Logo
শিরোনাম

পিরোজপুরে আসামিপক্ষের হামলায় ৫ পুলিশ আহত, গ্রেফতার ৮

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ জানুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১ | ৪৮৮জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পিরোজপুর শহরতলীর কুমারখালী এলাকায় রবিবার গভীর রাতে পুলিশের উপর  সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে দুজনকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন, পিরোজপুর  সদর থানার উপ-পরিদর্শক সৈকত হোসেন সানি, উপ-পরিদর্শক মাহামুদুল হাসান, সহকারী উপ পরিদর্শক মো. খাইরুল হোসেন,  সহকারী উপ পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম এবং কনস্টেবল মো. মারুফ হাওলাদার।

পিরোজপুর সদর থানার ওসি মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল জানান, কয়েকদিন আগে পিরোজপুর সদর হাসপাতাল থেকে সিসি ক্যামেরা চুরি হয়। পুলিশ এ ঘটনায়  রবিবার রাত ২টার দিকে কুমারখালী এলাকা থেকে হাসান সিকদারকে আটক করে থানায় আনার সময় হাসানের সহযোগীরা তাকে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য পুলিশের উপর হামলা চালায়।

এ সময় হাসান ও তার সহযোগীদের হামলায় পিরোজপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক সৈকত হোসেন সানি, উপ-পরিদর্শক মাহামুদুল হাসান, সহকারী উপ পরিদর্শক মো. খাইরুল হোসেন, সহকারী উপ পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম এবং কনস্টেবল মো. মারুফ হাওলাদার আহত হয়। ওসি জানান, হামলায় পুলিশের পিকআপ ভ্যান ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

পিরোজপুর জেলা হাসপাতালের চিকিৎসক তারেক আজিজুল্লাহ জানান, আহত পাঁচ পুলিশ সদস্যদের মধ্যে দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পিরোজপুর সদর থানার ওসি মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল জানান, এ ঘটনায় পিরোজপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক মাহামুদুল হাসান বাদী হয়ে ১৬ নামীয় ও ৪০ থেকে ৫০ জন অজ্ঞাত নামাদের আসামী করে এক মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ এ ঘটনায় হাসান সিকদার, সৌরভ খান, জুয়েল, শুভ সিকদার, সোহেল সিকদার, রেজাউল শেখ, ওসমান সিকদারসহ ৮ জনকে আটক করেছে বলে জানান ওসি।

Share

আরও খবর



বিএনপির নেতারা ধান ভানতে শিবের গীত গেয়ে যাচ্ছেন : ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৫ মার্চ ২০২১ | ৪৮জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, কর্মীদের রোষানল থেকে বাঁচতে এবং পদ-পদবি ধরে রাখতে বিএনপির কিছু কিছু ফরমায়েশি নেতা ধান ভানতে শিবের গীত গেয়ে যাচ্ছেন।

সেতুমন্ত্রী আজ শনিবার সকালে তাঁর সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন।

দিনক্ষণ ঠিক করে সরকার পতনের ঘোষণা দেওয়া বিএনপির নতুন কোনো দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের অংশ কি না, সে জন্য জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সরকার পতনের সাইরেন বেজে গেছে বিএনপির নেতাদের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আন্দোলন ও নির্বাচনে ব্যর্থতার গ্লানি ঢাকতে বিএনপি নেতাদের এটি আত্মতুষ্টি লাভের অপচেষ্টা মাত্র। জনবিরোধী কর্মসূচির কারণে জনগণ বিএনপিকে অনেক আগেই লালকার্ড দেখিয়েছে বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের শেকড় মাটির অনেক গভীরে এবং বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার প্রতি জনমানুষের আস্থা ইস্পাত কঠিন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনা সরকার ঠুনকো কোনো জিনিস নয় যে, ধাক্কা লাগলেই পড়ে যাবে।

বিএনপির রাজনীতি বৈপরীত্যে ভরা জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাদের কোনো কোনো নেতার মস্তিষ্ক অপপ্রচার আর গুজব তৈরির উর্বর কারখানা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকারের সবকিছুতেই অন্ধ সমালোচনা আর নেতিবাচকতা বিএনপির রাজনীতি। এ রাজনীতি থেকে বেরিয়ে না এলে জনগণই বিএনপিকে বিদায়ের সাইরেন বাজিয়ে দিবে।

নিউজ ট্যাগ: ওবায়দুল কাদের
Share

আরও খবর



আল-জাজিরার প্রতিবেদন নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া নেই : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | ৬৫জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আল-জাজিরার প্রতিবেদন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এটা নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া নেই। কিছু বলারও নেই। একটা চ্যানেল কী করেছে, কী দেখিয়েছে৷ কী বলতে চেয়েছে। এর সত্য-মিথ্যা দেশবাসী যাচাই করবেন। যুদ্ধাপরাধীদের সন্তানদের ইন্ধন থাকতে পারে এসব ঘটনায়। কেননা, তারা তো থেমে থাকবে না। তাছাড়া আওয়ামী লীগ বিরোধিতার বিষয়টি তো রয়েছেই।

শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদায় উত্তরণে জাতিংঘের চূড়ান্ত সুপারিশ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

এসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ গতকাল স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের জন্য জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশ লাভ করেছে। আমরা উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার পূর্ণ যোগ্যতা অর্জন করেছি। সমগ্র জাতির জন্য এটা অত্যন্ত আনন্দের এবং গর্বের। আমাদের এই উত্তরণ এমন এক সময়ে ঘটলো, যখন আমরা সর্ব কালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করছি। আমরা মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের দ্বারপ্রান্তে।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের জন্য এ উত্তরণ এক ঐতিহাসিক ঘটনা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মাত্র সাড়ে তিন বছরে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশকে ধ্বংসস্তূপের মধ্যে থেকে টেনে তুলে স্বল্পোন্নত দেশের কাতারে নিয়ে গিয়েছিলেন। স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে তারই হাতে গড়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দেশকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদায় উন্নীত করলো।

সবশেষ সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দলমত নির্বিশেষে জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর এ মাহেন্দ্রক্ষণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার করি।

 

Share

আরও খবর



কার্টুনিস্ট কিশোর কারাগার থেকে ছাড়া পেয়েছেন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ মার্চ ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় প্রায় ১০ মাস কারাগারে থাকার পর মুক্তি পেলেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর। বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) দুপুর ১২টা ২৫ মিনিটে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর জেল সুপার আব্দুল জলিল মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জেল সুপার জানান, আহমেদ কবির কিশোরের জামিনের কাগজ সকাল ১১টার দিকে কাশিমপুর কারাগারে পৌঁছায়। পরে তা যাচাই-বাছাই শেষে কিশোরকে মুক্তি দেওয়া হয়। এসময় কারাফটকে উপস্থিত ছিলেন কিশোরের স্বজনেরা।

এর আগে কিশোরের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বুধবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ জামিনাদেশ দেন।

লেখক মুশতাক আহমেদ ও কার্টুনিস্ট কিশোরকে গত বছরের মে মাসে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কথাবার্তা ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে তারাসহ মোট ১১ জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়।

লেখক মুশতাক ও কার্টুনিস্ট কিশোর ছয়বার জামিন আবেদন করলেও জামিন পাননি তারা।

শেষ গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ফের জামিন আবেদন নাকচ হয় তাদের। এর পরদিনই কারাগারে মৃত্যু হয় মুশতাকের। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশব্যাপী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি উঠেছে।

Share

আরও খবর



স্কুল-কলেজ খুলতে পর্যালোচনা সভা ডেকেছে সরকার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | ৭৩জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় ডেকেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। ওই দিন বিকেল ৩টায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে নিয়ে

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে প্রায় একবছর ধরে বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আগামী ২৪ মে খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হলেও স্কুল-কলেজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। ২৮ ফেব্রুয়ারি স্কুল-কলেজের ছুটি শেষ হওয়ার কথা।

তবে মহামারির প্রকোপ কমে যাওয়ায় কবে থেকে স্কুল-কলেজ খুলবে তা পর্যালোচনার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সরকার প্রধানের সেই নির্দেশে আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় ডেকেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। ওই দিন বিকেল ৩টায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে নিয়ে সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিবের একান্ত সচিব (পিএস) মাহমুদ ইবনে কাশেম বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বলেন, শনিবার বিকেল ৩টায় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন ছাড়াও মন্ত্রিপরিষদ সচিব এবং দুই মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিবসহ সংশ্লিষ্টরা বৈঠকে উপস্থিত থাকবে বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন।

বাংলাদেশে গত ৮ বছরের মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর গত ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস
Share

আরও খবর



ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানালো জাতিসংঘ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ মার্চ ২০২১ | ৫৬জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশি লেখক মুশতাক আহমেদের কারাগারে মৃত্যুর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। দ্রুত এ ঘটনার স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ তদন্ত নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সরকারের কাছে আহ্বান জানিয়েছেন সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল বাশেলেট। একই সঙ্গে তিনি বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার আহ্বানও জানান তিনি।

আইনটির অধীনে আটকদের দ্রুত মুক্তির দাবি করে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক এই দূত সোমবার (১ মার্চ) এক বিবৃতিতে বলেন, আইনটির পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ জরুরি।

গত বছরের মে মাসে লেখক মুশতাককে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার করার পর নয় মাস তিনি কারাবন্দী ছিলেন। বার বার জামিন আবেদন করা হলেও তা প্রত্যাখ্যান করা হয়। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি কারাগারেই মারা যান তিনি। একই অভিযোগে এখন আটক রয়েছেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কিশোর।

কার্টুনিস্ট কিশোরকে নির্যাতনের বিষয়ে মিশেল বাশেলেট উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, অভিযোগের তাৎক্ষণিক ও কার্যকর তদন্ত করতে হবে। একই সঙ্গে কিশোরের নিরাপত্তা এবং সুস্থতা নিশ্চিত করতে হবে।

এ সময় মানবাধিকারের প্রতি বাংলাদেশের বাধ্যবাধকতার বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকারকেই মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তের বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। অপর আটককৃতদের সঙ্গে অসদাচরণের যে অভিযোগ এসেছে তারও দ্রুত তদন্ত হওয়া উচিত।

জাতিসংঘের ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, মুশতাকের মৃত্যুর পর বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের হামলায় ৩৫ জন আহত এবং সাতজন আটকের খবর উদ্বেগজনক। মৃত্যুতে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেয়ায় রুহুল আমিন নামে একজনকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলাপে তিনি এবং তার দপ্তর প্রস্তুত রয়েছে জানিয়ে বাশেলেট আরও বলেন, সরকারের সমালোচনার শাস্তি দিতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের দুর্বলভাবে সংজ্ঞায়িত বিধানগুলোর বিষয়ে জাতিসংঘের বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থাগুলো দীর্ঘদিন ধরে উদ্বেগ জানিয়ে আসছে। জরুরি ভিত্তিতে আইনটির প্রয়োগ স্থগিত করা এবং আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের প্রয়োজনীয়তার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করতে এর বিধানগুলো পর্যালোচনা করা দরকার।

নিউজ ট্যাগ: জাতিসংঘ
Share

আরও খবর