Logo
শিরোনাম

মোবাইল চুরি করে আর পার পাবে না চোর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ২১৭জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মোবাইল চুরি করে আর পার পাবে না চোর। দেশের যে কোন জায়গায় চুরি যাওয়া মোবাইলের অবস্থান শনাক্ত করা যাবে নিমিষেই। আর এই অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন সাইদুর রহমান নামে এক প্রযুক্তি উদ্যোক্তা। নিজের মোবাইল চুরি হওয়ার আক্ষেপ থেকে মোবাইল অ্যাপ 'থিফ গার্ড' বানিয়ে ফেলেছেন তিনি। অ্যাপটি ব্যবহারে বছরে গ্রাহককে দিতে হবে ৩৫০ টাকা। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরাও বলছেন, অ্যাপটির ফিচারগুলো আন্তর্জাতিক মানের। শিগগিরই বাজারে আসছে অ্যাপটি।

রাস্তায় চলতে চলতে হুট করে আপনার অ্যান্ড্রয়েট মোবাইল ফোনটি চুরি হয়ে গেল। সাথে খোয়া গেল নিত্যসঙ্গী মোবাইলের সব ব্যক্তিগত তথ্য। এমন পরিস্থিতিতে আপনি কি করবেন? আইনি ব্যবস্থা নিয়ে হন্যে হয়ে খুঁজতে খুঁজতে হয়তো এক সময় মোবাইল ফিরে পাবার আশাই ছেড়ে দিলেন।

কিন্তু নিজের জীবনে এমন ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাধান খুঁজতে গিয়ে সাইদুর রহমান নামে এক উদ্যোক্তা কয়েকজনকে সাথে নিয়ে তৈরি করে ফেললেন থিফ গার্ড নামে মোবাইল অ্যাপ।

সফটালোজির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাইদুর রহমান বলেন, আমরা ওই ফোনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল। সেটা আমাকে খুবই কষ্ট দিয়েছে।

১৩ টি ফিচারের এই অ্যাপ বাজারে আনছে আইটি কোম্পানি সফটালোজি। থিফগার্ড ডট কম থেকে ডাউনলোড করে শুরুতে ইউজার নাম, মোবাইল নম্বর, ইমেইল, পাসওয়ার্ড দিয়ে অ্যাপ চালু করতে হবে। যে কেউ আপনার মোবাইলে ভুল পাসওয়ার্ড দিতে চাইলেই বেজে উঠবে অ্যালার্ম। চাইলেই কেউ সিম খুলতে বা মোবাইল বন্ধ করতে পারবে না। উল্টো মোবাইল ফোনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ছবি ও লোকেশন পাঠিয়ে দিবে আপনার ইমেইলে।

সফটালজির পরিচালক জাকির হোসেন বলেন, এটি এখন পরীক্ষামূলক পর্যায়ে। আশা করি, সব ধরনের সমস্যা অতিক্রম করে আমরা এগিয়ে যেতে পারবো।

প্রথমিকভাবে অ্যান্ড্রয়েট ৭ থেকে ১২ ভার্সনে কাজ করবে অ্যাপটি। ধীরে ধীরে আইফোনে ব্যবহার উপযোগী করতে চান উদ্যোক্তারা। এ জন্য কাজ করছে একটি টিম। ব্যবহারকারীদের সমস্যা সমাধানে রয়েছে কল সেন্টার।

Share

মঙ্গলে পোঁছাল নাসার রোবট যান

শুক্রবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১

বাজারে আসছে স্মার্ট গ্লাস

শনিবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১




আজ অভিজিৎ হত্যা মামলার রায়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৪৮জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায়কে ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি এলাকায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পাশে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে জখম করে

বিজ্ঞান লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ হত্যা মামলার রায় ঘোষণা আজ মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি)। দুপক্ষের যুক্ততর্ক শুনানি শেষে গত বৃহস্পতিবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার এ দিন ধার্য করেন।

গত বুধবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর গোলাম ছারোয়ার খান জাকির যুক্তিতর্ক শেষ করেন। ওইদিন আসামিপক্ষ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু করলেও তা শেষ হয়নি। তাই গত বৃহস্পতিবার অসমাপ্ত যুক্তিতর্কের জন্য দিন রেখেছিলেন আদালত। যুক্ততর্ক শুনানি শেষে আজ মঙ্গলবার রায় ঘোষণা করবেন আদালত।

এ মামলার আসামিরা হলেন- বরখাস্ত হওয়া মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক, আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে শাহাব, মোজাম্মেল হোসেন ওরফে সাইমুম, আরাফাত রহমান ওরফে সিয়াম, শফিউর রহমান ফারাবী, আকরাম হোসেন ওরফে আবির ওরফে আদনান। এদের মধ্যে মেজর জিয়া ও আকরাম পলাতক। তাই তারা আত্মপক্ষ সমর্থন করে বক্তব্য রাখতে পারেননি।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায়কে ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি এলাকায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পাশে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে জখম করে। আহতাবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ২৭ ফেব্রুয়ারি অভিজিতের বাবা বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অজয় রায় শাহবাগ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

২০১৯ সালের ১৩ মার্চ আদালতে এ মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। এরপর একই বছর ১ আগস্ট অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর নির্দেশ দেন আদালত। এরপর থেকে রাষ্ট্রপক্ষে ৩৪ সাক্ষীর মধ্যে মোট ২৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

Share

মাদক মামলায় পারভিনের ১০টি বই পড়ার দণ্ড

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার এক আসামি গ্রেফতার

মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১




প্রতারণা মামলায় সানি লিওন

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৬১জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সাবেক নীল ছবির তারকা ও বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওন। তার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে মামলা হয়েছে। দুটি অনুষ্ঠানের জন্য ২৯ লাখ রুপি নিয়েও সেখানে যাননি সানি লিওন।

এ অভিযোগ তুলেছেন কেরল নিবাসী আর শিয়াস। কোচি পুলিশের কাছে অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার মামলা দায়ের করেছেন তিনি। শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) কোচি পুলিশ সানি লিওনের বয়ান রেকর্ড করেছে।

তবে সানি লিওন কী বলেছেন তা জানানো হয়নি। কোচির অপরাধ দমন শাখার সূত্র মারফত খবর, তিরুবনন্তপুরমে স্প্লিটসভিলা’ রিয়্যালিটি শোয়ের শুটিং করছেন সানি লিওন। সেখানেই দেখা করতে যান অপরাধ দমন শাখার একটি দল। সেখানে তার বয়ান রেকর্ড করা হয়।

এদিকে প্রথমে রাজ্য পুলিশের সাধারণ শাখায় অভিযোগ দায়ের করেন আর শিয়াস। পরে তা পাঠিয়ে দেওয়া হয় অপরাধ দমন শাখার কাছে। তার অভিযোগপত্রে লেখা হয়েছিল, সানি লিওন ২৯ লাখ রুপি নিয়ে ফেরত দেননি। আর যে দু’টি অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা ছিল, তাতে উপস্থিতও হননি।

নিউজ ট্যাগ: সানি লিওন
Share

নুসরাতকে নিখিলের ডিভোর্সের নোটিশ পাঠালেন

মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১




ভয়াবহ তুষারঝড়ে যুক্তরাষ্ট্রে নিহত ২১

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৫০জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ তুষারঝড়ে বেশ কয়েকটি রাজ্যে অন্তত ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে টেক্সাসে অগ্নিকাণ্ডে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, তুষারঝড়ে টেক্সাস, লুইজিয়ানা, কেন্টাকি ও মিসৌরিতে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

এই শীতকালীন ঝড়ের পর লাখ লাখ টেক্সাসবাসী বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে। প্রাণঘাতী এই টর্নেডো মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে রীতিমতো তাণ্ডব চালায়।

ভয়াবহ এই ঝড়ে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় করোনা টিকা সরবরাহ এবং টিকাদান কর্মসূচি স্থগিত হয়ে গেছে। এই সপ্তাহান্তের আগে এই সেবাগুলো পুনরায় চালু করা সম্ভব হবে না।

তীব্র ঝড়ের পর টেক্সাস বিদ্যুৎহীন হয়ে যাওয়ার পর রাজ্যের কর্মকর্তারা ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে। কারণ সেখানকার জ্বালানি গ্রিড বারবার ফেইল করে। তীব্র ঠাণ্ডায় পশ্চিম টেক্সাসে বড় বায়ুচালিত টারবাইনগুলো থেমে গেছে। এর ফলে বৃদ্ধি পাওয়া বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে পারছে না বিদ্যুৎ কোম্পানিগুলো।

এদিকে ঘরের ভেতর গ্রিল বা প্রোপেন হিটার ব্যবহার না করতে বাসিন্দাদের সতর্ক করে দিয়েছে দক্ষিণ টেক্সাসের কর্মকর্তারা। বরফে জমে থাকা ঘরবাড়িকে গরম করতে এসব সামগ্রী ব্যবহারের পর মানুষজন কার্বন মনোক্সাইড বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে বলেও জানাচ্ছে তারা।

অন্যদিকে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যগুলোকে যেকোনো সহায়তা করতে কেন্দ্রীয় সরকার প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। হোয়াইট হাউজ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যগুলোর গভর্নরদের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট।

নিউজ ট্যাগ: তুষারঝড়
Share

মোদি সবচেয়ে বড় দাঙ্গাবাজ: মমতা

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

তিন কারাগারে দাঙ্গায় ৬২ জন নিহত

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

চিরকুট লিখে হোটেলে এমপির ‘আত্মহত্যা’

মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১




দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের দুই ধাপ অবনতি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৩১জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্বের সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের দুই ধাপ অবনতি হয়েছে। গত বছর ১৪তম অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ এবার নেমে গেছে ১২তম স্থানে।

তবে, বার্লিনভিত্তিক আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের (টিআই) প্রকাশ করা ২০২০ সালের দুর্নীতির ধারণা সূচকে (সিপিআই) বাংলাদেশের প্রাপ্ত স্কোরের অবস্থান অপরিবর্তিত রয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) জানায়, সিপিআই ২০২০ অনুযায়ী বাংলাদেশের স্কোর ২৬; যা আগের দুই বছরেও একই ছিল।

টিআই ১৮০ দেশ নিয়ে এ সূচক তৈরি করেছে বলে বার্তা সংস্থা ইউএনবির এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

তালিকায় সর্বনিম্ন থেকে গণনা অনুযায়ী ১৮০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ১২তম অবস্থানে রয়েছে যা সিপিআই ২০১৯-এর তুলনায় দুই ধাপ পিছিয়েছে এবং সর্বোচ্চ থেকে গণনা অনুযায়ী ১৪৬তম যা গত বছরের তুলনায় অপরিবর্তিত রয়েছে।

এ বছর একই স্কোর পেয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে তালিকায় নিম্নক্রম অনুযায়ী ১২তম অবস্থানে সম্মিলিতভাবে আরো রয়েছে উজবেকিস্তান ও মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র।

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ আগের বছরের মতো এবারও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ রয়ে গেছে। এ ক্ষেত্রে ১৯ স্কোর নিয়ে প্রথমে আছে আফগানিস্তান।

টিআইবি জানায়, সিপিআই ২০২০ অনুযায়ী বৈশ্বিক গড় স্কোর ১০০-এর মধ্যে পাওয়া গেছে ৪৩। সেই বিবেচনায় বাংলাদেশের স্কোর ২৬ হাওয়ায় দুর্নীতির ব্যাপকতা এখনো উদ্বেগজনক বলে প্রতীয়মান হয়।

দুর্নীতির ব্যাপকতা ও গভীরতার কারণে বাংলাদেশ দুর্নীতিগ্রস্ত বা বাংলাদেশের অধিবাসীরা সবাই দুর্নীতি করে এ ধরনের ভুল ব্যাখ্যা প্রদান করা হয়। যদিও দুর্নীতি বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও দারিদ্র্য দূরীকরণ, সর্বোপরি টেসকই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের পথে কঠিনতম অন্তরায়, তথাপি দেশের আপামর জনগণ দুর্নীতিগ্রস্ত নয়। তারা দুর্নীতির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ও ভুক্তভোগী মাত্র। ক্ষমতাবানদের দুর্নীতি ও তা প্রতিরোধে ব্যর্থতার কারণে দেশ বা জনগণকে কোনোভাবেই দুর্নীতিগ্রস্ত বলা যাবে না, উল্লেখ করে টিআইবি।

এবারের সিপিআই অনুযায়ী ৮৮ স্কোর পেয়ে যৌথভাবে সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে ডেনমার্ক ও নিউজিল্যান্ড। তারপর ৮৫ স্কোর পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ফিনল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, সুইডেন ও সুইজারল্যান্ড এবং ৮৪ স্কোর নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে নরওয়ে।

আর সর্বনিম্ন ১২ স্কোর পেয়ে তালিকার সর্বনিম্নে অবস্থান করছে দক্ষিণ সুদান ও সোমালিয়া। আর ১৪ স্কোর নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে সিরিয়া এবং ১৫ স্কোর পেয়ে তৃতীয় সর্বনিম্নে আছে ইয়েমেন ও ভেনেজুয়েলা।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ ভুটান। এ দেশটির স্কোর ৬৮ এবং সর্বোচ্চ থেকে গণনা অনুযায়ী সূচকে অবস্থান ২৪ যা গত বছরের সমান স্কোর হলেও অবস্থানে এক ধাপ এগিয়েছে। এর পরের অবস্থানে বড় ধরনের অগ্রগতি করে ৪৩ স্কোর নিয়ে ৭৫তম স্থানে রয়েছে মালদ্বীপ। গতবার দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ভারত তিন নম্বরে নেমে গেছে। তাদের স্কোর ৪০ এবং বৈশ্বিক অবস্থান ৮৬। শ্রীলঙ্কা ৩৮ স্কোর পেয়ে আছে ৯৪তম অবস্থানে। তারপরে থাকা নেপাল ৩৩ স্কোর নিয়ে আছে ১১৭তম এবং পাকিস্তান ৩১ স্কোর পেয়ে ১২৪তম অবস্থানে রয়েছে।

এরপর ১৪৬তম অবস্থানে বাংলাদেশ এবং ১৯ স্কোর পেয়ে ১৬৫তম স্থানে আছে আফগানিস্তান। অর্থাৎ, সর্বনিম্ন থেকে গণনা অনুযায়ী আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ায় যথাক্রমে প্রথম ও দ্বিতীয় সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছে। বাংলাদেশ সিপিআই সূচক অনুযায়ী, ২০১২ সাল থেকে দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর মধ্যে অষ্টমবারের মতো এবারও দ্বিতীয় সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছে।

Share

করোনা টিকা নিলেন শেখ রেহানা

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১




মালয়েশিয়ায় লকডাউন বাড়লো আরো দুই সপ্তাহ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২1 | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনা মোকাবিলায় আরও কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে মালয়েশিয়া। ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হচ্ছে লকডাউন। মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) এ তথ্য জানান দেশটির সিনিয়র মন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব।

এর আগে ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (এমসিও) বা লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। এতেও করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না আসায় আবারও লকডাউন বাড়াল দেশটির সরকার। করোনা নিয়ন্ত্রণে এবার কঠোরভাবে লকডাউন কার্যকরী করবে বলেও জানানো হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

সিনিয়র মন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য মতে, করোনা সংক্রমণ আরো বেড়ে গেছে। এ পরিস্থিতিতে এমসিও বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সারওয়াক রাজ্য বাদে সারা দেশে এমসিও বলবৎ থাকবে বলে ঘোষণা দেন মন্ত্রী। জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলও এ বিষয়ে একমত পোষণ করেছে বলে জানান তিনি।

চলমান এ লকডাউনে জনগণকে একেবারেই নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপনে বাধ্য করা হবে। রাস্তায় রাস্তায় রোড ব্লক বসানো হয়েছে। বিনা কারণে বাইরে বের না হওয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

মঙ্গলবার দেশটিতে ৩ হাজার ৪৫৫ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে এবং মারা গেছেন ২১ জন।

Share

মোদি সবচেয়ে বড় দাঙ্গাবাজ: মমতা

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

তিন কারাগারে দাঙ্গায় ৬২ জন নিহত

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

চিরকুট লিখে হোটেলে এমপির ‘আত্মহত্যা’

মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১