Logo
শিরোনাম

অর্থ পাচারকারীদের নামগুলো দিন : অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিদেশে পাচার হয়ে যাচ্ছে দেশের টাকা- বিরোধীদলের সংসদ সদস্যদের এমন অভিযোগের পর অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল তাদের নাম জানতে চেয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে অর্থ পাচারে কারা জড়িত, নাম তাঁর কাছে নেই।

সোমবার (৭ জুন) সংসদে সম্পূরক বাজেটের উপর আলোচনায় বিরোধীদলীয় সদস্যরা অর্থ পাচারের প্রসংগ টানার পর অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, 'নামগুলো আমাদের দেন। কাজটি করলে আমাদের জন্য সহজ হবে। এখনো অনেকেই জেলে আছে। বিচার হচ্ছে। আগে যেমন ঢালাওভাবে চলে যেতো, এখন তেমন নেই। কারা টাকা নিয়ে যায়, লিস্ট আমার কাছে নেই।'

এর আগে বিএনপি'র সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা বলেন, 'যখনই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসে, শেয়ারবাজার শুয়ে পড়ে। ৯৬ সালে, ২০০৯ সালে শুয়ে পড়লো। তৎকালীন অর্থমন্ত্রী বললেন, তিনি শেয়ারবাজার বোঝেন না। শেয়ার বাজার ফটকা বাজার। সেই অর্থমন্ত্রী স্পষ্ট কথা বলতেন, দলের বিপক্ষে গেলেও বলতেন। ব্যাংক কোম্পানি আইন সংশোধন করে পরিবারের হাতে ব্যাংক তুলে দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। জনগণের টাকার হরিলুট হচ্ছে। সংসদে ঋণ খেলাপির তালিকা দেওয়া হলো। ৩০০ জন। তাদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হলো? বিদেশে ১ লাখ কোটি টাকার ওপরে চলে যাচ্ছে। ওভার আর আন্ডার ইনভয়েসিংয়ের মাধ্যমে যাচ্ছে। এর বাইরে হুন্ডির পরিমাণ ধরলে আল্লাহ মাবুদ জানেন কতো টাকা বিদেশে গেছে!'

জাতীয় পার্টির কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, 'আর্থিক খাতে অর্থমন্ত্রীর নেতৃত্ব সঠিক। কর্তৃত্ব দুর্বল। ব্যাংকে কর্তৃত্ব নেই। কর্তৃত্ব না থাকলে অবাধে এসব হবে। এক ব্যাংকের পরিচালক আরেক ব্যাংকের টাকা নিচ্ছেন। টাকা নিয়ে হুন্ডির মাধ্যমে বিদেশ পাঠাচ্ছেন।'

তিনি বলেন, 'দুদকের একটি অফিস কানাডায়, মালয়েশিয়ায়, অস্ট্রেলিয়ায় করুন। তাহলে দেখা যাবে কে কতো টাকা নিয়েছেন।'

জাতীয় পার্টির রওশন আরা মান্নান বলেন, 'ব্যাংকিং খাত, আর্থিক প্রতিষ্ঠান নির্যাতিত এতিমদের মতো। দেখার কেউ নেই। লুটপাট হচ্ছে। দুর্নীতি হচ্ছে। কিছুই হয় না। শাস্তি হয় না।'

এসব সমালোচনার জবাবে অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, '১২ বছরে ঋণের সুদহার ১২.১ ভাগ থেকে কমে ৭.৩ ভাগ হয়েছে। এখন ব্যাংকের শাখা দ্বিগুণ হয়েছে। চাহিদা বেড়ে গেছে। গ্রামে গ্রামে ব্রাঞ্চ হয়েছে। দেশের মানুষ সেবা পাচ্ছেন। ২০০৬ সালে খেলাপি ঋণের হার ছিল ১৩.৬ শতাংশ। এখন আট শতাংশে নেমে এসেছে। ২০০৬ সালে টোটাল লোন আউটস্ট্যাডিং ছিলো ১ লাখ ৫২ হাজার কোটি টাকা। যা এখন আটগুণ বৃদ্ধি পেয়ে ১১ লাখ ৮৭ হাজার কোটি টাকা হয়েছে।'

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, 'দেশের মানুষের কষ্টে অর্জিত টাকা বিদেশে চলে যাবে, আপনাদের যেমন লাগে, আমারও লাগে। আমি অনিয়ম, বিশৃঙ্খলার বিরুদ্ধে। আমরা সবাই চাই, এগুলো বন্ধ করতে হবে। বন্ধ হচ্ছে। আগের মতো অবস্থা নেই। আগে সিমেন্টের নাম করে বালি আসতো। একটার নাম করে আরেকটা আসতো। আন্ডারইনভয়েসিং, ওভারইনভয়েসিং আগের মতো হয় না। একদম বন্ধ হয়ে গেছে বলবো না। পত্রপত্রিকায় দেখতে পাই না।'

মুস্তফা কামাল বলেন, 'আগামী ছয় থেকে ১২ মাসের মধ্যে ১৫টি আইন দেখতে পারবেন। এগুলো বন্ধ করার জন্য। আমি নিজে জানি কীভাবে এগুলো হয়। কারা করে জানি না। অদক্ষ ব্যবস্থাপনা, ইনএফেকটিভ ম্যানেজমেন্টের জন্য এগুলো হয়। আমরা সংস্কারমুখী কাজ করবো। নতুন নতুন আইন করবো। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো যাতে দায় নিয়ে কাজ করতে পারে, সে ব্যবস্থা করে দেব। কোনো টলারেন্স নেই এখানে। টাকা এখন দেশে আসে।'


আরও খবর



সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে কিনা, সিদ্ধান্ত আজ

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১ | ৯৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে টানা ১৪ মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকা সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে কিনা, তা আজ বুধবার (২৬ মে) জানা যাবে। পাশাপাশি এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি দুপুর ১২টায় ভার্চ্যুয়ালি সংবাদ সম্মেলনে গণমাধ্যম কর্মীদের জানাবেন।

মূলত, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আবার বাড়বে কিনা, বাড়লে কত দিন বাড়বে, নাকি একটি সময় ঘোষণা করে সীমিত পরিসরে খোলার ঘোষণা হতে পারে এসব বিষয় জানা যাবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, স্কুল-কলেজের ছুটি আরও এক সপ্তাহ বাড়তে পারে। করোনা-সংক্রান্ত জাতীয় কমিটির সঙ্গে পরামর্শ করে মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে।

সরকার চেয়েছিল করোনার সংক্রমণের হার পাঁচ শতাংশের নিচে নেমে এলে স্কুল-কলেজ খুলে দিতে। এ অবস্থা এখনও আসেনি। অন্যদিকে দ্রুত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া না হলে চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা বাধাগ্রস্ত হবে।

চলতি বছরের মার্চের শেষ দিকে দেশে শুরু হয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। এতে সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে গেছে। এমতাবস্থায় এপ্রিল থেকে দেশে লকডাউন চলছে। যদিও সম্প্রতি লকডাউন শিথিল করা হয়েছে।

সর্বশেষ সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি শেষ হচ্ছে ২৯ মে। স্কুল-কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছুটি বাড়বে কিনা সেই সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় শিক্ষার্থীরা। প্রথমত, সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী ৩০ মে পর্যন্ত মানুষের চলাচল ও কার্যক্রমে বিধিনিষেধ ঘোষণা করা হয়েছে। সুতরাং আপাতদৃষ্টে বোঝাই যাচ্ছে ২৯ মের পরদিনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সুযোগ নেই।

দেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। এর ১০ দিন পর প্রথম মৃত্যু হয় কোভিডে। করোনা পরিস্থিতির কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।



আরও খবর



পিরোজপুরের পৌর কমিশনার আবুয়াল শিকদার গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১১৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
সম্প্রতি সদ্য পৌর নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীদের হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কাউন্সিল নির্বাচিত হন। অভিযোগ আছে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এক নেতার ছত্রছায়ায় থেকে তারা একের পর এক সন্ত্রাসী কার্যকলাপ

পিরোজপুর পৌরসভার কাউন্সিলর আবুয়াল শিকদার (৫০) ওরফে আবু শিকদার হামলা, সহিংসতা ও সন্ত্রাসী মামলায় গ্রেপ্তার করেছে সদর থানা পুলিশ। রবিবার রাতে অভিযান চালিয়ে তার নিজ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর।

থানা পুলিশ সূত্র ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, তিনি একটি হামলা, সহিংসতা ও সন্ত্রাসী মামলার প্রধান আসামী। ওই মামলায় তাকে গ্রেপ্তার কার হয়েছে। এছাড়া আবু শিকদার ও তার ছেলে এম শিকদারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী, একাধিক অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি সদ্য পৌর নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীদের হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কাউন্সিল নির্বাচিত হন। অভিযোগ আছে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এক নেতার ছত্রছায়ায় থেকে তারা একের পর এক সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালাচ্ছিলো। কয়েকদিন আগে কুমারখালী এলাকায় আসামী ধরতে গেলে দায়িত্বে থাকা ৩ পুলিশের এসআই সহ ৭ পুলিশ সদস্যকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগেও একটি মামলা হয়।

জানা গেছে, কাউন্সিলর আবুয়াল শিকদারের ও তার ছেলে ইমরান সিকদার ওরফে এম শিকদারের নেতৃত্বে ৮/১০ জনের একটি সন্ত্রাসী দল গত ০৩ মে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি সোহাগ শিকদারসহ ৩ ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে আহত করে। এসময় হামলাকারীরা ৪টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে। ওই হামলায় আহত হন শহরের সাপ্ল্ইা মোড় এলাকার তপন চন্দ্র্র শীলের ছেলে ছাত্রলীগ নেতা কৃষ্ণ চন্দ্র্র শীল (২৫)। আর এতে আহত ছাত্রলীগ নেতার পিতা বাদী হয়ে গত ০৫ মে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তার মামলায় কাউন্সিলর আবুয়াল শিকদারকে প্রধান আসামী করে ১০জনকে নামীয় ও আরো ৬ জনকে অজ্ঞাত করে একটি মামলা দায়ের করেন। আবুয়াল শিকদার পৌর সভার ২ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও তার ছেলে এম ছাত্রদলের সক্রিয় সদস্য ছিলো।

পিরোজপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন বলেন, আবুয়াল শিকদার পৌর বিএনপির ২নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক। তবে সম্প্রতি সে বা তার ছেলে বিএনপির কোন কার্যক্রমে অংশগ্রহন করে না।

সদর থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান বলেন, আবু শিকদারকে তার নিজ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এলাকার আইন শৃংঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে তাকে গ্রেপ্তার করা অনিবার্য হয়ে উঠেছিলো।


আরও খবর



রামেক হাসপাতালে আরও ১৬ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তারা মারা যান।

রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মারা যাওয়া ১৬ জনের মধ্যে ১০ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন। আর বাকি ৬ জন উপসর্গে মারা গেছেন।

তিনি জানান, মৃতদের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের নয়জন, রাজশাহীর ছয়জন এবং নওগাঁর একজন। আইসিইউ এবং বিভিন্ন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।

ডা. সাইফুল আরও জানান, শুক্রবার সকাল পর্যন্ত হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডগুলোতে ২২৫ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩২ জন। হাসপাতালে করোনা ইউনিটে মোট শয্যার সংখ্যা ২৩২টি।


আরও খবর



ঘানায় সোনার খনি ধসে ৯ জনের প্রাণহানি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১ | ৮৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঘানার উত্তরাঞ্চলে চলতি সপ্তাহে একটি স্বর্ণের খনি ধসে পড়ায় ৯ জনের প্রাণ হানি ঘটেছে। সেখানে উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার পুলিশ এ কথা জানিয়েছে। খবর এএফপির।

পশ্চিম আফ্রিকার এ দেশের ছোট আকারের বিভিন্ন স্বর্ণের খনিতে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। স্থানীয়ভাবে এসব স্বর্ণের খনি গালামসি নামে বেশি পরিচিত।

এদিকে দেশটির প্রেসিডেন্ট ননা আকুফো-আদ্দো দেশের পরিবেশগত ক্ষতির লাগাম টেনে ধরতে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন।

পুলিশ জানায়, বুরকিনা ফাসো সীমান্তবর্তী আপার ইস্ট অঞ্চলের তলানসি জেলার জিবানির দুর্গম খনি এলাকায় সোমবার রাতে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া চলাকালে সর্বশেষ এ খনি দুর্ঘটনা ঘটে।

পলিশ মুখপাত্র ডেভিড ফিয়ানকো-অকিয়ারা এএফপিকে বলেন, আমরা মঙ্গলবার সেখানে আমাদের উদ্ধার অভিযান শুরু করেছি এবং বৃহস্পতিবার পর্যন্ত আমরা ৯ জনের লাশ উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছি।

আমরা ধারণা করছি আরও তিনজন সেখানে আটকে পড়ে রয়েছে। সুতরাং তাদেরকে মৃত বা জীবিতাবস্থায় উদ্ধার করতে আমরা সম্ভাব্য সব কিছু করছি, বলেন ডেভিড ফিয়ানকো-অকিয়ারা।

এদিকে আপার ইস্টেও আঞ্চলিক মন্ত্রী স্টিফেন ইয়াকুবু জানান, খনিটির নিবন্ধন রয়েছে। এটি অবৈধ না।

উল্লেখ, ঘানা আফ্রিকার দ্বিতীয়-বৃহত্তম স্বর্ণ উৎপাদনকারী এবং এ ধাতব রপ্তানি কারক দেশ।


আরও খবর



‘শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় সাকিবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে’

প্রকাশিত:শুক্রবার ১১ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৭৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

একের পর এক শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে যাওয়া সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক কাজী ইনাম আহমেদ। ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) চেয়ারম্যান জানান, শৃঙ্খলা ভঙ্গ করলে কোনো ছাড় নয়। বিষয়টি ভালোভাবে তদন্ত করে সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকটে স্টেডিয়ামে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনীর বিপক্ষে ইনিংসের পঞ্চম ওভারের পঞ্চম বলে সাকিবের আউটের আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার। ওই ওভারেই আবাহনীর অধিনায়ক সাকিবকে হাঁকান একটি চার ও একটি ছক্কা।

পঞ্চম বলে সাকিব এলবিডব্লিউর আবেদন করলে আম্পায়ার সাড়া দেননি। এতে মেজাজ হারিয়ে সাকিব নন-স্ট্রাইকিং প্রান্তের স্ট্যাম্প লাথি মেরে ভেঙে দেন।

এরপর ৫.৫তম ওভারের সময় বৃষ্টির কারণে আম্পায়াররা খেলা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিলে সাকিব আম্পায়ারের দিকে তেড়ে গিয়ে হাত দিয়ে স্ট্যাম্প উপড়ে ফেলে দেন।

এদিন বৃষ্টির কারণে খেলোয়াড়রা মাঠ ছেড়ে যাওয়ার সময় সাকিব দর্শকদের উদ্দেশ করে আপত্তিকর ভাষা ব্যবহার করেন। এ সময় আবাহনীর কোচ ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন সাকিবকে শান্ত করতে গেলে তার সঙ্গেও বাকবিতণ্ডা হয় সাকিবের।


আরও খবর