Logo
শিরোনাম

পিরোজপুরে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রের মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল!

প্রকাশিত:শনিবার ২১ আগস্ট 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৫১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পিরোজপুরের সিআই পাড়ার চানমারি এলাকায় চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ'র (১১) ঝুলন্ত লাশ নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। গত ১৬ আগষ্ট রাত নয়টার দিকে বাথরুমের কাপড় রাখার পাইপে অর্ধঝুলন্ত (মেঝেতে হাটু ভাজ অবস্থায়) লাশ পাওয়া যায়।

আব্দুল্লাহ স্থানীয় কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। আব্দুল্লাহর বাবা সৌদি আরবের থাকায় মা নিপা মোনালিসার সঙ্গে চানমারি এলাকায় একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতো।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে আব্দুল্লাহ চটপটে এবং বুদ্ধিদীপ্ত ছেলে ছিলো। সবাই তাকে আদর করতো। তাকে মৃত অবস্থায় যেভাবে পাওয়া গেছে তাতে আত্মহত্যা বলে মনে হয় নাই। কিন্তু তার মা এবং তার বন্ধু-বান্ধবরা ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের তীব্র চেষ্টা চালায়।

পুলিশের একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানায়, প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা বলে মনে না হওয়ায় ময়নাতদন্তের ব্যবস্থা করা হয়। তাছাড়া আব্দুল্লাহ’র সৌদিপ্রবাসী বাবা সবুজ খান হত্যা নাকি আত্মহত্যা নিশ্চিত হওয়ার জন্য ময়নাতদন্তের জোর দাবি করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন প্রতিবেশী এ প্রতিবেদককে বলেন, নিপার এক বন্ধুর রাত বিরাতে ওই বাসায় যাতায়ত ছিলো। তারা দুই তিনজন বাসার বাইরে পাহারা থাকতো। প্রভাবশালী হওয়ায় নাম বলতে পারছি না। তবে নিপার মোবাইল ফোনের কল লিষ্ট চেক করলেই পুলিশ বিষয়টি জানতে পারবে। এলাকাবাসী এ নির্মম মৃত্যুর রহস্য জানতে চায়। সকলের চোখ রয়েছে ময়নাতদন্ত রিপোর্টের দিকে।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। আব্দুল্লাহর মা নিপার কয়েকজন বন্ধু বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার জন্য তৎপরতা চালাচ্ছে।

এ ব্যাপারে পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আঃ জাঃ মোঃ মাসুদুজ্জামান বলেন, বিষয়টি একটু রহস্যজনক মনে হওয়ায় শিশুটির ময়নাতদন্ত করা হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলেই বুঝা যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা। এ ব্যপারে থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা হয়েছে। মামলা নং ২৬২১।



আরও খবর



৪২তম বিসিএসের ফল আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) ৪২তম (বিশেষ) বিসিএসের ফল প্রকাশ করবে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। অতিরিক্ত দুই হাজার চিকিৎসকের চাহিদাপত্র মঙ্গলবার পিএসসিতে পাঠিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। ফলে মোট চার হাজার চিকিৎসককে সুপারিশ করতে যাচ্ছে পিএসসি।

পিএসসি সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সরকারি কর্ম কমিশনের বিশেষ সভা রয়েছে। সভায় ৪২তম বিসিএসের ফল প্রকাশের ঘোষণা দেওয়া হবে। এরপর আনুষ্ঠানিকভাবে পিএসসির ওয়েবসাইটে ফল প্রকাশ করা হবে।

এর আগে গত সোমবার পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) নূর আহ্‌মদ বলেন, ৪২তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল তৈরির কাজ চলছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে অতিরিক্ত দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগের চাহিদাপত্র পেলে চলতি সপ্তাহে চিকিৎসক নিয়োগের সুপারিশ করা হবে।

গত সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আলী আজম জানিয়েছিলেন, অতিরিক্ত দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এরপর সেদিন বিকেলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নব নিয়োগ শাখা থেকে অতিরিক্ত দুই হাজার চিকিৎসকের চাহিদাপত্র পিএসসিতে পাঠায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

প্রসঙ্গত, দেশে চলমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় দুই হাজার চিকিৎসককে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দিতে গত বছর ৪২তম বিশেষ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ৩১ হাজার চিকিৎসক অংশ নেন। পরীক্ষার এক মাস পর ২৯ মার্চ এই বিসিএসের ফল প্রকাশ করে পিএসসি। এতে উত্তীর্ণ হন ৬ হাজার ২২ জন। 




আরও খবর

৫ অক্টোবর খুলছে ঢাবির হল

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

অষ্টম ও নবম শ্রেণির ক্লাসও সপ্তাহে দুই দিন

বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১




আফগানিস্তান: তালেবান পাঞ্জশিরে বেসামরিক নাগরিকদের হত্যা করছে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আফগানিস্তানের পাঞ্জশির উপত্যকায় অন্তত ২০ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি। পাঞ্জশিরের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তালেবানের সঙ্গে সেখানকার বিরোধী বাহিনীর সঙ্গে তুমুল লড়াই হয়েছিল।

বিবিসি জানিয়েছে, পাঞ্জশির উপত্যকা যোগাযোগ-বিচ্ছিন্ন থাকার ফলে সেখানে সংবাদকর্মীদের পক্ষে কাজ করে কঠিন হলেও তাদের কাছে তালেবানের সংযমের প্রতিশ্রুতি সত্ত্বেও চালানো হত্যাকাণ্ডের প্রমাণ রয়েছে।

পাঞ্জশিরের একটি ধুলোমাখা রাস্তার পাশের ফুটেজে দেখা গেছে সামরিক সরঞ্জাম সংবলিত পোশাক পরা এক ব্যক্তিকে তালেবান যোদ্ধারা ঘিরে রেখেছে। এরপর গুলির শব্দ শোনা যায় এবং ওই ব্যক্তিকে মাটিতে লুটিয়ে পড়তে দেখা যায়।

তবে, নিহত ওই ব্যক্তি সেনাবাহিনীর সদস্য কি না, তা স্পষ্ট নয়। কেননা, পাঞ্জশিরের বাসিন্দাদের মধ্যে যুদ্ধের পোশাক পরার চল রয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়একজন প্রত্যক্ষদর্শী নিজেকে বেসামরিক নাগরিক বলছেন।

বিবিসি বলছে, পাঞ্জশিরে এ ধরনের ঘটনায় অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের একজনের নাম আবদুল সামি। দুই সন্তানের পিতা সামি পেশায় ছিলেন দোকানদার।

স্থানীয় সূত্র জানায়, তালেবানকে আসতে দেখে সামি পালিয়ে না গিয়ে তাদের বলেছিলেন : আমি নিতান্ত দরিদ্র এক দোকানমালিক, যুদ্ধের সঙ্গে আমার কোনো সম্পর্ক নেই।

কিন্তু, তালেবানবিরোধী যোদ্ধাদের কাছে সিম কার্ড বিক্রির অভিযোগে সামিকে গ্রেপ্তার করে তালেবান। কয়েক দিন পর সামির লাশ তাঁর বাড়ির কাছে পড়ে থাকতে দেখা যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সামির মরদেহে নির্যাতনের চিহ্ন ছিল। গত মাসে যখন তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসে, তখন কেবল পাঞ্জশির তাদের নিয়ন্ত্রণে ছিল না।

আফগানিস্তানে দীর্ঘদিন প্রতিরোধের কেন্দ্র ছিল এই পাঞ্জশির উপত্যকা। সেখানকার প্রতিরোধ বাহিনী অতীতে কমান্ডার আহমদ শাহ মাসউদের নেতৃত্বে সাবেক সোভিয়েত বাহিনী ও তালেবানকে পাঞ্জশির থেকে বিতাড়িত করেছিল। পাহাড়ে ঘেরা থাকায় সাবেক সোভিয়েত বাহিনী ও তালেবান পাঞ্জশির উপত্যকা দখল করতে ব্যর্থ হয়।

মাসউদের মৃত্যুর পর তাঁর ছেলে আহমদ বাবার পদাঙ্ক অনুসরণ করেন। তালেবান দ্বিতীয় দফায় আফগানিস্তানজুড়ে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে একের পর অঞ্চল নিজেদের হাতে নেওয়া শুরু করলে আহমদ পাঞ্জশিরে তালেবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। কিন্তু, গত সপ্তাহে তালেবান পাঞ্জশির উপত্যকায় নিজেদের বিজয়ী ঘোষণা করে। ভিডিও ফুটেজে তালেবান যোদ্ধাদের পাঞ্জশিরে নিজেদের পতাকা উত্তোলন করতে দেখা গেছে।

তবে, হার না মানা প্রতিরোধ বাহিনী পাঞ্জশিরে লড়াই জারি রাখবে বলে জানিয়েছে। আহমদ মাসউদ তালেবানদের বিরুদ্ধে জাতীয় অভ্যুত্থানের ডাক দিয়েছেন।

তালেবানরা আবার আফগানিস্তানের ক্ষমতায় ফেরার পর, এখন দেখা বিষয়আফগানিস্তানের অন্যান্য অঞ্চলের মতো পাঞ্জশিরে এরপর কী ঘটে। পাঞ্জশিরে ঢোকার সময় তালেবান উপত্যকার বাসিন্দাদের স্বাভাবিক জীবনযাপন চালিয়ে যেতে বলেছিল। তালেবানের অন্যতম মুখপাত্র মৌলভি আবদুল্লাহ রাহমানি বলেছিলেন, তাদের (পাঞ্জশিরবাসী) বাইরে আসা উচিত, নিজেদের দৈনন্দিন কাজকর্ম করা উচিত।

মৌলভি আবদুল্লাহ রাহমানি আরও বলেছিলেন, দোকান মালিকেরা  দোকানে যেতে পারেন। কৃষকেরা তাঁদের খামারে যেতে পারেন। আমরা এখানে তাঁদের, তাঁদের জীবন এবং তাঁদের পরিবারের সুরক্ষা দিতে এসেছি।

কিন্তু বিবিসি জানিয়েছে, বাস্তবে ভিন্ন চিত্র দেখা গেছে। একটি ফুটেজ দেখা গেছেএকসময়ের ব্যস্ত বাজারগুলো জনশূন্য। লোকজন পালানোর চেষ্টা করছে। এবং উপত্যকার খাড়া চূড়ার নিচে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন দেখা যাচ্ছে। এ ছাড়া পাঞ্জশিরে খাদ্য ও ওষুধের ঘাটতির সতর্কতাও জারি করা হয়েছে।


আরও খবর

আফগানিস্তানে আবারও বিস্ফোরণ, নিহত ৭

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১




মন শান্ত রাখতে খান এসব খাবার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বেঁচে থাকার লড়াইয়ে দুশ্চিন্তা কিংবা অ্যাংজাইটির মতো সমস্যা এখন বিশ্বব্যাপী। মনের ভেতর অস্থিরতা কাজ করলে তার প্রভাব শরীরে পড়বেই। এই চাপ নিয়ন্ত্রণে মেডিটেশনের পাশাপাশি কিছু খাবার খেতে হবে। জেনে নিন সেসব খাবার সম্পর্কে-

অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ খাবার :

সাইট্রাস এবং বেরি জাতীয় খাবারে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে। মন থেকে অস্থিরতা তাড়িয়ে মন শান্ত করতে খেতে পারেন এ জাতীয় খাবার। সেইসঙ্গে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার রাখুন তালিকায়। পাশাপাশি ভিটামিন ই সমৃদ্ধ খাবার, যেমন- কুমড়ো, তরমুজ এবং ফ্ল্যাক্স সিড ইত্যাদি খেতে পারেন। এসব খাবার মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়ায়, কমায় বিভিন্ন ধরনের দুশ্চিন্তা।

ডার্ক চকলেট ও হলুদ দুধ :

চকলেট খেতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ কমই আছে। কিন্তু সেই চকলেট যেন ডার্ক হয়, সেদিকে খেয়াল রাখবেন। কারণ, এই চকলেট আপনার মন শান্ত করতে সাহায্য করবে। পাশাপাশি পান করুন হলুদ মিশ্রিত দুধ। দুধে থাকে ভিটামিন ডি এবং হলুদে পাবেন কারকিউমিন। এগুলো হলো অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি। এসবে যেহেতু অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট উপাদান রয়েছে, তাই এগুলো আপনার মস্তিষ্ক শান্ত রাখতে সাহায্য করবে।

ভিটামিন বি সমৃদ্ধ খাবার :

প্রতিদিনের খাবারে সব ধরনের ভিটামিনের উপস্থিতি নিশ্চিত করুন। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, ভিটামিন বি আমাদের স্নায়ুতন্ত্রের ওপর বিশেষ প্রভাব রাখতে পারে। তাই নিয়মিত ভিটামিন বি সমৃদ্ধ খাবার রাখুন তালিকায়। যেমন- মাছ, ডিম এবং বিভিন্ন সবজি খেতে পারেন। এ ধরনের খাবার আপনার অ্যাংজাইটি কমিয়ে দেবে।

প্রোবায়োটিক্স এবং ভালো ফ্যাট :

আমাদের পেটের স্বাস্থ্য ভালো রাখে প্রোবায়োটিক্স। তবে শুধু পেটই নয়, এটি মন শান্ত রাখতেও সাহায্য করে। প্রতিদিন খাবারের তালিকায় প্রোবায়োটিক্স রাখলে বাড়ে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা। তাই আপনার খাবারে প্রোবায়োটিকের পাশাপাশি যোগ করুন ভালো ফ্যাটও। হতে পারে তা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। বিভিন্ন ধরনের মাছ, ফ্ল্যাক্স সিড, বাদাম ও নারিকেল তেলে পেতে পারেন এই ফ্যাট।

অন্ত্র এবং গাট এর ব্যাকটেরিয়া সেরোটোনিনের মতো হরমোন নিঃসরণ করে। এই হরমোন আমাদের মেজাজের ওপর প্রভাব ফেলে। তাই নিয়মিত প্রোবায়োটিক সমৃদ্ধ খাবার খেলে তা আপনার মস্তিষ্কেও প্রভাব ফেলবে। নিয়মিত টক দই রাখুন পাতে। এটি আপনার মন শান্ত রাখবে।


আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রথম প্রেম দিবস আজ

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




আজ আসছে ফাইজারের আরো ১০ লাখ টিকা

প্রকাশিত:সোমবার ৩০ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনা মহামারি মোকাবিলায় কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটিজের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের উপহার হিসেবে ফাইজারের আরো ১০ লাখ ডোজ টিকা আজ দেশে এসে পৌঁছবে। সোমবার (৩০ আগস্ট) সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট এ টিকার চালান নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে।

এসময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার বিমানবন্দরে উপস্থিত থেকে টিকার চালান গ্রহণ করবেন।

গত সপ্তাহে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছিল।

গত ২৩ আগস্ট দুপুরে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছিলেন, সেপ্টেম্বরেই যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফাইজারের আরো ৬০ লাখ টিকা পাওয়া যাবে। এরই অংশ হিসেবে ৩০ আগস্ট সন্ধ্যায় ১০ লাখ ডোজ টিকা দেশে আসছে। বাকি ৫০ লাখ টিকা ক্রমান্বয়ে সেপ্টেম্বরের মধ্যেই দেশে আসবে বলে জানান তিনি।

গত ২৭ মে জরুরি ব্যবহারের জন্য ফাইজারের টিকা অনুমোদন দেয়া হয়। ২১ জুন সকাল থেকে রাজধানীর তিনটি হাসপাতালে ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। এর আগে গত ৩১ মে কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটিজের মাধ্যমেই যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া ফাইজার-বায়োএনটেকের এক লাখ ৬২০ ডোজ টিকার প্রথম চালান দেশে পৌঁছায়। 


আরও খবর

ডেঙ্গুতে হাসপাতালে আরও ২৩২ রোগী

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

করোনায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অ্যাসোসিয়েশনের কড়া বিবৃতির সঙ্গে একমত নন সচিবরা

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৯১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) বাসভবনে হামলা ও পরবর্তী উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন যে ভাষায় বিবৃতি দিয়েছে তার সঙ্গে বেশিরভাগ সচিব দ্বিমত পোষণ করেছেন।

সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

গত ১৮ আগস্ট রাতে উপজেলা কমপ্লেক্সের ভেতরে থাকা ব্যানার অপসারণ নিয়ে বিরোধে জড়ায় আওয়ামী লীগ এবং সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মুনিবুর রহমান। সেই ঘটনায় হামলা সংঘর্ষ এবং গুলিবর্ষণে ৫ জন গুলিবিদ্ধসহ আহত হন ক্ষমতাসীন দলের ৩০ নেতাকর্মী।

ওই রাতে সদর উপজেলা ইউএনওর সরকারি বাসভবনে হামলা চালান স্থানীয় ছাত্রলীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ, শ্রমিক ইউনিয়ন, আওয়ামী লীগ নেতা ও সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা।

এ ঘটনায় আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কয়েকশ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে। উভয় মামলায় বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদিক আব্দুল্লাহকে প্রধান আসামি করা হয়।

মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহকে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন (বিএএসএ) বিবৃতি দেয়।

তবে প্রশাসন ক্যাডারের কড়া ভাষার বিবৃতি আওয়ামী লীগে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া তৈরি করেছে বলে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়।


আরও খবর

অভিভাবকরা স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১