Logo
শিরোনাম

পেগাসাসের তালিকায় বাংলাদেশ

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ২৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইসরাইলে তৈরি হ্যাকিং সফটওয়্যার পেগাসাস যে ৪৫টি দেশে ছড়ানোর তথ্য এসেছে, তার মধ্যে বাংলাদেশের নামও রয়েছে।

তবে সরকার এ বিষয়ে সতর্ক রয়েছে জানিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, বাংলাদেশে কোনো ধরনের অসঙ্গতি পাওয়া যায়নি। সরকার এ বিষয়ে সতর্ক রয়েছে।

বাংলাদেশ এ ধরনের কোনো সফটওয়্যার কিনেছে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, এ রকম সফটওয়্যার কেনার প্রশ্নই আসে না।  তবে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বিষয়টা ভালো বলতে পারবে।

কানাডার ইউনিভার্সিটি অব টরন্টোর সিটিজেন ল্যাবের গবেষণায় অন্তত ৪৫টি দেশে পেগাসাস ছড়ানোর প্রমাণ মেলার কথা এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট।

দেশগুলো হলো- যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, সংযুক্ত আরব আমিরাত, সুইজারল্যান্ড, সৌদি আরব, ইসরাইল, সিঙ্গাপুর, আলজেরিয়া, বাহরাইন, বাংলাদেশ, ব্রাজিল, কানাডা, মিশর, ফ্রান্স, গ্রিস, ভারত, ইরাক, আইভরি কোস্ট, জর্ডান, কাজাখস্তান, কেনিয়া, কুয়েত, কিরগিজস্তান, লাটভিয়া, লেবানন, লিবিয়া, মেক্সিকো, মরক্কো, নেদারল্যান্ডস, ওমান, পাকিস্তান, ফিলিস্তিন অঞ্চল, পোল্যান্ড, কাতার, রুয়ান্ডা, দক্ষিণ আফ্রিকা, তাজিকিস্তান, থাইল্যান্ড, টোগো, তিউনিসিয়া, তুরস্ক, উগান্ডা, উজবেকিস্তান, ইয়েমেন ও জাম্বিয়া।

ওয়াশিংটন পোস্ট অবশ্য লিখেছে, কোনো দেশে কোনো ফোন পেগাসাসের কবলে পড়ার অর্থ এই নয় যে ওই দেশের সরকার ওই স্পাইওয়্যারের ক্রেতা।

শক্তিশালী স্পাইওয়্যার পেগাসাস ইসরায়েলি কোম্পানি এনএসও গ্রুপ তৈরি করেছে এবং তা বিক্রি করেছে বিভিন্ন দেশের সরকারের কাছে।  আর এই হ্যাকিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে বিভিন্ন দেশের কর্তৃত্ববাদী সরকার মানবাধিকারকর্মী, সাংবাদিক, আইনজীবী, রাজনীতিবিদদের ফোনে নজরদারি চালাচ্ছিল বলে অভিযোগ উঠেছে।


আরও খবর



সাপের কামড়ে গৃহবধূর মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহীর বাঘায় সাপের কামড়ে টুলু বেগম (৩০) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত ১টার দিকে নিজ ঘরে সাপে তাকে দংশন করে। বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

টুলু বেগম উপজেলার আড়ানী ইউনিয়নের বেড়েরবাড়ি বিনিময়াড়া গ্রামের শফিকুল ইসলামের স্ত্রী।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতের খাবার খেয়ে স্বামী-স্ত্রী নিজ ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। গভীর রাতে বিষধর সাপ টুলু বেগমকে কামড় দেয়। পরে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় ওঝার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। সকালে তার অবস্থা বেগতিক দেখে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান স্বজনরা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে তিনি মারা যান।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, তার কাছে এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।


আরও খবর

নিজের পোষা কবুতরই কাল হলো যুবকের

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




সুইসাইড নোট রেখে স্বামীর বাসায় রাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ছন্দা রায় নামে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর মুগদা এলাকার বাসা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ছন্দা অর্থনীতি বিভাগের ২০১৫-১৬ সেশনের শিক্ষার্থী। চলতি বছরের মার্চে তিনি স্নাতকোত্তর পরীক্ষায় অংশ নেন। তার বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলায়। তিনি স্বামীর সঙ্গে ঢাকার মুগদায় ভাড়া বাসায় থাকতেন।

সহপাঠীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ছন্দার মরদেহ বর্তমানে রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে আছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, তিন মাস আগে ছন্দা রায়ের বিয়ে হয়। তার স্বামী ঢাকায় বাংলাদেশ ব্যাংকে চাকরি করেন। তিনি স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় থাকতেন। সোমবার দুপুর ১২টায় নিজ রুম থেকে তাকে উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তার স্বামীকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে।

এ ঘটনায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ফরিদ উদ্দীন খান বলেন, ছন্দার মৃত্যুর খবরটি আমরা মেনে নিতে পারছি না! মাত্র তিন মাস হলো বিয়ে হয়েছে! কী এমন হয়েছে তার সঙ্গে জানি না। তার মৃত্যুর জন্য সমাজ, পরিবার ও তার স্বামী দায়ী। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের দাবি জানাই।’

এ বিষয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম তুহিন বলেন, ঢাকার মুগদা থানা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। তাই সংশ্লিষ্ট থানার কর্মকর্তারা দেখভাল করছেন।’

মুগদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল উদ্দিন মীর বলেন, ছন্দার আত্মহত্যার বিষয়ে ফোন পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে আমরা ঝুলন্ত অবস্থায় ছন্দার লাশ উদ্ধার করি। সেখানে একটি চিরকুটে লেখা আমার মৃত্যুর জন্য আমি দায়ী”।’

ওসি আরও বলেন, এটা হত্যা নাকি আত্মহত্যা সেটি ময়নাতদন্তের রিপোর্ট দেখলে বলা যাবে। ইতোমধ্যে আমরা ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি মর্গে পাঠিয়েছি। আশা করি, দ্রুত রিপোর্ট আমাদের হাতে আসবে।’

এদিকে, ছন্দার মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যারিস রোডে তারা এ মানববন্ধন করেন।


আরও খবর

জেনে নিন রাজধানীতে কখন কোথায় লোডশেডিং

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




‘উন্নত দেশ গড়তে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে হবে’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ২০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে নারী সমাজের অবদান অনস্বীকার্য। তৃণমূল পর্যায় থেকে শুরু করে জাতীয় পর্যায়ে নারীর সামাজিক, আর্থিক ও রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে ১৮ দিনের সফর নিয়ে আজকের এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সব জায়গায় নারী নেতৃত্বের সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়ন ছাড়া উন্নত দেশ গড়া সম্ভব না। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। যা বিশ্ব নেতাদেরকে অবহিত করেছি।

এছাড়া অন্য একটি সভায় টেকসই আবাসন নিশ্চিত করার জন্য বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য সাফল্য সম্পর্কেও অবহিত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, গৃহহীন ও ভূমিহীন জনগণের জন্য গৃহীত আশ্রয়ণ প্রকল্প, গ্রামীণ জনপদের উন্নয়নের জন্য আমার গ্রাম আমার শহর এবং ঘরে ফেরা প্রকল্প নেয়া হয়েছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে বহু ভূমিহীন মানুষের আবাসন নিশ্চিত হয়েছে।


আরও খবর

প্রথমবার পদ্মা সেতুতে রাষ্ট্রপতি

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




সাতক্ষীরায় একসঙ্গে মা-ছেলের বিষপান, মায়ের মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৪২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটায় নয় বছরের ছেলেকে বিষপান করিয়ে মা নিজেও বিষপান করেছেন। এ ঘটনায় মা প্রিয়া খাতুনের (২৫) মৃত্যু হয়েছে। তাঁর ছেলে আবির হোসেন (৯) আশঙ্কাজনক অবস্থায় সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

গতকাল বুধবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানার নগরঘাটা ইউনিয়নের মিঠাবাড়ি গ্রামে। নিহত প্রিয়াখাতুন একই গ্রামের ইকবাল হোসেনের স্ত্রী।

এলাকাবাসী জানায়, পারিবারিক কলহের জেরে প্রিয়া তাঁর নয় বছর বয়সী ছেলে আবির হোসেনকে বুধবার দুপুরে পাউরুটির সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাইয়ে দেন। নিজেও সেই পাউরুটি খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তিনি মারা যান। মুমূর্ষু অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাঞ্চন কুমার রায় বলেন, ঘটনাটি আমরা শুনেছি। কিন্তু এখনও কেউ থানায় অভিযোগ করতে আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



কুয়াকাটায় ডাকাতের গুলিতে দুই পুলিশসহ আহত ৪

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় গভীর রাতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে স্থানীয় ও পুলিশের ধাওয়া খেয়ে পালিয়েছে ডাকাত দল। এসময় ডাকাতের ছোড়া ছড়ড়া গুলিতে পুলিশের দুই সদস্যসহ আহত হয়েছেন ৪ জন। সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) রাত দুইটার দিকে কুয়াকাটার লতাচাপলী ইউনিয়নের পৌরগোজা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার গভীর রাতে ৫-৬ সদস্যের ডাকাতদল পৌরগোজা এলাকায় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ করে। পরে তারা আজিজ মাষ্টারের বাড়িতে ডাকাতির চেষ্টা চালায়। বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশে ফোন দিয়ে জানালে টহল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

এসময় ডাকাতদলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ করে ছড়ড়া গুলি ছোড়ে। এতে পুলিশের এএসআই তারেক, কনস্টেবল সিরাজুল, স্থানীয় দুলাল সরদার ও ইউসুফ নামের একজন গুলিবদ্ধ হন। পরে পুলিশসহ স্থানীয়রা তাদের ধাওয়া দিলে ডাকাতদল পালিয়ে যায়। তাৎক্ষনিক আহতদের উদ্ধার করে কুয়াকাটা হাসাপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।

আহত দুলাল সরদার জানান, এলাকার মানুষজন ডাক চিৎকার শুরু করলে ডাকাতদল পিছু হটতে শুরু করে এবং পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে। এসময় পুলিশের হাতে অস্ত্র ছিলোনা। পরে আমরা একতাবদ্ধ হয়ে ডাকাতদের ধাওয়া দেই।

আল-আমিন মিয়া জানান, আমরা টের না পেলে হয়তো আজিজ মাষ্টারের বড় ক্ষতি হয়ে যেতো। ডাকাতদল তার বাড়িতে প্রবেশ করে জানালার গ্রিল কেটে ভিতরে প্রবেশ করতে চেয়েছিলো। এসময় আমরা শব্দ পেয়ে পুলিশে খবর দেই।   

সংশ্লিষ্ট মহিপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান জানান, ডাকাতদের স্থানীয়দের সহযোগিতায় ধাওয়া দিয়ে প্রতিহত করা হয়েছে। এসময় আমাদের দুই পুলিশ সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়েছে।


আরও খবর