Logo
শিরোনাম

পিরোজপুরে ২ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে ওসিসহ আহত ২০

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৬৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পিরোজপুরে দুই ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় ওসি ও দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

শনিবার রাতে সদর উপজেলার কদমতলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে ১০ জনকে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী (আনারস প্রতীক) মো. সিহাব হোসেন, তার কর্মী হাসান শেখ, হাফিজ শেখ, সাঈদ শেখ, ইয়াসিন মোল্লা, মো. আজমীর খান, মো. রিয়াজুল শিকদার, মো. ইমাম শেখ, শেখ মো. ফারুক মো. শহিদুল ইসলাম, মুনান শেখ আহত হয়েছেন।

এ ছাড়া অপর পক্ষের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. হানিফ খান, তার সমর্থক মিজান শেখ, মামুন খান, লিটন খান তন্ময় গাজী, তাজুল ইসলাম গাজীসহ নয়জন আহত হয়েছেন।

জানা গেছে, উপজেলার কদমতলা ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. হানিফ খান এবং একই ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সিহাব হোসেনের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়।

এতে থানার ওসি মো. সোবাহান হোসেন ও এক পুলিশ সদস্যসহ ২০ জন আহত হয়েছেন।

পিরোজপুর সদর থানার ওসি আ জ ম মাসুদুজ্জামান মিলু জানান, সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

তবে সংঘর্ষ চলাকালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গেলে ইটপাটকেল নিক্ষেপে  থানার ওসি মো. সোবাহান হোসেন ও এক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী আহত মো. আজমির খান বলেন, রাত সোয়া ৮টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সিহাব হোসেন কদমতলা বাজার জামে মসজিদে এশার নামাজ আদায় করতে যান।

সেখানে আমরা কিছু লোক তার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। এ সময় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. হানিফ খানের নেতৃত্বে ৩০ জন আগ্নেয়াস্ত্রসহ হাতে দা, লোহার রড নিয়ে হামলা করে। এ সময় কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে তারা।

এ সময় আমরা চিকিৎসা নিতে জেলা হাসপাতালে যেতে চাইলে হামলাকারীরা আমাদের পথ আটকে বাধা দেয়। আহতদের তাই নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

তবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. হানিফ খান এ হামলায় তার সম্পৃক্ততা অস্বীকার করে জানান, আমি ওই রাতে কদমতলা বাজারে থাকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে কর্মীদের নিয়ে কথা বলছিলাম। এমন সময় স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সিহাব হোসেনের নেতৃত্বে তার ২৫-৩০ কর্মী এসে আমার কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এতে আমার আট কর্মী আহত হয়েছেন। আহতদের জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


আরও খবর



জোয়ারের পানি আরও বাড়ার আশঙ্কায় ৩ নম্বর সংকেত বহাল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৯১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে বাংলাদেশের চারটি সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল রাখা হয়েছে। একইসঙ্গে উপকূলীয় এলাকায় জোয়ারের পানি আরও বাড়ার আশঙ্কা কথা জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সকালে আবহাওয়া অধিদপ্তর এ তথ্য জানিয়েছে।

আবহাওয়া সতর্কবার্তায় বলা হয়, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসআরও উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে আজ বৃহস্পতিবার ভোর ৬টায় গভীর নিম্নচাপ আকারে উত্তর উড়িষ্যা ও কাছাকাছি ঝাড়খণ্ড এলাকায় অবস্থান করছিল। গভীর নিম্নচাপটি আরও উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমান্বয়ে দুর্বল হতে পারে।

এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্য বিরাজ করছে। সাগর উত্তাল রয়েছে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর ও চট্টগ্রাম জেলা এবং এর কাছাকাছি দ্বীপ ও চরে ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এছাড়া পূর্ণিমার প্রভাবে খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর ও চট্টগ্রাম জেলার নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে দুই থেকে চার ফুট বেশি উচ্চতার জোয়ারে প্লাবিত হতে পারে।

নিউজ ট্যাগ: সতর্ক সংকেত

আরও খবর



২ মাস পরে ভারতে সর্বনিম্ন সংক্রমণ, মৃত্যু নিয়ে উদ্বেগ থাকছেই

প্রকাশিত:রবিবার ০৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১২১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রায় দুই মাস তাণ্ডব চালানোর পর ধারাবাহিকভাবে প্রতিদিনই কিছু কিছু করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা কমছে ভারতে। শনিবারের তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছয় হাজার কমেছে। সেদিন সাড়ে ৩ হাজারে পৌঁছানো মৃত্যু কমে রোববার তা কমে এসে দাঁড়িয়েছে আড়াই হাজারের ঘরে।

রবিবার (৬ জুন) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার ও ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের থেকে জানা গেছে এ তথ্য।

জানা গেছে, ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ১৪ হাজার ৪৬০ জন। নতুন সংক্রমিত রোগী কমেছে ৬ হাজারের বেশি। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ কোটি ৮৮ লাখ ৮ হাজার ৩৭২ জন এবং মারা গেছেন ৩ লাখ ৪৬ হাজার ৭৮৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৬৭৭ জনের। গত দিনের তুলনায় রোববার এই সংখ্যা কমেছে সাত শতাধিক।

এছাড়াও প্রতিদিনই সক্রিয় রোগী থেকে সুস্থ হয়ে উঠছেন অনেক মানুষ। কয়েক মাস আগেও দেশটিতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ছিল ৩৭ লাখের বেশি। তবে শেষ এক মাসে সেই সংখ্যা কমতে কমতে ১৪ লাখের ঘরে নেমে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত রোগী কমেছে ৭৮ হাজারের বেশি। এ পর্যন্ত মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৪ লাখ ৭৭ হাজার ৭৯৯ জন।



আরও খবর



শেষকৃত্যে গিয়ে চোলাই মদপানে ৮ নারীসহ ১০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কম্বোডিয়ায় এক শেষকৃত্যানুষ্ঠানে স্থানীয়ভাবে তৈরি করা চোলাই মদপান করে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে অন্তত ৮ জনই নারী। বৃহস্পতিবার দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ পুরসাতের ক্রাকর জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে বার্তা সংস্থা সিনহুয়া নেট জানিয়েছে।

পুলিশ বলছে, ওই মদে উচ্চ মাত্রায় মিথানলের উপস্থিত ছিল বলে তারা সন্দেহ করছে।

ক্রাকর জেলার পুলিশ প্রধান কর্নেল এম রান বলেছেন, তাদের একজন প্রতিবেশীর শেষকৃত্যানুষ্ঠানে গিয়ে চোলাই মদপান করেন।

সিনহুয়াকে টেলিফোনে তিনি বলেন, এ ঘটনায় আট নারী ও দুই পুরুষসহ ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আরও বেশ কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ভুক্তভোগীদের চোখ জ্বালাপোড়া, বুক ব্যথা, শ্বাসকষ্ট, মাথা ঘোরানো, মাথা ব্যথা ও ক্লান্তির মতো লক্ষণ ছিল।

এম রান বলেন, ওই বিষাক্ত মদের নমুনা পরীক্ষার জন্য রাজধানী নমপেমের একটি ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। রেজাল্ট এখনও আসেনি। এদিকে এই মদ তৈরির ঘটনায় এক দম্পতিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আপাতত জেলায় চোলাই মদ বিক্রি বন্ধের পরামর্শ দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

পুরসাত প্রদেশের স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক খোয় দি মদপানে মৃত্যুর ঘটনা নিশ্চিত করেছেন। তবে তিনি বিস্তারিত কিছু জানাননি। দামে কম হওয়ায় কম্বোডিয়ার গ্রামাঞ্চলে চোলাই মদ খুব জনপ্রিয়।


আরও খবর



‘পরিস্থিতি অনুকূলে না এলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ঝুঁকি নেব না’

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১১২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি যদি নিয়ন্ত্রণে থাকে তাহলে নির্ধারিত তারিখে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে। তবে পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকলে মানুষের স্বাস্থ্যকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে না বলে জানিয়ে দিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে জাতীয় প্রত্যাশা সংগঠনের আয়োজনে মরহুম আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরুর স্মরণসভায় শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি আরো বলেন, কোনো আন্দোলনের মুখেই জনগণের জীবন নিয়ে অবহেলা করবে না সরকার।

ডা: দীপু মনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার ব্যাপারে সরকারের সব প্রস্তুতি নেয়া আছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে যথাসময়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ থেকে জারি করা এক নির্দেশনায় বলা হয়েছিল, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলে আগামী ১৩ জুন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা এবং শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনায় প্রয়োজনীয় প্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের নির্দেশনায় বলা হয়, করোনা সংক্রমণ থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার লক্ষ্যে আগের ধারাবাহিকতায় আগামী ১২ জুন পর্যন্ত সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। এ সময়ে নিজেদের এবং অন্যদের করোনা সংক্রমণ থেকে সুরক্ষার লক্ষ্যে শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ বাসস্থানে অবস্থান করবে। বাসায় থেকে তারা টেলিভিশন ও অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমের সাথে সংযুক্ত থাকবে।

নির্দেশনায় আরো বলা হয়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকাকালীন শিক্ষার্থীদের বাসায় অবস্থানের বিষয়টি অভিভাবকরা নিশ্চিত করবেন এবং স্থানীয় প্রশাসন তা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করবে।

এর আগে বুধবার ভার্চুয়াল এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানান, আগামী ১৩ জুন থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া‌ হবে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়ার বিষয়টি নির্ভর করছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী সবাইকে করোনার টিকার আওতায় আনার ওপর।

তিনি বলেন, ১২ জুন পর্যন্ত স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকছে, ১৩ জুন থেকে সেগুলো খুলে দেয়া হচ্ছে।

এর আগে তিনি বলেন, যদি ১৩ জুন স্কুল-কলেজগুলো খুলে দিতে পারি সেক্ষেত্রে ২০২১ সালের এসএসসি-এইচএসসি ব্যাচকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে। তারা হয়তো সপ্তাহের ছয় দিন ক্লাসে আসবে। যারা ২০২২ সালের এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থী তাদের ছুটির দিন ছাড়া বাকি দিনগুলোতে ক্লাসে নিয়ে আসা হবে। অন্যদের বিষয়ে সপ্তাহে হয়তো এক দিন ক্লাসে আনা হবে।


আরও খবর



দফায় দফায় ভূমিকম্পে কাঁপছে সিলেট

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১০৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সিলেট ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় দফায় দফায় মৃদু ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। শনিবার সকাল ১০টা ৩২ মিনিটে, ১০টা ৪৭ মিনিটে, বেলা ১১টা ৩০ মিনিটে ও ১টা ৩৪ মিনিটে এবং দুপুর ২টায় এসব ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

এসব ভূমিকম্পনে প্রাথমিকভাবে কোথাও কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি বলে জানান সিলেট ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন কর্মকর্তা যীশু তালুকদার।

এর আগে ২৮ এপ্রিল সকাল ৮টা ২২ মিনিটে ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছিল। যার উৎপত্তি স্থল ছিল ভারতের আসামে এবং রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬।

নিউজ ট্যাগ: ভূমিকম্প সিলেট

আরও খবর