Logo
শিরোনাম

নিয়োগ দেবে নাদিয়া ফার্নিচার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ফার্নিচার কোম্পানি নাদিয়া ফার্নিচার লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটিতে শোরুম ম্যানেজার’ পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী যোগ্য প্রার্থীরা অনলাইনের মাধ্যমে সহজেই আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম:

শোরুম ম্যানেজার (রিটেইল অ্যান্ড করপোরেট সেলস)।

পদসংখ্যা:

মোট তিন জন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা:

স্বীকৃত যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যেকোনো বিষয়ে ন্যূনতম স্নাতকোত্তর পাস প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। প্রার্থীর আট বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। সঙ্গে কম্পিউটার বিষয়ে সাধারণ জ্ঞান থাকতে হবে। ন্যূনতম ২৮ হতে অনূর্ধ্ব ৩৫ বছর বয়স পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

কর্মস্থল:

ঢাকা।

বেতন:

আলোচনা সাপেক্ষে।

আবেদন প্রক্রিয়া:

আগ্রহী প্রার্থীরা বিডিজবস অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ তারিখ:

৭ জুন, ২০২২।

নিউজ ট্যাগ: চাকুরীর খবর

আরও খবর

পদ্মা ব্যাংকে চাকরির সুযোগ

শুক্রবার ১৩ মে ২০২২




খুলনায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ মাসের শিশুসহ নিহত ২

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

খুলনার ডুমুরিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ মাসের শিশুসহ দু’জন নিহত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে চুকনগর খুলনা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ডুমুরিয়ার খর্ণিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশের ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মেহেদী হাসান জানান, বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে চুকনগর খুলনা মহাসড়কের ডুমুরিয়া বাজারের মহিলা কলেজের সামনে পিকআপ ও ইঞ্জিন ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় পিকআপের ধাক্কায় মায়ের কোল থেকে ছিটকে পড়ে ভ্যানের যাত্রী ৮ মাসের শিশু মোঃ ইব্রাহিম হোসেন নিহত হয়। শিশুটির মাতা রাবেয়া বেগম (৩৫) ও পিতা শরিফুল ইসলাম (৪৮) আহত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় রাবেয়া বেগমকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা আশংঙ্কাজনক। শরিফুল ইসলামকে ডুমুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এর কিছুক্ষণ পরেই চুকনগর খুলনা মহাসড়কের বরাতিয়া মোবাইল টাওয়ারের সন্নিকটে চুকনগর থেকে ছেড়ে যাওয়া বাসের ধাক্কায় এক মোটর সাইকেল আরোহী নিহত হন। তিনি নড়াইল উপজেলার আতশপাড়া গ্রামের নিমাই বিশ্বাসের পুত্র রনি বিশ্বাস (৩০)। বাসটি পালিয়ে যায়। পিকআপটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর



আহলে হাদিসের প্রধান ঈদ জামাত ঢাবি খেলার মাঠে

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আহলে হাদিসের ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে অনুষ্ঠিত হবে। জামাতে ইমামতি করবেন বংশাল বড় জামে মসজিদের সম্মানিত খতিব শাইখ মুহাম্মাদ মোস্তফা সালাফি। এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বংশাল বড় জামে মসজিদের ব্যবস্থাপনা কমিটির পক্ষ থেকে ঈদ জামাত আয়োজনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ জমঈয়তে আহলে হাদিসের কেন্দ্রীয় কমিটির সেক্রেটারি জেনারেল শাইখ ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ খান মাদানী। তিনি বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দুই বছরের বিরতি দিয়ে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম বড় উৎসব ঈদুল ফিতরের জামাত আবারো ফিরছে ঈদগাহে। ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলার মসজিদ ও ঈদগাহ ময়দানে একই সময়ে এক বা একাধিক ঈদ জামাতের ব্যবস্থা থাকছে।

তবে বৈরি আবহাওয়া থাকলে বা অন্য কোনো অনিবার্য কারণে ঈদগাহে নামাজ আদায় সম্ভব না হলে ঈদের জামাত ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় মসজিদে একই সময়ে এক বা একাধিক ঈদ জামাতের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। প্রতি বছরের ন্যায় ঈদ জামাতে নারী মুসল্লিদের জন্য পৃথক নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে বলে জানান আয়োজক কমিটি।

জমঈয়তে আহলে হাদীসের সভাপতি ড. আবদুল্লাহ ফারুক জানান, যথাযোগ্য মর্যাদা, ভাব-গাম্ভীর্য এবং উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আনন্দমুখর পরিবেশে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২ বা ৩ মে সকাল সাড়ে ৭টায় মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।

নিউজ ট্যাগ: আহলে হাদিস

আরও খবর



আজকের রাশিফল

প্রকাশিত:রবিবার ০১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজকের রাশিফল রবিবার ১ মে ২০২২। মেষ, বৃষ, মিথুন, কর্কট, সিংহ, কন্যা, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু, মকর, কুম্ভ, মীন এই রাশিগুলির দিনটি কেমন কাটবে।

মেষ:

অনিচ্ছাকৃত ভাবে কোনও কাজ ফেলে রাখবেন না। আপনার আলোচনায় মানুষ সন্তুষ্ট হবে। শত্রুপক্ষের সঙ্গে আপস করে নিজের কাজ উদ্ধার করতে হবে।নিজের বুদ্ধিতে কর্মস্থানে উন্নতি। যানবাহন বা জমি, কোনও কিছু কেনার আগে ভাবনা-চিন্তা করা প্রয়োজন।

বৃষ:

সকালের দিকে মায়ের চিকিৎসার খরচ বাড়তে পারে। আজ সমাজসেবায় কিছু দান করতে ইচ্ছা করবে। সহকর্মীরা আপনাকে বিপদে ফেলার চেষ্টা করতে পারেন। আজ আপনার উচ্চাকাঙ্ক্ষা বৃদ্ধি পেতে পারে।

মিথুন রাশি: 

সন্তানদের নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলে মিটে যাবে।ব্যবসায় বিশেষ লাভের শুভ যোগ। দূর দেশে ভ্রমণের পরিকল্পনা সফল হতে পারে। বিদ্যার্থীদের জন্য নতুন কোনও পথ খুলতে পারে। বাত-জাতীয় রোগে কষ্ট পাওয়ার সম্ভাবনা আছে। বাড়তি কোনও ব্যবসায় লাভ।

কর্কট রাশি:

লেনদেনের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন। জমি বা সম্পত্তি ক্রয়-বিক্রয় করার শুভ দিন। শেয়ারে বাড়তি লগ্নি চিন্তাবৃদ্ধি ঘটাতে পারে। সন্তানের কাজে মুখ উজ্জ্বল। পেটের সমস্যায় ভোগান্তি। হাঁটাচলা খুব সাবধানে করবেন।

সিংহ রাশি:

স্ত্রীর উৎসাহে ব্যবসায় উন্নতির আশা রাখতে পারেন। উপকারের পরিবর্তে অপদস্থ হওয়ার সম্ভাবনা। প্রেমে কোনও জটিলতা নিয়ে চিন্তা। আজ নিকট কারও জন্য মানসিক পীড়া হতে পারে। প্রতিবেশীর সঙ্গে বিবাদে আইনি ঝঞ্ঝাট আসতে পারে।

কন্যা রাশি:

পরিবারের সকলের সঙ্গে অশান্তি বাধতে পারে। ব্যবসায় অতিরিক্ত লোভের জন্য বিপদ হবে। দুপুরের পরে কাজের জন্য অতিরিক্ত ব্যস্ত হতে হবে। বিয়ের বিষয় আলোচনা হবে।

তুলা রাশি:

শিক্ষকদের সম্মান বাড়তে পারে। পেটের কষ্ট বৃদ্ধি পেতে পারে। কোনও কাজের জন্য গভীর চিন্তা করতে হতে পারে। সন্তানের জন্য খরচ বৃদ্ধি। ব্যবসায় বাড়তি বিনিয়োগ করতে পারেন।

বৃশ্চিক রাশি:

চিকিৎসার জন্য ব্যয় বৃদ্ধি। দুপুরের পরে আগুন থেকে সাবধান। আঘাতপ্রাপ্তির সম্ভাবনা। কর্মস্থানে কোনও বাধা আসতে পারে। উন্নতির জন্য চেষ্টা। চাকরির স্থানে কাজের চাপ বাড়তে পারে।

ধনু রাশি:

স্ত্রীর বেহিসেবি খরচে সংসারে অশান্তি হতে পারে। বন্ধুদের ব্যবহারে মনে দুঃখ পেতে পারেন। নিজের বুদ্ধিতে কর্মস্থানে উন্নতি। যানবাহন বা জমি কোনও কিছু কেনার আগে ভাবনা-চিন্তা করা প্রয়োজন।

মকর রাশি:

আপনার থেকে ছোট কারও সঙ্গে তর্ক বাধতে পারে। পরিস্থিতি বিরুদ্ধে যাওয়ার আশঙ্কা। অর্থাভাবের জন্য সংসারে অশান্তি হতে পারে। মা-বাবার সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় থাকবে।নতুন কোনও বন্ধুর সাহা‌য্য পেতে গিয়ে বাধা। ব্যবসায় শুভ কিছু ঘটার সম্ভাবনা। রাজনীতির লোকেদের জন্য দিনটি খুব ভাল হবে না।

কুম্ভ রাশি:

গঠনমূলক কাজের চিন্তা ও নতুন পরিকল্পনা সফল হতে পারে। আজ স্ত্রী এমন কিছু কাজ করবেন, যা দেখে আপনাকে হতভম্ব হতে হবে। নিজের কাজের উপর নিজেরই গর্ববোধ হবে। জ্বর-জ্বালায় ভোগান্তির আশঙ্কা আছে।

মীন রাশি:

উপকারের পরিবর্তে অপদস্থ হওয়ার সম্ভাবনা। প্রেমে জটিলতা নিয়ে চিন্তা। আজ নিকট কারও জন্য মানসিক পীড়া হতে পারে। প্রতিবেশীর সঙ্গে বিবাদে আইনি ঝঞ্ঝাট আসতে পারে।


আরও খবর



আসছে ইরানি সিনেমা ‘জিরো ফ্লোর’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আসছে বাংলা ভাষায় সাড়া জাগানো ইরানি সিনেমা জিরো ফ্লোর’। ২০১৯ সালে ইব্রাহিম ইব্রাহিমিয়া পরিচালিত ৭৯ মিনিটের এই সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল ইরানি ভাষায়। এতে অভিনয় করেছেন-হামিদ রেজা আজারাং, জাভেদ ইজাতি, বেহদোখত ভালিয়েনসহ আরও অনেকে।

সিনেমাটির গল্পে দেখা যাবে, নিজের চার বছরের ছেলের সার্জারি বন্ধ করতে তেহরানে রওনা দেন ওয়াহিদ। কিন্তু ওয়াহিদের পৌঁছানোর আগেই সার্জারির সময় তার সন্তানের মৃত্যু হয়। আর এই মৃত্যুর জন্য তিনি দায়ী করেন তারই সাবেক স্ত্রী ফাহিমাকে। সন্তানের এই মৃত্যুই ওয়াহিদ ও ফাহিমার সম্পর্ককে একটি নতুন মোড় দেয়।


আগামী বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় বাংলায় ডাবিং করা জিরো ফ্লোর’ দেখা যাবে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম চরকিতে। ড্রামা ঘরানার সিনেমাটি দর্শক পরিবারের সবাইকে নিয়ে উপভোগ করতে পারবেন । এতে অ্যাকশন, ড্রামা, ইমোশন সবই আছে। এটি বিশ্বের যেকোনো জায়গা থেকে সম্পূর্ণ বাংলায় দেখা যাবে।

নিউজ ট্যাগ: জিরো ফ্লোর

আরও খবর



চলতি বাজেট

দ্বিতীয় মেয়াদের ১০ মাসে প্রণোদনা ঋণে ধীরগতি

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত বড় শিল্প ও সেবা খাতে প্রথম মেয়াদে প্রণোদনা ঋণ ৮১.৭৬ শতাংশ বিতরণ করা হলেও দ্বিতীয় মেয়াদের ১০ মাসে এই ঋণ বিতরণ হয়েছে মাত্র ৩৪ দশমিক ৩০ শতাংশ। একইভাবে প্রথম মেয়াদে ছোট শিল্পে ঋণ বিতরণের হার ছিল ৭৬.৯৩ শতাংশ। দ্বিতীয় মেয়াদের ১০ মাসে তা হয়েছে মাত্র ৪৯ দশমিক ২৫ শতাংশ। জুলাই থেকে শুরু হওয়া এ ঋণ বিতরণ কার্যক্রমে ধীরগতিতে হতাশ ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা। চলতি বাজেটে এটি শতভাগ বাস্তবায়নের কথা থাকলেও বছর শেষে হিসাব-নিকাশে ধীরগতির তথ্য পাওয়া গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন অনুযায়ী, ক্ষতিগ্রস্ত বড় শিল্প ও সার্ভিস সেক্টরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল হিসাবে প্রথম মেয়াদে ৪০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছিল, যার বাস্তবায়নের হার ছিল ৮১ দশমিক ৭৬ শতাংশ। তবে চলতি অর্থবছরের ১ জুলাই থেকে দ্বিতীয় মেয়াদের ৩৩ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ বাস্তবায়ন শুরুর পর ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত এ খাতে বিতরণ হয়েছে মাত্র ১১ হাজার ৩২২ কোটি ২৯ লাখ টাকা, যা মোট প্যাকেজের ৩৪ দশমিক ৩০ শতাংশ।

অপরদিকে ক্ষুদ্র, কুটির ও মাঝারি শিল্পে (সিএমএসএমই) ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল হিসাবে প্রথম মেয়াদে ২০ হাজার কোটি টাকার ঋণ সুবিধা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত হয়। সে ঋণ বিতরণ হয়েছে ৭৬.৯৩ শতাংশ। একই খাতে দ্বিতীয় মেয়াদে আরও ২০ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা তহবিল ঘোষণা করা হয়। কিন্তু দ্বিতীয় পর্যায়ে চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে এপ্রিল পর্যন্ত বিতরণ হয়েছে ৯ হাজার ৮২৮ কোটি টাকা, যা লক্ষ্যমাত্রার ৪৯ দশমিক ২৫ শতাংশ। অর্থাৎ দ্বিতীয় ধাপের প্যাকেজ বাস্তবায়নে বৃহৎ ও ক্ষুদ্র শিল্পে ঋণ বিতরণের হার খুবই কম।

ঋণ বিতরণের দিক থেকে নাজুক অবস্থায় আছে বেশ কয়েকটি ব্যাংক। এরমধ্যে ১৯টি ব্যাংক এক টাকাও বিতরণ করেনি। অপরদিকে ৪টি ব্যাংকের ঋণ বিতরণের হার ১ শতাংশেরও কম। ২টি ব্যাংক ঋণ বিতরণ করেছে ২ শতাংশেরও কম। ১৪টি ব্যাংক ৫০ শতাংশের বেশি ঋণ বিতরণ করেছে। সবচেয়ে এগিয়ে আছে চতুর্থ প্রজন্মের বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক। ব্যাংকটির লক্ষ্য ছিল মাত্র ৫০ কোটি টাকা। তাদের লক্ষ্যের শতভাগ ঋণ বিতরণ করেছে। এরপরের অবস্থানে আছে বিদেশি হাবিব ব্যাংক। এ ব্যাংকটি বিতরণ করেছে ৯৫ শতাংশ। যদিও ব্যাংকটির লক্ষ্য ছিল মাত্র ১০ কোটি টাকা। এরপর বেশি ঋণ বিতরণ করেছে বেসরকারি খাতের দ্য সিটি ব্যাংক। ব্যাংকটি টার্গেটের ৮৮ শতাংশ প্রণোদনা ঋণ বিতরণ করেছে। সিটি ব্যাংকের লক্ষ্য ছিল ৯৫৭ কোটি টাকা। ব্যাংকটি বিতরণ করেছে ৮৪১ কোটি ৯০ লাখ টাকা।

বেশিরভাগ ব্যাংক যেখানে ঋণ বিতরণে পিছিয়ে সেখানে সিটি ব্যাংক এত ঋণ বিতরণ করল কিভাবে জানতে চাইলে ব্যাংকটির প্রধান নির্বাহী ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসরুর আরেফিন বলেন, গ্রাহককে বেশি অগ্রাধিকার দিয়েছি। গ্রাহকদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক খুবই ভালো। যে গ্রাহক কখনো খেলাপি হননি, সে যখন কোভিডের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাকে সাহায্য করেছি এবং গ্রাহক প্রণোদনার ঋণ নিয়ে সময়মতো ফেরত দিয়েছেন। সব গ্রাহকই টাকা ফেরত দিচ্ছেন। কেউ খেলাপি হননি। তাই দ্বিতীয় ধাপেও গ্রাহক ও ব্যাংকের সম্পর্কের ভিত্তিতে ঋণ বিতরণ করেছি। আমরা কোনো খারাপ গ্রাহককে ঋণ বিতরণ করিনি।

সামগ্রিকভাবে দ্বিতীয় ধাপের ঋণ বিতরণের হার হতাশার বলে মন্তব্য করেছেন একটি বেসরকারি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তিনি বলেন, প্রথম ধাপের ঋণ বিতরণের টাকা সময়মতো ফেরত আসেনি। তখন এক টাকা ফেরত না দিলেও খেলাপি করা যায়নি। এরপর কিস্তির ২৫ শতাংশ ফেরত দিলেই খেলাপি না করতে বলা হয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে। এসব কারণে দ্বিতীয় ধাপে ঋণ বিতরণ করতে পারিনি। প্রথম ধাপের ঋণ বিতরণের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক যে টাকা দিয়েছিল তা আবার ফেরত নিয়েছে এক বছর পরেই। কিন্তু গ্রাহকের কাছ থেকে সে টাকা ফেরত পাইনি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি সূত্র জানায়, প্রথম পর্যায়ে শিল্প ও সেবা খাতের জন্য ঘোষিত ৪০ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা তহবিল থেকে ৩২ হাজার ৭০৩ কোটি টাকা বিতরণ করা হয়। এ ঋণ পেয়েছে ৩ হাজার ৩০৬টি শিল্পপ্রতিষ্ঠান। দ্বিতীয় মেয়াদে এ তহবিল থেকে বিতরণ করা হয়েছে ১১ হাজার ৩২২ কোটি টাকা। ঋণ পেয়েছে ১ হাজার ১৬২টি শিল্পপ্রতিষ্ঠান। এই তহবিলের ঋণের সুদহার ৯ শতাংশ হলেও গ্রাহকদের দিতে হচ্ছে সাড়ে ৪ শতাংশ। বাকি সাড়ে ৪ শতাংশ ভর্তুকি দিচ্ছে সরকার।

বৃহৎ শিল্প ছাড়া কুটির, ক্ষুদ্র ও মাঝারি প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় দ্বিতীয় মেয়াদে ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ৯ হাজার ৮২৮ কোটি টাকা। ২০ হাজার কোটি টাকার এই তহবিল থেকে ঋণ পেয়েছে ৫৬ হাজার ৪৭টি প্রতিষ্ঠান। প্রথম দফায় এ তহবিল থেকে ১৫ হাজার ৩৮৬ কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়, ঋণ পেয়েছিলেন ৯৭ হাজার ৮১৪ জন গ্রাহক। এ ঋণের সুদ ৯ শতাংশ, তবে এর মধ্যে সরকার ভর্তুকি দিচ্ছে ৫ শতাংশ। গ্রাহকের দিতে হচ্ছে ৪ শতাংশ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে প্রথম দফায় ঋণ নিতে যত আগ্রহ ছিল, দ্বিতীয় দফায় তত আগ্রহ দেখা যাচ্ছে না। কারণ, যারা ঋণ নিয়েছেন, তাদের ঋণ পরিশোধের সময় এসেছে। এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংক পরিচালিত ১০টি প্রণোদনা তহবিল থেকে দুদফায় সব মিলিয়ে প্রায় ১ লাখ ২১৮ কোটি টাকার ঋণ বিতরণ করা হয়। এর মধ্যে শিল্প ও সেবা খাতের ৪৪ হাজার ২৬ কোটি টাকা, কুটির, ক্ষুদ্র ও মাঝারি প্রতিষ্ঠানগুলোর ২৫ হাজার ২১৫ কোটি টাকা, প্রি-শিপমেন্ট খাতে পুনঃঅর্থায়নে ঋণ গেছে ৬৫২ কোটি টাকা, নিম্ন আয়ের পেশাজীবী কৃষক ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের মধ্যে ২ হাজার ৭১৮ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ হয়েছে।

এ ছাড়া রপ্তানি উন্নয়ন তহবিল থেকে ২৭ হাজার ৭৫৮ কোটি টাকা, এসএমই খাতের ঋণ নিশ্চয়তা স্কিম থেকে ৮৯ কোটি টাকা, রপ্তানিমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত শ্রমিকদের মধ্যে ৫ হাজার কোটি টাকা, গ্রাহকের সুদ ভর্তুকি বাবদ ১ হাজার ৩৯০ কোটি টাকা ও কৃষি খাতের পুনঃঅর্থায়ন স্কিমের আওতায় ৫ হাজার ৯০২ কোটি টাকা বিতরণ হয়েছে। তবে পর্যটন খাতের হোটেল, মোটেল ও থিম পার্কের কর্মচারীদের বেতন-ভাতার জন্য ১ হাজার কোটি টাকা তহবিল গঠন হলেও কোনো ঋণ বিতরণ হয়নি।

মহামারি কোভিড ১৯-এর কারণে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের জন্য সরকারের নির্দেশনায় মোট ২৮টি প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়। এসব প্যাকেজে অর্থের অঙ্ক দাঁড়ায় ১ লাখ ৮৭ হাজার ৬৭৯ কোটি টাকা। পরে রপ্তানি উন্নয়ন তহবিলের (ইডিএফ) মাধ্যমে প্যাকেজটিতে যুক্ত হয় আরও ১২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে প্রণোদনা প্যাকেজের অঙ্ক ২ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে ১ লাখ ৬৮ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার ১০টি প্যাকেজ বাস্তবায়ন হয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে।


আরও খবর