Logo
শিরোনাম

মানিকগঞ্জে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অ্যাম্বুলেন্স খাদে, দুইজন নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ১২৮০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হেমায়েতপুর-মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের মিতরা এলাকার কালীবাড়ী মোড় নামক স্থানে একটি যাত্রীবাহী অ্যাম্বুলেন্স নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের জলাশয়ে পড়ে যায়। এতে অ্যাম্বুলেন্সের দুই যাত্রী পানিতে ডুবে মারা যায়।

ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছেন, গতকাল শুক্রবার রাতে গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে পাঁচজন যাত্রী নিয়ে ফরিপুরের উদ্দেশে ছেড়ে আসা অ্যাম্বুলেন্সটি রাত ৩টার দিকে মিতরা এলাকার কালীবাড়ী মোড়ে আসা মাত্র নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের জলাশয়ে ডুবে যায়। দুর্ঘটনার সময় গাড়িটিতে চালক ও হেলপারসহ মোট সাতজন আরোহী ছিল। তাদের মধ্যে পাঁচজন বেরিয়ে আসতে পারলেও পেছনের সিটে থাকা দুই যাত্রী গাড়ির ভেতরে আটকা পড়ে পানিতে ডুবে মারা যায়।

দুর্ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তার পাশের বাড়ির থেকে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সকে খবরটি জানালে উদ্ধারকারী একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে পানির নিচে ডুবে থাকা গাড়ির ভেতর থেকে আটকে পড়া দুই যাত্রীকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া অ্যাম্বুলেন্সের একজন যাত্রী জানিয়েছেন, গাড়ির মধ্যে ড্রাইভার হেলপারসহ মোট সাতজন ছিলাম। গাড়িটি হঠাৎ রাস্তা থেকে পাশের জলাশয়ে পড়ে যায়।


আরও খবর



ডিসেম্বরের শুরুতে ঘূর্ণিঝড় 'জাওয়াদ' আঘাত হানার শঙ্কা

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বঙ্গোপসাগরের আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের কাছে একটি লঘুচাপ সৃষ্টির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে এটি নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদে পরিণত হতে পারে। নামটি দিয়েছেন সৌদি আরবের আবহাওয়াবিদরা।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টির মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। লঘুচাপটি নিম্নচাপে পরিণত হলে আকাশে মেঘের পরিমাণ বাড়তে পারে। নিম্নচাপটি ৩ থেকে ৪ ডিসেম্বরের মধ্যে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদে রূপ নিতে পারে। এটি ভারতের ওড়িষা উপকূলের দিকে যেতে পারে। এর প্রভাব পড়তে পারে দেশের খুলনা ও সাতক্ষীরা অঞ্চলে। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, ৪ দিন ধরে তাপমাত্রা দ্রুত কমতে শুরু করলেও আগামী দুই দিনের মধ্যে তাপমাত্রা আবার কিছুটা বাড়তে পারে।

এদিকে রাজধানীসহ দেশের বেশিরভাগ এলাকায় শীত বেড়েছে।শনিবার ভোর থেকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে তাপমাত্রা শৈত্যপ্রবাহের কাছাকাছি চলে যায়। তবে আগামী দুএক দিনের মধ্যে এ চিত্র পরিবর্তন হতে পারে।

অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা ধারণা করছি- লঘুচাপটি সৃষ্টি হওয়ার পর তা দ্রুত ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। তবে সেটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে কিনা, তা শতভাগ নিশ্চিত হতে আরও দুএক দিন লাগবে। এখন পর্যন্ত পাওয়া পূর্বাভাস বলছে, ভারতের ওড়িষা উপকূলে এই ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানার সম্ভাবনা বেশি।


আরও খবর

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে হাড় কাঁপাবে শীত

বৃহস্পতিবার ১৮ নভেম্বর ২০২১




রোমান্টিক লুকে সিয়াম-পূজা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সিয়াম আহমেদ ও পূজার চেরি জুটির নতুন ছবি ‌শান আসছে আগামী বছরের জানুয়ারিতে। গতকাল সোমবার ছবির দ্বিতীয় অফিসিয়াল পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে। এতে রোমান্টিক লুকে দেখা গেছে সিয়াম-পূজাকে।

পোস্টার পোস্ট করে পূজা লিখেছেন, ‌মানব পাচারকারীর রক্ত দিয়ে খেলি হোলি, গাই আমি উল্লাসের গান। মানব পাচারকারী রুখি খড়গ হস্তে আমি নিভয়, নির্ভীক আমি শান

পুলিশ অ্যাকশন থ্রিলার ছবিটি মুক্তি পাবে আগামী বছরের ৭ জানুয়ারি। ছবিটি পরিবেশনার দায়িত্বে আছে জাজ মাল্টিমিডিয়া ।

এম রাহিম পরিচালিত ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন তাসকিন, চম্পা, অরুণা বিশ্বাস, হাসান ইমাম, মিশা সওদাগর, নাদের চৌধুরী, ডন, আরমান পারভেজ মুরাদ ও আরো অনেকে।

 

নিউজ ট্যাগ: সিয়াম-পূজা

আরও খবর



সড়ক দুর্ঘটনায় কুষ্টিয়ায় স্কুলছাত্রী নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৩৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় তোয়া খাতুন (১১) নামের এক স্কুল শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কের তালবাড়িয়া ইউনিয়নের রানাখড়িয়া শিমুলতলা বালুঘাট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত তোয়া খাতুন পাবনা জেলার সদর উপজেলার দৌগাছি ইউনিয়নের কুড়ুনিয়া গ্রামের মোকাররম মুন্সির মেয়ে। তালবাড়িয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) শ্যামা প্রসাদ রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সকালে মোকাররম মুন্সি, তার স্ত্রী ও মেয়ে তোয়াকে নিয়ে মোটরসাইকেলে পাবনা থেকে কুষ্টিয়ায় এক আত্মীয়ের বাড়ি যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে বালুঘাট এলাকায় পৌঁছালে মোটরসাইকেল থেকে পড়ে যায় তোয়া। এসময় পেছন থেকে আসা একটি ট্রাক তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়।


আরও খবর



‘বৈশ্বিক মানবতার স্বার্থে দৃঢ় অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার আহ্বান’

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১ | ৫৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বর্তমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে বৈশ্বিক মানবতার অভিন্ন স্বার্থে দৃঢ় অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জাতিসংঘ সংস্থার ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ইউনেস্কো সদরদপ্তরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার সহিষ্ণুতা ও মর্যাদা সঞ্চারিত করার মাধ্যমে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিচ্ছে। তিনি বলেন, এ লক্ষ্যে আমরা শিক্ষা, বিজ্ঞান, সংস্কৃতি এবং যোগাযোগকে কার্যকর হাতিয়ার হিসাবে বেছে নিয়েছি।

ইউনেস্কোর মহাপরিচালক অড্রে আজোলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আমাদের সাফল্য উদযাপনের এক অনন্য মুহূর্ত। এছাড়াও এটি শতবর্ষ উদযাপনের আগে পরবর্তী ২৫ বছরে সংস্থার কার্যকলাপগুলোকে পুনর্বিবেচনা এবং আত্মসমালোচনা করার একটি গুরুত্বপূর্ণ উপলক্ষ।

তিনি বলেন, ইউনেস্কোর নীতির প্রতি বাংলাদেশের অঙ্গীকার ১৯৭২ সালে আমাদের প্রাথমিক সদস্যপদ লাভের মাধ্যমে প্রতিফলিত। শেখ হাসিনা আরও বলেন, আমরা এই সংগঠনকে বিশ্ব শান্তি ও সম্মিলিত সমৃদ্ধি জোরদারের জন্য অন্যতম কার্যকর মঞ্চ হিসেবে বিবেচনা করি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শান্তি-কেন্দ্রিক পররাষ্ট্রনীতি দ্বারা পরিচালিত বাংলাদেশ সর্বদা বিশ্ব শান্তি উদ্যোগের অগ্রভাগে থাকে। তিনি বলেন, শীর্ষ অবদানকারী হিসেবে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষায় আমাদের অংশগ্রহণ এমনই একটি ঘটনা।

শেখ হাসিনা বলেন, বৃত্তি প্রদান, লিঙ্গ-সংবেদনশীল দৃষ্টিভঙ্গি, স্কুল ফিডিং প্রোগ্রাম, আইসিটি শিক্ষার মতো পদক্ষেপের মাধ্যমে শিক্ষায় আমাদের বিনিয়োগ প্রচুর। তিনি বলেন, তার সরকার স্কুলে বছরের শুরুতে প্রায় ৪ কোটি ২০ লাখ শিক্ষার্থীর মধ্যে বিনামূল্যে ৪০ কোটি পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ মহাপরিকল্পনা আইসিটি ভিত্তিক শিক্ষার মাধ্যমে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য প্রস্তুত করছে। আমরা আমাদের শিক্ষা মহাপরিকল্পনায় আইসিটি চালু করেছি, এর আওতায় প্রায় ৮৩ হাজার স্কুলকে আইসিটি ডিভাইস সরবরাহ করা হয়েছে এবং ৩ লাখ ২৬ হাজার ৯শ ৩৬ জন শিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

ইউনেস্কোর এই ঐতিহাসিক ৭৫তম বার্ষিকীতে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইউনেস্কোর মহাপরিচালককে অভিনন্দন জানান।

তিনি বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইউনেস্কো বিশ্বের জন্য আশা ও শান্তির প্রতীক হয়ে উঠেছে। শেখ হাসিনা বলেন, তার পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন শান্তির প্রবক্তা এবং মানবতায় দৃঢ় বিশ্বাসী।

তিনি বলেন, মানুষের অদম্য কর্মস্পৃহা, অসম্ভবকে সম্ভব করার ও অনতিক্রম্য বাধা অতিক্রম করার ক্ষমতায় তার (বঙ্গবন্ধুর) গভীর আস্থা ইউনেস্কোর চেতনা অনুরণিত করে।

মহামারী বহু মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে এবং আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এটি আমাদেরকে উদ্ভাবনী কাজ এবং গতির মাধ্যমে বেঁচে থাকতেও শিখিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী মহামারী থেকে পুনরুদ্ধারের পথে থাকা বিশ্বের সামনে চারটি পরামর্শ তুলে ধরেন।

পরামর্শ তুলে ধরে তিনি বলেন, আসুন আমাদের বিশ্ব মানবতার অভিন্ন কল্যাণের জন্য দৃঢ় অংশীদারিত্ব গড়ে তুলতে এই মুহূর্তটি কাজে লাগাই।

প্রধানমন্ত্রী তার প্রথম পরামর্শে মহামারী আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থাকে মারাত্মকভাবে ব্যাহত করেছে উল্লেখ করে বলেন, পুনরুদ্ধারের জন্য, ডিজিটাল সরঞ্জাম ও পরিষেবা, ইন্টারনেট অ্যাক্সেস, ডিজিটাল বিষয়বস্তু এবং শিক্ষকদের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে বিনিয়োগ করে শিক্ষাকে অগ্রাধিকার দিতে আমাদের একটি বৈশ্বিক পরিকল্পনা দরকার।’ তিনি বলেন, দ্বিতীয়ত, যে প্রযুক্তি-সহায়ক অর্থপূর্ণ শিক্ষার পরিবেশ তৈরির জন্য অবশ্যই সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব গড়তে হবে।

তৃতীয় পরামর্শে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনকে অবশ্যই একটি বৈশ্বিক গণপণ্য হিসাবে বিবেচনা করা উচিত বলে উল্লেখ করে বলেন, আমাদের অবশ্যই সবার কাছে, বিশেষ করে, বিশ্বব্যাপী ছাত্র ও শিক্ষকদের কাছে টিকা লাভের সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে।

চতুর্থ ও শেষ পরামর্শে তিনি বলেন, আমাদের জনগণের কল্যাণের জন্য প্রযুক্তি স্থানান্তরকে গুরুত্ব দিয়ে বিজ্ঞান ও বৈজ্ঞানিক গবেষণার সুবিধাকে কাজে লাগাতে হবে।


আরও খবর



হাতি হত্যা বন্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

প্রকাশিত:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
বন্য হাতির চলাচলের জায়গায় মানুষজন বাড়ি-ঘর বানাচ্ছে। এতে হাতির চলাচলের বিঘ্ন ঘটায় হাতি সেগুলো ভাঙচুর করে। অন্যদিকে মানুষ বন্য হাতিকে বিভিন্নভাবে হত্যা করছে

হাতি হত্যা বন্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। জনস্বার্থে আনা এক রিটের শুনানি নিয়ে আজ সোমবার (২২ নভেম্বর) বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

একইসঙ্গে আদালত হাতি হত্যা বন্ধে জনসচেতনতা বাড়াতে তথ্য মন্ত্রণালয়কে পদক্ষেপ নিতে বলেছেন। পাশাপাশি রুলও জারি করেছেন আদালত। রুলে বন্যপ্রাণি (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন ২০১২ অনুসারে ১২টি এলিফ্যান্ট করিডোরকে সংরক্ষিত করিডোর হিসেবে ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না এবং হাতি হত্যা বন্ধে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তাকে কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। পরিবেশ সচিব, তথ্য সচিব, আইন সচিব, বন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট ২১ জনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

রিট আবেদনের পক্ষে আইনজীবী খান খালিদ আদনান সাংবাদিকদের আদালতের আদেশের বিষয়টি জানান। তিনি আরো বলেন, বন অধিদপ্তর থেকে জরিপ করে বন্য হাতি চলাচলের জন্য ১২টি করিডোর নির্ধারণ করেছে। কিন্তু ওই সব করিডোর এখনও বন্যপ্রাণি (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন ২০১২ অনুসারে সংরক্ষিত এলাকা ঘোষণা করা হয়নি। যে কারণে বন্য হাতির চলাচলের জায়গায় মানুষজন বাড়ি-ঘর বানাচ্ছে। এতে হাতির চলাচলের বিঘ্ন ঘটায় হাতি সেগুলো ভাঙচুর করে। অন্যদিকে মানুষ বন্য হাতিকে বিভিন্নভাবে হত্যা করছে। এভাবেই হাতি ও মানুষের মধ্যে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়।

গতকাল রবিবার চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বন্য হাতি হত্যা বন্ধে নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন ওয়াইল্ড লাইফ অ্যাক্টিভিস্ট আদনান আজাদ, ফারজানা ইয়াসমিন ও খান ফাতিম হাসান হাইকোর্টে রিট করেন।

নিউজ ট্যাগ: হাতি হত্যা

আরও খবর