Logo
শিরোনাম

পরিবারের অন্ন যোগাতে সার্টিফিকেট নিলামে বিক্রি করতে চায় ফিরোজ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৮৭জন দেখেছেন

পরিবারের অন্ন যোগাতে সার্টিফিকেট নিলামে বিক্রি করতে চায় ফিরোজ


আরও খবর

জেনে নিন রাজধানীতে কখন কোথায় লোডশেডিং

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




মিথিলার কঠিন সময়ের গল্প

প্রকাশিত:সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা ব্র্যাকের আর্লি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। চাকরির কারণে বিভিন্ন দেশে  যেতে হয় তাঁকে। সেখানকার নৈসর্গিক সৌন্দর্যের ছবি তিনি ফেসবুকেও পোস্ট করেন। আর সেসব ছবি দেখে অনেকেই তাঁর চাকরি এবং ঘুরে বেড়ানোর আনন্দের কথা জানেন। কিন্তু আনন্দের মধ্যেও যে কষ্ট আছে, তা অনেকের অজানাই থেকে যায়। সেই অজানা গল্পের কিছুটা হলেও এবার জানান দিয়েছেন তিনি।

মিথিলা জানান, গত দুই সপ্তাহ তিনি উগান্ডায় বিভিন্ন রকম ট্রেনিং, ওয়ার্কশপ, ফিল্ড ভিজিটে ব্যস্ত ছিলেন। উগান্ডা থেকে ওয়েস্ট আফ্রিকার সিয়েরা লিওনে আসেন সেখানকার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আর্লি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট-বিষয়ক কর্মশালার আয়োজন করতে। কর্মশালা শুক্রবার শেষ হয়। শুক্রবার রাতেই ছিল সিয়েরা লিওন থেকে কলকাতায় যাওয়ার ফ্লাইট। শুক্রবার বিকেলবেলা থেকেই প্রচণ্ড ঝড়-বৃষ্টি সিয়েরা লিওনে। রাজধানী ফ্রিটাউন আটলান্টিক মহাসাগরের তীরে অবস্থিত।

সিয়েরা লিওনের এয়ারপোর্ট ফ্রিটাউন থেকে অনেকটা দূরে লুঙ্গি শহরে। ফ্রিটাউন থেকে এক ঘণ্টার পথ। ফেরিতে আটলান্টিক পার হয়ে লুঙ্গি এয়ারপোর্টে যেতে হয়। ঝড়-বৃষ্টির কারণে চিন্তিত ছিলাম। কারণ সমুদ্র যেমন ভালো লাগে, তেমনি উত্তাল সমুদ্র ভয়ও লাগে। আমার ফেরি, যেটাকে ‘‘সি-কোচ’’ বলা হয়, সেটার টাইম ছিল রাত দুইটায়। শেষ পর্যন্ত ভয়ে ভয়ে রাত ১টায় সি-কোচ টার্মিনালে গিয়েছিলাম। ফেরি থেকে নেমে টার্মিনাল অবধি বৃষ্টির মধ্যে দৌড়ে যেতে যেতেই ভিজে কাক হয়ে গেলাম। তারপর একটা বাসে চড়ে লুঙ্গি এয়ারপোর্টে পৌঁছাতে বাজল ভোর ৪টা। আমার ফ্লাইট ছিল এয়ার মারোক, যেটা লাইবেরিয়ার রাজধানী মনরোভিয়া হয়ে কাসাবলানকা যাবে। সাত ঘণ্টার মতো জার্নি করে বেলা দুইটায় কাসাবলানকায় পৌঁছাই। পরে টার্কিশ এয়ারলাইনসে চড়ে অনেক ঝক্কি-ঝামেলা পেরিয়ে ঢাকা আসি।

যাঁরা মিথিলার বিভিন্ন দেশের ভ্রমণের সুন্দর ছবিগুলোই দেখেন, তাঁর পেছনের কঠিন সময়ের গল্পগুলো জানেন না, তাঁদের জন্য এই জার্নির গল্পটা বলেছেন তিনি। এমন কত কিছুর মুখোমুখি হয়েই মিথিলার পথচলা।

মিথিলা বলেন, এই যে তিন সপ্তাহ ধরে মেয়েকে বাড়িতে রেখেহাজার হাজার মাইল বিভিন্ন দেশে, শহর থেকে গ্রামাঞ্চলেজার্নি করে বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর সঙ্গে কাজ করা, সেটা নিতান্তই জীবিকার তাগিদে; আমোদ-ফুর্তির জন্য না। সব সময় সুন্দর ছবি আর ভালো কথাগুলো শেয়ার করি। কারণ আমার যা কিছু ভালো আর পজিটিভ, সেটাই ভাগ করে নিতে চাই। একজন আন্তর্জাতিক উন্নয়নকর্মী হিসেবে আমার কাজ এবং বিভিন্ন দেশে ব্র্যাকের কন্ট্রিবিউশন নিয়ে আমি ভীষণ গর্ববোধ করি। তাই পেছনের কঠিন সময়গুলোকেও অভিজ্ঞতা হিসেবেই দেখি।


আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




দলবেঁধে ঘুরে আসুন মহেশখালী

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যদি সুন্দর একখান মুখ পাইতাম, যদি নতুন একখান মুখ পাইতাম, মহেশখালীর পানের খিলি তারে বানাই খাবাইতামএই আঞ্চলিক গানটি শোনেননি, এমন মানুষের সংখ্যা খুবই কম। কক্সবাজার ঘুরতে গিয়ে মহেশখালীর পান না খেলে কি চলে! কক্সবাজার জেলার মহেশখালী একটি সুন্দর দ্বীপ। জীবনের হাজারো ব্যস্ততার মাঝে একটুখানি ভ্রমণের সুযোগ যেন সঞ্জীবনী শক্তি এনে দেয়। তাই ছুটি মিললেই একাকী বা দলবেঁধে হোক, সময়টাকে কাজে লাগাতে চাইলে সপরিবারে ঘুরে আসুন মহেশখালী।

কক্সবাজার থেকে এটি মাত্র ১৫ কিলোমিটার দূরে। জনশ্রুতি আছে, ১৫৫৯ সালের প্রচণ্ড ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে এই দ্বীপের সৃষ্টি। দ্বীপটি আয়তনে ৩৬২ বর্গকিলোমিটার। মহেশখালী উপজেলায় সোনাদিয়া মাতারবাড়ি ও ধলঘাটা নামে তিনটি ছোট ছোট দ্বীপ রয়েছে। পান, মাছ, শুঁটকি, চিংড়ি, লবণ ও মুক্তার উৎপাদনে সমগ্র বাংলাদেশে এই উপজেলার সুনাম রয়েছে। চার-পাঁচ ঘণ্টায় কক্সবাজার থেকে মহেশখালী দ্বীপ থেকে ঘুরে আসা যায়।

কক্সবাজার শহরের যেকোনো জায়গা থেকে মহেশখালী যাওয়ার জন্য ছয় নম্বর জেটি ঘাটে যেতে হবে। তারপর স্থানীয় ট্রলার বা স্পিডবোটে ৭০-৮০ টাকা ভাড়ায় মহেশখালীতে যেতে হবে। চাইলে স্পিডবোট রিজার্ভ নিতে পারবেন। জেটিঘাট থেকে স্পিডবোটে ৩০ মিনিটের মতো লাগে মহেশেখালী যেতে। স্পিডবোটে চড়ে বাঁকখালী চ্যানেল পার হওয়ার সময়টা দারুণ। সকালবেলা দূরে রোদ আর নদীর অপরূপ সৌন্দর্য দেখতে দেখতেই পৌঁছে যাবেন গন্তব্যে। সুবিশাল পাহাড় আর অপরূপ দৃশ্যের এই দ্বীপ।

স্পিডবোট থেকে নেমে মহেশখালী জেটিঘাট থেকে ব্যাটারচালিত টমটম বা ইজিবাইকে করে যেতে হবে মহেশখালীর প্রধান আকর্ষণ আদিনাথ মন্দির। এখানে ছোট-বড় বেশ কয়েকটি বৌদ্ধবিহার রয়েছে। বিখ্যাত আদিনাথ মন্দির আর বৌদ্ধবিহার ঘুরে দেখে আপনার মন প্রশান্তিতে ভরে যাবে। আদিনাথ মন্দিরটি ৮৫.৩ মিটার উঁচু মৈনাক পাহাড়ের চূড়ায় অবস্থিত। পাহাড়ের ঢাল কেটে বানানো ৬৯টি সিঁড়ি দিয়ে উঠতে হয় মন্দিরে। হিন্দু ধর্মের বিভিন্ন গ্রন্থে এই মন্দিরের ঐতিহাসিক গুরুত্বের কথা জানা যায়। মন্দিরটির গোড়াপত্তনের ইতিহাস অনেক চমকপ্রদ। এ ছাড়া প্রতি বছরে ফাগুন মাসে এখানে আদিনাথ মেলা অনুষ্ঠিত হয়। চলতি পথেই দেখতে পাবেন মহেশখালীর বিখ্যাত পানের বরজ আর লবণের মাঠ।

মহেশখালীর সবচেয়ে চমৎকার দিক হলো, এটি স্বয়ংসম্পূর্ণ ভূখণ্ড। একদিনের যাত্রায় আরো অনেক কিছু দেখার বাকি রয়ে যাবে মহেশখালীর। আদিনাথ মন্দিরে ওঠার সিঁড়ির ধারেই চোখে পড়বে ছোটখাটো একটি মার্কেট। নানা ধরনের কাপড়ের পসরা সাজিয়ে বসেছে স্থানীয় রাখাইনরা। বিভিন্ন রকমের চাদর, পাঞ্জাবি, মাফলারসহ নানারকম পোশাকে সাজানো সব দোকান। পর্যটকদের ভিড়ও প্রচুর দোকানগুলোতে। এখানকার প্রায় সবকিছুই স্থানীয়দের তৈরি। স্থানীয় রাখাইনরা তাঁদের নিজস্ব ধারার পোশাক তৈরি করে থাকেন। ভোজনরসিকরা কিনতে পারেন লবণবিহীন শুঁটকি।

অল্প দূরত্ব হওয়ায় মহেশখালী থেকে সহজেই ফিরে আসা যায়। এ ছাড়া মহেশখালীতে থাকার তেমন ব্যবস্থা নেই, তাই রাত্রিযাপনের জন্য ফিরে আসুন কক্সবাজারে। কক্সবাজার থেকে খাবার আর পানি নিয়ে গেলে ভালো হবে। সঙ্গে শিশু থাকলে স্পিডবোটে চড়ার সময় একটু সতর্ক থাকতে হবে।

নিউজ ট্যাগ: আদিনাথ মন্দির

আরও খবর

সংকটে সীমাবদ্ধ বাগেরহাটের পর্যটন শিল্প

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২

চলুন পদ্মা সেতু দেখে আসি

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




ঝড় তুলেছে পন্নিয়েন সেলভান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পন্নিয়েন সেলভান সিনেমায় দেখিয়ে দেওয়া নেই, কে ভালো, কে খারাপ। প্রতিটি চরিত্রেই একটা ধূসর ছায়া রয়েছে। প্রত্যেকেরই রয়েছে নিজস্ব উদ্দেশ্য, লোভ আর স্বার্থ।  চিত্রনাট্যে চরিত্রের সংখ্যা অনেক বেশি। তাদেরকে পর্দায় মেপে মেপে জায়গা করে দিয়েছেন পরিচালক। কী নেই এই সিনেমায়! আছে মণিরত্নমের নির্দেশনা, চিয়ান বিক্রম-কার্থি-তৃষা-জয়ম রবির অভিনয়, এ আর রাহমানের সংগীত পরিচালনা, জগ্গা জাসুসসঞ্জুর মতো সিনেমার চিত্রগ্রাহক রবি বর্মণও হাজির। সম্পাদনায় আছেন একাধিক জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত এস শ্রীকর প্রসাদ। আর আছেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন।

ঐশ্বরিয়ার কথা আলাদা করে বলার কারণ হলো, প্রায় চার বছর পর আবার পর্দায় দেখা দিলেন বচ্চন-বধূ। মণিরত্নমের পরিচালনায় অভিনয় করলেন এক যুগ পর। শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। প্রত্যাশিতভাবেই মুক্তির প্রথম দিন থেকেই বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে পন্নিয়েন সেলভান। বক্স অফিস বিশ্লেষকদের তথ্য অনুসারে, মুক্তির দুই দিনের মধ্যে বিশ্বজুড়ে ১৫০ কোটি রুপির ব্যবসা করেছে এই সিনেমা। প্রথম দিন বিশ্বব্যাপী ৮০ কোটি রুপি ব্যবসা করেছে। যার মধ্যে প্রথম দিনে সবচেয়ে বেশি আয় করা তামিল সিনেমার রেকর্ড তৈরি করেছে পন্নিয়েন সেলভান। ভারতে এই সিনেমার আয় ৪০ কোটি রুপির কাছাকাছি ছিল। সিনেমার টিকিট প্রি বুকিংই হয়েছিল ১৭ কোটির, তা-ও শুধু ভারতে।

সমালোচকেরা বলছেন, তামিল লেখক কল্কি কৃষ্ণমূর্তির ঐতিহাসিক উপন্যাস অবলম্বনে সিনেমাটি তৈরি করেছেন মণিরত্নম। এই উপন্যাসের কাহিনি চোল বংশের অরুলমোজি বর্মণের সময়কার। এই সময়টা একেবারে নিখুঁতভাবে তুলে এনেছেন পরিচালক। প্রতিটি ফ্রেমই যেন ইতিহাসের পাতা থেকে উঠে এসেছে। সিনেমাটির সবচেয়ে শক্তিশালী দিকই হলো পরিচালনা। মণিরত্নমই পন্নিয়েন সেলভান-এর আসল জাদুকর। ফের তিনি প্রমাণ করলেন, সিনেমার পর্দায় কীভাবে গল্প বলতে হয়। এমনিতেই পিরিয়াড সিনেমা, তা যদি আবার হয় ইতিহাসনির্ভর, তা ক্যামেরায় তুলে আনা বেশ কঠিন। এই সিনেমা এ ক্ষেত্রে একেবারেই ত্রুটিমুক্ত। টানা দেড় শ দিনে পন্নিয়েন সেলভান সিনেমার দুই পার্টের শুটিং হয়েছে। এর আগে ভারতের আলোচিত দুই পার্টের সিনেমাগুলো যেমন বাহুবলী, কেজিএফ, পুষ্পা, ব্রহ্মাস্ত্র বিরতি নিয়ে শুটিং হয়েছে। প্রথম পর্বের মুক্তির পর দ্বিতীয় পর্বের শুটিং হয়েছে প্রায় সব সিনেমার।

নিউজ ট্যাগ: পন্নিয়েন সেলভান

আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




পুলিশের মধ্যে কোনও গ্রুপিং থাকলে আমাকে তথ্য দিন: আইজিপি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ২৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পুলিশের নতুন মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, পুলিশের মধ্যে কোনও গ্রুপিং থাকলে আমাকে তথ্য দিন, আমি খতিয়ে দেখবো।’ মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) দুপুরে পুলিশ সদর দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

পুলিশের মধ্যে বিশেষ কিছু জেলার নামে বিভিন্ন গ্রুপের নাম শোনা যায়, এই গ্রুপিংয়ের কারণে পুলিশিংয়ে ক্ষতি হচ্ছে কিনা— সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, কোনও গ্রুপিংয়ের কথা আমার জানা নেই। কারও কাছে এমন কোনও তথ্য থাকলে আমাকে দিন। আমরা খতিয়ে দেখবো।'


আরও খবর

প্রথমবার পদ্মা সেতুতে রাষ্ট্রপতি

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




আত্মজীবনী লিখবেন নোরা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বেআইনি আর্থিক লেনদেন ও প্রতারণার মামলায় নাম জড়িয়েছে নোরা ফাতেহির। ২০০ কোটি রুপির প্রতারণার মামলায় জড়িত ব্যবসায়ী সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা থাকায় বারবার পুলিশ ও ইডির জেরার মুখে পড়েছেন এই আইটেম-কন্যা। এবার কিছুটা স্বস্তি মিলেছে। নোরার পিআর টিম দাবি করেছে, দিল্লি পুলিশের পক্ষ থেকে এই মামলায় ক্লিনচিট দেওয়া হয়েছে অভিনেত্রীকে।

গত বৃহস্পতিবার আর্থিক প্রতারণা মামলায় জেরার জন্য তলব করা হয় নোরা ফাতেহিকে। দিল্লি পুলিশের ইকোনমিক অফেন্স উইং নোরাকে প্রায় ছয় ঘণ্টা জেরা করে। নোরার পিআর টিম জানিয়েছে, সুকেশের এই অপরাধমূলক কার্যকলাপ সম্পর্কেও অবগত ছিলেন না নোরা। তবে তদন্তে সব রকমের সহযোগিতা করেছেন তিনি।

তাদের দাবি, সুকেশ যে এত বড় আর্থিক প্রতারক, সে বিষয়ে কিছুই জানতেন না নোরা। যখনই জেনেছেন, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন। সুকেশের কাছ থেকে তিনি উপহারস্বরূপ যে দামি ব্যাগগুলো পেয়েছিলেন, তা ফেরত দিয়েছেন। এর আগে পুলিশের জেরায় নোরা ফাতেহি জানিয়েছিলেন, সুকেশের সঙ্গে কখনো দেখা হয়নি তাঁর, বরং হোয়াটসঅ্যাপে কথা হয়েছে কয়েকবার। সুকেশ তাঁকে বারবার ফোন করায় তিনি ব্লক করে দেন।

নিজের জীবনী লিখতে চান নোরা। জীবনের সব প্রতিকুলতার কথা তুলে ধরেত চান সেখানে। নোরা বলেন, আমার কোনো গডফাদার নেই। যা করেছি, নিজের চেষ্টায়। ইচ্ছে আছে, সবার সামনে আমার জার্নি তুলে ধরার। আমার এই জার্নিতে কতভাবে হেনস্তা হয়েছি, সেই গল্পও তুলে ধরব।

নোরা এখন কাজে ব্যস্ত। যে অনুষ্ঠানের প্রতিযোগী ছিলেন, সেখানেই এবার বিচারকের আসনে বসবেন। ঝলক দিখলা যা সিজন টেন-এ মাধুরী দীক্ষিতের পাশে বসবেন তিনি। নোরা বলেন, প্রতিদিন সেটে নিজেকে একটা চিমটি কাটি, এটা সত্যি তো? মাধুরী ম্যাম আমার অনুপ্রেরণা। ওনার দেবদাস দেখেই আমি মুম্বাই এসেছিলাম। নাচের অনুপ্রেরণা পেয়েছি। তবে আমি যে সিজনের প্রতিযোগী ছিলাম, সেই সিজনে ম্যাম ছিলেন না।

নিউজ ট্যাগ: নোরা ফাতেহি

আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২