Logo
শিরোনাম

অক্টোবর থেকে বন্ধ হচ্ছে ফেসবুক লাইভে পণ্য বিক্রি

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ২২৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চলতি বছরের অক্টোবর থেকে লাইভে আর পণ্য বিক্রির সুবিধা রাখছে না ফেসবুক। অক্টোবরের ১ তারিখ থেকে লাইভ ভিডিও ও শিডিউল লাইভ ভিডিওতে পণ্য বিক্রি বন্ধ করছে ফেসবুক।

 তবে ফেসবুক লাইভ ও ইভেন্টগুলোতে লাইভ ভিডিও সম্প্রচার করা যাবে, কিন্তু লাইভ ভিডিওর প্লেলিস্টে কোনো পণ্যের ট্যাগ দেয়া যাবে না।

ফেসবুক তাদের ব্লগ পোস্টে এ ঘোষণা দিয়েছে। প্রযুক্তি সাইট এনগেজেট জানিয়েছে, মেটা সম্প্রতি তাদের এ পণ্যের শোকেসিংটা রিল-এর মাধ্যমে করতে অনুরোধে করেছে।  রিল অ্যাড এবং ইনস্টাগ্রাম রিলের মাধ্যমে প্রোডাক্ট ট্যাগিং করতে বলেছে।

এক পোস্টে মেটার পক্ষ থেকে জানানো হয়, যেহেতু ব্যবহারকারীদের আচরণ ক্ষুদ্র দৈর্ঘ্য ভিডিও ফর্মের দিকে এগোচ্ছে তাই আমরাও সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামে রিলকে প্রাধান্য দিচ্ছি। এতদিন এ লাইভ শপিং ইভেন্ট ফিচারটি ব্যবহার করে ফেসবুক ব্যবসায়ীরা ফলোয়ারদের জন্য পণ্যের ভিডিও তৈরি করত। ব্যাপারটা অনেকটাই পারসোনাল হোম শপিং নেটওয়ার্ক। এখানে একজন মার্চেন্ট তার ফলোয়ারদের আসন্ন লাইভ শপিং সেশনের নোটিফিকেশন দিতে পারত এবং মেসেঞ্জারের মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারত।

সম্প্রতি টিকটকের এ স্ট্যাটাস পুরো সোশ্যাল মিডিয়ার জগতে রাজত্ব করছে। তাদের কিছু কৌশলগত অগ্রগতির কারণে তারা তরুণ সম্প্রদায়কে বেশ আকৃষ্ট করেছে। এ কারণে মেটা তার রাজস্বও হারিয়েছে।

ফলে জাকারবার্গ ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামে রিলকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন। কেননা এটাকে তারা তাদের ক্ষতি থেকে উঠে আসার একটি হাতিয়ার হিসাবে মনে করছেন। বর্তমানে ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীর ২০ শতাংশ সময় পার করছেন রিল দেখে। এ জন্য মেটা ধারাবাহিকভাবেই তার ক্রিয়েটরদের চাপ দিচ্ছেন আসল কনটেন্ট বানানোর জন্য।এখন থেকে রিলসের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি, প্রচার ও ট্যাগ দেয়া যাবে।

প্রসঙ্গত, দুবছর আগে ফেসবুক লাইভ শপিং ফিচারটি চালু করে। এ ফিচারের মাধ্যমে ক্রেতা-বিক্রেতা লাইভে অর্থাৎ সরাসরি একে অন্যের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারত। এছাড়াও সম্ভাব্য ক্রেতা আকৃষ্টের অনেক বড় একটি প্ল্যাটফর্ম ছিল এ ফিচারটি।


আরও খবর



প্রবৃদ্ধির পথে তেলবীজের বৈশ্বিক উৎপাদন ও বাণিজ্য

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ জানুয়ারী ২০23 | ৩২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

২০২২-২৩ মৌসুমে তেলবীজের বৈশ্বিক উৎপাদন ও বাণিজ্যে প্রবৃদ্ধির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। সূর্যমুখী, সরিষা ও তুলার তেলবীজ এবং পাম কারনেল উৎপাদনে নিম্নমুখিতার আশঙ্কা থাকলেও শীর্ষ দেশগুলোয় সয়াবিনের বাম্পার ফলন বৈশ্বিক উৎপাদনে আশা জাগাচ্ছে। এছাড়া ভারতে রবি মৌসুমে ইতিবাচক উৎপাদনও প্রবৃদ্ধিতে বড় ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। অন্যদিকে তেলবীজের ঊর্ধ্বমুখী বৈশ্বিক বাণিজ্যে রসদ জোগাবে ইউক্রেনের কৃষ্ণ সাগরীয় রফতানি। সম্প্রতি মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

মার্কিন কৃষি বিভাগের প্রাক্কলন অনুযায়ী, চলতি মৌসুমে তেলবীজের বৈশ্বিক উৎপাদন গত মৌসুমের তুলনায় ৬ শতাংশেরও বেশি বাড়তে পারে। এর মধ্যে সয়াবিন উৎপাদন বাড়বে ১০ শতাংশ। উৎপাদনের পরিমাণ দাঁড়াবে ৩৯ কোটি ১১ লাখ ৭০ হাজার টনে, গত মৌসুমে যা ছিল ৩৫ কোটি ৫৬ লাখ ১০ হাজার টন। নভেম্বরে শুরু হওয়া এ মৌসুমে ভোজ্যতেল উৎপাদন বাড়ারও আভাস মিলেছে। ইউএসডিএর প্রাক্কলন অনুযায়ী, উৎপাদনের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে ২১ কোটি ৭৫ লাখ ৫০ হাজার টনে, গত মৌসুমে যা ছিল ২০ কোটি ৮৯ লাখ ৫০ হাজার টন। সে হিসাবে এবার উৎপাদন ৪ শতাংশ বাড়বে।

সলভেন্ট এক্সট্রাক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়ার নির্বাহী পরিচালক বিভি মেহতা বলেন, চলতি মৌসুমে ভোজ্যতেলের বৈশ্বিক সরবরাহ আগের বছরের তুলনায় অন্তত ৭০ লাখ টন বাড়তে পারে। মোট সরবরাহের পরিমাণ দাঁড়াবে তিন কোটি টনে। ইন্দোনেশিয়া যদি এবার বায়োডিজেল উৎপাদনে ৩৫ শতাংশ পাম ব্যবহার করে, তার পরও বাজারে পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকবে।

পাকিস্তানভিত্তিক ভোজ্যতেলের বাজার বিশ্লেষক আব্দুল হামিদ বলেন, ইন্দোনেশিয়া বি৩৫ প্রকল্প গ্রহণ করেছে। এর অধীনে দেশটি বায়োডিজেল উৎপাদনে ৩৫ শতাংশ পাম উপাদান ব্যবহার করবে। এ প্রকল্প সফলভাবে বাস্তবায়ন করতে চায় দেশটি। ঊর্ধ্বমুখী বায়োডিজেলের পরিমাণ ও ভোজ্যতেলের সরবরাহের মধ্যে ভারসাম্য আনারও চেষ্টা চালাচ্ছে ইন্দোনেশিয়া।

এদিকে তেলবীজ বাণিজ্য বাড়ারও পূর্বাভাস দিয়েছে ইউএসডিএ। চলতি মৌসুমে ইউক্রেন অনেক বেশি সূর্যমুখী তেলবীজ রফতানি করতে সক্ষম হবে, যা তেলবীজের বৈশ্বিক বাণিজ্য প্রবৃদ্ধিতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখবে। প্রাক্কলন অনুযায়ী, বাণিজ্যের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে ১৯ কোটি ৮২ লাখ ৭০ হাজার টনে, গত মৌসুমে যা ছিল ১৭ কোটি ৮০ লাখ ১০ হাজার টন। চলতি মৌসুমে সূর্যমুখীর পর্যাপ্ত সরবরাহে সয়াবিনের দাম থাকবে নিম্নমুখী। তবে পাম অয়েলের দাম প্রতি টনে ১০০ ডলার বাড়তে পারে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারতে রবি মৌসুমে ঊর্ধ্বমুখী তেলবীজ উৎপাদনও বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখছে। এ মৌসুমে দেশটিতে সরিষা উৎপাদন ৯৫ লাখ টন ছাড়াতে পারে। অনুকূল আবহাওয়ার কারণে আবাদ বাড়িয়েছেন কৃষকরা। ফলন নিয়েও তারা আশাবাদী।

বাজারসংশ্লিষ্টরা জানান, চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে ভোজ্যতেলের দাম কিছুটা নিম্নমুখী থাকতে পারে। তবে দ্বিতীয় প্রান্তিকে তা বাড়বে। সলভেন্ট এক্সট্রাক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়ার তথ্যমতে, ২০২১ সালের ডিসেম্বরের গড়ের তুলনায় বর্তমানে টনপ্রতি ৩০০ ডলার কম মূল্যে পাম অয়েল বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে সয়াবিন ও সূর্যমুখী তেল টনপ্রতি ১০০ ডলার কম মূল্যে বিক্রি হচ্ছে।

নিউজ ট্যাগ: তেলবীজ

আরও খবর



সর্বজনীন পেনশন বিল পাস সংসদে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সব নাগরিককে পেনশনের আওতায় আনতে সংসদে সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থাপনা বিল-২০২৩ পাস হয়েছে। বিলে ১৮ বছর থেকে ৫০ বছর বয়সী সব নাগরিক নির্ধারিত হারে চাঁদা পরিশোধ করে ৬০ বছর পূর্তির পর আজীবন পেনশন সুবিধা ভোগ করতে পারবে।

এছাড়া বিশেষ বিবেচনায় ৫০ বছরের বেশি বয়সীরাও এই আইনের আওতায় নিরবচ্ছিন্ন ১০ বছর চাঁদা পরিশোধ করে পেনশন সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে স্কিমে অংশগ্রহণের তারিখ থেকে নিরবচ্ছিন্ন ১০ বছর চাঁদা প্রদান শেষে তিনি যে বয়সে উপনীত হবেন, সে বয়স থেকে আজীবন পেনশন প্রাপ্য হবেন। আজীবন বলতে পেনশনারের বয়স ৭৫ বছর পর্যন্ত বিবেচনা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদে বিলটি পাস হয়।

এটি পাসের প্রস্তাব করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এর আগে বিলের ওপর আনিত জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাবগুলো কণ্ঠ ভোটে নাকচ হয়ে যায়। তবে কতিপয় সংশোধনী গৃহীত হয়।

পাসের আগে বিলটি সরাসরি সংবিধানের ১৫ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক উল্লেখ করে বিলটি পাস না করে ফেরত পাঠানো বা জনমত যাচাই বা বাছাই কমিটিতে প্রেরণের পক্ষে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ, ফখরুল ইমাম, জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু, জাতীয় পার্টির পীর ফজলুর রহমান, শামীম হায়দার পাটোয়ারী ও স্বতন্ত্র সদস্য রেজাউল করিম বাবলু।

পেনশন আইনে বলা হয়েছে, চাঁদা দাতা ধারাবাহিকভাবে কমপক্ষে ১০ বছর চাঁদা দিলে মাসিক পেনশন পাবেন। চাঁদা দাতার বয়স ৬০ বছর পূর্তিতে পেনশন তহবিলে পুঞ্জীভূত মুনাফাসহ জমার বিপরীতে পেনশন দেওয়া হবে। বিদেশে কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীরা এই কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারবে।

আইনে আরও বলা হয়েছে, নিম্ন আয় সীমার নিচের নাগরিকদের অথবা অসচ্ছল চাঁদাদাতার ক্ষেত্রে পেনশন তহবিলে মাসিক চাঁদার একটি অংশ সরকার অনুদান হিসেবে দিতে পারবে।

বিলে বলা হয়েছে, একজন পেনশনার আজীবন পেনশন সুবিধা পাবেন। তবে পেনশনে থাকাকালীন ৭৫ বছর পূর্ণ হওয়ার আগে মারা গেলে তার নমিনি অবশিষ্ট সময়ের জন্য (মূল পেনশনারের বয়স ৭৫ বছর পর্যন্ত) মাসিক পেনশন প্রাপ্য হবেন। চাঁদাদাতা কমপক্ষে ১০ বছর চাঁদা দেওয়ার আগে মারা গেলে জমা করা অর্থ মুনাফাসহ তার নমিনিকে ফেরত দেওয়া হবে।

এতে আরও বলা হয়েছে, পেনশন তহবিলে জমা দেওয়া অর্থ কোনো পর্যায়ে এককালীন তোলার প্রয়োজন পড়লে চাঁদাদাতা আবেদন করলে জমা দেওয়া অর্থের সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ ঋণ হিসেবে তুলতে পারবেন, যা ফিসহ পরিশোধ করতে হবে। আইনে পেনশন থেকে পাওয়া অর্থ আয়কর মুক্ত থাকবে এবং পেনশনের জন্য নির্ধারিত চাঁদা বিনিয়োগ হিসেবে গণ্য করে কর রেয়াতের জন্য বিবেচিত হবে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

বিলে বলা হয়েছে, সর্বজনীন পেনশন পদ্ধতিতে সরকারি অথবা আধা সরকারি বা স্বায়ত্তশাসিত অথবা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান অংশ নিতে পারবে। এক্ষেত্রে কর্মী ও প্রতিষ্ঠানের চাঁদার অংশ কর্তৃপক্ষ নির্ধারণ করবে। তবে সরকারি সিদ্ধান্ত না দেওয়া পর্যন্ত সরকারি ও আধা সরকারি বা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরতরা পেনশন ব্যবস্থার আওতা বহির্ভূত থাকবে। সরকার আইনের উদ্দেশ্য পূরণকল্পে প্রজ্ঞাপন জারি করে সার্বজনীন পেনশন ব্যবস্থাপনা প্রবর্তন করবে।


আরও খবর



গণঅবস্থানের নামে বিএনপি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে সহ্য করা হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পূর্বঘোষিত গণঅবস্থান কর্মসূচিকে ঘিরে বিএনপি রাজধানীতে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে তা সহ্য করা হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তবে বিএনপির শান্তিপূর্ণ কমর্সূচিতে বাধা নেই বলেও জানান তিনি। মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) সকালে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) সদর দফতরে মুজিব কর্ণারের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকে প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, সরকারের পদত্যাগ, সংসদ বাতিল, নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ১০ দফা দাবিতে ১১ জানুয়ারি দেশব্যাপী গণঅবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। এদিন বেলা ১১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত টানা চার ঘণ্টা গণঅবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি কর্মসূচিতে সরকার কখনও বাধা দেয়নি। কিন্তু বিগত সব কর্মসূচিতে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। আর গণঅবস্থানের নামে রাস্তা অবরোধ, ভাংচুর বা ধংসাত্মক কাজ করলে নিরাপত্তা বাহিনী তা প্রতিহত করবে।

পুলিশ বাহিনী এমন কর্মসূচিতে প্রতিরোধ সয়ংসম্পূর্ণ দাবি করে মন্ত্রী বলেন, ধংসাত্মক কাজ হলে তা কঠোরভাবে দমন করা হবে। 

অনুষ্ঠানে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন, ঢাকা মহানগর কমিশনারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকতারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



তথ্য ব্যবহারে বিজ্ঞাপনদাতাদের কড়া নিষেধাজ্ঞা মেটার 

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নির্দিষ্ট তথ্য ব্যবহারের ওপর ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামের বিজ্ঞাপনদাতাদের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট মেটা। নতুন এই নিষেধাজ্ঞার ফলে বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলো কিশোর কিশোরী ব্যবহারকারীদের কোনো তথ্য পাবে না। এতদিন সংস্থাগুলো তাদের টার্গেট করেই বিজ্ঞাপন ক্যাম্পেইন চালাতো।

মেটা এক ব্লগ পোস্টে জানায়, নতুন এই নিষেধাজ্ঞার কারণে সংস্থাগুলো সামনের মাস থেকে ব্যবহারকারীর লিঙ্গ সম্পর্কে জানার সুযোগ পাবে না। ফলে ব্যবহারকারী নারী নাকি পুরুষ সেই বিষয়ে কোনো তথ্য পাবে না তারা। মূলত বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলো এই তথ্যের ভিত্তিতে খুব সহজেই তাদের টার্গেট করে বিজ্ঞাপন তৈরি করত।

ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটা আরও জানায়, আগামী মার্চ থেকে ফেসবুকে নতুন এই সংযোজন আসবে। এতে টিনএজরা কোনো বিজ্ঞাপন দেখতে না চাইলে সেটিও ব্লক করতে পারবে। এমনকি কোনো ধরনের বিজ্ঞাপন কম দেখতে চাইলে, কম দেখার অপশন বেছে নিতে পারবে। এর আগেও মেটা বিজ্ঞাপনদাতাদের কিশোর-কিশোরীদের আগ্রহ এবং ক্রিয়াকলাপের উপর ভিত্তি করে বিজ্ঞাপন দিতে নিষেধ করেছিল। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি এ নিয়ে বিস্তর গবেষণার মাধ্যমে নতুন কয়েকটি পরিবর্তন বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বিভিন্ন অনলাইন নিরাপত্তা বিষয়ক ক্যাম্পেইনররা সোশ্যাল মিডিয়াতে কমবয়সীদের জন্য বিজ্ঞাপন প্রচারের কোনো নিয়ন্ত্রণ না থাকায় সমালোচনা করেছেন। তাদের মতে, আপত্তিকর কোনো পোস্ট বা বিজ্ঞাপন অল্পবয়সীদের মানসিক ক্ষতির কারণ হতে পারে।

মেটাকে এর আগেও কমবয়সীদের ওপর এর নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে জানানো হয়েছে। ২০২০ সালে আইরিশ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইন্সটাগ্রামের ওপর দুই বছর ধরে একটি তদন্ত চালায়। এতে তারা দেখতে পান ইন্সটাগ্রামে কমবয়সীরাও বিজনেস অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করছে। পরে এই সোশ্যাল প্লাটফর্মকে জেনারেল ডাটা প্রটেকশন আইন লঙ্ঘনের দায়ে ৪৯২ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: ফেসবুক

আরও খবর



অভিনেত্রীকে সড়কে গুলি করে হত্যা

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতের ঝাড়খণ্ডের অভিনেত্রী ইশা আলিয়াকে বুধবার ভোরে পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ায় জাতীয় সড়কে ছিনতাইকারীরা গুলি করে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ। 

ঘটনাটি ঘটে যখন তিনি তাঁর স্বামী প্রকাশ কুমার এবং তিন বছরের মেয়ের সঙ্গে রাঁচি থেকে কলকাতায় যাচ্ছিলেন।   প্রকাশ কুমার নিজেও একজন চলচ্চিত্র পরিচালক।

কলকাতার এক পুলিশ কর্মকর্তা বলছেন, পরিবারটি তাদের নিজস্ব গাড়িতে কলকাতার দিকে যাচ্ছিল।

তারা সকাল ৬টার দিকে একটি নির্জন জায়গায় গাড়ি থামায়। সেখানে কুমার প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গাড়ি থেকে নামেন। তখন তিন ছিনতাইকারী তাদের ওপর হামলা চালায়। আলিয়া প্রতিরোধ করার চেষ্টা করলে, তাকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করা হয়।

কুমারের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পরে দিনের বেলা অনুসন্ধানকারী কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং ঘটনাটি পুনর্গঠনের জন্য তাকে অপরাধস্থলে নিয়ে যায়। পুলিশের পক্ষ থেকে অপরাধস্থলের কাছাকাছি অবস্থিত একটি কারখানা থেকে সিসিটিভি ফুটেজও সংগ্রহ করছে।

প্রকাশ কুমার বলেন,তিনি ঝাড়খণ্ডের একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ছিলেন। যদিও তার আসল নাম রিয়া কুমারী, তবে পর্দার নাম ইশা আলিয়া।

কুমার বলেন, আমার স্ত্রী আমাদের মেয়ের সঙ্গে গাড়িতে বসে ছিলেন। দুর্বৃত্তরা আমার মানিব্যাগ ছিনতাইয়ের চেষ্টা করলে আমার স্ত্রী নীচে নেমে প্রতিরোধের চেষ্টা করেন। তারপরই ওরা তাকে গুলি করেছে।

স্থানীয়দের মতে, এলাকাটি জনশূন্য হওয়ায় কুমার সাহায্য চাইতে প্রায় দুই কিলোমিটার গাড়ি চালিয়ে যান। নির্যাতিতাকে দ্রুত উলুবেড়িয়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে আলিয়াকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: গুলি করে হত্যা

আরও খবর

আপাতত দেশে আসছে না 'পাঠান'

বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩