Logo
শিরোনাম

পেগাসাসের তালিকায় বাংলাদেশ

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইসরাইলে তৈরি হ্যাকিং সফটওয়্যার পেগাসাস যে ৪৫টি দেশে ছড়ানোর তথ্য এসেছে, তার মধ্যে বাংলাদেশের নামও রয়েছে।

তবে সরকার এ বিষয়ে সতর্ক রয়েছে জানিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, বাংলাদেশে কোনো ধরনের অসঙ্গতি পাওয়া যায়নি। সরকার এ বিষয়ে সতর্ক রয়েছে।

বাংলাদেশ এ ধরনের কোনো সফটওয়্যার কিনেছে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, এ রকম সফটওয়্যার কেনার প্রশ্নই আসে না।  তবে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বিষয়টা ভালো বলতে পারবে।

কানাডার ইউনিভার্সিটি অব টরন্টোর সিটিজেন ল্যাবের গবেষণায় অন্তত ৪৫টি দেশে পেগাসাস ছড়ানোর প্রমাণ মেলার কথা এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট।

দেশগুলো হলো- যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, সংযুক্ত আরব আমিরাত, সুইজারল্যান্ড, সৌদি আরব, ইসরাইল, সিঙ্গাপুর, আলজেরিয়া, বাহরাইন, বাংলাদেশ, ব্রাজিল, কানাডা, মিশর, ফ্রান্স, গ্রিস, ভারত, ইরাক, আইভরি কোস্ট, জর্ডান, কাজাখস্তান, কেনিয়া, কুয়েত, কিরগিজস্তান, লাটভিয়া, লেবানন, লিবিয়া, মেক্সিকো, মরক্কো, নেদারল্যান্ডস, ওমান, পাকিস্তান, ফিলিস্তিন অঞ্চল, পোল্যান্ড, কাতার, রুয়ান্ডা, দক্ষিণ আফ্রিকা, তাজিকিস্তান, থাইল্যান্ড, টোগো, তিউনিসিয়া, তুরস্ক, উগান্ডা, উজবেকিস্তান, ইয়েমেন ও জাম্বিয়া।

ওয়াশিংটন পোস্ট অবশ্য লিখেছে, কোনো দেশে কোনো ফোন পেগাসাসের কবলে পড়ার অর্থ এই নয় যে ওই দেশের সরকার ওই স্পাইওয়্যারের ক্রেতা।

শক্তিশালী স্পাইওয়্যার পেগাসাস ইসরায়েলি কোম্পানি এনএসও গ্রুপ তৈরি করেছে এবং তা বিক্রি করেছে বিভিন্ন দেশের সরকারের কাছে।  আর এই হ্যাকিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে বিভিন্ন দেশের কর্তৃত্ববাদী সরকার মানবাধিকারকর্মী, সাংবাদিক, আইনজীবী, রাজনীতিবিদদের ফোনে নজরদারি চালাচ্ছিল বলে অভিযোগ উঠেছে।


আরও খবর



‘রাজ কুন্দ্রাই পর্ন ইন্ডাস্ট্রিতে এনেছিল’, বিস্ফোরক পুনম পাণ্ডে ও শার্লিন চোপড়া

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৯৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জনপ্রিয় বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা। অ্যাডাল্ট কনটেন্ট তৈরির অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করেছে মুম্বাই পুলিশ।

এদিকে রাজের গ্রেপ্তারের পর থেকে নানা চলঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। শিল্পার স্বামীর হাত ধরেই নাকি অ্যাডাল্ট দুনিয়ায় পা রেখেছেন বলিউড অভিনেত্রী পুনম পাণ্ডে ও শার্লিন চোপড়া। মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে এমনটায় জানানো হয়েছে।

খোলামেলা সাহসী দৃশ্যের জন্য আলোচিত শার্লিন ও পুনম। প্রায় সামাজিক যোগামধ্যমে ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেন তারা। সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, অনেক আগেই রাজ কুন্দ্রার এই কাজের তথ্য মহারাষ্ট্রের সাইবার সেলকে দিয়েছিলেন দুই অভিনেত্রী। বহু আগে রাজের প্রজেক্টে কাজ করেছিলেন পুনম-শার্লিন।

জানা যায়, প্রতিটি কাজের জন্য ৩০ লাখ রুপি পেতেন শার্লিন। এমন ১৫ থেকে ২০টি প্রজেক্টে কাজ করেছেন তিনি। রাজ কুন্দ্রা ছাড়াও আরো কয়েকজন এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বলে তার দাবি।

এদিকে মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, চলতি বছরের শুরুর দিকে রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া যায়। এরপর মামলা দায়ের হয়। সোমবার (১৯ জুলাই) তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়। এদিন রাতেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি ভারতে তৈরি অ্যাপের মাধ্যমে পর্নো কনটেন্ট বিদেশের একটি ওয়েবসাইটে আপলোড করতেন। এই কাজে উঠতি অভিনেত্রী-মডেলদের জড়ানো হয়েছে। প্রতি প্রজেক্টের জন্য আড়াই লাখ রুপি পর্যন্ত দেওয়া হতো।

২০০৯ সালে রাজ কুন্দ্রাকে বিয়ে করেন শিল্পা। ২০১২ সালে তাদের ছেলে ভিয়ানের জন্ম হয়। গত বছর রাজ ও শিল্পার ঘরে আসে কন্যা সামিশা। গ্রেপ্তারের পর শিল্পা ও রাজের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বক্তব্য দেওয়া হয়নি।



আরও খবর



ময়মনসিংহ মেডিকেলে ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৫ জন এবং করোনার উপসর্গ নিয়ে আরও ১২ জন মারা যায়।

করোনা আক্রান্তে মৃতদের মধ্যে ময়মনসিংহের ২ জন, শেরপুরের ২ জন ও নেত্রকোনার ১ জন এবং উপসর্গ নিয়ে মৃতদের মধ্যে ময়মনসিংহের ৪ জন, শেরপুরের ৩ জন, জামালপুরের ৩ জন ও নেত্রকোনার ২ জন রয়েছে।

করোনা ইউনিটের ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৫৫ জন ভর্তিসহ করোনার চিকিৎসা নিচ্ছেন ৩৭১ জন। এরমধ্যে আইসিইউতে আছেন ২১ জন। জেলায় ২৪ ঘণ্টায় ৬৪৫ টি নমুনা পরীক্ষায় আরও ২৩৬ জনের করোনা পজিটিভ হয়েছে। আক্রান্তের হার ৩৬.৫৯ শতাংশ।


আরও খবর



বেনাপোলে দুই মাসে ফিরেছে ৫৬৬৬ বাংলাদেশি, পজিটিভ ১২৩

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বেনাপোল প্রতিনিধি :

বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে দুই মাসে (গত ২৬ এপ্রিল থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত) ভারতে আটকে পড়া পাঁচ হাজার ৬৬৬ জন বাংলাদেশি যাত্রী ফেরত এসেছেন। এদের মধ্যে ১২৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে।

ভারত থেকে করোনা সংক্রমণ (পজিটিভ) নিয়ে এসেছেন ১৩ জন বাংলাদেশি যাত্রী। একই সময়ে ভারত থেকে এসেছে ৩৪ জনের মৃতদেহ। চিকিৎসা নিতে গিয়ে এসব বাংলাদেশিরা ভারতের বিভিন্ন হাসপাতালে মারা যান।

সর্বশেষ আজ শনিবার (বেলা ১২টা পর্যন্ত) দেশে ফিরেছেন ৫৭ জন যাত্রী। কোয়ারেন্টিনে অবস্থানকালীন অন্যান্য মারা গেছেন চারজন।

কলকাতার বাংলাদেশি উপহাইকমিশন থেকে অনাপত্তিপত্র (এনওসি) এবং করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ সনদ নিয়ে ভারতে আটকে পড়া যাত্রীরা গত দুই মাস আগ থেকে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন দিয়ে দেশে ফেরত আসা শুরু করেন। বেনাপোল, ঝিকরগাছা ও যশোরের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬৮১ জন। যশোরের বাইরে অন্যান্য জেলায় আছেন ১১ জন। এদের মধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন শেষে বাসায় ফিরে গেছেন চার হাজার ৪১৩ জন। করোনা পজিটিভ ২০৭ জনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালের ডেডিকেটেড ইউনিটে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। যশোরের বাইরে অন্য হাসপাতালের করোনা জোনে পাঠানো হয়েছে ২৭৭ জনকে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, বাংলাদেশ সরকার ভারতের করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট সংক্রমণরোধে ২৬ এপ্রিল থেকে ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এতে করে ভারতে আটকা পড়ে কয়েক হাজার বাংলাদেশি পাসপোর্টযাত্রী। সেসব আটকা পড়া পাসপোর্ট যাত্রীদের নিজ দেশে ফিরতে হলে কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশি উপহাইকমিশন থেকে এনওসি নিয়ে ও ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আরটিপিসিআর ল্যাবের করোনা টেস্টের সনদ নিয়ে দেশে ফেরার নির্দেশনা দেন বাংলাদেশ সরকার। যেসব যাত্রী করোনায় আক্রান্ত বা উপসর্গ নিয়ে দেশে ফিরছেন উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের তত্বাবধানে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের ডেডিকেটেড ইউনিটে পাঠানো হচ্ছে।

যশোরের জেলা প্রশাসক মোঃ তমিজুল ইসলাম খান বলেন, ভারত থেকে আসা ৫ হাজার ৬৬৬ জনের মধ্যে ১২৩ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। তাদের নির্ধারিত আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। শনিবার পর্যন্ত ৪ হাজার ৪৩১ জনকে নিজ নিজ বাড়িতে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



কাভার্ডভ্যান-লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নরসিংদীতে কাভার্ডভ্যান ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন।

শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে পাঁচদোনা টঙ্গী আঞ্চলিক মহাসড়কের ভাটপাড়া টাকশাল মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- সুনামগঞ্জ জেলার বাংলাবাজার দেওয়ানগঞ্জ গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে আলামিন (১০), বেলাবো উপজেলার বটেশ্বর গ্রামের হাফিজুল ইসলাম (৪৬) ও গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার মোজাফর হোসেনের ছেলে চাঁন মিয়া (৫৫)।

পুলিশ জানিয়েছে, পাঁচদোনা থেকে একটি কাভার্ডভ্যান টঙ্গীর দিকে যাচ্ছিল। কাভার্ডভ্যানটি পাঁচদোনা টঙ্গী আঞ্চলিক মহাসড়কের ভাটপাড়া টাকশাল মোড়ে পৌঁছলে বিপরীত দিক ঘোড়াশাল থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী লেগুনার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

এ সময় লেগুনার সামনের অংশ দুমড়ে মুচড়ে রাস্তার পাশে গিয়ে ছিটকে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই তিনজন মারা যান। আহত হন আরও পাঁচজন। পরে তাদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। 


আরও খবর



ঈদে কঠোর লকডাউন থাকছে কি না, জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ১০৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আগামী ১৪ জুলাইয়ের পর চলমান বিধিনিষেধ ফের বাড়ছে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। রবিবার (১১ জুলাই) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের উত্তরে এ কথা জানান প্রতিমন্ত্রী।

এ বিষয়ে সোমবার (১২ জুলাই) রাতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ ১৪ দিনের সুফল আমাদের ধরে রাখতে হবে। তবে, যে পরিমাণ রোগী বাড়ছে তাতে বিধি-নিষেধ এ মুহূর্তে তুলে নেওয়া হয়তো সম্ভব হবে না। তবে আগামী দুইদিনের পরিস্থিতি দেখে বোঝা যাবে। ঈদ এবং অর্থনৈতিক দিক বিবেচনা করে কিছুটা শিথিলতা থাকবে বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

করোনা মহামারির কারণে গত ১ জুলাই থেকে সরকারি বিধি-নিষেধে সব সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিসগুলো বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে গণপরিবহনসহ শপিংমল। মানুষের চলাচলেও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। 


আরও খবর