Logo
শিরোনাম

অবৈধ বালু উত্তোলনে হুমকিতে বঙ্গবন্ধু সেতু

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন

Image

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জের সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে অবাধে বালু উত্তোলন করায় চরম হুমকির মুখে পড়েছে বঙ্গবন্ধু সেতু। সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের ফুলবাড়ী চর ও চকবয়ড়া চর এলাকায় যমুনা সেতুর নিরাপত্তা বেষ্টনি জুড়ে ৮টি ট্রেজার বসিয়ে পাইপের মাধ্যমে সরাসরি ইকোনোমিক জোনে বালু ফেলা হচ্ছে।

বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন, ২০১০ এর ধারা ৪-এর (খ) অনুযায়ী, সেতু, কালভার্ট, বাঁধ, সড়ক, মহাসড়ক, রেললাইন ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনা অথবা আবাসিক এলাকা থেকে এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ।

অথচ বঙ্গবন্ধু সেতুর প্রায় ২০০ মিটারের দক্ষিণে বালু ব্যবসায়ীরা ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করছে। এর ফলে দেশের বৃহত্তর স্থাপনা বঙ্গবন্ধু সেতুর চরম হুমকিতে পড়েছে এবং দেখা দিয়েছে যমুনা নদী তীরে ভাঙ্গন। এ ব্যাপারে অভিজ্ঞমহল উচ্চ পর্যায়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বেসরকারী অর্থনৈতিক অঞ্চল-১ (ইকোনোমিক জোন) সদর ও বেলকুচি উপজেলার বড়শিমুল, বীরহাটি, চকবয়ড়া, বয়ড়া মাছুম, বড় বেড়াখারুয়া এলাকায় প্রায় ১ হাজার ৪২ একর জায়গায় পুরোদমে চলছে প্রকল্প মাটি ভরাটের কাজ।

আরিফ এন্টার প্রাইজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ৮টি ট্রেজার বসিয়ে স্থানীয় মেম্বার জানিফ, জব্বার, মজিবুর, ইউসুফ ও রেজাউল মিলে সেতুর প্রায় ২০০ মিটার দক্ষিণে যমুনা নদী থেকে দীর্ঘ দিন ধরে ড্রেজার বসিয়ে অবৈধভাবে বিক্রি করছে বেসরকারী অর্থনৈতিক অঞ্চল-১ (ইকোনোমিক জোন) এর নিকট।

সরেজমিন ঘুরে ও স্থানীয়দের অভিযোগে জানা যায়, সয়দাবাদ ইউনিয়নের অংশে দীর্ঘদিন বালু উত্তোলন বন্ধ ছিল। স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি ও জলদস্যুদের সহযোগিতায় যমুনা নদীতে ড্রেজার বসিয়ে দেদারছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। অবৈধ বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে নদীতে ক্রমেই বাড়ছে অপরাধ প্রবণতা। বালুমহাল থেকে উপার্জিত অর্থের একটি অংশ চলে যাচ্ছে জলদস্যুদের হাতে। নয়া উদ্যমে বালু উত্তোলন শুরু করায় এলাকাভিত্তিক পুরনো দ্বন্দ্ব আবার প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। যে কোনো সময় বড় ধরণের সংঘর্ষের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। অপরদিকে যমুনার তীব্র ভাঙ্গণে দিশেহারী হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ৩টি মহলের ইজারা দেওয়া আছে। বঙ্গবন্ধু সেতুর দক্ষিণে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করছে সেটার কোন অনুমোদন নেই।

আরিফ এন্টার প্রাইজের ঠিকাদার আবু সায়েম সোহাগ জানান, আমরা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে অনুমতি নিয়ে বালু উত্তোলন করছি।

এ বিষয়ে বেসরকারী অর্থনৈতিক অঞ্চল-১ (ইকোনোমিক জোন) পরিচালক মো. মনোয়ার হোসেন বলেন, জেলা প্রশাসকের অনুমোতির মাধ্যমে যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। আপনারা জেলা প্রশাসকের নিকট থেকে জেনে নেন।

সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহমেদ বলেন, সদরে ৩টি বালু মহলের ইজারা দেওয়া আছে। ইজারা ছাড়া যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলনের কোন নিয়ম নেই। যদি কেউ অবৈধভাবে যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলন করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমি এখনি এসিল্যান্ডকে ঐখানে পাঠাবো বলে তিনি জানান।

বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান মাসুদ বাপ্পী বলেন, ড্রেজিং এর মাধ্যমে বালু উত্তোলন করার জন্য জেলা প্রশাসকের একটি অনুমোদন পত্র রয়েছে। বঙ্গবন্ধু সেতুর ২শ মিটারের দক্ষিণে ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন আপনারা উপজেলা কিংবা জেলা প্রশাসকের নিকট থেকে জেনে নেন।


আরও খবর



গুগলে মেসেজ শিডিউল করবেন যেভাবে

প্রকাশিত:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অনেক আগেই সোশ্যাল মিডিয়া টেলিগ্রাম নিয়ে এসেছিল মেসেজ শিডিউলের সুবিধা। অর্থাৎ ব্যবহারকারী যে সময়েই মেসেজ লিখে রাখুন না কেন আপনার দেওয়া সময়েই সেটি ডেলিভারি হবে। এখন চাইলে গুগলের মেসেজ অ্যাপ ব্যবহার করে টেক্সট মেসেজ শিডিউল করে রাখতে পারবেন।

এই ফিচারের মাধ্যমে মেসেজ টাইপ করে নিজেদের প্রয়োজন অনুযায়ী টাইম সেট করা সম্ভব। এর ফলে যাকে মেসেজ পাঠানো হচ্ছে তার সুবিধা অনুযায়ী টাইম সেট করে রাখা যাবে।

জেনে নিন কীভাবে গুগলে মেসেজ শিডিউল করতে পারবেন: এজন্য প্রথমেই নিজেদের ফোনে গুগল মেসেজ অ্যাপ ওপেন করুন। এরপর যাকে মেসেজ পাঠাতে চান তার নম্বরটি বেছে নিন। এবার নিজেদের মেসেজ টাইপ করুন। এরপর সেন্ড বাটন অনেকটা সময় ধরে লং প্রেস করে রাখুন। বাই ডিফল্ট অ্যাপ হিসেবে তিনটি টাইম অপশন পাবেন। নিজের পছন্দ অনুযায়ী যে কোনো একটি টাইম বেছে নিন। এবার সিলেক্ট ডেট অ্যান্ড টাইম অপশন সিলেক্ট করে সেভ বাটনে ক্লিক করে দিন।

নিউজ ট্যাগ: গুগলে মেসেজ

আরও খবর

হাইড্রোজেন দিয়ে উড়বে উড়োজাহাজ

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২

পুরোনো টুইট আর্কাইভ করবেন যেভাবে

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২




দিনাজপুরে ২ ভাই হত্যার ঘটনায় বাবা গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

স্ত্রী তালাক দেয়ার জেরে দুই পুত্র সন্তানকে বিষ প্রয়োগে হত্যার অভিযুক্ত বাবা শরিফুল ইসলামকে আটক করেছেপুলিশ। বিরল উপজেলার ধামইর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর এলাকা থেকে শুক্রবার রাত ৮টার দিকে আটক করে পুলিশ।

শরিফুলকে আটকের বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন, বিরল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবু বকর সিদ্দিক রাসেল।

প্রসঙ্গত, স্ত্রী তালাক দেয়ার জেরে দুই পুত্র সন্তানকে বিষ প্রয়োগে হত্যার পর বাবা শরিফুল ইসলাম বৃহস্পতিবার রাতে কোন এক সময় বিষ প্রয়োগে হত্যার পর নিজেই মুঠোফোনে শুক্রবার সকালে তার পরিবারের লোকজনকে জানান।

শুক্রবার সকালে অভিভাবকদের সংবাদেরভিত্তিতে ওই দুই শিশু ইমন (৭) ও ইমরান (৩)এর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

বিরল পৌরসভার শংকরপুর এলাকার নিজ বাড়ি থেকে প্রায় আড়াই কিলোমিটার দূরে বিরল-দিনাজপুর সড়ক সংলগ্ন ৭ নং বিজোড়া ইউনিয়নের ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বর থেকে পুলিশ এ মরদেহ দুটি উদ্ধার করেন। সুরতহাল শেষে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্যে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। শীতের পোশাক কিনে দেওয়ার কথা বলে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দুই ছেলেকে বাড়ি থেকে সঙ্গে নিয়ে বের হন পিতা শরিফুল ইসলাম। রাতে বাড়িতে মুঠোফোনে সে জানায়, বিষ প্রয়োগে দুই ছেলেকে হত্যা করে লাশ ভবানীপুর স্কুলে ফেলে রেখেছে সে। নিজেও বিষ পান করেছে বলে ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে নিখোঁজ হন শরিফুল।

নিউজ ট্যাগ: গ্রেপ্তার

আরও খবর



রাজশাহীতে প্রতিবেশীর বাড়িথেকে মেয়ের বস্তাবন্দী মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ২৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় এক প্রতিবেশীর বাড়ি থেকে সাড়ে তিন বছর বয়সী এক শিশুর বস্তাবন্দী মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (১৬ নভেম্বর) সকাল থেকে সে নিখোঁজ ছিল।

তবে সন্ধ্যার পর উপজেলার আলোকছত্র গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের বাড়ির ভেতর থেকে ওই শিশুর বস্তাবন্দী মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত শিশুর নাম সুমাইয়া খাতুন মাহী। সে ওই গ্রামের মিলন খানের মেয়ে।

রাজশাহীর গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, বুধবার সকালে মৃত নুরুল ইসলামের ১১ বছর বয়সী ছেলের সঙ্গে খেলা কর ছিল সুমাইয়া। পরে মেয়েকে খুঁজতে খুঁজতে সুমাইয়ার মা সন্ধ্যায় নুরুল ইসলামের বাড়িতে যান। এ সময় তিনিই একটি ঘরের ভেতর বস্তাবন্দী অবস্থায় মেয়ের মরদেহ দেখতে পান। পরে থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।

তিনি জানান, মৃত নুরুল ইসলামের স্ত্রী একজন স্কুলশিক্ষকা। সারাদিন তিনি বাড়িতে ছিলেন না। বাড়িতে শুধু তার ছেলে ছিল। বিকেলে ওই স্কুলশিক্ষকা বাড়ি এলে তার ছেলে ঘরের দরজা খুলে দিয়েছে। কিন্তু বাড়িতে মরদেহ কেন, সে প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছে না তারা। তাই কিশোর ছেলেটিকে কাঁকনহাট পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ওসি আরও জানান, সুমাইয়ার গলায় চার্জারের ক্যাবল পেঁচানো পাওয়া ছিল। তাই দেখে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে সুমাইয়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। তবে সুরতহাল করার সময় ধর্ষণের কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে হত্যা মামলা হবে।


আরও খবর



ফারদিন হত্যার নেপথ্যে রায়হান গ্যাং

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর 2০২2 | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিন নূর পরশ হত্যা মামলায় চাঞ্চল্যকর অগ্রগতির তথ্য জানিয়েছে র‍্যাব। তারা বলছে, শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী রায়হান গ্যাং ফারদিন হত্যার নেপথ্যে কাজ করেছে। আলোচিত এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় রায়হানসহ বেশ কয়েকজনকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

সোমবার (১৪ নভেম্বর) রাত ১০টার দিকে ফারদিন হত্যার চাঞ্চল্যকর এসব তথ্য জানতে পেরেছে বলে র‍্যাবের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। যেকোনও সময় তাদের গ্রেফতার করা হবে। সূত্র জানিয়েছে, আলোচিত এই হত্যার ঘটনায় রায়হানসহ বেশ কয়েকজন নজরদারিতে রয়েছে। যারা বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিনকে পিটিয়ে হত্যা করেছে।

নারীঘটিত কিংবা মাদকের কোনও সম্পৃক্ত পাওয়া গেছে কিনা জানতে চাইলে র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ফারদিনের সঙ্গে আমরা নারীঘটিত বা মাদকের কোনও সম্পৃক্ততা পাইনি। তাকে ফিটিং এবং অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে চনপাড়া বস্তিতে নিয়ে যাওয়া হয়।

চনপাড়া কীভাবে গেলো জানতে চাইলে র‍্যাব কর্মকর্তা বলেন, চনপাড়া বস্তি থেকে ফারদিনের বাসা তিন কিলোমিটার দূরে। আর ফারদিন বস্তির ভিতরে যায়নি। ধারণা করছি, মেইন রোড থেকেই তাকে ফিটিং দিয়ে ভিতরে নেওয়া হয়েছে। এরপর পিটিয়ে মারা হয়েছে। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত বন্দুকযুদ্ধে নিহত সিটি শাহীনের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি।

নিউজ ট্যাগ: ফারদিন হত্যা

আরও খবর



কনেরা যেভাবে নেবেন ত্বকের যত্ন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর 2০২2 | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিয়ে নিয়ে সব নারী-পুরুষের মনেই নানা পরিকল্পনা থাকে। সবাই চায় তার বিয়ে যেন হয় রাজকীয়ভাবে। পুরুষের চেয়ে নারীরাই হয়তো বিয়ে নিয়ে বেশি উচ্ছ্সিত থাকেন। বিয়ের অন্তত ২-৩ মাস আগে থেকেই তারা প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন। বিয়ের কেনাকাটা, বিয়ের ভেন্যু, কোন দিন কী পরবেন কিংবা কীভাবে সাজবেন এসব চিন্তায় হয়তো কনেরা দুদণ্ড অবসরের সময় পান না।

তবে শত ব্যস্ততার মাঝে ত্বকের যত্ন নিতে ভুলবেন না কনেরা। অনেকেই হয়তো ভাবেন, বিয়েতে তো নামি-দামি পার্লার বা সেলুন থেকে মেকআপ করবো, তাহলে রূপচর্চার কী দরকার! এমন ভাবনা ঝেড়ে ফেলুন। শুধু মেকআপ করলেই হবে না, ত্বক যাতে ভালো থাকে সেদিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে। বিয়ের আগে শরীরের পাশাপাশি ত্বকের যত্নও নিতে হবে কঠোরভাবে। যাতে জীবনের স্মরণীয় দিনটিতে অত্যন্ত সুন্দর দেখায় আপনাকে।

কনের স্ক্রিন কেয়ার রুটিন কেমন হবে?

সিটিএম মানুন: সিটিএম অর্থ হলো ক্লিনজিং, টোনিং ও ময়েশ্চারাইজিং। শুধু বিয়ের আগেই নয় বরং ত্বক পরিষ্কার রাখতে নিয়মিত এটি অনুসরণ করুন। ত্বকের ধরন অনুসারে একটি ভালো ফেসওয়াশ ব্যবহার করুন, প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে একটি টোনার ও ভালো মানের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

স্ক্রাবিং জরুরি: স্ক্রাব করার মাধ্যমে ত্বক এক্সফোলিয়েট করতে পারবেন। এক্ষেত্রে মরা চামড়া দূর হয়। এর মাধ্যমে শুধু ব্ল্যাকহেডসই দূর হয় না, তকে প্রাকৃতিক আভাও ফিরে আসে।

ফেসিয়াল করুন: বিয়ের আগে করতে পারেন প্রি ব্রাইডাল ফেসিয়াল। এর মাধ্যমে আপনার ত্বক আরও চকচকে হয়ে উঠবে। ফেসিয়াল করার মাধ্যমে ত্বকের কালো দাগ-ছোপ দূর হয়। তবে খেয়াল রাখুন ভালো মানের প্রসাধনী ব্যবহার করা হচ্ছে কি না।

ডিআইওয়াই ফেস মাস্ক মাখুন: ত্বকের যত্নে রান্নাঘরের বিভিন্ন উপাদানেও ভরসা রাখতে পারেন। ত্বকের ধরন অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের মাস্ক তৈরি করতে পারেন টকদই, হলুদ, বেসন, চন্দনের গুঁড়া, মুলতানি মাটি, ময়দা, গোলাপজল ইত্যাদি দিয়ে। ত্বক পরিচর্যার রুটিন নিয়মিত অনুসরণ করার অভ্যাস করুন।

ঠোঁটের জন্য গোলাপজল: শীত আসতে আর বেশি দেরি নেই! এখনই অনেকের ত্বক শুষ্ক হয়ে উঠছে, ফাটছে ঠোঁট। এজন্য ঠোঁটের যত্ন নেওয়াও জরুরি। সবসময় লিপবাম সঙ্গে রাখুন। আর ঠোঁটে গোলাপজল ব্যবহার করুন প্রতিদিন! এটি ঠোঁটকে গোলাপি রাখবে।

হাত-পা মেনিকিউর ও পেডিকিউর করান: শুধু মুখের যত্ন নিলেই হবে না, এর সঙ্গে সঙ্গে কনের হাত-পায়ের যত্নও নিতে হবে। বিভিন্ন কাজে হাত-পা বেশি ব্যবহৃত হলেও এগুলো অযত্নেই থাকে বেশি। এ কারণে হাত-পায়ে পড়ে কালো দাগ-ছোপ। এজন্য বিয়ের আগে হাত-পা পরিষ্কারের জন্য মেনিকিউর ও পেডিকিউর করুন দুদিন অন্তর।

স্বাস্থ্যকর খাবার খান: যারা অতিরিক্ত ওজনে ভুগছেন কিংবা শারীরিকভাবে দুর্বল, তাদের উচিত বিয়ের আগ থেকেই স্বাস্থ্য সচেতন হয়ে ওঠা। এ সময় সবজি, বাদাম ও ডার্ক চকলেট রাখুন যোগ করুন খাদ্যতালিকায়। এর পাশাপাশি প্রচুর পানি পান করতে হবে, যাতে শরীর হাইড্রেটেড থাকে। এই অভ্যাসের কারণে ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়বে।

মেডিটেশন করুন: বিয়ের আগে কোনো বিষয় নিয়ে উত্তেজিত হওয়া মন ও শরীর দুটোর জন্যই ক্ষতিকর। এ সময় যতটা সম্ভব চাপমুক্ত থাকতে হবে। এজন্য মনকে শান্ত রাখতে মেডিটেশন করুন। এতে ঘুমও ভালো হবে, আবার মেজাজও ভালো থাকবে।


আরও খবর

আপনার আজকের দিন- ৩০ নভেম্বর, ২০২২

বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২

আজকের রাশিফল!

মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২