Logo
শিরোনাম

পি কে হালদারকে গ্রেপ্তারে রেড অ্যালার্ট জারির জন্য ইন্টারপোলে চিঠি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৫ জানুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারী ২০২১ | ৩৯জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিদেশে পলাতক রিলায়েন্স ফাইন্যান্স ও এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার (পিকে) হালদারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করতে ইন্টারপোলকে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ পুলিশের এনসিবি শাখা। বিষয়টি নিশ্চিত করে সহকারী পুলিশ মহাপরিদর্শক মহিবুল ইসলাম (এনসিবি)।

তিনি জানান, সোমবার (৪ জানুয়ারি) ইন্টারপোলকে চিঠি পাঠিয়ে রেড অ্যালার্ট জারির করার জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। প্রায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে পিকে হালদারের বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান চলছে। আত্মসাৎ করা অর্থের মধ্যে ৩ হাজার কোটি টাকা গত ১০ আগস্ট দুদকের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে জব্দ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ৩৯টি প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট ৮৩ জনের ব্যাংক হিসাবে এসব অর্থের লেনদেন হয়েছে।

জানা গেছে, অবৈধ ব্যবসাসহ বিভিন্ন অবৈধ উত্স থেকে অর্জিত সম্পদের বেশির ভাগই বিদেশে, বিশেষ করে কানাডায় পাচার করেছেন প্রশান্ত হালদার। বর্তমানে নিজেও বিদেশে অবস্থান করছেন তিনি। তবে ঢাকায় তার নামে একাধিক বাড়ি, প্লট ও ফ্ল্যাট রয়েছে এবং নামে-বেনামে একাধিক প্রতিষ্ঠানও রয়েছে। ক্যাসিনো-সংশ্লিষ্টতার মাধ্যমে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে প্রথম যে ৪৩ জনের বিরুদ্ধে দুদক অনুসন্ধান শুরু করে, তাদের মধ্যে প্রশান্ত কুমার হালদার ছিলেন একজন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত বছরের ১৪ নভেম্বর ও চলতি বছরের ১০ আগস্ট হাজির হতে নোটিশ পাঠিয়েছিল দুদক। তবে ৩ অক্টোবর বিদেশযাত্রায়ও নিষেধাজ্ঞার মধ্যেই তিনি দেশ ছাড়েন বলে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে গত ৮ জানুয়ারি প্রশান্ত কুমার হালদারের বিরুদ্ধে ২৭৪ কোটি ৯১ লাখ ৫৫ হাজার ৩৫৫ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে দুদক। মামলার এজাহারে এক হাজার ৬৩৫ কোটি টাকা পাচারেরও অভিযোগ আনা হয় তার বিরুদ্ধে।

পি কে হালদার ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের নিয়ন্ত্রণ নেন মূলত হাল ইন্টারন্যাশনাল, বিআর ইন্টারন্যাশনাল, নেচার এন্টারপ্রাইজ, নিউ টেক এন্টারপ্রাইজের নামে। আর টাকা বের করেন প্রায় অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠানের নামে। একইভাবে পিপলস লিজিং, এফএএস ফাইন্যান্স ও বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানিকেও (বিআইএফসি) ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়েছেন পি কে হালদার। পিপলস লিজিং অবসায়ন হচ্ছে, অন্যগুলো গ্রাহকদের টাকা ফেরত দিতে পারছে না। এসব অপকর্মের সময় তিনি রিলায়েন্স ফাইন্যান্স ও এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন।

Share


এই সম্পর্কিত আরও খবর

পাঁচ বছর ধরে কারাগারে তুষারকে একান্তে সঙ্গ দিয়ে আসছে সুইটি

হত্যার এজাহারে কারসাজি : ওসির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের এমডি ও পিপলসের চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

কারাগারের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

গ্রেপ্তার সেই গৃহকর্মী রেখা

এক্স-রেতে যাত্রীর পেটে মিলল সোনা

সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করার পরও কমছে না ধর্ষণ

পিকে হালদারকে ধরতে ইন্টারপোলের রেড অ্যালার্ট জারি

ডোপ টেস্ট: চাকরিচ্যুত হলেন পল্লবী থানার এসআই

মাদক সেবন ও বিক্রির কাজে জড়িত থাকার অভিযোগ গ্রেপ্তার ৫৮