Logo
শিরোনাম

পশুর যেসব ত্রুটি থাকলে কোরবানি হবে না

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আল্লাহ নৈকট্য অর্জনের অনন্য ইবাদত কোরবানি। ছয় ধরনের পশু দিয়ে এ কোরবানি করা যায়। তাহলো- উট, গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া ও দুম্বা। তবে এ পশুগুলো সুনির্দিষ্ট কিছু দোষ-খুঁত ও সমস্যা থেকে মুক্ত থাকতে হবে। অবশ্যই সুস্থ, সুন্দর ও পষ্ট-পুষ্ট হতে হবে কোরবানির পশু। যেসব সমস্যা থাকলে কোরবানি হবে না সেগুলো কী?

কোরবানি আল্লাহ তাআলার প্রিয় বান্দাদের আরো প্রিয় হওয়ার ইবাদত। এটি সামর্থবান প্রত্যেক ঈমানদারের জন্য আবশ্যক কর্তব্য। হাদিসের দিকনির্দেশনা অনুযায়ী কিছু শারীরিক দোষ-খুঁত ও সমস্যা থাকলে কোরবানি হবে না। তাহলো-

১. যে পশু চোখে দেখে না

হজরত আবু যাহ্‌হাক উবায়দ ইবনে ফায়রূজ রাহমাতুল্লাহি আলাইহি বর্ণনা করেন, আমি হজরত বারা রাদিয়াল্লাহু আনহু কে বললাম, যে সব পশুর কোরবানি করতে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিষেধ করেছেন তা আমার কাছে বর্ণনা করুন। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (খুতবা দিতে) দাঁড়ালেন আর আমার হাত তাঁর হাত অপেক্ষা ছোট। তিনি বললেন, চার প্রকার পশু দিয়ে কোরবানি বৈধ নয়-

* চোখে দেখে না এমন পশু, যার চোখে না দেখাটা সুস্পষ্ট;

* রোগা পশু,যার মধ্যে রোগ সুস্পষ্ট;

* খোঁড়া বা ল্যাংড়া পশু, যার খোঁড়া বা ল্যাংড়া হওয়া সুস্পষ্ট;

* দুর্বল পশু, যার হাঁড়ে মজ্জা নেই। অর্থাৎ চলা-ফেরা করার অযোগ্য।

আমি বললাম,আমি শিং ও দাঁতে ত্রুটি থাকাও পছন্দ করি না। তিনি বললেন,তুমি যা অপছন্দ কর, তা ত্যাগ কর; কিন্তু অন্য লোকের জন্য তা হারাম করো না।’ (নাসাঈ)

খোঁড়াপশু

২. যে পশু খোঁড়া/ল্যাংড়া

হজরত আবু যাহ্‌হাক উবায়দ ইবনে ফায়রূজ রাহমাতুল্লাহি আলাইহি বর্ণনা করেন, আমি হজরত বারা রাদিয়াল্লাহু আনহু কে বললাম, যে সব পশুর কোরবানি করতে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিষেধ করেছেন তা আমার কাছে বর্ণনা করুন। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (খুতবা দিতে) দাঁড়ালেন আর আমার হাত তাঁর হাত অপেক্ষা ছোট। তিনি বললেন, চার প্রকার পশু দিয়ে কোরবানি বৈধ নয়-

* চোখে দেখে না এমন পশু, যার চোখে না দেখাটা সুস্পষ্ট;

* রোগা পশু,যার মধ্যে রোগ সুস্পষ্ট;

* খোঁড়া বা ল্যাংড়া পশু, যার খোঁড়া বা ল্যাংড়া হওয়া সুস্পষ্ট;

* দুর্বল পশু, যার হাঁড়ে মজ্জা নেই। অর্থাৎ চলা-ফেরা করার অযোগ্য।

আমি বললাম,আমি শিং ও দাঁতে ত্রুটি থাকাও পছন্দ করি না। তিনি বললেন,তুমি যা অপছন্দ কর, তা ত্যাগ কর; কিন্তু অন্য লোকের জন্য তা হারাম করো না।’ (নাসাঈ)

৩. রোগাগ্রস্ত ও দুর্বল পশু

হজরত আবু যাহ্‌হাক উবায়দ ইবনে ফায়রূজ রাহমাতুল্লাহি আলাইহি বর্ণনা করেন, আমি হজরত বারা রাদিয়াল্লাহু আনহু কে বললাম, যে সব পশুর কোরবানি করতে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিষেধ করেছেন তা আমার কাছে বর্ণনা করুন। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (খুতবা দিতে) দাঁড়ালেন আর আমার হাত তাঁর হাত অপেক্ষা ছোট। তিনি বললেন, চার প্রকার পশু দিয়ে কোরবানি বৈধ নয়-

* চোখে দেখে না এমন পশু, যার চোখে না দেখাটা সুস্পষ্ট;

* রোগা পশু,যার মধ্যে রোগ সুস্পষ্ট;

* খোঁড়া বা ল্যাংড়া পশু, যার খোঁড়া বা ল্যাংড়া হওয়া সুস্পষ্ট;

* দুর্বল পশু, যার হাঁড়ে মজ্জা নেই। অর্থাৎ চলা-ফেরা করার অযোগ্য।

আমি বললাম,আমি শিং ও দাঁতে ত্রুটি থাকাও পছন্দ করি না। তিনি বললেন,তুমি যা অপছন্দ কর, তা ত্যাগ কর; কিন্তু অন্য লোকের জন্য তা হারাম করো না।’ (নাসাঈ)

কোরবানির পশু দেখার পরামর্শ

নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হাদিসে পাকে পশুর চোখ ও কান ভালোভাবে দেখে নেওয়ার কথা বলেছেন। যাতে চোখ ও কানে কোনো ধরনের খুঁত না থাকে। এ সম্পর্কে হজরত আলি রাদিয়াল্লাহু আনহুর বর্ণনায় একাধিক হাদিস এসেছে। তাহলো-

হজরত হুজাইয়্যা ইবনে আদি রাহমাতুল্লাহি আলাইহি বর্ণনা করেন, আমি হজরত আলি রাদিয়াল্লাহু আনহুকে বলতে শুনেছি, নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদের এ মর্মে আদেশ করেছেন, আমরা যেন কোরবানির পশুর চোখ ও কান উত্তমরূপে দেখে নিই।’ (নাসাঈ)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে কোরবানি আদায়ের ক্ষেত্রে উল্লেখিত বিষয়গুলোর প্রতি যথাযথ খেয়াল রেখে কোরবানির পুশু নির্বাচন বা কেনার তাওফিক দান করুন। একনিষ্ঠতার সঙ্গে গ্রহণযোগ্য কোরবানি আদায়ের তাওফিক দান করুন। আমিন।


আরও খবর

দুই বছর পর পুরনো রূপে রথযাত্রা

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




রাশিফল: কেমন যাবে আপনার দিন ?

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আজ ১৯ জুন ২০২২ রোববার, চাকরি থেকে ব্যবসা, স্বাস্থ্য থেকে পরিবার, কেমন যাবে আপনার আজকের দিন? জানুন আজকের রাশিফল।

মেষ:

বেশ কিছু প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে হবে। ফল পেতে গেলে পরিশ্রম করতে হবে। নতুন পদক্ষেপ নিতে হবে। পরিবারের থেকে সাহায্য পাবেন। সঞ্চয় করতে জানতে যেন। প্রতিটা ক্ষেত্রে লোকের সঙ্গে কথা বলুন। মেজাজ হারাবেন না। মনের সম্পর্ক ভাল রাখুন। কাউকে আঘাত করবেন না।

বৃষ:

আপনার প্রত্যাশা পূরণ হবে। স্ত্রীর সঙ্গে ঝামেলায় জড়াবেন না। মূল্যবান জিনিস যত্নে রাখুন। কাউকে অযত্ন করবেন না। অযথা ঝামেলায় জড়াবেন না। উত্তেজনা সৃষ্টি হবে। বিয়ের ক্ষেত্রে নতুন দিক। বেশ কিছু বিষয়ে অনুশীলন প্রয়োজন।

মিথুন:

সাময়িক স্বাস্থ্য সমস্যা থাকবে। অন্যের দিকে বেশি ধ্যান দেবেন না। আর্থিক ক্ষতি হতে পারে। অন্যের সাহচর্য লাভ করলে আজকে মুশকিল। অল্প থেকেই বেশি ক্ষতি হতে পারে। সকলের কথা শুনে চলতে গেলে বিপদ। অফিসের কাজ তাড়াতাড়ি শেষ করুন।

কর্কট:

দীর্ঘ অসুস্থতা থেকে সেরে উঠবেন। নতুন কিছু করতে হবে। স্বার্থপর বদরাগী ব্যক্তিকে এড়িয়ে চলবেন। মানসিক উত্তেজনা থাকবে। আপনার ব্যবসা জোরদার করতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। নিকটবর্তী কেউ আর্থিকভাবে সহায়তা করতে পারে। সতর্ক থাকুন যেহেতু আজকের দিনে বন্ধুত্ব হারানো অত্যন্ত সম্ভবপর।

সিংহ:

নিজের আচরণ ভাল রাখুন। অন্যদের মুগ্ধ করতে গেলে কথা বলার ধরন ঠিক করতে হবে। টাকা পয়সার লেনদেন আজ বন্ধ রাখুন। সত্যি বলতে শিখুন। অন্যের কথায় কান দেবেন না। পুরনো কিছু বিষয় নিয়ে প্রেমে তর্ক হতে পারে। কর্মক্ষেত্রে বিনোদন আপনার পক্ষে ভাল প্রমাণিত হবে।

কন্যা:

মানসিক চাপ থাকবে। অত্যন্ত ঝামেলার মধ্য ফাইট যাবেন। যেকোনও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। অর্থ সংগ্রহ করতে হবে। বুদ্ধি দিয়ে সবকিছু বিবেচনা করুন। দিন ভাল, প্রেমের দিকে নজর দিতে পারেন। নিজের জন্য সময় বের করুন। অযথা কারওর দোষ খুঁজবেন না।

তুলা:

মেধা ক্ষমতার প্রয়োগ করবেন। ইতিবাচক চিন্তার মাধ্যমে বিনিয়োগ করা সম্ভব। আপনার পরিবারের প্রতি সঠিক সময় দিন। তাঁদেরকে বুঝতে দিন যে আপনি তাঁদের জন্য পরোয়া করেন। সবাইকে সব কথা বলবেন না। অভিযোগ করার কোন সুযোগ দেবেন।

বৃশ্চিক:

চারপাশের মানুষের থেকে সুযোগ পাবেন। অনেকেই আজ আপনাকে সাহায্য করবেন। ব্যবসায় লাভ হবে। নতুন করে কিছু শুরু করবেন না। প্রয়োজনের থেকে বেশি মন দিয়ে কাজ শুরু করুন। নয়া দিকে অনেক কিছু ঘটে চলেছে, চোখ কান খোলা রাখুন।

ধনু:

দিন ভাল থাকবে। খুশিতে থাকবেন। প্রচুর অর্থ ব্যয় হবে। বাবা মায়ের থেকে অনেককিছু জানবেন। আর্থিক অবস্থার অবনতি ঘটবে। নতুন কিছু চাইলে সেটাও করতে পারেন। পরিবারের জন্য ভাল কিছু ঘটবে। কিছু রহস্যের উদঘাটন হবে।

মকর:

নিজের শক্তি ফিরিয়ে নিয়ে আসুন। অযথা কারওর দোষ খুঁজতে যাবেন না। যে যায় বলুক না কেন, সবকথা শুনবেন না। নিজের মনকে দুর্বল করবেন না। সবকিছুর সম্ভাবনা দূরে সরিয়ে রেখে দেবেন। সম্পত্তিতে বিনিয়োগ থেকে লাভ পাবেন। নতুন কিছু ঘটবে আপনার জীবনে।

কুম্ভ:

অর্থ নিয়ে সমস্যা হতে পারে। স্বাস্থ্যের দিকেও ধ্যান দিন। হাঁটাচলা সাবধানে করুন। প্রেমিকার পরামর্শে আজ কিছু না করলেই ভাল। ব্যবসায় অংশীদারি মনোভাব ভাল তবে নিজের বুদ্ধি কাজে লাগান। অযথা ঝামেলায় জড়াতে যাবেন না, এতে বিপদ। ছেলেমেয়েদের দিকে নজর দিন। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলুন।

মীন:

প্রেম প্রস্তাব আসতে পারে। বন্ধুর সঙ্গে কথা বললে অনেক সমস্যার সমাধান হবে। বুঝেশুনে কথা বললেই ভাল। বিতর্কে জড়াবেন না। মা বাবার কথা শুনলে আজ লাভ দেবে। অনেকদিন ধরে যে কাজ করবেন ভাবছেন সেটা করে ফেলুন। একা থাকতে যাবেন না এতে সমস্যা বাড়ে।  

নিউজ ট্যাগ: রাশিফল

আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

শনিবার ০২ জুলাই 2০২2




ফুটবল বিশ্বকাপের চূড়ান্ত ৩২ দল, কে কোন গ্রুপে?

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

এপ্রিলেই হয়ে গেছে কাতার বিশ্বকাপের ড্র। ৩২টি দলের মধ্যে তখনও নির্ধারিত হয়নি তিনটি দলের ভাগ্য। একটি ইউরোপিয়ান, একটি কনকাকাফ-ওশেনিয়া এবং অন্যটি এএফসি ও কনমেবল অঞ্চলের প্লে-অফ। এই তিন প্লে-অফের মাধ্যমে বাকি তিন দলও নির্ধারণ হয়ে গেছে।

ইউরোপিয়ান প্লে-অফ থেকে কাতার বিশ্বকাপের টিকিট কেটেছে ওয়েলশ, এএফসি ও কনমেবল অঞ্চলের প্লে-অফ থেকে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া এবং কনকাকাফ-ওশেনিয়া অঞ্চলের প্লে-অফে নিউজিল্যান্ডের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে দিয়ে বিশ্বকাপে নাম লিখেছে কোস্টারিকা।

গত ৬ জুন ইউরোপিয়ান অঞ্চলের প্লে-অফের ফাইনালে ইউক্রেনকে ১-০ গোলে হারিয়ে কাতার বিশ্বকাপে নাম লিখিয়েছে ওয়েলস। ১৪ জুন আন্তমহাদেশীয় প্লে-অফে পেরুকে টাইব্রেকারে ৫-৪ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করে অস্ট্রেলিয়া।

বাকি ছিল আরেকটি দল। মঙ্গলবার রাতে ৩২তম দল হিসেবে কাতারের টিকিট পেয়েছে কোস্টারিকা। আন্তঃমহাদেশীয় প্লে-অফে তারা ১-০ গোলে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ডকে।

ওয়েলশ, অস্ট্রেলিয়া এবং কোস্টারিকাকে দিয়ে পূর্ণ হলো কাতার বিশ্বকাপের ৩২ দলের কোটা। যদিও প্রায় আড়াই মাস আগে ড্র অনুষ্ঠিত হয়ে গেছে, এখন শুধু এই তিনটি দল নির্ধারিত তিনটি গ্রুপে নিজেদের নামটি লিখে নেবে। এবারের বিশ্বকাপ শুরু হবে চলতি বছরের ২১ নভেম্বর থেকে। ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১৮ ডিসেম্বর।


এক নজরে বিশ্বকাপের আট গ্রুপ

গ্রুপ এ: কাতার, নেদারল্যান্ডস, সেনেগাল ও ইকুয়েডর

গ্রুপ বি: ইংল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, ইরান ও ওয়েলস

গ্রুপ সি: আর্জেন্টিনা, মেক্সিকো, পোল্যান্ড ও সৌদি আরব

গ্রুপ ডি: ফ্রান্স, ডেনমার্ক, তিউনিসিয়া ও অস্ট্রেলিয়া

গ্রুপ ই: স্পেন, জার্মানি, জাপান ও কোস্টারিকা

গ্রুপ এফ: বেলজিয়াম, ক্রোয়েশিয়া, মরক্কো ও কানাডা

গ্রুপ জি: ব্রাজিল, সুইজারল্যান্ড, সার্বিয়া ও ক্যামেরুন

গ্রুপ এইচ: পর্তুগাল উরুগুয়ে, দক্ষিণ কোরিয়া ও ঘানা।


আরও খবর



৫ জুলাই নয়, চুয়েটে ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ ২১ জুন পর্যন্ত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের জেরে ৫ জুলাই পর্যন্ত স্নাতক পর্যায়ের সব ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কর্তৃপক্ষ। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের জরুরি সভায় এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে- ২১ জুন পর্যন্ত চুয়েটের স্নাতক পর্যায়ে একাডেমিক কার্যক্রম ও হল বন্ধ থাকবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চুয়েটের ডেপুটি ডিরেক্টর ফজলুর রহমান। তিনি বলেন, ২২ তারিখ থেকে সব কিছু  চলবে আবার।  স্নাতকের ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ থাকলেও স্নাতকোত্তর পর্যায়ের সব একাডেমিক কার্যক্রম চলবে।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে গত কয়েক দিন ধরে বিরাজমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে উপাচার্য ড. রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে চুয়েটের সব ডিন, ইনস্টিটিউট পরিচালক, রেজিস্ট্রার, বিভাগীয় প্রধান, প্রভোস্ট ও ছাত্রকল্যাণ পরিচালকের সমন্বয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্তক্রমে আজ মঙ্গলবার থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ের সব একাডেমিক কার্যক্রম (পরীক্ষাসহ) এবং আবাসিক হলগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হলো। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী ৬ জুলাই থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত ঈদুল আযহা উপলক্ষে একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

আজ বিকেল ৫টার মধ্যে ছাত্রদের এবং বুধবার সকাল ১০টার মধ্যে ছাত্রীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়। তবে স্নাতকোত্তর পর্যায়ের চলমান সব একাডেমিক কার্যক্রম যথারীতি অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত শনিবার চট্টগ্রাম শহরে একটি বাস ৩০ মিনিট দাঁড় করিয়ে রাখাকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের দুটি পক্ষ নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায়  শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। এরই জের ধরে গত দুইদিন ধরে ছাত্রলীগের দুপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবদমান ওই দুই পক্ষের একটি চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির এবং আরেক পক্ষ শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসানের অনুসারী বলে পরিচিত।

আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধীনতা চত্বরে অবস্থান নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শহরে আসার সব বাস আটকে দেয়। সকাল ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারী পরিবহনের বাস চট্টগ্রাম শহরের দিকে রওনা দিলে তারা বাসগুলো আটকে দিয়ে গ্যারেজে ফেরত পাঠায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মকর্তা ও এক শিক্ষার্থী বলেন, স্বাধীনতা চত্বরের আশপাশে অবস্থানকারী ওই তরুণদের হাতে রামদা ও লাঠি এবং মাথায় হেলমেট ছিল।

নিউজ ট্যাগ: চুয়েট

আরও খবর



চেষ্টা করছি শক্ত থাকতে : মৌসুমী

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৫৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

তীব্র গরমে যখন নগরবাসী অতিষ্ঠ ঠিক তখনই আষাঢ়ের বৃষ্টি ফিরিয়ে দিয়েছে স্বস্তি। তারকা দম্পতি ওমর সানী-মৌসুমী সংসার জীবন নিয়েও যখন আলোচনা-সমালোচনা তুঙ্গে, তখন সানীর একটি ছবিই যেন অবসান ঘটিয়েছে সেসব বিতর্কের। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে সানীর প্রকাশ করা ছবিতে দেখা মিলল পুরো পরিবারের। এরপর এলো ভিডিও। যেখানে দেখা যায়, সানী-মৌসুমীর ছেলে ফারদিন গান গেয়ে মাকে হাসানোর চেষ্টা করছে। অবশেষে সে সফলও হয়।

আর শুক্রবার সব জঞ্জাল আর জমিয়ে রাখা দুঃখ মন থেকে ঝেরে ফেলে মৌসুমী ফিরে এলেন আপন ভূবনে। ইনস্টাগ্রামে এলো চুলের ছবি প্রকাশ করে প্রিয়দর্শিনীখ্যাত এই নায়িকা লিখেছেন, বৃষ্টিতে ভিজে গেলাম, বৃষ্টিও বলে লিলি ফ্লাওয়ারস তোমার জন্য। ভিজে ভিজে কিছু কথা মনে হলো, কোনো একসময় বলব যদি বেঁচে থাকি ইনশাআল্লাহ। খুব চেষ্টা করছি শক্ত থাকতে, অভিমানী মন বড় দুর্বল। নিজের দুর্বলতা অন্য কারও ওপর চাপিয়ে কেউ ভালো থাকতে পারে না। কষ্ট আমি নিলাম সুখ তোমাকে দিলাম।

এর আগে, গত কয়েক দিন ধরেই গুঞ্জন উঠেছে ওমর সানী-মৌসুমীর সংসার ভাঙনের। মূলত জায়েদ খানের কারণে নাকি তাদের ২৭ বছরের সুখের সংসার ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। এ নিয়ে দেশের গণমাধ্যমগুলোর সুবাদে উঠে এসেছে নানা কথা। শুরুটা হয়, খল অভিনেতা ডিপজলের ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠান স্থল থেকে। সে আয়োজনে মৌসুমীকে ডিস্টার্ব করায় জায়েদ খানকে চড় দিয়ে বসেন সানী। এ ঘটনায় জায়েদ পিস্তল বের করে সানীকে গুলি করার হুমকিও দেন-এমন অভিযোগ উঠে আসে। বিষয়টি নিয়ে শিল্পী সমিতিতেও অভিযোগ করেন ওমর সানী। সেখানে তিনি জানান, জায়েদ তার সুখের সংসার ভাঙার চেষ্টা করছে। এরপর এসব অভিযোগ অস্বীকার করে এক অডিওবার্তা দেন মৌসুমী। সেখানে জায়েদ খানের পক্ষ নেন এই অভিনেত্রী। ঘটনা মোড় নেয় ভিন্ন দিকে। আর এ নিয়ে গেল কদিন ধরে বেশ উত্তাল ছিল সিনেমাপাড়া।

নিউজ ট্যাগ: মৌসুমী

আরও খবর

২৭ বছরের সম্পর্কে ইতি টানলেন মীর!

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২

বড় পর্দায় বাম-কংগ্রেস সন্ত্রাস

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




চীনে ভারি বৃষ্টিপাতে ১০ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ৩

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৬১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চীনে ভারি বর্ষণে ১০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ ছাড়া নিখোঁজ রয়েছেন আরও তিনজন। এতে দুই হাজার ৭০০-এর বেশি বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এমনটি জানিয়েছে।

হুনানের প্রাদেশিক কর্মকর্তা লি দাজিয়ান বলেছেন, ভারি বর্ষণের কারণে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া এখনো তিনজন নিখোঁজ রয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির হুনান প্রদেশে গত ১ জুন থেকে ভারি বর্ষণ শুরু হয়েছে। এতে এখন পর্যন্ত প্রদেশটির ওই অঞ্চল থেকে দুই লাখ ৮৬ হাজার মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

প্রদেশটির সরকার বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ভারি বর্ষণে নদী ও হ্রদের পানির উচ্চতা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। পুরো প্রদেশ এই দুর্যোগ প্রতিরোধে সক্রিয়ভাবে সাড়া দিচ্ছে এবং প্রতিরোধের জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা করছে।

দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, বৃষ্টিপাত হুনান প্রদেশের প্রায় সব এলাকায় প্রভাব ফেলেছে। স্থানীয় কয়েকটি আবহাওয়া স্টেশন তাদের এলাকায় রেকর্ড পরিমাণ বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে জানিয়েছে। এই বৃষ্টিপাতে এক কোটি ৭৯ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রশাসন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় তাঁবু, ভাঁজ করা যায় এমন বিছানা, খাবার ও পোশাক দিচ্ছে।

আর্দ্র গ্রীষ্মে মধ্য ও দক্ষিণ চীনে প্রায়ই ভারি বৃষ্টি হয়। এতে ওই সব এলাকায় প্রায়ই বন্যা দেখা দেয়। চীন এক দশকের মধ্যে গত বছর সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যার সম্মুখীন হয়েছিল। এতে ৩০০ জনেরও বেশি মানুষ মারা গিয়েছিল।


আরও খবর