Logo
শিরোনাম

মসজিদে ওয়াক্ত ও তারাবি নামাজের জামাতে সর্বোচ্চ ২০ জন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ১৩০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস মহামারি নতুন আকার ধারণ করায় যথাযথ সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে মসজিদে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ এবং রমজানে তারাবির নামাজে সর্বোচ্চ ২০ জন মুসল্লি অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

চলমান পরিস্থিতিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশে সোমবার (১২ এপ্রিল) এ নির্দেশনা জারি করে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাপী প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ভয়াবহ মহামারি আকার ধারণ করায় যথাযথ সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বর্তমান পরিস্থিতিতে ১৪ এপ্রিল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত মসজিদে নামাজ আদায়ে নিম্নোক্ত নির্দেশনা জারি করা হলো:

ক. মসজিদে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের প্রতি ওয়াক্তে সর্বোচ্চ ২০ জন মুসল্লি অংশগ্রহণ করবেন।

খ. তারাবির নামাজে খতিব, ইমাম, হাফেজ, মুয়াজ্জিন ও খাদিমসহ সর্বোচ্চ ২০ জন মুসল্লি অংশগ্রহণ করবেন।

গ. জুমার নামাজে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে মুসল্লিরা অংশগ্রহণ করবেন।

ঘ. সম্মানিত মুসল্লিদের পবিত্র রমজানে তিলাওয়াত ও জিকিরের মাধ্যমে মহান আল্লাহর রহমত ও বিপদ মুক্তির জন্য দোয়া করার অনুরোধ করা হলো।

স্থানীয় প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সংশ্লিষ্ট মসজিদের পরিচালনা কমিটিকে উল্লিখিত নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।


আরও খবর



বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ৩২ লাখ ৫৫ হাজার ছাড়িয়েছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ কোটি ১০ লাখ ৭০ হাজার ৮৫২ জন এবং মারা গেছেন ২ লাখ ৩০ হাজার

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কোনোভাবেই কমছে না। সবশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ কোটি ৫৮ লাখ ১৭ হাজার ১৬০ জন। আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২ লাখ ৫৫ হাজার ১৬২ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ১৩ কোটি ৩২ লাখ ১৪ হাজার ৭৭৪ জন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে বৃহস্পতিবার (৬ মে) সকালে এই তথ্য জানা গেছে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৩ লাখ ২১ হাজার ২৪৪ জন আর ৫ লাখ ৯৩ হাজার ১৪৮ জন মারা গেছেন।

করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ কোটি ১০ লাখ ৭০ হাজার ৮৫২ জন এবং মারা গেছেন ২ লাখ ৩০ হাজার ১৫১ জন। লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগী ১ কোটি ৪৯ লাখ ৩৬ হাজার ৪৬৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ১৪ হাজার ৬৪৫ জনের।

দেশে করোনাভাইরাসের আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। এখন পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১১ হাজার ৭৫৫ জনে। এছাড়াও এখন পর্যন্ত দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা ৭ লাখ ৬৭ হাজার ৩৩৮ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।


আরও খবর



খালেদা জিয়াকে রাতে হাসপাতালে নেওয়া হবে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে দ্বিতীয়বারের মতো আবারো সিটি স্ক্যান করার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হবে।

বিএনপির একটি সূত্র জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাত ৮টায় তাকে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হবে। খালেদা জিয়ার নিরাপত্তার জন্য ইতিমধ্যে পুলিশ কমিশনারকে বিএনপির পক্ষ থেকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসকরা জানান, বেগম জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। আগের থেকে ভালো আছেন। কোভিডের ডেঞ্জার পিরিয়ড পার হয়ে গেছে। তিনি আশংঙ্কামুক্ত।

করোনা আক্রান্ত হওয়ার ১৪ দিন পর গত শনিবার দুপুরে নমুনা নেওয়া হয় বেগম জিয়ার। দ্বিতীয় টেস্টের ওই রিপোর্টেও তার করোনা পজিটিভ আসে।

এর আগে গত ১৫ এপ্রিল রাতে বাড়তি সতর্কতার জন্য রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে বেগম জিয়ার সিটি স্ক্যান করা হয়। পরে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন জানিয়েছিলেন, সিটি স্ক্যানে যেটি ধরা পড়েছে, অত্যন্ত মিনিমাম, সত্যিকার অর্থে মাইল্ড পর্যায়েও পড়ে না।  সিটি স্ক্যানের ফাইনাল রিপোর্ট দেখে আগের ব্যবস্থাপত্রের সাথে শুধু নতুন একটি ওষুধ যুক্ত করা হয়।

গত ১১ এপ্রিল বেগম খালেদা জিয়া করোনা পজিটিভ হন। এরপরে দ্রুত বক্ষব্যাধি ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এফএম সিদ্দিকীরে নেতৃত্বে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সমন্বয়ে মেডিকেল টিম গঠন করা হয়। তাদের তত্ত্বাবধানে গুলশানের বাসা ফিরোজায় তার চিকিৎসা শুরু হয়।


আরও খবর



ভারতে চার দিন ধরে চার লাখ করে মানুষ করোনায় আক্রান্ত

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৩ হাজার ৭৩৮ জন। দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও ৪ হাজারের বেশি। তবে শনিবারের তুলনায় তা সামান্য কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৯২ জনের

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে নাস্তানাবুদ দেশ প্রতিবেশী ভারতে একদিনে আবারও ৪ লাখের বেশি মানুষ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে পর পর ৪ দিন আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ছাড়িয়ে যাচ্ছে।

রবিবার দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৩ হাজার ৭৩৮ জন। দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও ৪ হাজারের বেশি। তবে শনিবারের তুলনায় তা সামান্য কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৯২ জনের।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রবিবার (৯ মে) পর্যন্ত ভারতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ২২ লাখ ৯৬ হাজার ৪১৪ জন। এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৪২ হাজার ৩৬২ জনের। দেশে কোভিড সংক্রমণের হার প্রতিদিন বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এই সংক্রমণের হার ২১.৬৪ শতাংশ। এখনও পর্যন্ত দেশে মোট সংক্রমণের হার ৭.৩৮ শতাংশ।

তবে আক্রান্তের সঙ্গে সঙ্গে সুস্থতার সংখ্যাও বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৪৪৪ জন। এখনও পর্যন্ত মোট ১ কোটি ৮৩ লক্ষ ১৭ হাজার ৪০৪ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। অর্থাৎ এই মুহূর্তে দেশে মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৩৭ লাখ ৩৬ হাজার ৬৪৮ জন।


আরও খবর



কক্সবাজারে পুলিশের ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সেবা চালু

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
অসচ্ছল করোনা রোগী অথবা করোনা উপসর্গ আছে এমন ব্যক্তিকে হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়ার জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডারযুক্ত ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সেবা চালু করা হয়েছে। করোনা আক্রান্ত রোগী বা স্বজনেরা পুলিশ

শ্রমজীবী, শারীরিক প্রতিবন্ধী ও দুঃস্থ নারী-পুরুষের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে কক্সবাজার জেলা পুলিশ। শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান এই উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন। এর পাশাপাশি ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সেবা চালু করেছে তারা।

পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান বলেন, অসচ্ছল করোনা রোগী অথবা করোনা উপসর্গ আছে এমন ব্যক্তিকে হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়ার জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডারযুক্ত ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সেবা চালু করা হয়েছে। করোনা আক্রান্ত রোগী বা স্বজনেরা পুলিশ কন্ট্রোল রুমের ০১৩২০১০৯৩৯৪ ও ০৩৪১-৬৪০৪৮ নাম্বারে ফোন দিলে তাৎক্ষণিক পৌঁছে যাবে ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স। এই সেবা কক্সবাজার জেলা পর্যন্ত সীমাবদ্ধ থাকবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) পঙ্কজ বড়ুয়া, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মুনীর-উল-গীয়াস ও জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী।


আরও খবর

মালয়েশিয়াগামী ৩০ রোহিঙ্গা উদ্ধার

মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল ২০২১




মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসী কর্মীদের বৈধতা দেয়ার ঘোষণা

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মালয়েশিয়ায় নতুন করে সেবা খাতের আরও চারটি উপ শাখায় অবৈধ অভিবাসী কর্মীদের বৈধতা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। সরকারের এমন সিদ্ধান্তে খুশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হামজাহ জয়নুদিন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

অবৈধ অভিবাসী শ্রমিকদের বৈধতা দিতে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ ছাড়াই গত বছরের ১৬ নভেম্বর রিক্যালিব্রেশন লেবাররিক্যালিব্রেশন রিটার্ন নামে দুটি পরিকল্পনা হাতে নেয় মালয়েশিয়া সরকার। একটি অবৈধ অভিবাসী শ্রমিকদের বৈধভাবে কাজের নিয়োগ এবং অপরটি নিজ দেশে স্বেচ্ছায় ফেরত যাওয়া। আর প্রকল্প দুটি চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

তবে অবৈধ কর্মীদের শুধুমাত্র নির্মাণ, উৎপাদন, চাষ ও কৃষি এ চারটি খাতে বাংলাদেশসহ ১৫টি দেশের অবৈধ অভিবাসী কর্মীদের বৈধতার জন্য অনলাইনে আবেদন করার কথা থাকলেও এখন থেকে সার্ভিস সেক্টরের চারটি সাব সেক্টরে যেমন হোলসেল ও রিটেইল, রেস্তোঁরা, কার্গো এবং পরিসেবার জন্য আবেদন করতে পারবেন তাদের নিয়োগকর্তারা।

একই সাথে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অবৈধ অভিবাসীরা চাইলে শর্তসাপেক্ষে নিজ দেশে ফিরে যেতে পারবেন। সরকারের এমন সিদ্ধান্তে খুশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এদিকে বৈধকরণ ঘোষণার পর থেকেই রাজধানী কুয়ালালামপুরসহ পুরো মালয়েশিয়ায় এক শ্রেণির দালাল প্রতারণার ফাঁদ পেতেছে। তাদের বিষয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন কমিউনিটির নেতারা।

কমিউনিটি নেতা ও মালয়েশিয়া প্রবাসি ব্যবসায়ী মো. মামুন বিন আবদুল মান্নান বলেন, অনেকেই  সার্ভিস সেক্টরের ভিসা করায় আগ্রহী এবং অপেক্ষায় ছিলেব অবশেষে মালয়েশিয়া সরকার সেটির (রিক্যালিব্রেশন লেবাররিক্যালিব্রেশন রিটার্ন নামে দুটি পরিকল্পনা) ঘোষণা করেছে।

কমিউনিটি নেতা ও মালয়েশিয়া প্রবাসি ব্যবসায়ী নাজমুল ইসলাম বাবুল বলেন, অযথা দালালদের খপ্পরে পড়বেন না, সঠিক মালিক খুঁজে নেবেন।

এছাড়া যে সব অভিবাসী ২০১১ সালে এবং ২০১৬ সালে রি-হায়ারিং প্রোগ্রামে নাম নিবন্ধন করেও ভিসা পাননি তারা এখন বৈধতার জন্য নিবন্ধিত হতে পারবেন। আর যারা তাদের কোম্পানি থেকে পালিয়ে অন্য কোথাও চলে গেছেন, তাদের বিরুদ্ধে যদি কোন রিপোর্ট না থাকে তাহলে তারাও এ রিক্যালিব্রেশন কর্মসূচিতে নিবন্ধন গ্রহণ করতে পারবেন।

রিক্যালিব্রেশন প্রোগ্রাম নামে এই দুটি পরিকল্পনায় এখনও পর্যন্ত প্রায় ১ লাখ ৪৫ হাজার ৮শ ৩০ জন অনিবন্ধিত অভিবাসী অংশ নিয়েছেন। এর মধ্যে ৭২ হাজার ৩২৪ জন তাদের নিজ নিজ দেশে ফিরে যেতে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং ৭৩ হাজার ৫০৬ জন বৈধ হওয়ার জন্য নিবন্ধন করেছেন।

মালয়েশিয়া সরকারের নতুন এ সিদ্ধান্তের কারণে প্রবাসীদের মধ্যে কিছুটা স্বস্তি ফিরলেও দালালদের দৌরাত্ম্য ও নানামুখী সমস্যায় প্রবাসীরা বিগত বছরগুলোর মতো এবারও যেন প্রতারিত না হন সে বিষয়ে সতর্ক থাকার তাগিদ দিয়েছেন অভিবাসন বিশেষজ্ঞরা।


আরও খবর