Logo
শিরোনাম

প্রতিদিন কেন মুড়ি খাবেন?

প্রকাশিত:বুধবার ০৬ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৯ অক্টোবর ২০২১ | ৬৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সাধারণ খাবার হলেও মুড়ি সবারই পছন্দের। সকাল কিংবা বিকেল, নাস্তার টেবিলে অনেকের পছন্দের তালিকায় থাকে মুড়ি। অনেকে আবার চানাচুর-মুড়ি একসঙ্গে মেখেও খান। ডায়েট হিসাবে অনেকে আবার বেছে নিচ্ছেন মুড়ি। কিন্তু প্রতিদিন মুড়ি খাওয়া কী স্বাস্থ্যের জন্য ভালো, খেলে কী উপকার হবে চলুন জেনে নিই।

অ্যাসিডিটির সমস্যা সমাধানে মুড়ি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি খাবার। নিয়মিত মুড়ি খেলে পেটে অ্যাসিডের ক্ষরণে ভারসাম্য আসে। প্রচণ্ড পরিমাণ অ্যাসিড হলে, মুড়ি পানিতে ভিজিয়ে খেতে পারেন। এতে দ্রুত পালাবে আপনার অ্যাসিডের সমস্যা।

মুড়িতে ক্যালসিয়াম ও আয়রন থাকে। এটি হাড় শক্ত করে।

মুড়িতে ক্যালরির মাত্রা তুলনামূলক কম। অল্প খিদে পেলে মুড়ি খেলে পেট ভরে যায়। ক্যালরির মাত্রা কম বলে মুড়ি খেলে ওজন বাড়ে না। যারা হালকা খাবার হিসাবে নিয়মিত মুড়ি খান, তাদের পক্ষে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ। সাধারণত এক কাপ মুড়িতে ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ ক্যালরি থাকে।

মুড়ি শর্করাজাতীয় খাবার। তাই ভাত বা রুটির বদলেও মুড়ি খাওয়া যায়। তবে মুড়িতে লবণের পরিমাণ বেশি থকায় উচ্চ রক্তচাপ এবং হাইপার টেনশনের সমস্যা থাকলে পরিহার করা উচিত। চিনি দিয়ে ভেজে খাওয়া যায়, আবার মুড়ি মাখিয়েও খাওয়া যায়। তবে চানাচুরের বদলে ছোলা বা মটরশুঁটি দিয়ে মাখিয়ে খাওয়াটা তুলনামূলক বেশি ভালো। কিন্তু মনে রাখতে হবে, মুড়ি খেলে ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণ কিছুটা হলেও বাড়তে পারে। তাই যাদের ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যা আছে, তারা এড়িয়ে চলুন।

আজকাল ইউরিয়া-মিশ্রিত মুড়ি পাওয়া যায়, এগুলো না খাওয়াই উচিত। মুড়িতে লবণের পরিমাণ বেশি থাকে। এ কারণে যাদের কিডনির সমস্যা রয়েছে তাদের মুড়ি না খাওয়াই উচিত।


আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১

বাটা মসলার স্বাদে চিংড়ির কোরমা

মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১




গোপনে চীনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গোপনে একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে চীন। পারমাণবিক বোমা বহনে ও মহাকাশে আঘাত হানতে সক্ষম অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই ক্ষেপণাস্ত্রটির পরীক্ষা গত আগস্ট মাসেই করেছিল দেশটি। তবে তারা অত্যন্ত গোপনীয়তার সাথেই ক্ষেপণাস্ত্রটির পরীক্ষা করতে সক্ষম হয়। এতোদিন কার্যত বিষয়টি গোপন রেখেছিল বেইজিং।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ফাইন্যান্সিয়াল টাইমস এক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশ করে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

ফাইন্যান্সিয়াল টাইমস জানিয়েছে, চীন পারমাণবিক বোমা বহনে সক্ষম অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ক্ষেপণাস্ত্রটির পরীক্ষা চালায় গত আগস্ট মাসে। পৃথিবীর নিম্ন কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করে ক্ষেপণাস্ত্রটি দ্রুতগতিতে লক্ষ্যবস্তুর দিকে এগিয়ে যায়। চীনের এই মিসাইলের মহাকাশে শক্তিশালী ক্ষমতা মার্কিন গোয়েন্দাদেরও অবাক করেছে।

নাম না প্রকাশ করে তিন ব্যক্তি ফাইন্যান্সিয়াল টাইমসকে জানায়, লক্ষ্যমাত্রার ৩২ কিলোমিটারেরও (২০ মাইল) আগে ক্ষেপণাস্ত্রটি ভূপাতিত হয় এবং লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে ব্যর্থ হয়।

তবে এর মধ্যে দুজন বলছেন, চীন এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করে দেখিয়ে দিয়েছে যে- দেশটি হাইপারসনিক অস্ত্র প্রযুক্তিতে বিস্ময়কর অগ্রগতি করেছে এবং এই ক্ষেত্রে বেইজিংয়ের অগ্রগতি মার্কিন কর্মকর্তাদের ধারণার চেয়েও বেশি।

মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি চীনের এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে তিনি বলেছেন, চীনের সামরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং এই কারণে আঞ্চলিক উত্তেজনা বৃদ্ধির বিষয়ে আমরা উদ্বেগ জানিয়েছি। আর এই কারণেই আমাদের ক্রমবর্ধমান চ্যালেঞ্জগুলোর ভেতরে চীনও একটি।

বর্তমানে চীন, যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার পাশাপাশি কমপক্ষে ৫টি দেশ হাইপারসনিক প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে। শব্দের চেয়ে পাঁচগুণ বেশি গতিতে ছুটতে পারে হাইপারসনিক এসব ক্ষেপণাস্ত্র।



আরও খবর



অবৈধ বিয়ে’ নিয়ে যা বললেন নাসির

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৯৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাকিব হাসানকে ডিভোর্স না দিয়েই তামিমা সুলতানা তাম্মি ক্রিকেটার নাসির হোসেনকে বিয়ে করেছেন। নাসির হোসেন ও তামিমা সুলতানা তাম্মির বিয়ে বৈধ উপায়ে হয়নি। রাকিব-তামিমার বিবাহবিচ্ছেদ সংক্রান্ত নথিতে জালিয়াতি করা হয়েছে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের প্রতিবেদনে (পিবিআই) এসব বিষয় উঠে এসেছে। এরপর নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে তাদের আদালতে হাজির হতে সমন জারি করা হয়।

তদন্ত প্রতিবেদনের ভাষ্য অনুযায়ী, তামিমা রাকিবকে তালাক দেননি। লিগ্যালভাবে রাকিব তালাকের কোনও নোটিশও পাননি। তামিমা উল্টো জাল জালিয়াতি করে তালাকের নোটিশ তৈরি করে তা বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন। যথাযথ প্রক্রিয়ায় তালাক না দেয়ার ফলে তামিমা তাম্মী এখনও রাকিবে স্ত্রী হিসেবে বহাল রয়েছেন। দেশের ধর্মীয় বিধিবিধান ও আইন অনুযায়ী এক স্বামীকে তালাক না দিয়ে অন্য কাউকে বিয়ে করা অবৈধ ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এমন পরিস্থিতিতে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তামিমা তাম্মীর বিয়ে অবৈধ।

পিবিআইয়ের প্রতিবেদনের পর একটি সংবাদমাধ্যমের কাছে নাসির জানান, আমাকে একটু সময় দেন আপনাদের নিজে ফোন দিয়ে সব বলব। তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে আপনার কি মনে হচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে নাসির বলেন, মনে তো অনেক কিছুই হচ্ছে। তবে এখনই আমি কিছু বলবা না। সময় নিয়ে সব বলব।

এর আগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি তামিমার প্রথম স্বামী রাকিব হাসান বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। ওই দিনই বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন আদালত। এরপর শুনানি শেষে মামলার অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে পিবিআইকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০১১ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি তামিমা ও রাকিবের বিয়ে হয়। তাদের আট বছরের একটি মেয়েও রয়েছে। তামিমা পেশায় একজন কেবিন ক্রু। চলতি বছরের (২০২১) ১৪ ফেব্রুয়ারি তামিমা ও নাসির হোসেনের বিয়ের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা রাকিবের নজরে আসে। পরে পত্রপত্রিকায় তিনি ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারেন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, রাকিবের সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্ক থাকাবস্থায় নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা, যা ধর্মীয় ও রাষ্ট্রীয় আইন অনুযায়ী সম্পূর্ণ অবৈধ। তামিমাকে প্রলুব্ধ করে নাসির নিজের কাছে নিয়ে গেছেন। তামিমা ও নাসিরের এমন অনৈতিক ও অবৈধ সম্পর্কের কারণে রাকিব ও তার আট বছর বয়সী শিশুকন্যা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়েছেন। আসামিদের এ ধরনের কার্যকলাপে রাকিবের চরম মানহানি হয়েছে, যা তার জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।


আরও খবর



বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে পাকিস্তান

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৩৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দারুণ বোলিংয়ে নিউজিল্যান্ডকে অল্পতেই আটকে ফেলে পাকিস্তান। জয়ের জন্য তাদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় মাত্র ১৩৫। এই রান তাড়া করতে গিয়ে বেশ ভুগেছেন বাবর আজমরা। শেষ পর্যন্ত কোনো অঘটন হয়নি। সহজ লক্ষ্য টপকে নিউজিল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারাল পাকিস্তান।

কিউইদের হারিয়ে চলমান বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে পাকিস্তান। এর আগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভারতকে হারিয়েছিলেন বাবররা।

আজ মঙ্গলবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের ম্যাচে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৩৪ রান করে নিউজিল্যান্ড। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ২৭ রান করেন ডেভন কনওয়ে ও মিচেল।

জবাব দিতে নেমে ৮ বল হাতে রেখে জয় তুলে নেয় পাকিস্তান। রান তাড়ায় অবশ্য শুরুটা খুব মন্থর করে পাকিস্তান। এর মধ্যে হারিয়ে ফেলে অধিনায়ক বাবর আজমকে। টিম সাউদির বলে ৯ রানে বোল্ড হন পাকিস্তানের অধিনায়ক। ২৮ রানে ভাঙে পাকিস্তানের ওপেনিং জুটি। মোহাম্মদ রিজওয়ান ও ফখর জামানের দ্বিতীয় জুটিও স্থায়ী হয়নি। ১৯ রানে ওই জুটি ভাঙেন ইশ শোধি। ফিরিয়ে দেন ফখর জামানকে। ১৭ বলে ১১ রান করে এলবির ফাঁদে পড়েন ফখর।

গুরুত্বপূর্ণ টপ অর্ডারদের হারালেও উইকেটে থিতু ছিলেন ওপেনার রিজওয়ান। মোহাম্মদ হাফিজকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন তিনি। সেটাও স্থায়ী হয়নি বেশিক্ষণ। ১১.৪তম ওভারে স্যান্টনারের বলে দুর্দান্ত ক্যাচ ধরে ফখরকে ফেরান কনওয়ে। এরপর ৩৩ রানে বিদায় নেন রিজওয়ান।

রিজওয়ান ফিরলে জয়ের সমীকরণ কিছুটা কঠিন হয়ে পড়ে পাকিস্তানের। তবে শোয়েব মালিকের সঙ্গে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানকে ম্যাচে ফেরান আসিফ আলী। শোয়েব-আসিফের ব্যাটে স্বস্তির জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পাকিস্তান।   

এদিন শারজাততে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা বেশ সতর্কভাবে করে নিউজিল্যান্ড। দুই ওপেনার মিলে স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ৩৬ রান। ষষ্ঠ ওভারে ওই জুটি ভাঙেন হারিস রউফ। বোল্ড করে ফিরিয়ে দেন কিউই ওপেনার মার্টিন গাপটিলকে। তিন বাউন্ডারিতে ২০ বলে ১৭ রান করে বিদায় নেন গাপটিল।

মার্টিন ফিরলে রানের গতি কমে যায় নিউজিল্যান্ডের। এর মধ্যেই আরেক ওপেনার মিচেলকে সাজঘরের পথ দেখান ইমাদ ওয়াসিম। নবম ওভারে ওয়াসিমের বলে সীমানায় ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন মিচেল। ২০ বলে ২৭ রান করে ফেরেন তিনি। ৫৪ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় কিউইরা। পরের ওভারেই ফিরে যান নিশাম।

তিন টপ অর্ডার ফেরার পর চাপে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড। সেখান থেকে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। কিন্তু পারলেন না দলকে এগিয়ে নিতে। দ্রুত রান তুলতে গিয়ে রানআউট হয়ে ফেরেন কিউই অধিনায়ক। দুই বাইন্ডারি ও এক ছক্কায় ২৬ বলে ২৫ রান করেন উইলিয়ামসন।

শেষ দিকে বাকিদের নিয়ে লড়াই করেন ডেভন কনওয়ে। কিন্তু তিনিও পারেননি শেষ করতে। ১৮তম ওভারে তাঁকেও শিকার বানান রউফ। ২৪ বলে ২৭ করেন কনওয়ে। একই ওভারে গ্লেন ফিলিপসকেও বিদায় করেন রউফ। পাকিস্তানি বোলারদের বাধা টপকে বড় সংগ্রহ ভিত পায়নি কেইন উইলিয়ামসনের দল।

পাকিস্তানের হয়ে বল হাতে ২২ রান দিয়ে সর্বোচ্চ চারটি উইকেট নেন হারিস রউফ। একটি করে উইকেট নেন ইমাদ ওয়াসিম, শাহীন শাহ আফ্রিদি ও মোহাম্মদ হাফিজ।


আরও খবর

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে পেছাল বাংলাদেশ

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

কোম্যানকে বরখাস্ত করলো বার্সেলোনা

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




হাসপাতাল চত্বরে ২ শিশু সন্তান রেখে লাপাত্তা মা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৯৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে স্বামীর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন সাগরী খাতুন (২৩)। চারদিন পর বুধবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে শিশুটির সন্ধান পাওয়া যায়। কিন্তু পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে সাগরী খাতুন। তার ভাগ্যে কি ঘটেছে সেটি এখন নিশ্চিত নয় কেউ।

সাগরী খাতুন যশোরের চৌগাছা উপজেলার পাতিবিলা গ্রামের আক্তারুল ইসলামের স্ত্রী। উদ্ধার দুই শিশুর নাম সাগর হোসেন সাফিন (৫) ও মোহনা আক্তার জুলেখা (২০ মাস)। তাদেরকে পরিবারে হস্তান্তর করেছে পুলিশ।

হাসপাতালের সাইকেল গ্যারেজের দায়িত্বে থাকা মফিজুর রহমান জানান, সকালে এসে বাচ্চা দুটিকে বসে থাকতে দেখি। ভেবেছিলাম তাঁদের মা হয়ত বসিয়ে রেখে ডাক্তার দেখাতে গেছেন। প্রায় একঘণ্টা পরে সাড়ে ৯টার দিকে বাচ্চা দুটি খুব কান্নাকাটি করতে দেখে ম্যাডামকে (উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা) জানাই। এ সময় ওদেরকে স্থানীয় কয়েকজন জিজ্ঞেস করলে ছেলেটি তার বাবার নাম আক্তারুল আর বাড়ি হায়াতপুর বলতে পারে। তখন তারা পরিচিতজনদের মাধ্যমে পরিবারকে খবর দেয়।

সাগরীর স্বামী আক্তারুল ইসলাম জানান, রবিবার দুই সন্তান নিয়ে বাড়ি থেকে সাগরী সবার অগোচরে কোথাও চলে যায়। তিনদিন ধরে সাগরীর বাবার বাড়িসহ (উপজেলার চুটারহুদা গ্রাম) বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও না পেয়ে মঙ্গলবার চৌগাছা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করি। এরপর স্থানীয়দের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে এসে তার দুই সন্তানকে পুলিশ হেফাজতে পান। তাদের ধারণা সাগরীর অন্য কোনো ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক আছে। সেই সূত্রেই হয়ত সে চলে গেছে।

আক্তারুল ইসলাম আরও জানান, একটা নাম্বারে মাঝে মধ্যে কথা বলতো। আমি এ নিয়ে তাকে বকাঝকাও করেছি। একদিন মেরেছিও। তবে গত কোরবানির ঈদে ওর বাপের বাড়ি থেকে ঘুরে আসার পর হুমকিও দেয় আমার কাছ থেকে চলে যাবে। যাওয়ার সময় বাড়ি  থেকে নগদ ২০ হাজার টাকাসহ ভালো কাপড় চোপড় সব নিয়ে গেলেও বাচ্চাদের যে পোশাকে নিয়ে গিয়েছিলো সেই পোশাকেই আছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. লুৎফুন্নাহার বলেন, বুধবার সকাল নয়টার দিকে সাইকেল গ্যারেজের দায়িত্বে থাকা মফিজুর জানায় সেখানে দুটি বাচ্চাকে তার মা রেখে চলে গেছে। তারা খুব কান্নাকাটি করছে। তখন বিষয়টি সাংবাদিক ও থানা পুলিশকে জানাই। শিশু দুটি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

চৌগাছা থানার এসআই রাজেশ কুমার বলেন, স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কাছ  থেকে মোবাইল ফোনে সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে এসে শিশু দুজনকে উদ্ধার করি। প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে থানার সাধারণ ডায়েরির (জিডি) ভিত্তিতে স্থানীয় ইউপি সদস্যের উপস্থিতিতে শিশুদেরকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে


আরও খবর



হাজীগঞ্জে শিশু ধর্ষণ ও মৃত্যুর ঘটনাটি গুজব : পূজা উদযাপন পরিষদ

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ে মা-বোন ও ১০ বছরের একটি শিশুকে নিয়ে ছড়ানো সংবাদটি অসত্য ও গুজব বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন, পুলিশ ও উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) সকাল থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ মর্মে খবর ছড়ানো হয় যে, ধর্ষণের শিকার সনাতন সম্প্রদায়ের ১০ বছরের ওই শিশু মারা গেছে। এমনকি শিশুটির সঙ্গে তার মাসি (খালা) ও বোন ধর্ষণের শিকার হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে বলে কিছু পোস্টে দাবি করা হয়।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ হাজীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি রোটা. রুহিদাস বণিক তার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিডিও বক্তব্যের মাধ্যমে বিষয়টি গুজব বলে ব্যাখ্যা দিয়েছেন।

হাজীগঞ্জ উপজেলা হিন্দু-খ্রিস্টান-বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সত্য ব্রত ভদ্র মিঠুন সাংবাদিকদের বলেন, হাজীগঞ্জ উপজেলার কোথাও হিন্দু সম্প্রদায়ের কোনো পরিবারে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সম্পূর্ণ মিথ্যা অপপ্রচার করা হচ্ছে।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শোয়েব আহম্মেদ চিশতী বলেন, হিন্দু সম্প্রদায়ে এমন কোনো ঘটনার বিষয়ে চিকিৎসা নিতে কেউ আসেনি।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি হারুনুর রশীদ বলেন, এ বিষয়ে থানায় এখনো কোনো অভিযোগ আসেনি। যতটুকু জেনেছি এ ধরনের ঘটনা হাজীগঞ্জ ঘটেনি। বিষয়টি গুজব।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত ডিআইজি ইকবাল হোসেন দুপুরে সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি আমরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখেছি। বাস্তব ঘটনা হলো এটি একটি মিথ্যা ঘটনা। গুজব ছড়াচ্ছে একটি স্বার্থান্বেষী মহল।


আরও খবর