Logo
শিরোনাম

‘মুষ্টিমেয় লোকের কর্মকাণ্ডে ধর্মকে দোষারোপ করা যায় না’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইসলামের প্রচার-প্রসার এবং মসজিদকে জ্ঞান চর্চা কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে মোট ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করছে সরকার। এই প্রকল্পের আওতায় প্রথম ধাপে নির্মিত ৫০টি মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুধু নামাজ আদায় নয়- মসজিদ হবে গবেষণা, ইসলামী সংস্কৃতি ও জ্ঞানচর্চা কেন্দ্র। হারিয়ে যাওয়া ইসলামের চিরায়ত এই ঐতিহ্যকে ধারণ করে দৃষ্টিনন্দন এসব মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মুসলিমরাই জ্ঞান বিজ্ঞান ও সভ্যতায় এগিয়ে ছিল। সবকিছুতে মুসলিমরা ছিল পথপ্রদর্শক। তারা কেন আজ পিছিয়ে থাকবে? মুসলিমদের মধ্যে সঠিক ইসলামের জ্ঞান অর্জনে সহায়তা ও তাদের ইতিহাস ঐতিহ্য সচেতন করতে এই মডেল মসজিদ ও ইসলামিক কালচারাল সেন্টার। এখানে তারা মূল কথাটা জানতে ও শিখতে পারবে।

আজ বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সারাদেশে ৫০টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুষ্টিমেয় লোক সন্ত্রাস ও জঙ্গি কর্মকাণ্ড করে ইসলামকে দোষারোপ করে। আমি বিশ্বের যেখানেই গেছি, এ বিষয়ে কথা ওঠলে আমি সব ফোরামে বলেছি, মুষ্টিমেয় লোকের কর্মকাণ্ডে ধর্মকে দোষারোপ করা যায় না।

তিনি বলেন, ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে সবাই সচেতন হয়। ইসলাম ধর্ম নারীদের অধিকার দিয়েছে। পিতার ও স্বামীর সম্পদে নারীর অধিকার দিয়েছে। এই মসজিদেও নারী-পুরুষের নামাজসহ পৃথক ধর্মকাণ্ডের ব্যবস্থা আছে। এর মাধ্যমে ধর্মীয় দৃষ্টিতে বাল্যবিয়ে, নারী-শিশুদের নির্যাতন ও মাদকের বিরুদ্ধে মানুষকে সচেতন করতে হবে। এগুলো রোধে সামাজিকভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

প্রথম ধাপে নির্মিত মডেল মসজিদগুলোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ধর্মের নামে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস সৃষ্টি ও মানুষ হত্যা আমাদের ধর্মের ইমেজ নষ্ট করছে। ওলামা একরামদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এই পথ সর্বনাশা পথ। এই পথ থেকে দেশের যুবসমাজকে রক্ষা করতে হবে। জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও মানুষ হত্যা করে কেউ বেহেশতে যাবে না। এটা ভুল কথা। মানুষকে এটা বোঝাতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সামাজিক কমিটি করে যুবসমাজকে মাদক, সন্ত্রাস, নারী ও শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে মানুষকে সোচ্চার করে তুলতে হবে। মাদক সমাজকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। আজকে আমি সত্যি খুব আনন্দিত। মডেল মসজিদগুলো হতে ইসলামের সঠিক মর্মবাণী প্রচার হবে, ইসলামের সঠিক প্রচার হবে। ইসলামের সঠিক জ্ঞান চর্চা হবে। জ্ঞান বিজ্ঞান চর্চায় মুসলমানরা আবারও এগিয়ে যাবে। ধর্ম সম্পর্কে মানুষ যেন সচেতন হয় আমরা তা চাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ক্ষমতায় এসে হজ যাত্রীদের যাতে কোনও সমস্যা না হয় সে ব্যবস্থা নিছি। যখনি আমি হজে যাই আমাদের হজ যাত্রীদের খোঁজ-খবর নিই। সৌদি আরবের সরকারের সঙ্গে কথা বলে সেগুলো সমাধানও করি। এখন আর হজ যাত্রীদের ভোগান্তি পোহাতে হয় না।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউসের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান, ধর্মসচিব মো. নূরুল ইসলাম ও তিন স্পট থেকে কয়েকজন মুসল্লি প্রমুখ।



আরও খবর



বাংলাদেশকে ৬০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক

প্রকাশিত:শুক্রবার ২১ মে 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১২৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত নারী, তরুণ ও বিদেশফেরত শ্রমিকদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশকে ৬০ কোটি ডলার ঋণ দেবে বিশ্ব ব্যাংক। এই ঋণ দুটি উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে দেয়া হবে। বাংলাদেশি মুদ্রায় এ অর্থের পরিমাণ প্রায় ৫ হাজার ১০০ কোটি টাকা।

বিশ্বব্যাংকের ওয়াশিংটনের হেড অফিস এই অর্থের অনুমোদন দেয়। শুক্রবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিস।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্ব ব্যাংকের এই ঋণের অর্থ যুব, মহিলা ও সুবিধাবঞ্চিত কর্মীদের কর্মসংস্থান এবং জীবিকার সুযোগ উন্নত করতে ব্যয় করা হবে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত নারী, তরুণ ও বিদেশফেরত শ্রমিকসহ সাড়ে ১৭ লাখের বেশি মানুষ উপকৃত হবেন। এই ঋণ পাঁচ বছর গ্রেস পিরিয়ডসহ ৩০ বছরে পরিশোধ করতে হবে বাংলাদেশকে।

মোট ঋণের অর্ধেক অর্থাৎ ৩০ কোটি ডলার দক্ষতা উন্নয়ন সংক্রান্ত প্রকল্পে ব্যয় করা হবে। এর মাধ্যমে ১০ লাখের বেশি তরুণ ও বিদেশফেরত শ্রমিক ভবিষ্যত গড়তে কর্মদক্ষতা বাড়াতে পারবেন।

করোনাভাইরাস মহামারি চলাকালে বা মহামারির পর শ্রমবাজারে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে তরুণ, নারী ও প্রতিবন্ধী সুবিধাবঞ্চিতরা এই প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষণ পাবেন।

বিশ্ব ব্যাংকের ত্বরণ এবং দক্ষতা শক্তিশালীকরণ মাধ্যমে অর্থনৈতিক রূপান্তরকরণ (এএসএসইটি) শীর্ষক প্রকল্পে বাকি ৩০ কোটি ডলার ঋণ অনুমোদন করেছে সংস্থাটি। বিশ্ব ব্যাংকের এ প্রকল্পের মাধ্যমে ১০ লাখেরও বেশি যুব, মহিলা এবং সুবিধাবঞ্চিতদের সহায়তা করা হবে। প্রকল্পটি মহামারির সময় এবং তার পরে শ্রমিকদের পুনরায় প্রশিক্ষণ দিতে এবং এভাবে অর্থনৈতিক গতি পুনরুদ্ধারের শিল্পগুলোকে সহায়তা করবে।

এছাড়াও প্রকল্পটির মাধ্যমে ২০টি জেলার ৩ হাজার ২০০ গ্রামের ৭ লাখ ৫০ হাজার দরিদ্র ও দুর্বল গ্রামীণ মানুষের জীবন-জীবিকা উন্নয়নে সহায়তা করা হবে।

বাংলাদেশ ও ভুটানের দায়িত্বে থাকা বিশ্ব ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর দানদান চেন বলেন, বিশ্ব ব্যাংকের এই প্রকল্পের মাধ্যমে করোনাভাইরাসে বাংলাদেশে ক্ষতিগ্রস্ত লাখ লাখ মানুষ, বিশেষত তরুণ, নারী শ্রমিক ও বিদেশফেরতদের প্রশিক্ষণ দিয়ে ভবিষ্যৎ শ্রমবাজারের জন্যে প্রস্তুত করা হবে।

প্রকল্পটির বিশ্বব্যাংক টিম লিডার জ্যান সেন্ট-জিউর্স বলেন, প্রকল্পটি গ্রামীণ দরিদ্র জনগণকে জরুরিভিত্তিতে কোভিড-১৯ মহামারির ভবিষ্যৎ ধাক্কা মোকাবিলায় তাদের দক্ষতা উন্নয়ন করবে। এছাড়া আয়-উৎপাদনমূলক কার্যক্রম এবং দক্ষতা বিকাশের মাধ্যমে দারিদ্র্য থেকে মুক্তি পেতে সহায়তা করবে।

নিউজ ট্যাগ: বিশ্ব ব্যাংক

আরও খবর



যেমন পুরুষসঙ্গী চেয়েছিলেন সোনম

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৭৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ ৯ জুন ৩৬-এ পা দিলেন সোনম কাপুর। অভিনয় ও ফ্যাশনেবল পোশাকে দর্শকদের চোখ ধাঁধিয়ে দেওয়া ছাড়াও নিজের ফিল্মি ক্যারিয়ারে মাঝেমধ্যেই 'মিষ্টি মধুর' মন্তব্যের জন্য বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন তিনি।

ঐশ্বরিয়া থেকে শুরু করে ঋষি কাপুরকেও ক্ষেপিয়েছেন। আবার সোনমের বেশ কিছু মজাদার সাক্ষাৎকারও ট্রেন্ডিং হয়েছিল সেই সময়ে। আসলে, বরাবরই নিজের খেয়ালখুশি মতন চলেছেন সোনম। নিজের যা ভালো মনে হয় করেছেন, নিজের বিবেচনায় যেটা ঠিক মনে হয় বলেছেন। তার ফলে অপর পক্ষ কী ভাবলো না ভাবলো তার পরোয়া কোনওদিনই তিনি করেননি।

ছোটপর্দার এক চ্যাট শো 'ওয়ে ইটস ফ্রাইডে'-তে একবার হাজির হয়েছিলেন সোনম। সঞ্চালক ফারহান আখতারের সঙ্গে আড্ডা দেওয়ার ফাঁকে সরাসরি জানিয়েছিলেন কেমন ধরণের পুরুষ তাঁর পছন্দ। আসলে প্রশ্নটা ভেসে এসেছিল ফারহানের কাছ থেকে।

জবাবে মুখে হাসি এনে, সামান্য ভেবে নায়িকার বক্তব্য ছিল,' যদি সেই ব্যক্তি আমার বাবা (অনিল কাপুর)-র থেকেও বেশি সুপুরুষ হয়, বেশি অর্থবান ও বিখ্যাত হন তাহলে ভেবে দেখতে পারি। ও হ্যাঁ, তাঁকে আমার বাবার থেকেও বেশি জনপ্রিয় ও পরিচিত হতে হবে। সঙ্গে বাবার মতো ওরকম জম্পেশ একখানা গোঁফ থাকলেও মন্দ হয় না!'

বছর তিনেক আগে ২০১৮ সালে সম্ভ্রান্ত ব্যবসায়ী আনন্দ আহুজার সঙ্গে গাঁটছাড়া বেঁধেছেন 'নীরজা'-খ্যাত এই নায়িকা। সম্প্রতি, নিজেদের তিন বছরের বিবাহবার্ষিকীও পালন করলেন এই দম্পতি। ফিল্মফেয়ারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই 'বার্থডে গার্ল' একবার জানিয়েছিলেন কীভাবে আনন্দের সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়েছিল।

সোনমের কথায়,' সেটা ২০১৫ সাল। প্রেম রতন ধন পাও আর কদিনে রমধ্যেই মুক্তি পাবে। ছবির প্রচারে জোর ব্যস্ত। এর মাঝেই আমার বন্ধুরা তাজ হোটেলের বাড়ে একটি ছোট্ট পার্টির আয়োজন করেছিল। গেছিলাম। সেখানেই আনন্দকে দেখি। আনন্দ আর তাঁর দুই বন্ধুকে আমার বন্ধুরাই আমন্ত্রণ জানিয়েছিল আমার সঙ্গে দেখা করাবে বলে।'

এখানেই না থেমে এই বলি-অভিনেত্রী আরও জানিয়েছিলেন,' আনন্দ ও তাঁর বন্ধুরা আমার মতোই লম্বা ছিল। ওর বন্ধুদের সঙ্গে বরং আমার জমেছিল। কারণ ওরা আমার মতোই গল্পের বই ও সিনেমার পোকা ছিলেন। সেই তুলনায় আনন্দকে আমার বেশ চুপচাপ মনে হয়েছিল। সত্যি বলতে কী, ওঁকে দেখে আমার ভাই হর্ষের কথাই বারবার মনের পড়ছিল। তখনই ভেবে নিয়েছিলাম এই ছেলের সঙ্গে জীবনে প্রেম করবো না!'

প্রসঙ্গত, গত বছর নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়া অনিল কাপুর অভিনীত ছবি 'একে ভার্সেস একে'-তে অতিথি শিল্পী হিসেবে অভিনয় করেছিলেন সোনম। এইমুহূর্তে মুক্তি পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে তাঁর পরবর্তী ছবি 'ব্লাইন্ড'।


নিউজ ট্যাগ: সোনম কাপুর

আরও খবর



একটু চিকন হওয়ার চেষ্টা করছি : দীঘি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আমি নৃত্য-পাগল ছন্দ, আমি আপনার তালে নেচে যাই, আমি মুক্ত জীবনানন্দ.. কাজী নজরুল ইসলামের বিদ্রোহী কবিতার এই কয়েক চরণ নিজের ইনস্টাগ্রাম বায়োতে যুক্ত করে রেখেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। কবিতার মতো দীঘির জীবনছন্দ মিলিয়ে চলছে, তবে করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না খোলায় স্টামফোর্ড কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রীর মন বেশ কিছুটা খারাপ।

নিজের প্রথম কাবুলিওয়ালা সিনেমায় অভিনয় করে দীঘি জিতে নিয়েছিলেন শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। সময়টা ২০০৬ সাল। দীর্ঘ ১৫ বছর পর সেই দীঘির নামের আগে নায়িকা তকমা লেগেছে চলতি বছরের মার্চে। মুক্তি পেয়েছে তাঁর অভিনীত প্রথম সিনেমা তুমি আছো তুমি নেই। এরপর টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই শিরোনামে আরও একটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে দীঘির। বর্তমানে হাতে আছে বেশ কিছু সিনেমা ও ওয়েব ফিল্ম।

এই মন খারাপকে পাস কাটিয়ে দীঘি মন দিয়েছেন শরীরচর্চায়। এনটিভি অনলাইনের সঙ্গে এক আলাপচারিতায় জনিয়েছেন, দৈনিক প্রায় দুই ঘণ্টা জিম করছি, সপ্তাহে  পাঁচ দিন করার চেষ্টা করি।

জিমের এমন রুটিন শুনে দীঘির কাছে জানতে চাওয়া, ওজন কত কমল? দীঘির উত্তর, সেটা একেবারে টার্গেট পূরণ করে জানাব। সেই টার্গেট কত? উত্তর এলো, সর্বনিম্ন আট থেকে নয় কেজি।

তা এত কষ্ট করে জিম করছেন, কোনো বিশেষ কাজের জন্য নাকি? এই প্রশ্নে দীঘি যে রহস্যঘেরা উত্তর দিয়েছেন, তা মজার। দীঘির ভাষ্যটা এমন, সবার চোখে তো মোটা, তাই একটু চিকন হওয়ার চেষ্টা আর কি।



আরও খবর



চাকরির প্রলোভনে কিশোরীকে গণধর্ষণ : গ্রেফতার ৪

প্রকাশিত:বুধবার ১৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে বাঁশখালী থেকে এক তরুণীকে বাড়ি থেকে জসিম এনে কোথাও জিম্মি করে রেখেছে। তরুণীর পরিবার কোনো খোঁজ পায়নি। গত ১৩ জুন তার বাবা এসে

চট্টগ্রাম নগরের বাকলিয়া থানার নতুন ব্রিজ সেল সেন্টারের সামনে থেকে নগরের ফ্রিপোর্ট এলাকায় পোশাক কারখানায় চাকরি দেওয়ার কথা বলে কিশোরীকে ৯ দিন জিম্মি রেখে গণধর্ষণের অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭। তারা হলেন- বাঁশখালীর ছনুয়া মধুখালী এলাকার মো. জসিম উদ্দিন (২৭), একই এলাকার নুরুল আজিম (২৮), পূর্ব চাম্বল এলাকার মোহাম্মদ নবী (২২) এবং নগরের কোতোয়ালী থানার পাথরঘাটা এলাকার ওমর আলী মার্কেট এলাকার মো. জাবের আহাম্মদ (৪৮)।

বুধবার (১৬ জুন) বিকেলে র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক মো.নুরুল আবছার বলেন, গত ৭ জুন ফ্রিপোর্ট এলাকায় পোশাক কারখানায় চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে বাঁশখালী থেকে এক তরুণীকে বাড়ি থেকে জসিম এনে কোথাও জিম্মি করে রেখেছে। তরুণীর পরিবার কোনো খোঁজ পায়নি। গত ১৩ জুন তার বাবা এসে আমাদের কাছে অভিযোগ করেছেন। তখন আমরা বিভিন্ন মাধ্যমে খবর নিয়ে জসিমের অবস্থান শনাক্ত করি। জসিমের বাসাতেই মেয়েটিকে পাওয়া যায়। তরুণীকে আমরা উদ্ধার করি।

তিনি জানান, বাসায় আটক করে রেখে ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জীবননাশসহ পরিবারের বিরাট ক্ষতি হবে হুমকি দেখিয়ে প্রথমে জসিম এবং পরবর্তীতে অন্যরা মিলে প্রতিদিন পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে। তাকে চাকরি দেওয়ার পাশাপাশি বিয়ের আশ্বাস দেন জসিম। এ ঘটনায় বাকলিয়া থানায় মামলা হয়েছে। 


আরও খবর



এ বছরের হজ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য পাইনি : প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেছেন, চলতি বছর পবিত্র হজ পালন করতে বাংলাদেশ থেকে কোনো যাত্রী যাবে কি না সে বিষয়ে আমার কাছে কোনো মেসেজ (বার্তা) নেই। সৌদি বাদশাহর পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোনো মেসেজ বা চিঠিও আসেনি।

বুধবার (৯ জুন) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ ধরনের কোনো চিঠি বা মেসেজ পেলে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে তা বিস্তারিত তুলে ধরা হবে। সুতরাং এ মুহূর্তে হজ নিয়ে কোনো চিন্তা করছি না।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, হজ নিয়ে অনেকেই অনেক কথা বলছেন কিন্তু সেগুলো মিথ্যা ও বানোয়াট। তবে কোনো সুযোগ এলে সেজন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি রয়েছে এবং সরকারপ্রধান ও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহায়তা করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন প্রতিটি জেলায় এবং উপজেলায় একটি করে মোট ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র প্রকল্পের আওতায় প্রাথমিকভাবে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৫০টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন করতে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেন, প্রতিটি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ৪৩ শতাংশ জায়গার ওপর তিন ক্যাটাগরিতে নির্মাণ করা হবে। জেলা ও সিটি করপোরেশন পর্যায়ে চারতলা, উপজেলা পর্যায়ে তিনতলা, উপকূলীয় এলাকায় চারতলা মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে।


আরও খবর