শিরোনাম

‘অর্ধেক আসনে যাত্রী বহনের নামে বাসভাড়া বাড়ানোর পাঁয়তারা বন্ধ করুন’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ১১০৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
জীবন-জীবিকা সবকিছু স্বাভাবিক রাখার এহেন চিত্র সামনে রেখে গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রীবহনের সিদ্ধান্ত কখনও বাস্তবায়ন করা যাবে না

করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যেও জীবন-জীবিকা সচল রাখার স্বার্থে স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালত, ব্যবসা-বাণিজ্যসহ সবকিছু খোলা রেখে কেবলমাত্র গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রীবহনের সিদ্ধান্তটি কাগুজে সিদ্ধান্তে পরিণত হবে বলে মনে করে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। সংগঠনটি বলছে, এই অজুহাতে আবারও ভাড়া বাড়ানো হলে তা সাধারণ মানুষের জীবন বিষিয়ে উঠবে। অতীতের মতো বর্ধিত ভাড়া দিয়ে যাত্রী সাধারণকে গাদাগাদি করে যাতায়াত করতে হবে। তাই যত সিট তত যাত্রী’ পদ্ধতিতে গণপরিবহনে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের দাবি জানিয়েছে সংগঠনের নেতারা।

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) সকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনের মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী এ দাবি জানান।

করোনার সংকটকালে বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই গণপরিবহনে যাত্রী কমানো হলেও কোথাও ভাড়া বাড়ানো হয়নি বলে দাবি করে তিনি বলেন, অর্ধেক আসনে যাত্রীবহন করে প্রতিবেশি দেশ ভারতের বিভিন্ন প্রদেশসহ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মালয়েশিয়াসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে গণপরিবহনে ভাড়া বাড়ানো হয়নি। ২০২১ সালে দেশের গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রীবহনের নির্দেশনায় ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হলেও রাজধানীর বাসে কোথাও কোথাও শতভাগ বর্ধিত ভাড়া আদায়ের নজির আমাদের সামনে আছে। এহেন সংকটে বাসে ভাড়া বাড়ানোর অজুহাতে লেগুনা, টেম্পু, অটোরিকশা, রিকশায়ও ভাড়া বহুগুণ বাড়তি আদায় করা হয়েছিল। যা আয় কমে যাওয়া সাধারণ মানুষের সংকটকে আরও বেশি ঘনীভূত করেছিল।

রাজধানীসহ সারাদেশে গণপরিবহনের সংকট রয়েছে উল্লেখ করে মোজাম্মেল হক চৌধুরী আরও বলেন, স্বাভাবিক সময়ে যাত্রী সাধারণ বাদুড়ঝোলা হয়ে গাদাগাদি করে যাতায়াত করতে হয়। জীবন-জীবিকা সবকিছু স্বাভাবিক রাখার এহেন চিত্র সামনে রেখে গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রীবহনের সিদ্ধান্ত কখনও বাস্তবায়ন করা যাবে না।

সংক্রমন প্রতিরোধে গণপরিবহনের যাত্রী, চালক-সহকারীর সকলকে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি অনুসরনে বাধ্য করা, যাত্রী ওঠা-নামাকালে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা, একজন যাত্রী নামার পর তার আসনে জীবানুনাশক ব্যবহার, যানবাহন চালুর আগে জীবানুনাশক ব্যবহার করারও দাবি জানায় সংগঠনটি।

এছাড়াও অসুস্থ, করোনাক্রান্ত, সংক্রমণ সন্দেহে চিকিৎসা অথবা স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে যাতায়াতে গণপরিবহন ব্যবহার এড়িয়ে ব্যক্তিগত পরিবহন অথবা প্রাইভেট পরিবহন ব্যবহারের জন্য যাত্রী সাধারণকে অনুরোধ জানিয়েছেন সংগঠনের মহাসচিব।


আরও খবর



‘মুজিববর্ষ’ বানান ভুল : ক্ষমা চেয়েছেন আয়োজক কমিটি

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সম্প্রতি মুজিব শতবর্ষ ও বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর আয়োজনে বানান ভুলের জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়েছেন আয়োজকরা। একথা জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম।

আজ শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) সকালে আওয়ামী লীগের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে নেয়া কর্মসূচি নিয়ে ব্রিফিং করেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম। এসময় শেখ ফজলুল করিম সেলিম সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, এই ভুলগুলো উদ্দেশ্য প্রণোদিত নয়, অনাকাঙ্ক্ষিত।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ১০ই জানুয়ারি থেকে ১২ই জানুয়ারি ৩ দিন টুঙ্গিপাড়ায় জাতীয় কমিটির আয়োজনে আলোচনা সভা হবে। ১০ই জানুয়ারি বেলা ১২টায় জাতির পিতার সমাধিতে বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শ্রদ্ধা জানাবেন। পরে আলোচনা সভায় যোগ দিবেন তিনি। এছাড়াও ১১, ১২ তারিখ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। শিল্পকলা একাডেমীর আয়োজনে ১৩-১৭ই জানুয়ারি পর্যন্ত লোকজ মেলা অনুষ্ঠিত হবে।

এসময় এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে আগুনের ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে শেখ ফজলুল করিম সেলিম আরও জানান, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর ক্ষণে মর্মান্তিক এই ঘটনা জাতির জন্য হৃদয় বিদারক। প্রধানমন্ত্রী বিদেশে সফরে থেকেও আহতদের সার্বক্ষণিক খোঁজ খবর রাখছেন।

উল্লেখ্য, গত ১৬ই ডিসেম্বর মুজিব শতবর্ষ ও বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক শপথ বাক্য পাঠের মূল মঞ্চের ডায়াসে মুজিব বর্ষের শপথ লেখার পরিবর্তে মুজিবর্ষের লেখা ছিল। এরপরে আয়োজকরা বিষয়টি শুধরে নেন। ওইদিন বিকেল থেকেই বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা শুরু হয়। পরে আয়োজক কমিটি জানায়, ডিভাইস ট্রান্সফারের একপর্যায়ে মুজিব বর্ষের একটি অক্ষর অমিট হয়ে গেছে।

নিউজ ট্যাগ: মুজিববর্ষ

আরও খবর



সিসিটিভি ক্যামেরা চললে বুথের গোপনীয়তা রক্ষা হবে না: রিটার্নিং অফিসার

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ১৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কেন্দ্রের ভেতরে বুথের গোপনীয়তা রক্ষায় সিসিটিভি ক্যামেরা বন্ধ রাখা হবে বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মাহফুজা আক্তার। আজ শনিবার দুপুরে নগরীর মডার্ন উচ্চ বিদ্যালয়ে নির্বাচনী সামগ্রী বিতরণকালে তিনি এ কথা বলেন।

একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী অভিযোগ করেছেন, কেন্দ্র থেকে সিসিটিভি ক্যামেরা খুলে ফেলা হয়েছেএ প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে মাহফুজা আক্তার বলেন, কেন্দ্রে সিসিটিভি ক্যামেরা কাজ করবে না। কেন্দ্রে যদি সিসিটিভি ক্যামেরা যদি কাজ করে তাহলে কেন্দ্রের ভেতরে বুথের গোপনীয়তা রক্ষা হলো না। সব কেন্দ্রে তো সেটা নেই, যেখানে আছে সেখানে বন্ধ থাকবে।

তিনি আরও বলেন, ভোটাররা তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবেন। ভোট দিতে আসবেন, শান্তিপূর্ণ-সুশৃঙ্খল পরিবেশে আসবেন। তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভোটকেন্দ্রে আসবেন, ভোট দেবেন। উৎসবমুখর পরিবেশে সচ্ছন্দে ফিরে যাবেন। আমরাদের প্রস্তুতি ভালো, পরিবেশও সন্তোষজনক আছে বলে জানান মাহফুজা আক্তার।

ইভিএম-এ কোনো গোলযোগ দেখা দিলে বিকল্প পরিকল্পনা কী জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তো নিয়জিত আছেই। পাশাপাশি অতিরিক্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী চাওয়া হয়েছে। স্ট্রাইকিং ফোর্স, টহল বাহিনী সবই থাকবে। তারা সব কিছু দেখবে। পুরো সিটি করপোরেশন এলাকা ৩ ভাগে ভাগ করে ৪৮ জনের টেকনিক্যাল মোবাইল টিম ঘুরবে। ইভিএম-এ কোনো ত্রুটি দেখা দিলে যখন যেখানে প্রয়োজন হবে তারা সেখানে যাবেন এবং কার্যকর ব্যবস্থা নেবেন।

প্রার্থীরা সংবাদ সম্মেলনে তাদের আশঙ্কার কথা তুলে ধরছেন। এ ধরনের কোনো আনুষ্ঠানিক অভিযোগ কমিশন পেয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের কাছে এ ধরনের কোনো অভিযোগ আসেনি। তবে আমাদের প্রস্তুতি আছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, ম্যাজিস্ট্রেট এবং আমাদের টিমের সমন্বয়ে প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

মাহফুজা আক্তার আরও বলেন, এখান থেকে আমরা ১০ থেকে ১১ নম্বর ওয়ার্ডের মালামাল বিতরণ করছি। ১ থেকে ৯ পর্যন্ত ওয়ার্ডের মালামাল বিতরণ হবে সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার হাউস বিদ্যালয় থেকে। বন্দর থানার মালামাল বিতরণ হবে বন্দর থেকে। ইতোমধ্যে সব আয়োজন সম্পন্ন হয়েছে। আমাদের প্রিসাইডিং অফিসাররা চলে এসেছেন। দায়িত্বরত পুলিশ ফোর্স তারা আসতে শুরু করেছেন।

মডার্ন উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪টি কেন্দ্রের মধ্যে দুটি কেন্দ্র (১২১ ও ১২৩) আমরা মডেল বুথ হিসেবে ব্যবহার করছি। একটি পুরুষ কেন্দ্র ও একটি নারী কেন্দ্র। একটি কেন্দ্রে বুথ সংখ্যা ৬টি ও অন্যটিতে ৫টি। এখানে আমাদের টেকনিক্যাল টিম থাকবে, অতিরিক্ত মেশিন থাকবে, ট্রাবল শ্যুটাররা থাকবে বলে জানান রিটার্নিং অফিসার।


আরও খবর



পল্লীকবি জসীম উদ্দীনের ১১৯তম জন্মবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৭৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পল্লীকবি জসীম উদ্দীনের ১১৯তম জন্মবার্ষিকী আজ শনিবার (০১ জানুয়ারি)। কবির জন্মবার্ষিকী পালন উপলক্ষে ফরিদপুরের বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

১৯০৩ সালের এই দিনে ফরিদপুর সদর উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়নের তাম্বুলখানা গ্রামে মামাবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন জসীম উদ্দীন। কবর, নিমন্ত্রণসহ অনেক স্মরণীয় কবিতা, সোজন বাদিয়ার ঘাট, নকশি কাঁথার মাঠসহ অনেক কালজয়ী কাব্যগ্রন্থ রচনা করে তিনি বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করে গেছেন। ১৯৭৬ সালের ১৪ মার্চ ৭৩ বছর বয়সে তিনি ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন। ওই দিনই ফরিদপুর সদরের অম্বিকাপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের পৈতৃক বাড়িতে ঐতিহাসিক ডালিম গাছের তলায় তাকে দাফন করা হয়।

পল্লীকবির জন্মবার্ষিকী পালন উপলক্ষে ফরিদপুরের সরকারি-বেসরকারি, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ৯টায় কবির সমাধিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, ৯টা ১৫ মিনিটে কবির বাড়ির প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা এবং আলোচনা সভা শেষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামানের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন পল্লীকবি জসীম উদ্দীনের জন্মবার্ষিকী উদযাপন কমিটির সভাপতি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দীপক কুমার রায়। জেলা পরিষদ ও জসীম ফাউন্ডেশন যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

এছাড়া জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ বিভাগ, জসীম ফাউন্ডেশন, শিল্পকলা একাডেমি, ফরিদপুর সাহিত্য ও সংস্কৃতি উন্নয়ন সংস্থা, ফরিদপুর সাহিত্য পরিষদ, জাতীয় কবিতা পরিষদ ফরিদপুর শাখা, কবির প্রতিষ্ঠিত আনসারউদ্দীন উচ্চ বিদ্যালয় কবির জন্মবার্ষিকী পালন করবে।


আরও খবর

দুই সপ্তাহ পেছালো বইমেলা

রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২

১ ফেব্রুয়ারি থেকেই একুশে বইমেলা

বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২




সুনামগঞ্জে ট্রলি-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ২

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৬৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার আলীগঞ্জ এলাকায় সিএনজি অটোরিকশা ও ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই জন নিহত হয়েছেন। রোববার (০২ জানুয়ারি) সকালে রানীগঞ্জ সড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের একজন একই ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামের আমির আলী (৪৫)। অপরজনের নাম পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার সকাল ৮টার দিকে জগন্নাথপুর উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের আলীগঞ্জ এলাকার রানীগঞ্জ সড়কে রানীগঞ্জগামী একটি সিএনজি অটোরিকশার সঙ্গে ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে সিএনজি অটোরিকশার চালকসহ দুজন ঘটনাস্থলে নিহত হয়। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

জগন্নাথপুর থানার এসআই ওবায়েদ উল্লাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সিএনজি অটোরিকশা ও ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। আমরা দুজনের মরদেহ উদ্বার করেছি। তবে ট্রলির চালককে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

নিউজ ট্যাগ: সুনামগঞ্জ

আরও খবর



তুরাগে বসতবাড়িতে আগুন, একই পরিবারের ৩ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর তুরাগে একটি বসতবাড়িতে আগুন লেগে একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর ৪টা ২০ মিনিটে তুরাগের চণ্ডালভোগ এলাকায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- মো. জাহাঙ্গীর (১৯), রোমা আক্তার (১৭) ও আফরিন (১৪)। তুরাগ থানার এসআই সজল কান্তি রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের দায়িত্বরত কর্মকর্তা খালেদা ইয়াসমিন জানান, প্রথমে বিদ্যুতের খুঁটি থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এরপর সেই আগুন পাশের টিনশেড ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। এতে ঘুমন্ত অবস্থায় একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যু হয়। 

খবর পেয়ে উত্তরা ফায়ার স্টেশনের তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে ৫টা ৪০ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।


আরও খবর