Logo
শিরোনাম

অবৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠালে অ্যাকশন

প্রকাশিত:বুধবার ১৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যারা অবৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বুধবার (১৬ নভেম্বর) এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, অবৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার বিরুদ্ধে প্রমাণ সাপেক্ষে প্রচলিত আইনে বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, প্রবাসী বাংলাদেশি ও তাদের প্রিয়জনদের জানানো যাচ্ছে যে কষ্টার্জিত বৈদেশিক মুদ্রা ব্যাংকিং চ্যানেলের বাইরে (হুন্ডি বা অন্য কোনও অবৈধ পথে) প্রেরণ করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ, এতে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আপনাদের অর্জিত মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা হুন্ডি বা অন্য কোনও অবৈধ পথে না পাঠিয়ে বৈধ পথে/ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে দেশে প্রেরণ করুন। দেশ গড়ায় মূল্যবান অবদান রাখুন এবং আপনার প্রিয়জনকে ঝুঁকিমুক্ত ও নিরাপদ রাখুন।

উল্লেখ্য, প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে অর্থ পাঠানোর ক্ষেত্রে হুন্ডি তৎপরতা বেড়ে গেছে। আর এর ফলে ব্যাংকিং চ্যানেলের রেমিট্যান্সে বড় পতন হচ্ছে। ব্যাংকের চেয়ে ভালো রেট পাওয়া এবং খরচ কম হওয়ায় প্রবাসীদের একটি অংশ অবৈধ পন্থা জেনেও হুন্ডির দিকে ঝুঁকছে। হুন্ডি চক্রে বন্দি হয়ে পড়েছে বৈধপথের রেমিট্যান্স।

ব্যাংকের চেয়ে খোলাবাজারে প্রতি ডলারে অন্তত ছয় টাকা বেশি পাওয়া যাচ্ছে, যা হুন্ডি প্রবণতা বেড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ।

সাধারণত বাণিজ্যের আড়ালে বাংলাদেশ থেকে অর্থ পাচার হয়। মূলত শুল্ক ফাঁকি ও অর্থ পাচারের জন্য আমদানি-রফতানি প্রক্রিয়ায় কম মূল্য বা বেশি মূল্য দেখানো হয়। অর্থ পাচারের জন্য দেশের বাইরে যে বৈদেশিক মুদ্রার প্রয়োজন পড়ে, তা হুন্ডি চক্র মেটায়। ব্যাংকিং চ্যানেলে কেউ পাঠালেও প্রবাসীর সুবিধাভোগী দেশে টাকা পান। বিদেশি হুন্ডি এজেন্ট প্রবাসীর বৈদেশিক মুদ্রা কিনে এখানে টাকা পরিশোধ করে। ব্যবসার পাশাপাশি যারা বিদেশে বাড়ি বা অন্যান্য ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করেন, তারা নানাভাবে হুন্ডি চক্রের দ্বারস্থ হন।


আরও খবর

আরেক দফা বাড়ল এলপিজির দাম

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২




কালো টাকায় তৈরি হয়েছে লাইগার, পরিচালকদের ১২ ঘণ্টা ধরে জেরা

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অনন্যা পাণ্ডে ও বিজয় দেবেরাকোণ্ডা লাইগার ছবিটি মাস কয়েক আগে মুক্তি পায়। বিশাল বাজেটের এই ছবি প্রথম সপ্তাহে মুখ থুবড়ে পড়ে বক্স অফিসে। এ বার সেই ছবির সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে কালো টাকা। এমনটাই সন্দেহ এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি)। ছবির পরিচালক পুরী জগন্নাথ ও প্রযোজক চার্মি কৌরকে টানা ১২ ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করল কেন্দ্রীয় সংস্থা।

পুরী জগন্নাথ দক্ষিণী ছবির পরিচিত নাম। লাইগার ছবির পর থেকে বলিউডে বেশ নাম ডাকও হয়েছে। প্রায় গোটা দেশ ঘুরে এই ছবির প্রচার করেন অনন্যা-বিজয়। সেই সময় এই দুই তারকার সঙ্গে সর্বক্ষণ যাকে দেখা গিয়েছিল তিনি ছবির প্রযোজক চার্মি কৌর। এ বার ছবির নির্মাণ জালিয়াতির অভিযোগ ইডি-র।গত বছর আর্থিক তছরূপে নাম জড়িয়েছিল এই পরিচালকের। এ বার ফের আর্থিক কেলেঙ্কারিতে নাম জড়াল পুরী জগন্নাথের। ইডি সূত্রের খবর, লাইগার ছবিতে মোটা অঙ্কের বিদেশি টাকা ব্যবহার করা হয়েছে। যা বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময়ের নিয়ম লঙ্ঘন করেছে। এই ছবির সঙ্গে যোগ রয়েছে রাজনৈতিক নেতাদের। তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও-এর মেয়ের কবিতা এই ছবিতে বিনিয়োগ করেছেন, এমনটাই অভিযোগ কংগ্রেসের নেতা বক্কা জুডসনের।

এই ছবি তৈরি করতে খরচ হয়েছে ১০০ কোটি টাকা। যার মধ্যে ৮০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন ছবির পরিচালক। বিজয় দেবেরাকোণ্ডা, অনন্যা পাণ্ডে ছাড়াও ছিলেন মাইক টাইসন। মুম্বই ছাড়াও আমেরিকায় হয় এই ছবির শুটিং। লাইগার-র ছবির উপস্থাপক ছিলেন কর্ণ জোহর। পরিচালক ছাড়া ছবির অভিনেতা-অভিনেত্রীদেরও এই বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে কি না, তা এখনও জানা যায়নি।

নিউজ ট্যাগ: লাইগার

আরও খবর



ডিআরইউ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে

প্রকাশিত:বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পেশাদার সাংবাদিকদের সবচেয়ে বড় সংগঠন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সকাল থেকেই ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের সরব উপস্থিতি দেখা গেছে। 

বুধবার (৩০ নভেম্বর) সকাল ৯টা থেকে রাজধানীর সেগুনবাগিচার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে এ ভোটগ্রহণ শুরু হয় যা চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। এর আগে ডিআরইউ নির্বাচনে খসড়া প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

এবারের নির্বাচনে ২০টি পদের বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন মোট ৪৩ জন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রার্থীরা শেষ মুহূর্তের প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক মনজুরুল আহসান বুলবুলসহ আরও কয়েকজন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক দায়িত্ব পালন করছেন।


আরও খবর



তিস্তা প্রকল্পে সহায়তা করতে চায় চীন

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

তিস্তা ব্যারাজ প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী চীন। বাংলাদেশ সরকার যদি এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে চায় তবে দেশটি সব ধরনের সহায়তা দেবে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং। শনিবার (৫ নভেম্বর) স্থানীয় একটি হোটেলে বাংলাদেশ-চায়না সিল্ক ফোরাম আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, এটি একটি প্রকল্প যেটি চীন অত্যন্ত সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করছে। এটি বাস্তবায়নে হয়তো চীন বাধা নয়। যদি বাংলাদেশ সরকার সত্যিকারভাবে এটি করতে চায়, তবে চীন এটি বাস্তবায়ন করবে।

তিনি বলেন, এক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের ওপর কিছু বহিঃচাপ আছে। আমি সঠিকভাবে জানি না কোথা থেকে চাপ আছে এবং কেন।

বাংলাদেশ ভাটির দেশ জানিয়ে তিনি বলেন, প্রকল্পের ফিজিবিলিটি স্টাডি অনুযায়ী সীমান্তের কাছে কোনও ধরনের বাঁধ নির্মাণ করা হবে না এবং বিপরীত স্রোতের কারণে উজানের দেশের জন্য এটি ক্ষতিকর নয়। এই প্রকল্প উজানের দেশের জন্য কোনও ধরনের ক্ষতিকর প্রভাব ফেলবে না।

তিনি বলেন, আমাকে কয়েকজন বলেছে এই প্রকল্পের বিষয়ে যেন আমি সাবধানে থাকি। কারণ এর স্পর্শকাতরতা আছে। বিশেষ করে ভূ-রাজনৈতিক।

অর্থ বা প্রযুক্তি নয়, বরং বাংলাদেশের সরকারের দৃঢ় সংকল্প এই প্রকল্প বাস্তবায়নে সবচেয়ে বড় জিনিস বলে তিনি মন্তব্য করেন।

তিস্তা নদীর উৎসে বাঁধ দিয়ে পানি সরবরাহ বাধাগ্রস্ত করছে চীন, এমন মিডিয়া রিপোর্টের প্রতি মনোযোগ আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, এর উৎস সিকিমে (ভারতের একটি রাজ্য), চীনে নয়। এটি সম্পূর্ণ বানোয়াট রিপোর্ট।

বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে রাষ্ট্রদূতকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমার মত হচ্ছে উন্নয়নের জন্য শান্তি ও স্থিতিশীলতা দরকার। আমরা আশা করি এদেশে সামাজিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় থাকবে যাতে আর্থ-সামাজিক উন্নতি অব্যাহত থাকে।

তিনি বলেন, অন্য কোনও দেশের আভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলায় না চীন।

সঠিক সময়ে রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান না করতে পারলে আঞ্চলিক সংকট তৈরির আশঙ্কা দেখছে চীন। সেজন্য এ সংকট সমাধানে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার‌কে নি‌য়ে কাজ করছে দেশ‌টি।


আরও খবর

‘নীতি পুলিশ’ বিলুপ্ত করলো ইরান

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২




২৪-২৭ নভেম্বর এয়ারপোর্ট রোড এড়িয়ে চলুন

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর 2০২2 | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিমানবন্দর সড়কে বিআরটি প্রকল্পের কাজ চলায় বেশ কিছুদিন ধরে ওই সড়কের বেহাল দশা। ফলে উত্তরা থেকে গাজীপুর পর্যন্ত এলাকার মানুষকে অন্তহীন দুর্গতি পোহাতে হচ্ছে।  এই সড়কে যান চলাচল স্থায়ীভাবে নির্বিঘ্ন করার লক্ষ্যে ২৪ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২৭ নভেম্বর (রোববার) সকাল ৬টা পর্যন্ত ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশন এলাকায় উন্নয়ন কাজ চলবে। 

কাজ চলার সময় বাড়তি যানজটের আশঙ্কায় জনসাধারণের জন্য বিশেষ ট্রাফিক নির্দশনা দিয়েছে বিআরটি।  

বিআরটির প্রকল্প পরিচালক এ. এস. এম. ইলিয়াস শাহ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে ওই সময়ে জনসাধারণ ও পরিবহনকে সম্ভাব্য বিকল্প পথ ব্যবহারের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। এ বিষয়ে সকলের সহানুভূতি এবং সহযোগিতাও কামনা করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: এয়ারপোর্ট রোড

আরও খবর



ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৬২

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ নভেম্বর 20২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর 2০২2 | ২৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ১৬২ জন হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ৭০০ জন। এছাড়া ১৩ হাজারের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

পশ্চিম জাভার গভর্নর রিদওয়ান কামিলের উদ্ধৃতি দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যম কম্পাসডটকম এবং দেতিক ডটকম এ তথ্য  জানিয়েছে।

তবে ইন্দোনেশিয়ার জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা সংস্থার সর্বশেষ তথ্যে ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ৬২ উল্লেখ করা হয়েছে।

স্থানীয় সময় সোমবার সকালে পশ্চিম জাভা দ্বীপে এ ভূমিকম্প আঘাত হানে। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৫ দশমিক ৬।

সিয়ানজুর প্রশাসনের প্রধান হেরমান সুহেরমান মেট্রো টিভিকে বলেছেন, ভূমিকম্পে ৭০০ জনের বেশি মানুষ আহত হয়েছেন।

তিনি বলেন, হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। কারণ ধসে পড়া ভবনের ধ্বংসস্তূপের নিচে আরও বহুমানুষ চাপা পড়ে রয়েছেন।

দেশটির জিওফিজিক্স এজেন্সি (বিএমকেজি) জানিয়েছে, পশ্চিম জাভার সিয়ানজুড় শহরে ভূপৃষ্ঠের ১০ কিলোমিটার গভীর ভূমিকম্পটির উৎপত্তি। এতে সুনামির কোনো সম্ভাবনা তৈরি হয়নি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ভূমিকম্পটি জাকার্তায় কয়েক সেকেন্ড ধরে অনুভূত হয়েছে। এ সময় নগরীর প্রধান বাণিজ্যিক এলাকার দপ্তরগুলো থেকে কিছু লোককে সরিয়ে নেওয়া হয়।

জাতীয় দুর্যোগ সংস্থা এক বিবৃতিতে জানায়, সিয়ানজুড় এলাকায় বেশ কয়েকটি বাড়ি ও একটি মাদ্রাসা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, যোগাযোগও বিঘ্নিত হচ্ছে। ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত জানতে কর্মকর্তারা অনুসন্ধান চালাচ্ছেন। 


আরও খবর

‘নীতি পুলিশ’ বিলুপ্ত করলো ইরান

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২