Logo
শিরোনাম

মামুনুল হককে নিয়ে যা বললেন কথিত সেই স্ত্রী’র ছেলে (ভিডিও)

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ১৫১২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

মামুনুল হক আমার মাকে কু-প্রস্তাব দেয়। তখন আমার মা তাকে বাধা দেয় পরে মামুনুল হক ফিরে আসে কিন্তু তার মধ্যে তখন থেকেই কাম ভাব জেগে ওঠে, সে লোভ সামলাতে পারছিলনা, সে সুযোগের অপেক্ষায় ছিল

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের কথিত সেই স্ত্রীর প্রথম ঘরের বড় ছেলে আব্দুর রহমান সম্প্রতি সোস্যাল মিডিয়ায় একটি বিবৃতি দিয়েছেন। ওই ভিডিও বক্তব্যে বলেছেন, আমার বাবা হাফেজ শহীদুল ইসলাম ওরফে শহীদুল্লাহ মামুনুল হককে নিজের প্রাণের চেয়েও ভালোবাসতো আর এই ভালোবাসার সুযোগ নিয়ে তিনি (মামুনুল হক) বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। কতবড় গাদ্দার হলে মামুনুল হক এটা করতে পাবে।

 

আমার বাবা-মায়ের মধ্যে যখন ডিভোর্স হয়নি তখন আমার বাবার অনুপস্থিতিতে মামুনুল হক একবার আমাদের বাসায় আসে, তখন আমার মা ছোট ভাইকে বুকের দুধ পান করাচ্ছিল। এই দৃশ্য দেখে মামুনুল হক আমার মাকে কু-প্রস্তাব দেয়। তখন আমার মা তাকে বাধা দেয় পরে মামুনুল হক ফিরে আসে কিন্তু তার মধ্যে তখন থেকেই কাম ভাব জেগে ওঠে, সে লোভ সামলাতে পারছিলনা, সে সুযোগের অপেক্ষায় ছিল।

 

কিন্তু সেই সুযোগ এত তারাতারি হয়ে যাবে তা মামুনুল হক বুঝতে পারে নি। যখনই সে সুযোগ পেয়েছে তখনই আমার বাবা-মায়ের মধ্যে দূরত্ব তৈরী করেছে। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হতেই পারে কিন্তু মামুনুল হক সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ভাঙন সৃষ্টি করেছে। এই ভাবে করে সে একটা পরিবারের খুশি-ভালোবাসা-আনন্দ-মিলমিশ পুরোপুরি ধ্বংস করে দিয়েছে। একই ভাবে মামুনুল হক যে কত পরিবারের-মানুষের সম্পর্ক ধ্বংস করেছে তার ঠিক নেই।

 

আমি বাংলাদেশের মানুষের কাছে আশা করবো এর যেন সঠিক বিচার হয়। আপনারা কারোর অন্ধ ভক্ত হয়েন না, কাউকে অন্ধ ভাবে বিশ্বাস করবেন না। কেননা সবারই মুখোশের আড়ালে একটা চেহারা থাকে। এই লোকটা আলেম নামধারী একটা মুখোশধারী জানোয়ার। এর মধ্যে কোন মনুষ্যত্ব নেই। সবসময় সুযোগের অপেক্ষায় থাকে কাকে কখন কিভাবে দূর্বল করা যাবে। 

 

প্রসঙ্গত, শনিবার (৩ এপ্রিল) বিকেল ৩টায় রয়াল রিসোর্টের ৫ম তালার ৫০১ নম্বর কক্ষে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে নারীসহ অবরুদ্ধ করে রাখে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।


আরও খবর



চিকিৎসা নিতে বিদেশ যাওয়ার পেছনে ঘাপলা আছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, দেশের সব শ্রেণি পেশার মানুষের জন্য সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার চেষ্ট করছে করছে সরকার। দেশে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক থেকে শুরু করে সার্জন সবকিছুই আছে। তারপরও ৮০ ভাগ রোগী বিদেশে চিকিৎসা নিতে যাচ্ছে। এর পেছনে কোনো নিশ্চিই কোন ঘাপলা আছে।

তিনি বলেন, ২০-৩০ বছর আগে চোখ, হার্টসহ দেশে কোনো ইনস্টিটিউট ছিল না, এখন অনেক হয়েছে। তারপরও আরও ভাল করতে হবে। কারণ, ভালো কাজে প্রতিযোগিতার কথা বলা হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে মেডিকেল অনকোলজি সোসাইটি ইন বাংলাদেশ আয়োজিত ঢাকা ক্যাসনার সামিট-২০২২ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, দুঃখজন বিষয় আমাদের চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নত হলেও প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ভারত, সিঙ্গাপুর ও ব্যাংককে চিকিৎসা নিতে যায়। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ বিমানে করে দিল্লি, মাদ্রাজ, সিঙ্গাপুর ও ব্যাংক যাচ্ছে। অনেকে পড়াশোনার জন্য যায় সেটা ঠিক আছে, কিন্তু বড় অংশ যাচ্ছে  চিকিৎসা নিতে। নিশ্চয়ই এর পেছনে কারণ রয়েছে।

তিনি বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিকে ২৫-৩০ ধরনের ওষুধ বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে। তবে যে কারণে এসব ক্লিনিক হয়েছে সেটি পূরণ না হওয়ার পেছনে কারণ রইছে। আমাদের আর্থসামাজিক পরিবর্তনের যে গতি এসেছে, ২০৪০-৪১ সালের দিকে উন্নতি দেশে পৌঁছানোর যে পরিকল্পনা তা বাস্তবায়নে সবাইকে পরিশ্রম করতে হবে। এ জন্য গ্রামাঞ্চলেও চিকিতসা ব্যবস্থায় জোর দিতে হবে। দেশের দুই-তৃতীয়াংশ মানুষই গ্রামে থাকে।

চিকিৎসকদের গবেষণায় জোর দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে এম এ মান্নান বলেন, আমাদের এখানে গবেষণা হচ্ছে না,যার কারণে প্রধানমন্ত্রীও অনেকটা ক্ষুব্ধ। চিকিৎসকদের অন্যতম প্রধান কাজ গবেষণা। এর জন্য অর্থের প্রয়োজন হলে সরকার তা দেবে।

অনুষ্ঠানে জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. স্বপন কুমার বন্দ্যোপাধ্যয় বলেন,

ক্যানসার অত্যন্ত ব্যয়বহুল চিকিৎসা। সাম্প্রতিক সময়ে এর প্রকোপ বেড়েছে। গ্রামাঞ্চলে মুখের ক্যানসারসহ নানা ক্যানসারের রোগী দেখা দিলেও উপজেলা পর্যায়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা নেই। ফলে বেশিরভাগ রোগীকে ঢাকামুখী হতে হয়। বিশেষ করে জাতীয় ক্যানসার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে আসেন। স্থানীয় পর্যায়ে স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা থাকলে এ রোগী কমানো সম্ভব।

এ সময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীর বলেন, বিশ্বজুড়েই ক্যানসার চিকিৎসা একটি বড় সমস্যা।শুধু বয়স্করা নয়, কম বয়সীরাও আক্রান্ত হচ্ছে। এ জন্য ডায়াগনোসিস বাড়ানোর বিকল্প নেই। আমাদের কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। ক্যানসার নির্ণয়ে ডায়াগনসিস সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দেশের সবচেয়ে বড় সংকট অবকাঠামো এখনো দুর্বল। কার্ডিয়াক অবস্থা অবস্থা অনেক ভাল। কিন্তু ক্যানসারে এখনো পিছিয়ে আমরা।আগামীতে ক্যানসার রোগী কোন পর্যায়ে যেতে এজন্য একটি রোডম্যাপ থাকা দরকার।


আরও খবর



মার্শাল আর্টে ‘ভেনম’ তারকা টম হার্ডির স্বর্ণ জয়

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা টম হার্ডি। বিশ্বজুড়ে আলোচিত সুপারহিরো ব্যাট-ম্যান সিরিজের দ্য ডার্ক নাইটস রাইজেস কিংবা ভেনম-এর মতো সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। পর্দায় টমকে যেরকম পেশিবহুল ও শক্তিশালী রূপে দেখা যায়, বাস্তবেও তিনি তেমনই। যার প্রমাণ মিলেছে সম্প্রতি এক মার্শাল আর্ট প্রতিযোগিতায়।

ব্রাজিলিয়ান জিউ-জিসু ওপেন চ্যাম্পিয়নসশিপ-২০২২-এ অংশ নিয়েছেন টম হার্ডি। এরপর সবাইকে হারিয়ে তিনি জিতে নিয়েছেন স্বর্ণপদক। সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের মিল্টন কেইনেসে অনুষ্ঠিত হয়েছে মার্শাল আর্টবিষয়ক এই আয়োজন।

হলিউড তারকা নয়, বরং একজন সাধারণ প্রতিযোগী হিসেবেই এতে অংশ নেন টম হার্ডি। তাকে দেখে সবাই অবাক হয়েছিলো, ছবি-অটোগ্রাফের জন্যও অনেকে ছুটে আসেন। সবকিছু সামলে স্বাভাবিকভাবেই লড়েছেন অভিনেতা। 

এ আয়োজনের একজন মুখপাত্র দ্য গার্ডিয়ানকে বলেছেন, সবাই তাকে সহজেই চিনতে পেরেছিলো। কিন্তু তিনি খুব নম্র ও আনন্দিত ছিলেন। হাসিখুশি মনে মানুষের সঙ্গে ছবিও তুলেছেন। তার মতো একজনকে প্রতিযোগী হিসেবে পেয়ে আমরা সত্যিই উচ্ছ্বসিত।

টুর্নামেন্টের সেমি-ফাইনালে খ্যাতিমান মার্শাল আর্ট প্রতিযোগী ড্যানি অ্যাপলবির সঙ্গে লড়েছিলেন টম হার্ডি। তাকে হারিয়েই ফাইনালে গিয়ে স্বর্ণ জেতেন অভিনেতা। টমকে নিয়ে অ্যাপলবির মন্তব্য, সত্যিকার অর্থেই তিনি একজন অসাধারণ মানুষ। আমি তো অবাক হয়ে গিয়েছিলাম তাকে দেখে। তিনি সত্যিই একজন শক্তিশালী মানুষ। আমি এ পর্যন্ত ছয়বার টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছি; এর মধ্যে তাকেই সবচেয়ে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বী মনে হয়েছে আমার। তিনি অবশ্যই বেন চরিত্রটি (দ্য ডার্ক নাইট রাইজেস-এর ভিলেন) নিজের মধ্যে ধারণ করেন, আমি নিশ্চিত।

জানা গেছে, এটাই মার্শাল আর্টে টম হার্ডির প্রথম অর্জন নয়। এর আগে গত আগস্ট মাসেই তিনি রেওর্গ ওপেন জিউ-জিসু চ্যাম্পিয়নসশিপ জিতেছিলেন।

এদিকে বর্তমানে টম হার্ডির হাতে রয়েছে ভেনম সিরিজের তৃতীয় সিনেমাটি। এখন এর চিত্রনাট্যের কাজ চলছে। এছাড়া তিনি হেভক নামের আরেকটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন, যেটা দেখা যাবে নেটফ্লিক্সে।


আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




কেন বিশ্বকাপ স্কয়াডে নেই মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ?

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অবশেষে টি-টোয়েন্টি দল থেকে বাদ পড়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তাকে ছাড়াই আসন্ন বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) ঘোষিত ১৫ সদস্যের দলে নেই তিনি।

কেন রিয়াদকে বাদ দেওয়া হলো এই ব্যাখ্যা দিয়েছেন নির্বাচকরা। সঙ্গে এটাও জানিয়েছেন, যতদিন অবসর না নেবেন ততদিন পর্যন্ত সুযোগ আছে রিয়াদের। তাকে বাদ দেওয়া নিয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেছেন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের প্রতি আমাদের পূর্ণ সম্মান আছে। অনেক ভালো ভালো ম্যাচ জিতিয়েছে।

আমাদের নতুন টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট এসেছে, ওরা একটা পরিকল্পনা আমাদের দিয়েছে। এবং আগামী এক বছরের জন্য যে পরিকল্পনাটা নিয়ে আমরা এগোচ্ছি, তা একটা আলাদা ডিরেকশনে হবে। টিম ম্যানেজম্যান্টের সবার সম্মতিক্রমেই রিয়াদকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

রিয়াদকে বাদ দিতে দেরি হলো কি না এমন প্রশ্নের জবাবে নান্নু বলেছেন, দেরি না। ব্যাক টু ব্যাক অনেকগুলো ম্যাচ আমরা খেলেছি। কিছু ক্রিকেটারের ইনজুরিও ছিল, যেটার জন্য আমরা যথেষ্ট ভুগেছি গত ছয় মাস। এই ভোগার জন্য অনেকগুলো ক্রিকেটারকে আবার ডাকা হয়েছে, অনেকভাবে দেখা হয়েছে। আমরা একটা সমস্যায় পড়েছি। এমনিতে আমরা এই ফরম্যাটে অনেক পিছিয়ে আছি, এটা নিয়ে কিন্তু বিস্তর আলোচনা হয়েছে। সবার সম্মতিক্রমে সব সিদ্ধান্ত এবার নেওয়া হয়েছে।


আরও খবর

হার দিয়ে সিরিজ শুরু বাংলাদেশের

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




আরও সুরক্ষিত হতে পারে ইন্টারনেট

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইন্টারনেটে যেকোনো অ্যাকাউন্টে লগ ইনের জন্য কোনো পাসওয়ার্ডের দরকার হবে না। টেকলজি সংস্থাগুলোর এমন দাবিতে অবাক হয়েছেন নেটিজেনরা।

ধারণা করা হচ্ছে পাসওয়ার্ড অবলুপ্ত হলে আরও সুরক্ষিত হতে পারে ইন্টারনেট। মেটাভার্স নিয়ে ইতোমধ্যে টেক দুনিয়ায় হৈ চৈ পরে গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ইন্টারনেটের অ্যাকাউন্ট যেমন হ্যাকারদের নজরে থাকে ঠিক তেমনই মেটাভার্সেও সাইবার হানা হবে। তাই মেটাভার্সকে আরও সুরক্ষিত করতেই এই প্রযুক্তি তৈরি করছে টেক সংস্থাগুলো।

পাসওয়ার্ড মুক্ত ভবিষ্যতের জন্য ইতোমধ্যে গবেষণার কাজ শুরু করেছে অ্যাপল, গুগল ও স্যামসাংয়ের মতো কোম্পানিগুলো। এই সংস্থাগুলো ইতোমধ্যে নিজেদের বায়োমেট্রিক অথেনটিকেশন ফিচার নিয়ে এসেছে। আঙুলের ছাপ, ফেস আনলকের মাধ্যমে লগ ইন করা যাচ্ছে বিভিন্ন সার্ভিসে।

মেটাভার্সে লগ ইনের জন্য পাসওয়ার্ডের প্রয়োজন হবে না। পরিচয় নিশ্চিত করতে সেখানে বায়োমেট্রিক অথেনটিকেশন ব্যবহার হবে। সাইবার সুরক্ষা বিশেষজ্ঞদের মতে মেটাভার্সের ভবিষ্যৎ হবে পাসওয়ার্ডমুক্ত। মেটাভার্সে বায়োমেট্রিক অথেনটিকেশন শুরু হলে ভুয়া অ্যাকাউন্টের লাগাম টানা যাবে। বায়োমেট্রিক অথেনটিকেশন শুরু হলে কোনো রোবট সেই প্ল্যাটফর্মে প্রবেশ করতে পারবে না। পরিচয় নিশ্চিত করলে তবেই মেটাভার্সে প্রবেশ করা যাবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। বিশেষজ্ঞদের মতে, ধীরে ধীরে পাসওয়ার্ড বিলুপ্ত হয়ে যাবে। টিকে থাকবে শুধুমাত্র বায়োমেট্রিক অথেনটিকেশন।

নিউজ ট্যাগ: পাসওয়ার্ড

আরও খবর



জামালপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ২৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জামালপুরের বকশীগঞ্জে উপজেলা যুবলীগের সদস্য সচিব আব্দুল আলিম তারা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় জামালপুর-দেওয়ানগঞ্জ সড়কে ইসলামপুর উপজেলার মোশারফগঞ্জ পেট্রোল পাম্পের সামনে বিপরীত দিক থেকে আসা আরেকটি মোটরসাইকেলের মুখামুখি সংর্ঘষে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুল আলিম তারা বকশীগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সদস্য সচিব ছিলেন।

ইসলামপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আকরাম হোসেন জানান, নিহত আব্দুল আলিম তারা ইসলামপুরে উপজেলার মোশারফগঞ্জ এলাকায় একটি পেট্রোল পাম্প থেকে তেল নিয়ে হাইওয়ে রাস্তার ওপর উঠার সঙ্গে সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা  আরেকটি মোটরসাইকেল তাকে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল পরে অবস্থার অবনতি হলে ময়মনসিংহ স্থানান্তর করা হয়। ময়মনসিংহ নিয়ে যাওয়ার পথে নান্দিনা এলাকা তার মৃত্যু হয়।

অপর মোটরসাইকেল আরোহীরা তারার মৃত্যুর সংবাদ শুনেই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর