিটার পশ্চিমে একেবারে ভারত সীমান্তঘেঁষা লোকমা গ্রামে অবস্থিত প্রতাপশালী হাদী মামুন চৌধুরীর জমিদারের বাড়িটি, যার বয়স প্রায় ৫শ বছরের বেশি।

কালের বিবর্তনের সেই জমিদার নেই, তার রাজবাড়িও নেই। আছে শুধু তার ঐতিহাসিক সেই স্মৃতিটুকু। এখানে বেড়াতে আসেন নিদর্শন প্রেমী দেশ-বিদেশের পর্যটক আর দর্শনার্থীরা। এ ঐতিহাসিক রাজবাড়িটি রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে হয়েছে অপরাধী ও মাদকসেবীদের আনাগোনা।

জমিদার বাড়িটি নিজ মালিকানায় হলেও তার উত্তরসূরি, এলাকাবাসী, দর্শনার্থীরাও চান রাস্তাঘাট সহ রাজবাড়িটি দ্রুত সংস্কার করলে সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে ও দেশের পর্যটন শিল্প হিসাবে গড়ে উঠবে। এক সময় টিকিট কেটেই এ নিদর্শন দেখতে হত কিন্তু আজ অযত্ন অবহেলায় সংশ্লিষ্টদের মনিটরিং না থাকায় হারাতে বসেছে প্রাচীন এ রাজবাড়িটি।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে  প্রায় ১৫ বিঘা জমি আছে। উক্ত জমিতে বিভিন্ন শস্য উৎপাদনের পাশাপাশি ফল ও ফুলের বাগান দেখা যায়। স্থানীয় লোকজন জানান, দালান দুটির একটি ঘোড়াশাল এবং অপরটি হাতীশাল ছিল। তার একটু সামনে মাটির একটি ঢিবি রয়েছে যেখানে ইউ আকৃতির বহু পুরোনো দ্বিতল ভবনের অবস্থান।

জনশ্রুতি আছে যে, ভবনের কিছু অংশ মাটির নিচে ডেবে গেছে। লকমা রাজবাড়ির পূর্ব পার্শ্বে কবরস্থান ও কর্মচারীদের ঘর রয়েছে। কথিত আছে এই বংশের জমিদারগণ ছিলেন অত্যন্ত অত্যাচারী ও ভোগী প্রকৃতির। কোন একদিন গায়েব থেকে নির্দেশ জারি হয় আজ সূর্যাস্তের মধ্যে এই বাড়ি ছেড়ে দিতে হবে অন্যথায় সবকিছু ধ্বংস হয়ে যাবে। নির্দেশ অনুসারে সেদিন জমিদার বাড়ি থেকে সবাই বের হয়ে আসে। আর কেউ ঢুকতে পারেনি। আজও ওইভাবে পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে।

এ ব্যাপারে জয়পুরহাট ১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. সামছুল আলম দুদু বলেন, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরে রাজবাড়িটি তালিকাভুক্ত করেছে। রাস্তার বরাদ্দ দিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ রাজবাড়ি সংস্কার করলে পর্যটনকেন্দ্র হিসাবে গড়ে উঠবে।

নিউজ ট্যাগ: লকমা রাজবাড়ি

আরও খবর

পর্যটন মেলা শুরু হচ্ছে আজ

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২




শীতে যে ৭ খাবার উপকারী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শীত আসছে। এসময় অনেক তাজা শাক-সবজি পাওয়া যায় বাজারে। এসময় খাবারের বৈচিত্র্য বেশি থাকলেও খাবারের প্রতি আমাদের আগ্রহ অনেকটাই কমে যায়। মূলত দুটি কারণে এমনটা ঘটে। তিনবেলা পর্যাপ্ত সময় নিয়ে খাবার হজম করার জন্য দিন অনেকটাই ছোট। সেইসঙ্গে আরেকটি কারণ হলো কম নড়াচড়া করা। শীতের সময়ে আমরা একটু অলস সময় কাটাতেই পছন্দ করি। বিছানার উষ্ণতা ছেড়ে সহজে উঠতে চাই না। এক জায়গায় দীর্ঘ সময় বসে থাকার অভ্যাস আমাদের মেটাবলিজম প্রক্রিয়া ধীর করে দেয়।

কম হাঁটাচলার কারণে আমাদের বদ হজম, পেট ফাঁপা, প্রদাহ ও কখনো কখনো মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায়। শীতে এ ধরনের স্বাস্থ্য সমস্যা এড়াতে খাবারের তালিকায় রাখতে পারেন ভিটামিন বি৬ যুক্ত সাতটি খাবার। এই ভিটামিন কিছু খাবারে প্রাকৃতিকভাবেই পাওয়া যায় আবার চাইলে সাপ্লিমেন্ট হিসেবেও যোগ করা যায়। ভিটামিন বি৬ শরীরের অনেক সমস্যার সমাধানে কাজ করে। এটি মেজাজের উন্নতি করে, দূর করে ডিপ্রেশন। এটি শরীরকে ঠিক রাখতে কাজ করে। এই খাবারগুলোতে আপনি প্রয়োজনীয় ভিটামিন বি৬ পাবেন-

দুধ: ভিটামিন বি৬ এর অন্যতম ভালো উৎস হলো দুধ। তরল দুধ পান করতে পারেন অথবা প্রতিদিনের নাস্তার সঙ্গেও যোগ করতে পারেন। দুধের সঙ্গে ওটস বা কর্নফ্লেক্স মিশিয়ে খেতেও ভালোলাগবে। পুষ্টিকর এই খাবার সব বয়সীদের জন্যই উপকারী। বিশেষ করে বয়স্কদের খাবারের তালিকায় দুধ রাখার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। দুধ বা দুধ জাতীয় খাবার খেলে যদি কোনো ধরনের সমস্যা হয় তবে অবশ্যই বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে।

গাজর: ভিটামিন বি৬ সমৃদ্ধ গাজর শীতের মৌসুমে সবচেয়ে বেশি পাওয়া যায়। একটি মাঝারি মাপের গাজরে এক গ্লাস দুধের চেয়েও বেশি ভিটামিন ৬ থাকে। সেইসঙ্গে গাজরে থাকে প্রচুর ফাইবার ও ভিটামিন এ। তাই এসময় অসুখ-বিসুখ থেকে বাঁচতে নিয়মিত গাজর খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে।

কলা: ওজন কমানোর চেষ্টা করলে প্রতিদিন একটি করে কলা খাওয়ার অভ্যাস করুন। ভিটামিন বি৬ এর পাশাপাশি কলায় থাকে বিভিন্ন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ফাইবার। তাই শীতের এই সময়ে উপকারী একটি খাবার হতে পারে কলা।

পালং শাক: সবুজ পাতাযুক্ত এই শাকে আছে আয়রন, ফোলেট ও পটাশিয়াম। শীতের এই মৌসুমে উপকারী এই শাক আপনার প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখতে চেষ্টা করুন। এতে শরীর সুস্থ রাখা সহজ হবে।

মুরগির কলিজা: মুরগির কলিজা খেতে ভালোবাসেন অনেকেই। এই খাবার শীতের সময়ে আপনার জন্য আরও বেশি উপকারী হয়ে উঠবে। ভিটামিন বি৬ ছাড়াও এতে আছে প্রচুর ফোলেট ও আয়রন। এই খাবারের আছে অসংখ্য স্বাস্থ্য উপকারিতা।

ডিম: শীতের সময়ে ডিম খেলে তা কেবল আমাদের ভেতর থেকে উষ্ণই রাখে না, সেইসঙ্গে এটি অত্যন্ত স্বাস্থ্যকরও। ডিমের অমলেট কিংবা সেদ্ধ ডিম খেতে পারেন। প্রতিদিন একটি করে ডিম খেলে মিলবে অনেক রকম উপকারিতা। এটি সকালের নাস্তায়ও একটি ভালো খাবার হিসেবে কাজ করে।

মটরশুঁটি: শীতের সময়ের আরেকটি সহজলভ্য সবজি হলো মটরশুঁটি। মটরশুঁটিতেও থাকে প্রচুর ভিটামিন বি৬। এই সবজি খেলে পাওয়া যায় আরও অনেক উপকারিতা। সালাদের সঙ্গে রাখতে পারেন এটি। কিংবা আলু, গাজরের সঙ্গে ভেজেও পরিবেশন করা যায়। সেদ্ধ মটরশুঁটি আরও অনেক খাবার তৈরিতে ব্যবহার করতে পারেন।


আরও খবর

আপনার আজকের দিন- ৩০ নভেম্বর, ২০২২

বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২

আজকের রাশিফল!

মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২