Logo
শিরোনাম

মঠবাড়িয়ায় চার স্ত্রীর স্বামী খুন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ ডিসেম্বর ২০২০ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ২০৯জন দেখেছেন

মঠবাড়িয়া  প্রতিনিধি

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় চার স্ত্রীর স্বামী সোবাহান প্যাদা (৫০) নামে এক কৃষককে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার সকালে থানা পুলিশ উপজেলার কবুতরখালী গ্রামের হাসেম হাওলাদারের বাড়ির সামনের সড়ক থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে। ধারণা করা হচ্ছে মঙ্গলবার গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা তাকে নৃশংসভাবে হত্যা করে রাস্তায় ফেলে রেখে যায়। নিহত সোবাহান প্যাদা ওই গ্রামের মৃত. তুজাম্বর প্যাদার ছেলে। সে ৭ সন্তানের জনক।

স্থানীয় চৌকিদার খলিলুর রহমান জানান, বুধবার সকালে শামীম ও কাঞ্চন নামে দুই যুবক রক্তাক্ত অবস্থায় লাশ পরে থাকতে দেখে আমাকে জানায়। আমি তাৎক্ষনিক পুলিশকে অবহিত করি। তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিহত সোবাহান প্যাদা দক্ষিণ কবুতরখালী ব্রিজ সংলগ্ন আল আমিনের দোকানে চা পান করার সময় বলেছিলো রাতে তৃতীয় স্ত্রী হেলেনার কাছে যাবে। নিহত সোবাহান প্যাদা তার চাচাতো ভাগ্নি রাবেয়া হত্যা মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী।

তৃতীয় স্ত্রী হেলেনা বেগম জানান, ওই রাতে সে (নিহত সোবাহান প্যাদা) আমার কাছে আসেনি। সকালে শুনতে পাই আমার স্বামী খুন হয়েছে।

খবর পেয়ে পিরোজপুর পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান, পিবিআইর বিশেষ টিমসহ ও বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি মাসুদুজ্জামান বলেন, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে তাকে পরিকল্পিত ভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। দ্রুত হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন পূর্বক অপরাধীদের গ্রেপ্তার করা হবে।


আরও খবর



চলমান বিধি-নিষেধ বাড়তে পারে ২৬ জুন পর্যন্ত

প্রকাশিত:বুধবার ১৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কাঙিক্ষত উন্নতি না হওয়ায় সংক্রমণ প্রতিরোধে চলমান বিধিনিষেধ বাড়ানো হতে পারে।  বুধবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে থেকে বলা হয়, আগামী ২৬ জুন পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানোর প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রী বরাবর পাঠানো হয়েছে।  তিনি অনুমোদন দিলে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী আজ মধ্যরাতেই শেষ হচ্ছে লকডাউন। তার আগেই বিধিনিষেধ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

বিধিনিষেধ বাড়লে পূর্বের ন্যায় সব পর্যটনস্থল, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে। জনসমাবেশ হয় এ ধরনের সামাজিক অনুষ্ঠান (বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান, জন্মদিন, পিকনিক পার্টি ইত্যাদি), রাজনৈতিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁ সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত বিক্রি ও সরবরাহ করতে পারবে এবং আসন সংখ্যার অর্ধেক সেবাগ্রহীতাকে সেবা প্রদান করতে পারবে।

উচ্চঝুঁকিতে থাকা জেলাগুলোর জেলা প্রশাসকরা সংশ্লিষ্ট কারিগরি কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে স্ব-স্ব এলাকার সংক্রমণ প্রতিরোধে বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারবেন। আন্তঃজেলাসহ সব ধরনের গণপরিবহন আসন সংখ্যার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে পারবে। তবে অবশ্যই যাত্রীসহ সকলকে মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

এর আগে ৬ জুন করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না আসায় বিধিনিষেধ আরও ১০ দিন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

মার্চের শেষের দিকে দেশের করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়। এতে সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে যায়। মার্চের শুরু থেকে প্রথমে গণপরিবহন ও অফিস চালু রেখে লকডাউন দেওয়া হয়। পরে গত ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে ৭ দিনের কঠোর লকডাউন শুরু হয়। পরে ৬ দফা লকডাউন বা বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ানো হয়। গত ২৩ মে থেকে ৩০ মে রোববার মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ বাড়িয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে আন্তঃজেলা বাস, লঞ্চ এবং ট্রেনসহ সব ধরনের গণপরিবহন চলার অনুমতি দেওয়া হয়। একইসঙ্গে হোটেল-রেস্তোরাঁগুলো আসন সংখ্যার অর্ধেক মানুষকে বসিয়ে সেবা দেওয়ার অনুমতি পায়।

বর্তমানে সরকারি বেসরকারি স্বায়ত্বশাসিত অফিস আদালত ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। তবে বিশেষ সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানসমূহ সরকারের নির্বাহী আদেশে সীমিত পরিসরে খোলা রয়েছে।


আরও খবর



ইসরাইল-ফিলিস্তিন আলাদা রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাই একমাত্র সমাধান : বাইডেন

প্রকাশিত:শনিবার ২২ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১২১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, দুই পক্ষের মধ্যে সংঘাতের একমাত্র সমাধান হলো দুটি আলাদা রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা। ওয়াশিংটন সফররত দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

বাইডেন বলেন, ইসরাইলিদের ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি যাতে অব্যাহত থাকে, সেজন্য তিনি প্রার্থনা করছেন।

তিনি বলেন, ইসরাইলের নিরাপত্তার বিষয়ে আমার প্রতিশ্রুতিতে কোনো পরিবর্তন আসেনি। একটা বিষয় স্পষ্ট করা দরকার: একটি স্বাধীন ইহুদি রাষ্ট্র হিসেবে ইসরায়েলের অস্তিত্ব যতদিন না ওই অঞ্চলের স্বীকৃতি পাবে, ততদিন কোনো শান্তি আসবে না।

তবে আমি আপনাদের বলছি, একটা পরিবর্তন আছে। সেই পরিবর্তন হচ্ছে, দুই রাষ্ট্র সমাধানই একমাত্র পথ। এটিই একমাত্র জবাব, এটিই একমাত্র পথ।

গাজার পুনর্গঠনে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণে সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বাইডেন বলেন, ইসরাইলের পাশাপাশি ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাই সংঘাতের একমাত্র জবাব

যুদ্ধবিধ্বস্ত গাজার পুনর্গঠনে অন্য দেশের সঙ্গে মিলে বড় ধরনের সহায়তা প্যাকেজের প্রতিশ্রুতি দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট।

বাইডেন বলেন, হামাস যাতে অস্ত্রের মজুদ না গড়তে পারে তা নিশ্চিত করতে ইসরাইলি দখলে থাকা ওয়েস্ট ব্যাংকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্যালেস্টাইনিয়ান অথরিটির সঙ্গে সমন্বয় করে ওই অঞ্চলে সহায়তা দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত ফিলিস্তিনের গাজায় গত ১০ মে থেকে চালানো ইসরাইলের বর্বর হামলায় ৬৬ শিশু ও ৩৯ নারীসহ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কমপক্ষে ২৪৮ জন নিহত হয়েছেন।

এ ছাড়াও ইসরাইলি হামলায় ১ হাজার ৯৪৮ জন ফিলিস্তিনি গুরুতর আহত হয়েছেন। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ১১ দিনের হামলায় ফিলিস্তিনের গাজায় ওই হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দিবাগত রাত ২টা থেকে এ যুদ্ধবিরতি কার্যকর হয়। মিসরে মধ্যস্থতায় দুই পক্ষ অবশেষে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়।

হামাসের পাল্টা রকেট হামলায় ইসরাইলে এক সেনা সদস্যসহ ১৩ জন প্রাণ হারায়।


আরও খবর



আপাতত জোটবদ্ধ রাজনীতি নয় : বিএনপি

প্রকাশিত:শনিবার ১২ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ওয়ান-ইলেভেনের শাসকদের বিদায়ের পর ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয় ঘটে বিএনপি নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোটের। এরপর থেকে জোট রাজনীতি নিয়ে নতুন করে ভাবতে শুরু করে দলটি। চারদলীয় জোট সম্প্রসারণের মাধ্যমে ১৮ দলীয় জোট গঠন করে বিএনপি। অন্যদিকে ক্ষমতায় এসে নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি বাতিল করে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার।

২০১৪ সালের নির্বাচনের পর জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) ও সাম্যবাদী দল (একাংশ) ১৮ দলীয় জোটে যোগ দিলে এটি ২০ দলে পরিণত হয়। কিন্তু জোট রাজনীতিতে তেমন কোনো ফল ঘরে তুলতে পারেনি বিএনপি, বরং অধিকাংশ ক্ষেত্রে এই জোট তাদের জন্য যেন বোঝা হয়ে গেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সার্বিক বিবেচনা করে আপাতত জোটবদ্ধ রাজনীতি নয়, এককভাবে চলতে চাইছে বিএনপি। দলটি চলছেও সেভাবে। ২০১৮ সালের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপি যে স্বপ্ন ও আকাঙ্ক্ষা নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছিল, সেই স্বপ্ন পুরোটাই ভেস্তে গেছে। বরং এই ঐক্যফ্রন্ট করতে গিয়ে নিজেদের অস্তিত্বকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে ফেলেছে দলটি। অন্যদিকে বিএনপির দীর্ঘ সময়ের রাজনৈতিক বন্ধুরাও দূরে সরে গেছে। সেজন্য জোটবদ্ধ পথচলার ক্ষেত্রে এবার ভাবার সময় এসেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক শীর্ষ নেতা বলেন, এ দলের জন্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ছিল আদর্শহীন জোট। আর তার মূলনেতা হয়ে গিয়েছিলেন ড. কামাল হোসেন। যার রাজনৈতিক জীবনের কোনো সফলতার কথা জানা নেই অনেকেরই। অন্যদিকে, বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট এখন শুধু কিছু টোকাই আর রাজনৈতিক বেপারীদের পুনর্বাসন কেন্দ্র।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, জোট থেকে শেখ শওকত হোসেন নিলুর (প্রয়াত) নেতৃত্বাধীন এনপিপি, মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামীর (প্রয়াত) নেতৃত্বাধীন ইসলামী ঐক্যজোট, জেবেল রহমান গানির নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ, খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজার নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি বের হয়ে গেলে সংখ্যাতত্ত্ব ঠিক রাখতে গিয়ে যাদের দিয়ে বিএনপি এই দলগুলোর পুনর্জন্ম দিয়েছে, তাদের নেতারা সবাই প্রশ্নবিদ্ধ। এমনকি রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এক বিবৃতি লেখারও ক্ষমতা নেই তাদের। আবার কেউ মানবপাচারকারী, কেউ পাসপোর্ট জালিয়াতি চক্রের সদস্য। অন্যদিকে জোটের প্রধান দল বিএনপির সমালোচনা করায় তাদের পরোক্ষ মদদে কর্নেল (অব.) ড. অলি আহমদের লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপি, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি ও জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি-জাগপার মধ্যে যে ভাঙন হয়েছে, তাতে জোট আরও বেশি গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েছে।

সবকিছু বিবেচনায় এককভাবেই পথ চলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি। দলটির নীতিনির্ধারকদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ইতোমধ্যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে এড়িয়ে চলা শুরু করেছে বিএনপির দীর্ঘ সময়ের জোট ২০ দল ও বিগত জাতীয় নির্বাচনকালীন জোট। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান ইতোমধ্যে নীতিনির্ধারকদের এ সিদ্ধান্তে নিজের সম্মতিও জানিয়ে দিয়েছেন বলে একটি সূত্রে জানা গেছে।

২০ দলীয় জোট শরিক দলের এক শীর্ষ নেতা বলেন, অনেকদিন ধরেই জোটের কোনো কার্যক্রম নেই। নেই কোনো সমন্বয় বা বৈঠকও। অবশ্য বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণেও অন্য সবকিছুর মতো রাজনীতিতে স্থবিরতা দেখা দিয়েছে। সে কারণে জোটের কোনো কর্মকাণ্ড নেই বলা হলেও প্রকৃত অর্থে বিএনপি এককভাবেই চলছে এটা না বোঝার মতো বিষয় নয়।

তিনি আরও বলেন, জোটের প্রধান দল বিএনপি। তারা যে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে। বিএনপি ডাকলে জোট শরিকরা হাজির হয়, না ডাকলে কোনো কথাও বলতে পারে না।

বিএনপির বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা বলেন, বহু আগেই জোট ছেড়ে নিজস্ব রাজনীতির দিকে মনোযোগ দেয়া উচিত ছিল বিএনপির। কারণ, বিএনপি দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও জনসমর্থিত রাজনৈতিক দল। জনগণের ভালোবাসা নিয়ে জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া এ দল বারবার বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় এসেছে। তাই বিএনপিকে অন্যের সাহায্য নিয়ে দেশে রাজনীতি করতে হবে না। শুধু নিজেদের রাজনীতিটা করলেই জনগণের গ্রহণযোগ্যতা অতীতের মতো পাওয়া যাবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, বিএনপিকে ঘুরে দাঁড়াতে হলে ২০ দল ও ঐক্যফ্রন্টকে বাদ দিতে হবে। এছাড়া জোটের দলগুলো তো নেতাসর্বস্ব। বরং তাদের দল বিলুপ্ত করে দেয়া উচিত। তাদের না আছে জনবল, না আছে জনসমর্থন। দুই জোটের ওপর ভরসা করা নিজেদেরই ক্ষতি। তাই বিএনপিকে নিজের অবস্থান ধরে রাখতে হবে।

বিএনপি জোটের অন্যতম শরিক বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা জাগো নিউজকে বলেন, ২০ দলীয় জোট কার্যত অচল। বেশকিছু দিন হয়ে গেল কোনো যৌক্তিক কারণ ছাড়াই জোটটি অকার্যকর করে রাখা হয়েছে। এটা জোটের সবচেয়ে বড় শরিক দল বিএনপির অনীহা বা রাজনৈতিক কৌশল হতে পারে। কিন্তু বিএনপির একলা চলো নীতি বর্তমানে তেমন কোনো দৃশ্যমান সফলতা অর্জন করেছে বলে আমি মনে করি না। যেখানে আজকে এই জালেম সরকারের পতনের জন্য একটি বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য দরকার, সে জায়গায় আমরা আজকে থমকে আছি।

তিনি বলেন, বিএনপি তার নিজস্ব গতিতে চলছে এবং জোটকে কার্যকর করার জন্য কোনো পদক্ষেপ এখন পর্যন্ত গ্রহণ করেনি। অদূর ভবিষ্যতেও তাদের জোট নিয়ে কোনো চিন্তা-ভাবনা আছে কি-না, সে ব্যাপারে আমাদের সঙ্গে কোনো আলাপ-আলোচনা করেনি। বর্তমানে আমরা লক্ষ্য করছি, জোটের কয়েকটি দল তাদের আদর্শের বাইরে গিয়েও কিছু দলের সঙ্গে রাজপথে আন্দোলনের চেষ্টা করছে। দুঃখের বিষয়, তারা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নিতে পারেনি। আমার কাছে এটাকে ডাবল স্ট্যান্ডার্ড (দ্বৈত নীতি) বলেই মনে হচ্ছে। এ ব্যাপারে জোটের বৈঠক অতি জরুরি এবং আমাদের যে অভিন্ন লক্ষ্য সে ব্যাপারে একটি জোরালো পদক্ষেপ নেয়া উচিত।

জোট রাজনীতি থেকে বিএনপি সরে যাচ্ছে কি-না জানতে চাইলে ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়কারী বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, এমন কিছু আমাকে কেউ বলেনি। এখানে মন্তব্য করার কিছু নেই।

নিউজ ট্যাগ: বিএনপি

আরও খবর



সাধু সেজে ২ বছর মন্দিরে লুকিয়ে ধর্ষক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কিশোরীকে ধর্ষণে অভিযুক্ত এক ব্যক্তিকে ভারতের উত্তরপ্রদেশ থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

চান্দৌলি জেলার এক মন্দির থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার এড়াতে সাধুসেজে দুই বছর ধরে ওই মন্দিরে লুকিয়ে ছিলেন তিনি।

কিশোরীকে ধর্ষণে অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির নাম সত্যেন্দ্র শুক্ল (৫০)। মধ্যপ্রদেশের সভাপুর থানার অন্তর্গত একটি গ্রামের বাসিন্দা সে। ২০১৯ সালের মার্চ মাসে তার বিরুদ্ধে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। তার পর থেকেই লাপাত্তা ছিল সে।

প্রায় ২ বছর ধরে তাকে খুঁজছে পুলিশ। সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের চান্দৌলি জেলার মন্দির থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে মধ্যপ্রদেশ পুলিশ।

সভাপুর থানার পুলিশ জানিয়েছে, কালোজাদুর মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের করবে বলে সেই কিশোরীকে ধর্ষণ করেছিল অভিযুক্ত। মামলা দায়ের হয়েছিল। কিন্তু অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা যায়নি।

সাভাপুর থানার ইনচার্জ এসপিএস চান্ডেল বলেন, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে না পেরে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল। অনেক জায়গায় তল্লাশি চালিয়েও আমরা তার খোঁজ পাইনি। অবশেষে চান্দৌলি জেলার একটি মন্দির থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: কিশোরীকে ধর্ষণে

আরও খবর



বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ কোটি ১৪ লাখ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০১ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩৫ লাখ ৬৪ হাজার এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ কোটি ১৪ লাখ ৫৫ হাজারের বেশি মানুষ।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার (১ জুন) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন আরও ৭ হাজার ৮৮৬ জন মানুষ এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৮ হাজার ৩৩৫ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৪১ লাখ ১৩ হাজার ১৪৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৯ হাজার ৭৬৭ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন ২ কোটি ৮১ লাখ ৭৩ হাজার ৬৫৫ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৩১ হাজার ৯০৯ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় এক কোটি ৬৫ লাখ ৪৭ হাজার ৬৭৪ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ৬২ হাজার ৯৬৬ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬ লাখ ৬৭ হাজার ৩২৪ জন। ভাইরাসটিতে মারা গেছেন এক লাখ ৯ হাজার ৫২৩ জন।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর