Logo
শিরোনাম

মাঝ আকাশে শারীরিক সম্পর্ক, চাকরি গেল বিমান প্রশিক্ষকের

প্রকাশিত:বুধবার ২৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ১৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিমানের ‌স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা চালু করে মাঝ আকাশে ছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছিলেন এক বিমান প্রশিক্ষক। সে সময় ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের কিছু ছবি এবং ভিডিও তুলে রেখেছিলেন তারা। পরে সেগুলো প্রকাশ্যে আসতেই চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে ওই বিমান প্রশিক্ষক ও তার শিক্ষানবিশকে।

রাশিয়ার এক বিমান প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ঘটেছে এমন ঘটনা। ইন্ডিয়া টাইমস, আনন্দবাজার পত্রিকাসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়েছে, বিমানের ককপিটে শারীরিক সম্পর্কের ভিডিও সামনে আসার পর একজন রাশিয়ান পাইলট ও তার ছাত্রীকে বরখাস্ত করা হয়েছে। ঘটনার সময় ২৮ বছর বয়সী ওই প্রশিক্ষক তার ২১ বছর বয়সী ছাত্রীর সঙ্গে সেসনা ১৭২ বিমানে উড্ডয়ন করেছিলেন।

মস্কো থেকে ২৫০ মাইল দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত সাসোভো ফ্লাইট স্কুল অফ সিভিল এভিয়েশনে অতিরিক্ত সময় প্রশিক্ষণ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে শারীরিক সম্পর্কে উত্সাহিত করা হয় বলে অভিযোগ।

জিজ্ঞাসাবাদে শিক্ষানবিশ ওই ছাত্রী জানান, তাকে শারীরিকভাবে ঘনিষ্ঠ হওয়ার প্রস্তাব দেন বিমান প্রশিক্ষক। তিনি বিবাহিত হওয়ায় প্রথমে আপত্তি জানালেও পরে তাকে অতিরিক্ত সময় প্রশিক্ষণ দেওয়ার প্রলোভন দেখান তিনি (প্রশিক্ষক)। সেই প্রলোভনের ফাঁদে পা দিয়েই তিনি (ছাত্রী) তার প্রস্তাবে রাজি হন।

ঘনিষ্ঠ হওয়ার সময় তারা বিমানের অটোপাইলট মোড চালু করেছিলেন বলেও জিজ্ঞাসাবাদে জানান ওই ছাত্রী। পরে ঘটনাটি তিনি এক সহকর্মীকে জানান। এমনকি তাকে ছবি ও ভিডিওগুলোও দেখান। পরে সেই সহকর্মী ব্যক্তিগত কারণে প্রতিশোধ নিতে প্রমাণসহ এই কেলেঙ্কারির কথা প্রকাশ্যে আনেন বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।


আরও খবর



আজ পেশ করা হবে দেশের ৫১ তম বাজেট

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ১৩৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্ব অর্থনীতির অস্থির পরিস্থিতি ও মূল্যস্ফীতির মত চ্যালেঞ্জকে সামনে রেখে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল আজ (০৯ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকার জাতীয় বাজেট পেশ করবেন। এটি দেশের ৫১তম এবং আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের ২৩তম বাজেট।

অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল এমন সময়ে তার চতুর্থ বাজেট পেশ করতে যাচ্ছেন যখন বিশ্ব অর্থনীতি রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে অস্থির পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে এবং একইসাথে কোভিড-১৯ মহামারি থেকে অর্থনীতির পুনরুদ্ধার গতিও মন্থর।

এবারের বাজেটে প্রাধিকার পাবে দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠী। কোভিডের অভিঘাত পেরিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় প্রত্যাবর্তন শিরোনামের এবারের বাজেটি প্রস্তুত হয়েছে সরকারের অতীতের অর্জন এবং উদ্ভুত বর্তমান পরিস্থিতির সমন্বয়ে। এবারের বাজেটে সঙ্গত কারণেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, কৃষি খাত, স্বাস্থ্য, মানবসম্পদ, কর্মসংস্থান ও শিক্ষাসহ বেশ কিছু খাত।

বৈশ্বিক ঝুঁকি কাটিয়ে অর্থনীতির স্থিতিশীলতা রক্ষার পাশাপাশি মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রেখে জনজীবনে স্বস্তি ফেরানো এবারের বাজেটের প্রধানতম লক্ষ্য।

ইতিমধ্যে সরকার মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ ও বৈশ্বিক পরিস্থিতি মোকাবিলায় বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। প্রস্তাবিত বাজেটে সরকার মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ এবং মূল্যস্ফীতির নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা থাকবে ৫ দশমিক ৬ শতাংশ।

আগামী অর্থবছরের বাজেটে সরকারের আয়ের সম্ভাব্য লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৪ লাখ ৩৬ হাজার ২৭১ কোটি টাকা। ঘাটতি বাজেটের আকার ধরা হয়েছে ২ লাখ ৪১ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা।

প্রস্তাবিত বাজেটে কর বাবদ আয় ধরা হচ্ছে ৩ লাখ ৮৮ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের মাধ্যমে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ লাখ ৭০ হাজার কোটি টাকা। এছাড়া রাজস্ব বোর্ড বহির্ভূত কর থেকে আয় করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হচ্ছে ১৮ হাজার কোটি টাকা। আর কর ছাড়া আয় ধরা হয়েছে ৪৫ হাজার কোটি টাকা।

বাজেটের ঘাটতি পূরণে সরকারকে অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক উৎস থেকে ঋণ নিতে হবে। যে কারণে প্রস্তাবিত বাজেটে অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৩৩৫ কোটি টাকা। যেখানে বৈদেশিক উৎস থেকে ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা থাকবে ৯৫ হাজার ৪৫৮ কোটি টাকা।


আরও খবর



অভাব অনটনে কৃষকের আত্মহত্যা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৩০জন দেখেছেন

Image

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আর্থিক সংকটে পড়ে এক কৃষক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত কৃষকের নাম মো.হেলাল (৩৮) সে উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের ফজল হকের ছেলে। 

শুক্রবার (১ জুলাই) বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়নের ৪নম্বর ওয়ার্ড থেকে পুলিশ এ মরদেহ উদ্ধার করে। এর আগে, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে কোন এক সময়ে উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়নের ৪নম্বর ওয়ার্ডের হেলালের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

চরএলাহী ইউনিয়নের ৪নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো.বাহার উদ্দিন জানান, নিহত হেলাল দুই সন্তানের জনক। তিনি পেশায় একজন কৃষক ছিলেন। কিছু দিন আগে নদী ভাঙ্গনে তাঁর বাড়ি ঘর বিলীন হয়ে যায়। সে অভাব-অনটনে ছিল। কয়েক দিন তাঁর স্ত্রী দুই সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়িতে চলে যায়। চাষাবাদে বারবার ক্ষতি হওয়ায় ধার-দেনায় জড়িয়ে পড়েন তিনি। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তিনি নিজ বসত ঘরে একা ছিলেন। অভাব অনটনের এ চাপ সইতে না পেরে হেলাল নিজ বসত ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। শুক্রবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বাড়ির লোকজন তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রেজাউল ইসলাম বলেন, স্থানীয়দের ভাষ্যমতে অভাব অনটনে পড়ে ওই কৃষক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। 


আরও খবর



পদ্মা সেতুতে বাইকারদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতুতে যানবাহন চলাচলের প্রথম দিনে ব্যাপক বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই যুবকের মৃত্যু হয়। যার কারণে সোমবার থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করে সেতু বিভাগ। তবে নির্দেশনা উপেক্ষা করে বেশ কয়েকজন বাইকার জোর করে সেতু পার হওয়ার চেষ্টা করছেন। এমনকি সেতু পার হতে বিক্ষোভও করেছেন তারা। সোমবার (২৭ জুন) সকালে মাওয়া টোল প্লাজায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে টোল প্লাজার সামনে মোটরসাইকেল বাড়তে থাকে। পুলিশ তাদেরকে চলে যেতে বললেও কয়েকজন বাইকার জোর করে সেতু পার হওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় তারা বিক্ষোভ করে টোল প্লাজা বন্ধ করে দেয়। যদিও পুলিশের তৎপরতায় তাদের সরিয়ে দেওয়ার পর গাড়ি চলাচল করছে।

বাইকাররা বলছেন, সেতুতে মোটরসাইকেল বন্ধের নির্দেশনা তারা জানতে না। না জেনে এসে তারা আটকা পড়েছেন। তারমধ্যে ফেরিও বন্ধ। ফলে ওপারে যেতে পারছেন না তারা। তাদের দাবি, আমাদের টাকায় সেতু, আমরা যেতে পারবো না কেন? অনিয়ম করলে শাস্তি দিক, তাই বলে মোটরসাইকেল বন্ধের সিদ্ধান্ত অযৌক্তিক।

পুলিশ বলছে, ফেরি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে ফেরি চালুর ব্যবস্থা করেছেন তারা।

এদিকে পদ্মা সেতুর খুলে দেওয়ার প্রথম দিনে (রোববার) ব্যাপক বিশৃঙ্খলায় দেখা দেয়। নিয়ম ভেঙে সেতুতে ছবি তোলা, টিকটক বানানো, নাটবল্টু খোলা, মূত্র বিসর্জন, টোল প্লাজার ব্যারিয়ার ভাঙন ও মালামাল-যন্ত্রপাতি চুরির মতো নানান ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

সেতুতে এমন বিশৃঙ্খলা দেখে নড়েচড়ে বসে কর্তৃৃপক্ষ। নির্দেশনা দেওয়া হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত পদ্মা সেতুতে চলবে না মোটরসাইকেল। ছবি তুললে গুনতে হবে জরিমানা। নিয়ম মানাতে সোমবার ভোর ৬টা থেকেই সতর্ক অবস্থানে রয়েছে কর্তৃপক্ষ।


আরও খবর



বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৮২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট জাতীয় সংসদে পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার দিকে তিনি বাজেট পেশ শুরু করেন। এর আগে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেট উত্থাপনের জন্য অনুমোদন পেয়েছে। ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট পেশকে সামনে রেখে দুপুরে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠক হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদে ওই বৈঠকে প্রস্তাবিত বাজেট অনুমোদন পায়।

বৈশ্বিক ঝুঁকি কাটিয়ে অর্থনীতির স্থিতিশীলতা রক্ষার পাশাপাশি মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রেখে জনজীবনে স্বস্তি ফেরানো এবারের বাজেটের প্রধানতম লক্ষ্য। ইতোমধ্যে সরকার মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ ও বৈশ্বিক পরিস্থিতি মোকাবেলায় বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। প্রস্তাবিত বাজেটে সরকার মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ এবং মূল্যস্ফীতির নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা থাকবে ৫ দশমিক ৬ শতাংশ। এবারের দেশের ৫১তম এবং আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের ২৩তম বাজেট।


আরও খবর



মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হলে কোন খাবারগুলি এড়িয়ে চলবেন

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মাসের বেশ কয়েকটি দিন মাইগ্রেনের যন্ত্রণায় কাবু হয়ে পড়েন অনেকেই। কোনও কোনও মাসে দুতিন বার এমন যন্ত্রণা দেখা দেয় যে প্রাত্যহিক কাজ করাই দুষ্কর হয়ে ওঠে। মাথা ব্যথা খুবই সাধারণ একটি উপসর্গ। তবে কোন মাথা ব্যথা মাইগ্রেনের, আর কোনটা নয়, এটা বুঝতেই রোগীর অনেকটা সময় লেগে যায়।

মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হলে কোন খাবারগুলি এড়িয়ে চলবেন?

১) চকোলেট: চকোলেট মাইগ্রেনের ব্যথা বাড়িয়ে দিতে পারে। শুধু চকোলেট নয়, চকোলেট দিয়ে তৈরি কোনও পানীয়, মিষ্টি বা কোনও রকম মুখরোচক খাবার খেলেও ব্যথা মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে। চকোলেটে থাকা ক্যাফিন, ট্যানিন জাতীয় উপাদানের কারণে এমনটা হয়।

২) নুন জাতীয় খাবার: নুন আছে এমন খাবার মাইগ্রেনের ব্যথা বাড়িয়ে দিতে সক্ষম। সরাসরি নুন খাওয়া যেমন ক্ষতিকর, তেমনই নুনের পরিমাণ বেশি এমন খাবার খাওয়াও এই সময় এড়িয়ে চলুন। নুনে থাকা সোডিয়াম শুধু মাইগ্রেন নয়, উচ্চ রক্তচাপ, ক্লান্তি, মাইগ্রেন ছাড়া অন্য ধরনের মাথা ব্যথারও কারণ হতে পারে।

৩) অ্যালকোহল: মাইগ্রেন সমস্যার সবচেয়ে ক্ষতিকর জিনিস হল অ্যালকোহল-জাতীয় পানীয়। গবেষণা অনুসারে, ৩৫ শতাংশ মানুষ মাইগ্রেনের ব্যথায় ভোগেন মাত্রাতিরিক্ত মদ্যপানের ফলে। বিশেষত রেড ওয়াইন মাইগ্রেনের জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক একটি পানীয়।

৪) মিষ্টি: চিনি আছে এমন পানীয়, খাবার এবং মিষ্টি মাইগ্রেনের ব্যথায় একেবারেই এড়িয়ে চলুন। এই ধরনের খাবার মাইগ্রেনের ব্যথার অন্যতম কারণ হয়ে উঠতে পারে।

৫) কফি: অত্যধিক পরিমাণে কফি খাওয়ার প্রবণতা মাইগ্রেনের সমস্যাকে বাড়িয়ে দিতে পারে। আমেরিকান মাইগ্রেন ফাউন্ডেশন-অনুসারে, কফিতে থাকা ক্যাফিন মাথা ব্যথার নেপথ্য কারণ। দিনে মাত্রাতিরিক্ত হারে চা, কফি খেলে মারাত্মক আকার নিতে পারে মাইগ্রেনের সমস্যা।


আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

শনিবার ০২ জুলাই 2০২2