Logo
শিরোনাম
পাগলা মসজিদ

পাঁচ মাসে দান বাক্সে দুই কোটি ৩৮ লাখ টাকা

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ জানুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১ | ১০৮জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দান সিন্দুক থেকে এবার দুই কোটি ৩৮ লাখ ৫৫ হাজার ৫৪৫ টাকা পাওয়া গেছে। যা দান সিন্দুক থেকে পাওয়া দানের হিসাবে এ যাবতকালের সর্বোচ্চ।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় দান সিন্দুক খোলার পর গণনা শেষে বিকেলে টাকার এই হিসেব পাওয়া যায়। বিপুল পরিমাণ দানের এই নগদ টাকা ছাড়াও বিভিন্ন বৈদেশিক মুদ্রা ও দান হিসেবে বেশ কিছু স্বর্ণালঙ্কার পাওয়া গেছে। বৈদেশিক মুদ্রা ও স্বর্ণালঙ্কারও অন্যবারের চেয়ে পরিমাণে বেশি পাওয়া গেছে।

এর আগে, সর্বশেষ গত বছরের ২২ আগস্ট দান সিন্দুক খোলা হয়েছিল। তখন সর্বোচ্চ এক কোটি ৭৪ লাখ ৮৩ হাজার ৭১ টাকা পাওয়া গিয়েছিল। সাধারণত তিন মাস পরপর পাগলা মসজিদের দান সিন্দুক খোলা হয়। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এবার ৫ মাস ৪ দিন পর এসব দান সিন্দুক খোলা হয়েছে। করোনাকালে এর আগে গত বছরের ২২ আগস্ট ৬ মাস ৭ দিন পর দান সিন্দুক খোলা হয়েছিল।

সংশ্লিষ্টরা জানান, শনিবার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে মসজিদের আটটি দান সিন্দুক খোলা হয়। দান সিন্দুক থেকে টাকা খুলে প্রথমে বস্তায় ভরা হয়। এবার সবচেয়ে বেশি ১৪ বস্তা টাকা হয়েছে। এরপর শুরু হয় দিনব্যাপী টাকা গণনা। টাকা গণনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদ মাদরাসার ৬০ জন ছাত্রশিক্ষক ছাড়াও রূপালী ব্যাংকের কর্মকর্তারা অংশ নেন।

ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদ কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম পাগলা মসজিদের টাকা গণনার কাজ পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে জেলা প্রশাসক বলেন, পাগলা মসজিদকে একটি অন্যতম আধুনিক ইসলামিক স্থাপত্য হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে। বিশিষ্টজনসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে বসে এ ব্যাপারে করণীয় নির্ধারণ করা হবে।

এ সময় পাগলা মসজিদের সদস্য সিনিয়র সাংবাদিক সাইফুল হক মোল্লা দুলুসহ জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কিশোরগঞ্জ শহরের ঐতিহাসিক স্থাপনার মধ্যে পাগলা মসজিদ অন্যতম একটি প্রতিষ্ঠান। শহরের পশ্চিমে হারুয়া এলাকায় নরসুন্দা নদীর তীরে মাত্র ১০ শতাংশ ভূমির ওপর এই মসজিদটি গড়ে উঠেছিল। সময়ের বিবর্তনে আজ এ মসজিদের পরিধির সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে এর খ্যাতি ও ঐতিহাসিক মূল্যও। মসজিদকে কেন্দ্র করে একটি অত্যাধুনিক ধর্মীয় কমপ্লেক্স এখানে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সম্প্রসারিত হয়েছে মূল মসজিদ ভবন। দেশের অন্যতম আয়কারী ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃত মসজিদটিকে পাগলা মসজিদ ইসলামী কমপ্লেক্স নামকরণ করা হয়েছে। এ মসজিদের আয় দিয়ে কমপ্লেক্সের বিশাল ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে মসজিদটিকে ঘিরে চলছে ব্যাপক উন্নয়নযজ্ঞ। এছাড়া মসজিদের আয় থেকে বিভিন্ন সেবামূলক খাতে অর্থ সাহায্য করা হয়।

Share

আরও খবর

ভালোবাসা সম্পর্কে ইসলাম যা বলে

বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

সরস্বতী পূজা আজ

মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১




করোনা ভ্যাকসিনের ২য় ডোজ দেওয়া হবে ৮ সপ্তাহ পর

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চার সপ্তাহ নয়, আট সপ্তাহ পরে করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম।

সোমবার (১৫ ফ্রেব্রুয়ারি) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে যারা টিকা নিয়েছেন। যাদের চার সপ্তাহ বা এক মাস পরে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার তারিখ দেওয়া হয়েছে তাদের পরবর্তী ডোজের নতুন তারিখ এসএমএস-এর মাধ্যমে জানানো হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোলরুমের তথ্য অনুসারে, গত ২০ জানুয়ারি ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২০ লাখ ডোজ টিকা ভারত সরকার উপহার হিসেবে বাংলাদেশে পাঠায়। পরবর্তীসময়ে কেনা টিকার ৫০ লাখের প্রথম চালান আসে ২৫ জানুয়ারি। গত ২৭ জানুয়ারি দেশে টিকাদান কর্মসূচি শুরু করে। প্রথম দিন টিকা দেওয়া হয় ২৬ জনকে।

করোনা ভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রমের দ্বিতীয় দিনে ২৮ জানুয়ারি রাজধানীর পাঁচ হাসপাতালে মোট ৫৪১ ব্যক্তিকে টিকা দেওয়া হয়। আর ৭ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে টিকা কার্যক্রম শুরু হয়। এই দিনে সারাদেশে টিকা নিয়েছেন ৩১ হাজার ১৬০ জন। এখন পর্যন্ত টিকা নিয়েছেন নয় লাখ ছয় হাজার ৩৩ জন। এদের মধ্যে মোট ৪২৬ জনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

Share

আরও খবর

বিশ্বে করোনায় সুস্থ ৯ কোটি

সোমবার ০১ মার্চ ২০২১




এক সপ্তাহের মধ্যে ভ্যাকসিন পাবেন প্রাথমিকের সব শিক্ষক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | ৪৭জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

এক সপ্তাহের মধ্যে দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার কাজ সম্পন্ন হবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সচিবালয় ক্লিনিকে টিকা নিয়ে তিনি এ কথা জানান।

গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বলেন, শিক্ষকদের জন্য এরই মধ্যে প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন, আমরা যে কোনো সময় মঙ্গলবার থেকে সাতদিনের মধ্যে টিকা নেওয়া শেষ করব।

তিনি বলেন, আমি নিজেও টিকা নিয়েছি, আমাদের সচিবালয়ের সবাই নিয়েছে। কোনো রকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

আমি অনুরোধ করব আমার শিক্ষকদের, আমার মন্ত্রণালয়ের আওতায় যারা আছেন, ৪০ বছরের ঊর্ধ্বে যারা পড়বেন তাদের টিকা নেয়ার জন্য অনুরোধ করব।

এ সময় শিক্ষকদের যথাসময়ে টিকা নিয়ে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এগিয়ে আসতে এবং সবাইকে মাস্ক ব্যবহারের আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

Share

আরও খবর



বিয়ের আগে সঙ্গীকে যেসব বিষয়ে বলা দরকার

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিয়ের আগে থেকে আপনার প্রতি সঙ্গীর বিশ্বস্ততা ও সম্মান বাড়বে। মনে রাখবেন, সত্য কথা বললে কখনো কেউ ছোট হয় না বরং বড় হয়।

আপনার যদি কোনো গোপনীয়তা থাকে, সে বিষয়ে জীবনসঙ্গীকে জানিয়ে দেওয়া বুদ্ধিমানের কাজ। কোন কোন বিষয় বিয়ের আগে সঙ্গীকে জানানো উচিত জেনে নিন-

১. অনেকের দীর্ঘমেয়াদী পুরোনো কিছু রোগ থাকে। এগুলোর বেশিরভাগ জিনগত। যা আপনাকে তো বটেই, আপনার পরিবারকেও সমস্যায় ফেলে। তাই দীর্ঘমেয়াদী রোগ থাকলে বিয়ের আগেই সঙ্গীকে জানিয়ে দিন। কোনো মানসিক অসুস্থতা থাকলে তাও জানাতে ভুলবেন না।

২. অনেকেরই বিভিন্ন নেশা থাকে। কারো বইপড়া, কারো গেম খেলা। আবার কারো রান্না বা বেড়াতে যাওয়ার নেশা। অনেকের আবার খারাপ নেশাও থাকে। যেমন- ধূমপান, মদপান বা মাদকাসক্তি। এসব ক্ষেত্রে যার সঙ্গে বাকি জীবনটা কাটাবেন ঠিক করেছেন, তাকে আগে থাকতে জানিয়ে রাখুন।

৩. আপনি যদি অতীতে কোনো অপরাধে অভিযুক্ত হয়ে থাকেন। তাহলে সে বিষয়েও বিয়ের আগে সঙ্গীকে জানিয়ে দিন। আপনার সব সত্য জেনেও যদি সঙ্গী আপনাকে ভালোবাসতে পারে তাহলে সেটাই বড় প্রাপ্তি।

৪. অর্থ বা সম্পদ নিয়ে কখনো বাড়িয়ে বলবেন না সঙ্গীকে। এতে দাম্পত্য সম্পর্কের ওপর খুব খারাপ প্রভাব পড়ে। আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে আপনার পার্টনারের স্পষ্ট ধারণা থাকা প্রয়োজন।

Share

আরও খবর

দ্রুত ওজন কমায় টমেটো

বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১

রাশিফল: কেমন যাবে আপনার দিন

বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১




চট্টগ্রামে ভোট শুরুর আগমুহূর্তে কাউন্সিলর প্রার্থীকে অপহরণ

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে ভোট শুরুর আগমুহূর্তে এক কাউন্সিলর প্রার্থীকে অপহরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রবিবার ভোর ৬টার দিকে ১ নম্বর ওয়ার্ডের এই প্রার্থীকে একটি গাড়িতে তুলে নেওয়া হয়। এছাড়া এই পৌরসভায় একাধিক ভোটকেন্দ্রে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে। এমনকি এই ওয়ার্ডের একটি কেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনাও ঘটেছে।

অপহরণের শিকার কাউন্সিলর প্রার্থীর নাম আবদুল খালেক। তিনি ১ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর।  স্থানীয় আওয়ামী লীগ এবার তাকে সমর্থন দেয়নি।  তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন।

আবদুল খালেকের চাচাতো ভাই শামসুল আলম গণমাধ্যমকে বলেন,  আল্লাই ওষাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশের একটি মাজার জিয়ারত করছিলেন প্রার্থী আবদুল খালেক ও তার সমর্থকরা। মাজার জিয়ারতের পরপরই ১০ থেকে ২০ জন যুবক এসে তাদের মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল খালেককে সাদা একটি গাড়িতে করে কক্সবাজারমুখী সড়কে নিয়ে চলে যায়।

জানা গেছে, পটিয়া পৌরসভার বর্তমান কাউন্সিলর আবদুল খালেকসহ এ ওয়ার্ডে তিনজন কাউন্সিলর প্রার্থী, যারা সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।  আবদুল খালেক এবার দলীয় সমর্থন পাননি।

এ বিষয়ে পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, তিনি আবদুল খালেককে তুলে নেওয়ার অভিযোগ পেয়েছেন। এ বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।  বেলা ২ টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ওই প্রার্থীর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

এছাড়া এই ওয়ার্ডের আল্লাই ওষাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরুষ কেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটেছে। প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আবদুল মান্নান জানান, সকাল ১০টার দিকে কেন্দ্রের বাইরে একটি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া মহিলা কেন্দ্রে হইচই হয়।

Share

আরও খবর



বিয়ে করতে ভয় পাওয়া এক ধরনের মানসিক রোগ : গবেষণা

প্রকাশিত:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিয়ে নামক শব্দটার সঙ্গে ছোট থেকেই আমাদের পরিচিতি রয়েছে বেশ। ছোট থেকে বড় হতে হতে আমরা পরিবারের বন্ধন দেখতে পাই বিয়ের মাধ্যমেই। কিন্তু বড় হতে হতে অনেকেরই পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতির কারণে বিয়ে নামক বস্তুটায় আপত্তি চলে আসে।

আমাদের সমাজের এরকম অনেক মানুষ আছে যাদের বিয়ের নামেই অ্যালার্জি রয়েছে। তারা মনে করেন বিয়ে মানেই একটি সম্পর্কে আবদ্ধ হয়ে যাওয়া, আর সেখান থেকে বের না হতে পারার একটি ভয়ও কাজ করে। তবে এই বিয়ে ভীতি বা অনীহা এক ধরনের মানসিক রোগ- যাকে আমরা গ্যামোফোবিয়া নামে চিনে থাকি।

গ্যামোফোবিয়া হলো, বিয়ে কিংবা কোনও ধরনের স্থায়ী সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার ভয়। যারা মানসিকভাবে এই ফোবিয়ায় আক্রান্ত তারা আসলে নতুন সম্পর্ক নিয়ে আতঙ্কে থাকেন, বিবাহিত জীবন নিয়ে একটা ভয় কাজ করে, নিজের ব্যক্তি স্বাধীনতার জায়গাটুকু খর্ব হতে পারে কিংবা মানিয়ে চলা যাবে কি না এধরনের একটা চিন্তায় থাকেন এই ফোবিয়ায় আক্রান্ত মানুষরা।

অনেকেই সম্পর্ক জড়ান ঠিকই তবে বিয়ের বিষয় আসলেই তারা ভড়কে যান। তাদের এরকম ফোবিয়া থাকলে বুঝতে হবে তিনি গ্যামোফোবিয়ায় ভুগছেন।

গ্যামোফোবিয়া বিভিন্ন কারণে হতে পারে। বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ, পরিবারের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ বা সত্যিকারের প্রেম ভেঙ্গে যাওয়ার পর অনেকেই মানসিকভাবে এতোটাই ভেঙ্গে পড়েন যে, কাউকে আর তার আপন মনে হয় না। এরকম যাদের পরিবারে রয়েছে তারাই বেশিরভাগ এই রোগে ভোগেন।

এই রোগ থেকে উত্তরণের জন্য অবশ্যই সাইকোলজিস্টদের কাউন্সেলিং এর প্রয়োজন। এরকম লক্ষণ যাদের মাঝে থাকবে তাদের সঙ্গে অবশ্যই ধীরস্থিরভাবে চলতে হবে। কোন কিছু নিয়ে প্রেশার না দিয়ে সম্পর্কের মহত্ব ও গভীরতাকে সামনে নিয়ে আসতে হবে। তাহলেই এক সময় সে মানুষটাও বিয়ের মত সুন্দর সম্পর্কের বিষয়টা বুঝতে পারবে।

 

Share

আরও খবর

দ্রুত ওজন কমায় টমেটো

বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১

রাশিফল: কেমন যাবে আপনার দিন

বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১