Logo
শিরোনাম

পরিস্থিতির ওপর এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার নতুন রুটিন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারত থেকে আসা পাহাড়ি ঢল আর মুষলধারায় বৃষ্টিতে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সিলেট-সুনামগঞ্জসহ বেশ কয়েকটি জেলায় বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। বন্যা পরিস্থিতির কারণে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা পিছিয়ে গেছে। তবে নতুন রুটিনে কবে শুরু হবে পরীক্ষা, তা নিয়েও দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। বন্যার প্রভাবে পেছাতে পারে চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষাও।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বন্যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ঈদের ছুটি শেষে নতুন রুটিনে ১০-১৫ দিন পিছিয়ে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হবে। এবং মাধ্যমিক স্তরের এ পরীক্ষা শেষ হওয়ার পরবর্তী দুই মাসের মধ্যেই এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা।

এ বিষয়ে আন্তঃশিক্ষাবোর্ড সমন্বয় কমিটির একাধিক সদস্যের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হলেও চলমান বন্যা পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসএসসি-সমমান পরীক্ষার জন্য নতুন রুটিন দেওয়া হবে। আগের রুটিনের আলোকে নতুন পরীক্ষার রুটিন তৈরি করা হবে, এক্ষেত্রে শুধু পরীক্ষা শুরুর সময়টা পরিবর্তন হবে। পরীক্ষার্থীদের নতুনভাবে প্রস্তুতির জন্য ৭ থেকে ১৫ দিন সময় দেওয়া হতে পারে।

বোর্ড সূত্র জানিয়েছে, সাধারণত এসএসসি পরীক্ষা শেষ হওয়ার মাস দুই পর এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হয়। মাঝের সময়টাতে চলে প্রস্তুতি। এবার এইচএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে জুনের পরিবর্তে জুলাইয়ের শেষ দিকে শুরু হতে পরে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আন্তঃশিক্ষাবোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ও ঢাকা শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার বলেন, ঈদের আগে কয়েকটি পরীক্ষা নেওয়ার চিন্তা করছি। বর্তমানে বিভিন্ন অঞ্চলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো পানিবন্দি হয়ে পড়ায় তা সম্ভব হবে কি না, নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। আমাদের প্রস্তুতি থাকলেও বন্যা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে, কবে শুরু হবে পরীক্ষা।

বিলম্বিত পরীক্ষায় বিষয় কমানো হবে কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, বন্যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে দেরি হলেও পরীক্ষা সংক্ষিপ্ত করা বা বিষয় কমানোর কোনো সিদ্ধান্ত এখনো হয়নি। আগে রুটিন শিডিউল অনুযায়ীই নতুন রুটিন দেওয়া হবে। তবে পরীক্ষা শুরুর সময়টা পরিবর্তন করা হতে পারে।

তিনি আরো বলেন, একটি পরীক্ষার সঙ্গে আরেকটি সম্পৃক্ত। এ কারণে এসএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় এইচএসসিও পিছিয়ে যাবে। সে কারণে আগামী বছরের এ দুই পরীক্ষা ফেব্রুয়ারি ও এপ্রিলে আয়োজন করা সম্ভব হবে না। সেগুলো শুরু করতে বিলম্ব হবে।

জানা গেছে, চলতি বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন শিক্ষার্থী অংশ নেবে। সাধারণ ৯টি বোর্ডের অধীনে ১৫ লাখ ৯৯ হাজার ৭১১ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। এর বাইরে দাখিলে ২ লাখ ৬৮ হাজার ৪৯৫ জন আর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি ও দাখিল ভোকেশনালে ১ লাখ ৬৩ হাজার ৬৬২ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় বসবে।

বোর্ড চেয়ারম্যান তপন কুমার সরকার বলেন, আসলে প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলে সেখানে কিছু করার থাকে না। তবে প্রথমদিকে করোনা ও পরবর্তীতে বন্যার কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরীক্ষা শুরুর ৭ থেকে ১৫ দিন আগে রুটিন প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরো বলেন, এসএসসি পরীক্ষা আয়োজনের নিয়মিত সময় ছিল ফেব্রুয়ারি-মার্চে। তখন বৃষ্টিপাত বা বন্যার সম্ভাবনাও থাকে না। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে নিয়মিত সময়ে পরীক্ষা আয়োজন সম্ভব হয়নি। করোনা আমাদের শিক্ষা ক্যালেন্ডার তছনছ করে দিয়েছে। আমরা আবার আগের সূচিতে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করছি।

এর আগে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি পদ্মা সেতু উদ্বোধনের কারণে এসএসসির ২৫ জুনের ইংরেজি দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা একদিন এগিয়ে ২৪ জুন আয়োজনের ঘোষণা দেন। এসএসসি পরীক্ষা ঘিরে ১৫ জুন থেকে সারাদেশের কোচিং সেন্টার তিন সপ্তাহের জন্য বন্ধের নির্দেশ দেন তিনি।


আরও খবর



মসজিদের ইমামকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ জুন ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার করিমপুর ত্রি-মোহনী এলাকার অদূরে বামনগ্রাম মাঠে মোহসীন আলী (৩২) নামে মসজিদের ইমামকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

বুধবার (৮ জুন) সকালে বামন গ্রামের মাঠ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ইমাম মোহসীন আলী একই উপজেলার বেলঘড়িয়া গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মহসীন আলী তার নিজ গ্রামের একটি মসজিদের ইমাম ছিলেন। পাশাপাশি বিভিন্ন এলাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রাইভেট শিক্ষক হিসেবে আরবি পড়াতেন। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে প্রাইভেট পড়ানোর কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরেননি।

বুধবার সকালে কৃষকেরা মাঠে কৃষি কাজ করতে গিয়ে তার মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

কালাই থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম মঈনউদ্দীন বলেন, এলাকাবাসীর একজনও বলেনি মোহসীন খারাপ ছেলে ছিল। কেন তাকে হত্যা করা হয়েছে তা এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। একেবারে ক্লু-লেস মার্ডার তবে পুলিশসহ কয়েকটি সংস্থা এই মার্ডারের ক্লু উদ্‌ঘাটনে চেষ্টা করেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর



বিশ্বে দ্রুত বাড়বে পরমাণু অস্ত্রের সংখ্যা

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন

Image

ইউক্রেনে রাশিয়ার বিশেষ সেনা অভিযানের পর থেকে নড়েচড়ে বসেছে ইউরোপ। নতুন করে সুইডেন ও ফিনল্যান্ড ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। সবমিলিয়ে দেখা দিয়েছে নিরাপত্তার শঙ্কা। এর মাঝে কয়েকবার রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমারা পরমাণু যুদ্ধের কথাও তুলেছে জোরেসোরে।

এমন পরিস্থিতিতে বিশ্বে পারমাণবিক অস্ত্রের মজুদ দ্রুতই বাড়বে বলে মনে করছে স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইন্সটিটিউট (এসআইপিআরআই)। সংস্থাটির দাবি, বর্তমানে চলমান বৈশ্বিক সঙ্কটের কারণেই দ্রুত বাড়বে পরমাণু অস্ত্রের পরিমাণ।

 গেল বছর বিশ্বে ১২ হাজার ৭০৫টি পারমাণবিক ওয়ার হেড ছিল। সংস্থাটির ধারণা, এ বছর স্নায়ুযুদ্ধের পর প্রথমবারের মতো বিশ্বে বাড়বে পারমাণবিক অস্ত্রের সংখ্যা। এসআইপিআরআই বলেছে, রাশিয়া প্রকাশ্যেই ইউক্রেনে পরমাণু হামলার সম্ভাব্যতার কথা হুমকি দিয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: পরমাণু অস্ত্র

আরও খবর



এসআই নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিগত ২০২১ সালের ক্যাডেট উপ-পরিদর্শক (এসআই- নিরস্ত্র) পদে নিয়োগের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত লিখিত, মৌখিক ও বুদ্ধিমত্তা পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) পুলিশ সদর দপ্তর থেকে পাঠানো এক বার্তায় এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

বার্তায় বলা হয়, বিগত ২০২১ সালের ক্যাডেট উপ-পরিদর্শক (এসআই- নিরস্ত্র) পদে নিয়োগের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত লিখিত, মৌখিক ও বুদ্ধিমত্তা পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশিত হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সবার অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ২০২১ সালের ক্যাডেট সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) পদে নিয়োগের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত লিখিত, মৌখিক ও বুদ্ধিমত্তা পরীক্ষায় (Aptitude Test and Viva-voce) উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মধ্যে মেধারভিত্তিতে প্রযোজ্য বিধি-বিধান পরিপালনের শর্তে ৮৭৫ জন প্রার্থীকে  একবছর মেয়াদী মৌলিক প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য সিলেকশন বোর্ড সাময়িকভাবে সুপারিশ করেছে। পুলিশ সদরদপ্তরে থেকে আরও বলা হয়, চূড়ান্ত ফলাফল www.police.gov.bd ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।


রেজাল্ট দেখুন এখানে


আরও খবর



কেরানীগঞ্জে বজ্রপাতে তরুণের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৬১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলায় ফুটবল খেলার সময় বজ্রপাতে এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। আজ শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার রোহিতপুর ইউনিয়নের নতুন সোনাকান্দা শিল্প পার্ক এলাকার বালুর মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

তরুণের নাম সজীব সরকার (১৮)। তিনি রংপুরের হারাগাছ থানার মায়াবাজার এলাকার রাজু মিয়ার ছেলে। তিনি পরিবার-পরিজনের সঙ্গে নতুন সোনাকান্দা এলাকার আক্তার হোসেনের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ছালাম মিয়া সংবাদমাধ্যমকে বলেন, খেলার সময় বজ্রপাতে এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। লাশে বজ্রপাতে মৃত্যু হওয়ার আলামত মিলেছে। পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই তার লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


আরও খবর

ভিড় নেই লঞ্চে, ভাড়াও কমেছে

শনিবার ০২ জুলাই 2০২2




ব্যবসায়ী উজ্জল হত্যায় ৩ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ, যাবজ্জীবন ৬

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জমিজমা-সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জেরে ময়মনসিংহের ধোবাউড়ার বতিহালা গ্রামের ব্যবসায়ী মো. উজ্জল মিয়া হত্যা মামলায় তিন জনকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ এবং ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক মো.মনির কামাল এই রায় ঘোষণা করেন। ৯ বছর আগে ২০১৩ সালের ২৭ মার্চ এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছিল। মামলাটিতে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত না হওয়ায় ৪ জনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, নওশাদ, শাহাবুদ্দিন এবং সবুজ। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, মরন, মহিম, কারিম, জসিম মিয়া হোসেন এবং জালাল উদ্দিন। দণ্ডের পাশাপাশি সব আসামিকে ২০ টাকার অর্থদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে।

ইসলাম, এমদাদুল, কুদরত আলী ও হাছেন আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস দেওয়া হয়েছে। আসামি রশিদ মামলার বিচার চলাকালে মারা যান।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, উজ্জল মিয়ার সাথে আসামিদের জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিল। ২০১৩ সালের ২৭ মার্চ রাত ৯টার দিকে পাশের এলাকা থেকে বার্ষিক দোলযাত্রা মেলা থেকে মোটরসাইকেলে ফিরছিলেন উজ্জল মিয়া। তার সঙ্গে ছিলেন নজর আলী ও কালাম। বতিহালা এবতেদায়ী মাদরাসার কাছে পৌঁছালে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা আসামিরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে উজ্জলের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তাকে মারাত্মক জখম করে, দুই পা ভেঙে দেয়।

উজ্জল ও সঙ্গীয়দের ডাক চিৎকারে আশে পাশের লোকজন এগিয়ে এলে আসামিরা পালিয়ে যায়। উজ্জলকে ধোবাউড়া হাসপাতালে ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় ৩০ মার্চ ধোবাউড়া থানায় হত্যা মামলা করা হয়। মামলাটিতে ২০১৪ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি ১৪ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট জমা দেন সিআইডির সাব-ইন্সপেক্টর পরিমল চন্দ্র সরকার। মামলার বিচার চলাকালে ট্রাইব্যুনাল ২৮ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন সংশ্লিষ্ট আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউর মাহবুবুর রহমান। আসামিদের পক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী কাজী মো. নজীব উল্লাহ হিরু, এম.এ ছালাম প্রধান।

নিউজ ট্যাগ: উজ্জল হত্যা

আরও খবর