Logo
শিরোনাম

নিষেধাজ্ঞা শেষে বরিশাল বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ডিমওয়ালা ইলিশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নিষেধাজ্ঞা শেষে বাজারে ইলিশের আমদানি শুরু হলেও অধিকাংশ ইলিশের পেটে ডিম পাওয়া যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন ক্রেতা ও বিক্রেতারা। বাজার থেকে যেসব ক্রেতা ইলিশ মাছ কিনছেন এর প্রতিটিতেই ডিম পাওয়া যাচ্ছে । ইলিশ বিক্রেতা জানান, গত কয়েকবছর ধরে নিষেধাজ্ঞার উঠে যাওয়ার পর পর বেশ কিছুদিন বাজারে ডিমওয়ালা ইলিশ পাওয়া যায়।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ইলিশ) বিমল চন্দ্র দাস বলেন, বর্তমান সময়টাই এমন যে ইলিশ মাছ ডিম ছেড়ে আবার সাগরে চলে গেছে, আর কিছু মাছ যারা এখনও ডিম ছাড়েনি তারা নদীতে রয়েছে।

অর্থাৎ নদীতে যে মাছ রয়েছে তাতে ডিম থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তাছাড়া সারাবছরই কম-বেশি ডিমওয়ালা ইলিশ পাওয়া যায়। তবে বর্তমানে যে আবহাওয়া বিরাজ করছে তাতে সব ইলিশই নদীতে ডিম ছেড়ে দিবে।

তিনি আরও বলেন, যে পরিমান মাছের সঠিকভাবে ডিম দেওয়ার কথা ছিল, আমরা আশাকরি সে পরিমান মাছ ডিম দিয়েছে। মূলত চারটি অমাবস্যা-পূর্ণিমাতে বেশি পরিমানে ইলিশ ডিম দেয়, সেই সময়টা আমরা কভার করেছি। ফলে এখন যে ডিমওয়ালা মাছ পাওয়া যাচ্ছে তাতে উৎপাদনের ওপর কোন প্রভাব ফেলবে না।

মৎস্য কর্মকর্তা বলেন, বর্তমানে যে আবহাওয়া রয়েছে তাতে নদী ও সাগরে ইলিশ পাওয়ার কথা। আর আসন্ন কালীপূজার সময় জো রয়েছে তখন আরও প্রচুর মাছ ধরা পরবে।

অপরদিকে জাটকার বিষয়ে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, নভেম্বর থেকে জুন মাস পর্যন্ত জাটকা ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এ কার্যক্রম কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করা হবে। ফলে ইলিশের লক্ষ্যমাত্রা পূরণে কোন ঘাটতি থাকবে না।

নিউজ ট্যাগ: ইলিশ বরিশাল

আরও খবর

ভোলায় মাঝ নদীতে গোলাগুলি, নিহত ১

শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১




আজকের ভালো মন্দ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ আপনার জন্মদিন হলে পাশ্চাত্য জ্যোতিষে আপনি বৃশ্চিক রাশির জাতক/জাতিকা। আপনার জন্মসংখ্যা : ৯। আপনার ওপর প্রভাবকারী গ্রহ : মঙ্গল। আপনার শুভ সংখ্যা : ৯। শুভ বার : মঙ্গল। শুভ রত্ন : রক্তপ্রবাল।

মেষ (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)

শরীর মোটামুটি ভালো থাকতে পারে। ব্যক্তিত্ব দিয়ে অন্যকে প্রভাবিত করতে পারবেন। পারস্পরিক সামাজিক সম্পর্ক বজায় রাখুন। জ্ঞাতিশত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন।

বৃষ (২১ এপ্রিল-২০ মে)

আইনগত ঝামেলা এড়িয়ে চলুন। গোপন শত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। ব্যয় কমানোর চেষ্টা করুন। দূরের যাত্রা হতে পারে। কোনো পূর্ব কর্মের ফল ভোগ করতে পারেন।

মিথুন (২১ মে-২০ জুন)

পেশাগত যোগাযোগ চালিয়ে যান। সেক্ষেত্রে সাফল্য পেতে পারেন। আর্থিক দিক ভালো থাকতে পারে। কোনো আশা পূরণ হতে পারে। সাংগঠনিক কাজে সুফল হবেন।

কর্কট (২১ জুন-২০ জুলাই)

কর্ম পরিবেশ অনুকূল থাকবে। কর্মস্থলে নিজের কর্তৃত্ব বজায় রাখতে পারবেন। পিতৃস্বাস্থ্য ভালো যাবে। সামাজিক অবস্থান সুদৃঢ় হতে পারে। সুনাম ও  মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে।

সিংহ (২১ জুলাই-২১ আগস্ট)

আধ্যাত্মিকতার প্রতি অনুরোধ করতে পারেন। কোনো আশা পূরণ হতে পারে। পেশাগত দিক ভালো যাবে। ভ্রমণের সুযোগ পেতে পারেন। মন ভালো থাকবে।

কন্যা (২২ আগস্ট-২২ সেপ্টেম্বর)

দিনটি মিশ্র সম্ভাবনাময়। শারীরিক অসুস্থ তাকে অবহেলা করবেন না। ব্যাবসায়িক দিক খুব একটা ভালো যাবে না। সামাজিক সংগঠন এড়িয়ে চলুন।

তুলা (২৩ সেপ্টেম্বর-২২ অক্টোবর)

কোনো ঘনিষ্ঠ বন্ধুর সহযোগিতা পেতে পারেন। ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে। যৌথ ব্যবসায় নিজের কর্তৃত্ব বজায় রাখতে পারবেন। বিক্রয়-বাণিজ্যে লাভযোগ আছে। পারস্পরিক সামাজিক সম্পর্ক বজায় রাখুন।

বৃশ্চিক (২৩ অক্টোবর-২১ নভেম্বর)

ব্যক্তিগত দায় দায়িত্ব বৃদ্ধি পেতে পারে। কর্মস্থলে কোনো ঝামেলা হতে পারে। যাবতীয় ঝামেলা থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। গোপন শত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। সীমা লঙ্ঘন করবেন না।

ধনু (২২ নভেম্বর-২০ ডিসেম্বর)

নিজের মনোভাব স্পষ্ট ভাবে প্রকাশ করুন। সেক্ষেত্রে সাফল্য পেতে পারেন। সন্তানের প্রতি খেয়াল রাখুন। ধর্ম-কর্মের প্রতি আগ্রহ বোধ করতে পারেন। বিদ্যার্থীরা পড়াশোনার অধিকতর মনোযোগী হওয়ার চেষ্টা করুন।

মকর (২১ ডিসেম্বর-১৯ জানুয়ারি)

বিলাস দ্রব্য ক্রয় করতে পারেন। কোনো প্রত্যাশা পূরণ হতে পারে। মন ভালো থাকবে। আত্মীয়দের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখুন । জ্ঞানস্পৃহা বৃদ্ধি পাবে।

কুম্ভ (২০ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

ছোট ভাইবোনদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখুন। প্রয়োজনে তাদের সহযোগিতা নিন। কাজকর্মে উৎসাহ বোধ করতে পারেন। আত্মীয়দের সঙ্গে যোগাযোগ হতে পারে। ব্যক্তিগত যোগাযোগে সুফল পেতে পারেন।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

আর্থিক দিক ভালো যাবে। প্রাপ্তিযোগ আছে। পড়াশোনায় আনন্দ পাবেন। অধীনদের কাজে লাগাতে পারবেন। মাথাব্যথায় ভুগতে পারেন।

নিউজ ট্যাগ: আজকের রাশিফল

আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১




‘খালেদা জিয়ার যে চিকিৎসা দরকার তা ভারতীয় উপমহাদেশে নেই’

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ২৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার লিভার সিরোসিন সনাক্ত হয়েছে। এ রোগের চিকিৎসার জন্য এ মুহূর্তে যে প্রযুক্তি দরকার তা ভারতীয় উপমহাদেশে নেই বলে জানিয়েছেন মেডিকেল বোর্ডের প্রধান প্রফেসর ডা. এফ এম সিদ্দিকী। এসমস্ত চিকিৎসা যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও জার্মানিতে সম্ভব বলে জানান তিনি।

রবিবার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় বর্তমান অবস্থা নিয়ে ব্রিফিং করেন বিএনপির নেত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা। এ সময় তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে তাদের সাধ্যের মধ্যে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার লিভার সিরোসিসের কারণে ব্লিডিং হচ্ছে জানিয়ে তার চিকিৎসায় গঠিত দলের মেডিক্যাল বোর্ডের চিকিৎসকরা যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র বা জার্মানির বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসার সুপারিশ করেছেন।

তারা জানিয়েছেন, বিএনপি নেত্রীর যকৃত বা লিভারে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। একবার এই রক্তক্ষরণ সামাল দেওয়া গেছে। তবে এখন তার যে অবস্থা, সেটি দ্বিতীয়বার সামাল দেওয়া কঠিন হবে।

বাংলাদেশে দুই থেকে তিন বার রক্তক্ষরণ সামাল দেওয়ার কারিগরি সুযোগ নেই দাবি করে যত দ্রুত সম্ভব তাকে দেশের বাইরে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেছে মেডিকেল বোর্ড। ব্রিফিংয়ে বিএনপি নেত্রীর রোগ নিয়ে প্রাথমিক একটি বর্ণনা দেন ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও দলের গঠন করা মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান এফ এম সিদ্দিকী।

সাবেক প্রধানমন্ত্রীর পেট থেকে চাকা চাকা রক্ত যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি জানান, ইউনাইটেড হাসপাতালে একবার রক্ত দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া গেছে। কিন্তু এই ধরনের রোগীকে বারবার রক্ত দেওয়া সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, আশঙ্কা করছি, আবার যদি ব্লিডিং হয় তাহলে এটাকে কন্ট্রোল করা সাপোর্ট করা যাবে না। ব্লিডিং হয়ে মৃত্যুঝুঁকি আরও বেড়ে যাবে।

ইন্টারভ্যানশনাল গ্যাস্ট্রো অ্যানালিস্ট চিকিৎসক আরেফিন সিদ্দিক লিভারে রক্তক্ষরণ ঠেকাতে চিকিৎসা পদ্ধতি তুলে ধরে বলেন, এটা একটা হাইলি টেকনিক্যাল কাজ। বাংলাদেশে টিপস করা কোনো রোগী আমরা দেখি না যার দুই থেকে তিনবার এটা করা হয়েছে।

তাহলে কোথায় এই চিকিৎসা করা যায়-এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এটা আমেরিকা বা ইউরোপ বেজড, বিশেষ করে ইউকে, জার্মানি ইউএসএতে কিছু সেন্টার আছে। সেটাও পুরা দেশ জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে নেই দুই একটি সেন্টার আছে।


আরও খবর

করোনায় ফের মৃত্যু-শনাক্ত বেড়েছে

রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১




বাংলাদেশে করোনা অনেকটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
বাংলাদেশে করোনা এখন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা এখন সিঙ্গেল ডিজিটে নেমে এসেছে। সংক্রমণের হারও কমে এসেছে

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন বলেছেন, যাদের টিকা দেওয়ার কথা ছিল, তাদের অনেকেই টিকা পেয়ে গেছেন। আমরা নয় কোটি ডোজ টিকা দিয়ে ফেলেছি। আগামী জানুয়ারির মধ্যে আশা করা যায়, আরও ছয় কোটি ডোজ দেওয়া হবে। মোট ১৫ কোটি টিকা দেওয়া হলে দেশের সাড়ে সাত কোটি মানুষ দুই ডোজ করে টিকা পেয়ে যাবেন।

শনিবার বিকেলে মানিকগঞ্জ শহীদ মিরাজ তপন স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রিমিয়ার ডিভিশন জেলা ফুটবল লীগের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে করোনা এখন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা এখন সিঙ্গেল ডিজিটে নেমে এসেছে। সংক্রমণের হারও কমে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাইডলাইনে আমাদের চেষ্টায় দেশের অবস্থা ভালো আছে।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফের সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রিমিয়ার ডিভিশন জেলা ফুটবল লিগের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সুদেব সাহা প্রমুখ। এ লিগে আটটি দল অংশ নিচ্ছে। উদ্বোধনী খেলায় পল্লী মঙ্গল সমিতি ৩-০ গোলে হরিরামপুর সাকুচিয়া ক্লাবকে পরাজিত করেছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, দেশে মোট ১৩ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হবে। এরমধ্যে এক কোটি মানুষ দেশের বাইরে রয়েছেন। ১২ কোটি মানুষকে টিকার আওতায় নিয়ে আসা হবে। জানুয়ারির মধ্যে সাড়ে সাত কোটি মানুষকে দুই ডোজ করে টিকা দেওয়া হলে বাকি সাড়ে তিন কোটি মানুষকে পর্যায়ক্রমে দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, টিকা দেওয়ার কারণে করোনা নিয়ন্ত্রণে। আর নিয়ন্ত্রণে আছে বলেই দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রয়েছে। দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়েছে, খেলাধুলা সচল হয়েছে, দেশে-বিদেশে যাওয়া-আসা শুরু হয়েছে। টিকা দেওয়ার কারণে মানুষ আর করোনা নিয়ে আগের মতো ভয় পায় না। তবে করোনাকে অবহেলা করা যাবে না। করোনা এখনও চলে যায়নি। সব ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।


আরও খবর



চালকবিহীন বৈদ্যুতিক গাড়ি আনছে অ্যাপল

প্রকাশিত:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরির দিকে ঝুঁকছে বিশ্বের খ্যাতনামা সব গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। টেসলা ও রিভিয়ানের মতো সংস্থাগুলো অনেক আগে থেকেই অত্যাধুনিক ইলেকট্রিক গাড়ি তৈরির চেষ্টা করছে। পিছিয়ে নেই বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি সংস্থা অ্যাপলও। চালকবিহীন স্ব-নিয়ন্ত্রিত ইলেকট্রিক গাড়ি নিয়ে আসার চেষ্টায় রয়েছে অ্যাপলের ইঞ্জিনিয়াররা।

সম্প্রতি ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে জানা যাচ্ছে আগামী ২০২৫ সালের প্রথম দিকেই এই নতুন গাড়ি বাজারে আনছে অ্যাপল। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অ্যাপলের নতুন গাড়িটির থাকবে না কোনো স্টিয়ারিং হুইল। চালকের আসনে বসে হাত ও পায়ের কোনো কাজও করতে হবে না ব্যবহারকারীকে। গাড়িটি চলবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে। তবে সম্ভবত নির্দেশ দিতে পারবেন চালক। এজন্য বিশেষ গাড়িটির আভ্যন্তরীণ নকশাতেও বদল আনা হচ্ছে।

সূত্রের খবর, ওই ইলেকট্রিক গাড়ির ব্যাটারি সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি করছে অ্যাপল। যা যুগান্তকারী কোনো প্রযুক্তি হতে চলেছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। পাশাপাশি স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলানোর জন্য অ্যাপল নিজস্ব বিশেষ সফটওয়ার ডেভলপ করছে। ১৯০ জনের একটি দল এই প্রকল্পে কাজ করছে, বলে জানা যায় এক প্রতিবেদন থেকে।

অ্যাপল ২০১৪ সাল থেকে টাইটান নিয়ে কাজ করছে। তবে এই উদ্যোগের কিছু বিশদ বিবরণ বেরিয়ে এসেছে। সংবাদসংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিল, অ্যাপল ২০২৪ সালের মধ্যেই নতুন ইলেকট্রিক গাড়ি নিয়ে আসছে। তবে এখন জানা যাচ্ছে, অ্যাপল তাদের ইলেকট্রিক গাড়ি আরও উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে চালকবিহীন করতে চাচ্ছে।

নিউজ ট্যাগ: অ্যাপেল গাড়ি

আরও খবর



দিল্লিতে ভয়াবহ বায়ুদূষণ, আবারও বন্ধ হল সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মাত্রাতিরিক্ত বায়ু দূষণে নাকাল দিল্লির জনজীবন। এই কারণে দিল্লিতে স্কুল-কলেজসহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে বলে জানিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড কর্তৃপক্ষ। এছাড়া দিল্লির বেসরকারি সংস্থাগুলোর ৫০ শতাংশ কর্মীকে বাসা থেকে কাজ করতে বলা হয়েছে। মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

দিল্লির দূষণের ফলে স্বাস্থ্য ঝুঁকি এড়াতে করণীয় নিয়ে সরকারি পর্যায়ে আলোচনা চলছে কয়েকদিন ধরেই। দূষণের মাত্রা এতটাই বেড়েছে যে দিল্লি এবং আশপাশের শহরের স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করতে হলো। মঙ্গলবার গভীর রাতে জানিয়েছে কমিশন ফর এয়ার কোয়ালিটি ম্যানেজমেন্ট (সিএকিউএম)। তবে কোভিডের সময় অনলাইনে যেভাবে ক্লাস চলতো সেভাবেই ফেরার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সিএকিউএম-এর জারি করা নয় পৃষ্ঠার আদেশে আগামী ২১ নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লি, হরিয়ানা, রাজস্থান এবং উত্তর প্রদেশের ৫০ শতাংশ কর্মীকে ঘরে বসে কাজের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে প্রতিবারের মতো এবারও দিল্লির দূষণের জন্য প্রতিবেশী রাজ্যের কৃষকদের ফসলের গোড়া পোড়ানোকে অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকার দায়ী করলেও কেন্দ্র সুপ্রিম কোর্টে পাল্টা হলফনামায় জানায়, সারা বছরে দিল্লির কেবল ১০ শতাংশ বায়ু দূষণের কারণ হল ফসলের গোড়া পোড়ানো ধোঁয়া। মূল কারণ কলকারাখানার বর্জ্য ও গ্যাস, যানবাহনের ধোঁয়া এবং রাস্তার ধুলো।


আরও খবর