Logo
শিরোনাম

নতুন সেনাপ্রধান এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
সেনাবাহিনীর কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদকে আগামী ২৪ জুন (২০২১) বিকাল থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে জেনারেল পদে পদোন্নতি

লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদকে সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ওয়াহিদা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ নিয়োগ দেওয়া হয়।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, সেনাবাহিনীর কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদকে আগামী ২৪ জুন (২০২১) বিকাল থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে জেনারেল পদে পদোন্নতি প্রদানপূর্বক প্রতিরক্ষা বাহিনীগুলোর প্রধানদের (নিয়োগ, বেতন, ভাতা এবং অন্যান্য সুবিধা) আইন, ২০১৮ অনুযায়ী ওইদিন বিকাল থেকে ৩ বছরের জন্য সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা হলো।

তিনি বর্তমান সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হবেন।


আরও খবর



ইসরাইল যদি ফিলিস্তিনে আগ্রাসন অব্যাহত রাখে তাহলে আবার যুদ্ধ শুরু হবে: হামাস

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, ইহুদিবাদী ইসরাইল যদি ফিলিস্তিনে আগ্রাসন অব্যাহত রাখে তাহলে ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনসহ বিভিন্ন সংগঠন আবার যুদ্ধ শুরু করবে।

তিউনিসিয়ার রাজধানী তিউনিসে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলুকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন হামাসের অন্যতম মুখপাত্র সামি আবু জুহরি। 

সামি আবু জুহরি বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল চুক্তির প্রতি সম্মান দেখাচ্ছে না এবং পশ্চিমতীরের শহরগুলোতে নিয়মিত আগ্রাসন চালাচ্ছে। এছাড়া, পবিত্র জেরুজালেম আল-কুদস শহরের লোকজনকে উদ্বাস্তু করে দেয়ার গোপন মিশন এখনও চলছে।

এ অবস্থা চলতে থাকলে ইসরাইলের বিরুদ্ধে নতুন করে যুদ্ধ শুরু করতে পারে হামাস।

সামি আবু জুহরি বলেন, মিশরের মধ্যস্থতায় হামাস এবং ইসরাইলের মধ্যে যে দুর্বল যুদ্ধবিরতি হয়েছে হামাস তা এখনো মেনে চলছে। তবে ইসরাইলের আচরণের ওপর এর ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে।

তিনি সুস্পষ্ট করে বলেন, ইসরাইল যতক্ষণ পর্যন্ত এই যুদ্ধবিরতি চুক্তি মেনে চলবে হামাসও ততক্ষণ পর্যন্ত তা মানবে। দখলদার ইসরাইলের অপরাধমূলক তৎপরতার কারণে এই অস্ত্রবিরতি চুক্তি অনেকটাই ভঙ্গুর।


নিউজ ট্যাগ: হামাস ইসরাইল

আরও খবর



১৮ দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে হেফাজত নেতা মামুনুল হক

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১১৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নাশকতা ও ধর্ষণসহ ছয় মামলায় রিমান্ড শেষে হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ শনিবার (৫ জুন) সকালে ১৮ দিনের রিমান্ড শেষে মামুনুল হককে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাওছার আলমের আদালতে হাজির করে পুলিশ। শুনানী শেষে আদালত মামুনুল হককে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জে সহিসংতার দুটি মামলায় মামুনুল হককে ছয় দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। আরেক মামলায় তিনদিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

এর আগে মামুনুল হকের বিরুদ্ধে তার কথিত স্ত্রী জান্নাত আরা ঝর্ণার করা ধর্ষণ মামলাসহ সোনারগাঁওয়ে দায়ের করা তিন মামলায় মামুনুলকে নয় দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।

মোট ছয়টি মামলায় তিন দিন করে ১৮ দিনের রিমান্ড শেষে আজ তাকে আদালতে হাজির করা হয়। শুনানী শেষে আদালতের আদেশের পরে কঠোর নিরাপত্তায় তাকে কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।



আরও খবর



ভারতে করোনায় ৩ লাখ মানুষের প্রাণহানি

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৬ জুন ২০২১ | ৯৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা গত কয়েক দিনের তুলনায় খানিকটা কমলেও শঙ্কা এখনও কাটেনি। দেশটিতে সংক্রমণ অনেক বেশি ছড়িয়ে পড়ায় টিকা কর্মসূচিতেও এর প্রভাব পড়ছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, রবিবার (২৩ মে) সকাল ৯টা পর্যন্ত ভারতে পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মারা গেছেন আরও প্রায় ৩ হাজার ৭৮৮ জন মানুষ এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৪৩ হাজার ৭৭৭ জন। এ নিয়ে ভারতে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৯৯ হাজার ২৯৬ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৬৫ লাখ ২৮ হাজার ৮৪৬ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ কোটি ৩৪ লাখ ১৮ হাজার ৫২৩ জন।

গত কয়েক দিন করোনায় গড়ে চার হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু দেখেছে ভারত। শনাক্তের টালিও কিছুটা নিচের দিকে এখন। তবে হাসপাতালগুলোতে যে সংকট তৈরি হয়েছে তা এখনো কাটেনি। অক্সিজেনের পাশাপাশি টিকার সংকটও এখন চরমে।

টিকার জন্যে কেন্দ্রে কেন্দ্রে ঘুরে বেড়ানো এক ব্যক্তি বলেন, টিকাকেন্দ্রে গিয়েছিলাম কিন্তু সেখানে কোনো টিকা নেই, আবার অন্য কোনো কেন্দ্রে গিয়ে চেষ্টা করে দেখতে হবে।

দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে এসে না পেয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে অনেককে। এমনই এক নারী বলেন, দ্বিতীয় ডোজের টিকা দিতে এসে দেখলাম কেন্দ্রই বন্ধ। কবে খুলবে আর কবে টিকা পাব তাও জানি না।

টিকা সংকটে একদিকে দেশটিতে যেমন টিকাদান কর্মসূচি ব্যাহত হচ্ছে, তেমনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উদ্যোগে গঠিত কোভ্যাক্স ভারতকে যে সংখ্যক টিকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তা নিয়েও শুরু হয়েছে জটিলতা।

এদিকে প্রাপ্তবয়স্কদের পাশাপাশি আশঙ্কাজনকভাবে শিশুরাও করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় তাদের তথ্য সংগ্রহ ও যাচাইয়ের নির্দেশ দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভ্যাকসিন সঠিকভাবে মজুতের ব্যাপারেও কঠোর নির্দেশনা দেন তিনি।

সংকটের মধ্যেই যাতে মানুষ ঘরে বসে টিকা নিতে পারে এমন একটি অ্যাপের অনুমোদন দিয়েছে দেশটির মেডিকেল কাউন্সিল। শিগগিরই এটি চালু করা হবে বলে জানায় সংস্থাটি।



আরও খবর



করোনায় আরও ৪৩ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৪৪৭

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা মৃতের সংখ্যা বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগের দিন ৩৪ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর। ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৪৩ জনকে নিয়ে দেশে সরকারি হিসেবে এখন পর্যন্ত মারা গেলেন ১২ হাজার ৮০১ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হারও বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৪৪৭ জন। যা নমুনা পরীক্ষার তুলনায় ১১ দশমিক শূন্য তিন শতাংশ। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ছিল ১০ দশমিক ৪০ শতাংশ।

নতুন করে শনাক্ত হওয়া এক হাজার ৪৪৭ জনকে নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত সরকারি হিসেবে শনাক্ত হলেন আট লাখ ৯ হাজার ৩১৪ জন। একই সময়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৬৬৭ জন, দেশে এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ হলেন সাত লাখ ৪৯ হাজার ৪২৫ জন।

শনিবার (৫ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এতে বলা হয়, দেশে এখন পর্যন্ত রোগী শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪১ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার হার ৯২ দশমিক ৬০ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৫৮ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ১২ হাজার ৭৬৬টি এবং নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ১১৫টি। দেশে এখন পর্যন্ত করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৬০ লাখ ৩৪ হাজার ২৬০টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৪ লাখ দুই হাজার ৪০৬টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ১৬ লাখ ৩১ হাজার ৮৫৪টি।


আরও খবর



ইয়াসের প্রভাবে দেশের বিভিন্ন এলাকায় পানিতে ডুবে ৬ শিশুর মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১০৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে দেশের বিভিন্ন এলাকায় নদীর পানি বেড়ে গেছে। এ কারণে জোয়ারে বেড়িবাঁধ ভেঙে বেশ কয়েকটি এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এ সময় পৃথক স্থানে পানিতে ডুবে মারা গেছে পাঁচ শিশু।

বুধবার (২৬ মে) ইয়াসের প্রভাবে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ঝড়ো হাওয়ায় বিধ্বস্ত হয়েছে ঘরবাড়ি। ডুবে গেছে ঘর-বাড়ি, রাস্তাঘাট, ফসলি জমি।

১. বরিশালের বাকেরগঞ্জে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে জোয়ারের পানিতে ডুবে ২ শিশু মারা গেছে। বুধবার (২৬ মে) উপজেলার পৃথক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত শিশুরা হলেন, সুমাইয়া আক্তার (৩) উপজেলার নিয়ামতি ইউনিয়নের ঢালমারা গ্রামের হাফিজুর রহমানের মেয়ে। আজওয়া আক্তার (৩) গারুরিয়া ইউনিয়নের রুনসী পশুরি গ্রামের আজগর আলীর মেয়ে ।

২. বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের খাউলিয়া এলাকায় ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২৬ মে) দুপুরের দিকে উপজেলার খাউলিয় ইউনিয়নের চালিতাবুনিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মৃত জিনিয়া আক্তার (৪) চালিতাবুনিয়ার নির্মাণ শ্রমিক কালাম গাজীর মেয়ে।

৩. নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার সুখচর ইউনিয়নে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে জোয়ারের পানিতে ভেসে গেছে লিমা আক্তার (৭) নামের এক শিশু।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সকাল পর্যন্ত নিখোঁজ শিশুটির কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে নিশ্চিত করেছেন হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইমরান হোসেন।

(৭) সুখচর ইউনিয়নের চর আমান উল্যাহ গ্রামের বাবুল মিয়ার মেয়ে।

এ বিষয়ে হাতিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, এ সংবাদ পেয়ে শিশুটির পরিবারের সদস্যদের নিয়ে লিমাকে খোজা হচ্ছে।

৪. ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ও পূর্ণিমার প্রভাবে ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় বিষখালী নদীর পানি বেড়ে গেছে। এ সময় পনি ডুবে মারা গেছে দুই শিশু। বুধবার (২৬ মে) বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার মেডিকেল মোড় সংলগ্ন ও বড়ইয়া এলাকায় পৃথক এই ঘটনা ঘটে।

৫. রাজাপুরে ব্যাপক হারে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় এবং বিষখালী নদীতে বেড়িবাঁধ না থাকায় পানি ঢুকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ডুবে গেছে ফসলি জমি, রাস্তাঘাট, ঘর-বাড়ি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সেই সঙ্গে ভেসে গেছে কয়েকশ পুকুরের মাছ।

৬. মোংলায় ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আশপাশের উপকূলীয় এলাকার নদ-নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ৩ থেকে ৪ ফুট বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে পশুর নদীর বাঁধ সংলগ্ন কানাইনগর, চিলা ও জয়মনি এলাকার চারশতাধিক বসতঘর তলিয়ে গেছে। চিংড়িসহ অসংখ্য মাছের ঘের পানিতে তলিয়ে গেছে। তবে উপকূলীয় অঞ্চলের আশ্রয়কেন্দ্র গুলোতে কেউ আসেননি

অতি জোয়ার বা জলোচ্ছ্বাসে খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, পিরোজপুর, পটুয়াখালী, বরগুনা, ভোলা, নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুর জেলার ২৭টি উপজেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলাগুলো হলো- আশাশুনি, শ্যামনগর, দাকোপ, কয়রা, পাইকগাছা, মোংলা, শরণখোলা, মোড়েলগঞ্জ, বরগুনা সদর, মঠবাড়িয়া, পাথরঘাটা, আমতলী, পটুয়াখালী সদর, গলাচিপা, রাঙ্গাবালী, দশমিনা, মির্জাগঞ্জ, কলাপাড়া, চরফ্যাশন, মনপুরা, দৌলতখান, বোরহানউদ্দিন, ভোলা সদর, তজুমদ্দিন, হাতিয়া, কমলনগর ও রামগতি।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেন, যেকোনো দুর্যোগ মোকাবিলায় মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য জেলা প্রশাসকদের অনকূলে পর্যাপ্ত খাদ্যসামগ্রী ও অর্থ বরাদ্দ দেয়া আছে।


আরও খবর