Logo
শিরোনাম

পুরুষ অভিভাবক ছাড়াই হজ-ওমরাহ করতে পারবেন নারীরা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৯৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নারীদের হজ বা ওমরা পালনে আর মাহরাম বা অভিভাবকের প্রয়োজন হবে না। সোমবার মিসরের রাজধানী কায়রোর সৌদি দূতাবাসে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটা জানান সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রী ডক্টর তৌফিক আল রাবিয়া।

সৌদির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রী বলেন, সৌদি ভ্রমণে গিয়ে হজ বা ওমরাহ পালন করতে নারীদের আর অভিভাবক বা রক্তের সম্পর্কের আত্মীয়ের দরকার পড়বে না। ওমরাহ পালনে মুসলিম দেশগুলোর জন্য কোটা ব্যবস্থা বাতিল হয়েছে এবং ওমরাহ পালনে ইচ্ছুক সব মুসলিমের জন্য সৌদি ভিসা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ডক্টর তৌফিক আরও বলেন, হজ ও ওমরাহ পালনে সকল খরচও কমানো হয়েছে। পাশাপাশি মক্কা ও মদিনার পবিত্র দুই মসজিদ পরিদর্শনে হয়রানি কমাতে আধুনিক প্রযুক্তি এবং ডিজিটালাইজেশন সেবা বাস্তবায়ন করা হয়েছে। হজ ও ওমরাহ পালনকারীদের নুহসক প্লাটফর্মের মাধ্যমে মক্কার গ্রান্ড মসজিদের তথ্য ও সেবা পেতে রোবটের সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ওমরাহ ভিসা পাওয়ার সুযোগ তৈরি করা হয়েছে।

 


আরও খবর

পাপ কাজ ছেড়ে দেওয়ার উপায়

রবিবার ৩০ অক্টোবর ২০২২




সাফ জয়ী নারী ফুটবল দলকে প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী নারী ফুটবল দলকে সংবর্ধনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

সাফজয়ী নারী ফুটবলারদের ৫ লাখ ও প্রশিক্ষকদের দুই লাখ করে আর্থিক সম্মাননার চেক দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উনিশ বছর পর মেয়েদের হাত ধরে ফুটবলে দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব আসে বাংলাদেশে। ছাদখোলা বাসে বর্ণাঢ্য সংবর্ধনা দেয় দেশের সাধারণ মানুষ, যা দেশের ক্রীড়াঙ্গনের ইতিহাসে ছিল অনন্য নজির। রাষ্ট্রীয় কাজে তখন দেশের বাইরে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই মেয়েদের সংবর্ধনা দিতে পারেননি।

তবে দেশে ফিরেই ঘোষণা আসে সংবর্ধনার। সে হিসেবে সাফজয়ীদের আর্থিক সম্মাননা ও সংবর্ধনা দেয়া হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর নিজ কার্যালয়ে। জানা গেছে, এদিন সাফজয়ী ২৩ ফুটবলারের সঙ্গে সময় কাটাবেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে সাফ জয় করে সাবিনারা দেশে ফেরার পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানিয়েছিলেন, সাফজয়ী নারী ফুটবলারদের সবার ঘরের অবস্থা পরিদর্শন করে তা জানাতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। যাদের ঘরের অবস্থা ভালো নয়, যাদের ঘর দরকার, তাদের নতুন ঘর বানিয়ে দেবেন প্রধানমন্ত্রী। 


আরও খবর



ইন্ডাস্ট্রিতে যা হয়, দু’জনের সম্মতিতে হয়: শ্রীলেখা

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র যেমন আলোচনায় থাকেন, তেমনি সমালোচনারও জন্ম দেন। যেকোনো বিষয়েই অত্যন্ত সুস্পষ্ট এবং খোলামেলা বক্তব্য রাখেন অভিনেত্রী।সে কারণেই তাকে অনেকে ঠোঁটকাটা ও স্পষ্টবাদী বলে থাকেন অনেকেই।

এর আগেও অভিনেত্রীর মুখে টলিউডের নানা ডার্ক সিক্রেটের কথা শোনা গিয়েছিল। প্রকাশ্যে এনেছিলেন টলিউডের অজানা দিক। সম্প্রতি তেমনই একটি ভিডিও নতুন করে ভাইরাল হয়েছে।

একটি ইন্টারভিউতে অভিনেত্রীকে জিজ্ঞেস করা হয় তিনি কেন কম কাজ করেন! সে বিষয়ে অভিনেত্রী বলেছিলেন, তিনি বাকিদের মতো তেল দিতে পারেন না। আর টলিউডের অনেকেরই আত্মসম্মান নেই। সে কারণেই বাকিদের তুলনায় তিনি কম কাজ পান। 

সেই ইন্টারভিউতে অভিনেত্রী বলেছিলেন টলিউডে দুটি সিনেমা তখনই বাঁধা হয়ে যায় যখন একজন অভিনেত্রী কোনো অভিনেতা তথা হিরো বা ডিরেক্টরের সঙ্গে প্রেম করেন। শ্রীলেখা সেটা করেননি বলেই কি তিনি বরাবর প্রসেনজিতের বোন হয়ে রয়ে গেলেন?

অভিনেত্রী জানান, সে সময় প্রসেনজিৎ মানেই ইন্ডাস্ট্রি ছিল, তার সঙ্গে একাধিক অভিনেত্রীর সুসম্পর্ক ছিল। কিন্তু নায়িকার সঙ্গে হয়তো জুটি হিসেবে ততটা কম্ফর্টেবল ছিল না। এরপর কোনো কারণে হয়তো তিনি আর কাজ করতে চাননি। 

এই ইন্টারভিউতে যখন তাকে কাস্টিং কাউচের বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হয় তিনি বলেন, তার একটি হিন্দি সিনেমায় গোবিন্দর সঙ্গে কাজ করার কথা ছিল। স্ক্রিপ্ট পড়ে শোনানোর জন্য তাকে ডাকা হয়েছিল। নায়িকা তার ভাইয়ের সঙ্গে সেখানে গিয়েছিলেন বলে জানান। সেখানে গিয়ে খাওয়া, আড্ডা হলেও কাজের কাজ হয়নি। 

তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন, দুজন স্টেপ না নিলে এগোনো যায় না এ ক্ষেত্রে। তার মতে, আসলে ইন্ডাস্ট্রিতে ধর্ষণ হয় না।  কেবল কারো ইচ্ছাকে উসকে দেওয়া হয়। এখানে কাস্টিং কাউচ আছে, তবে এখানে যা কিছু হয়, দুজনের ইচ্ছায় হয়।


আরও খবর



সিংড়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ১২

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নাটোরের সিংড়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ১২ জন গুলিবিদ্ধসহ ১৫ জন আহত হয়েছেন। এসময় উভয়পক্ষের নয় জনকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার (৩ ডিসেম্বর) সকালে চলনবিলের দুর্গম এলাকা বেড়াবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালে বেড়াবাড়ি গ্রামে রেজাউল নামের একজন হত্যা হয়। হত্যা মামলার আসামিরা বাদী পক্ষকে মামলা তুলে নিতে ও সাক্ষী না দিতে বিভিন্ন সময় হুমকি দিয়ে আসছিলেন। সম্প্রতি মসজিদের কমিটি গঠনকে কেন্দ্র বিষয়টি জোরালো হয়।

নিহত রেজাউলের স্ত্রী মনিরা বেগম জানান, শনিবার সকালে আমার স্বামী হত্যা মামলার ৩ নম্বর আসামি সাইফুলের নেতৃত্বে অতর্কিত হামলা চালায় প্রতিপক্ষরা।

এতে শামীম প্রামাণিক, মনসুর রহমান, আলী আজগর, আব্দুল মান্নান, সাইদুর, সবুজ, শুভ, আব্দুর রউফ, দীপন, জামাল, বাবু সরকার, আমিরুল তালুকদার গুলিবিদ্ধ হন। এছাড়া মোজাম্মেল, লাকী বেগম ও শিরিনা বেগমকে কুপিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষ সাইফুল গ্রুপ। পরে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে স্থানীয়রা।

এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় উভয়পক্ষের নয়জনকে আটক করে পুলিশ।

বেলা সাড়ে ১১টায় গুলিবিদ্ধসহ গুরুতর আহত ১৩ জনকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ডাহিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল মজিদ মামুন বলেন, বেড়াবাড়ি গ্রামে দুই গ্রুপের দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিন যাবৎ। আমরা বার বার চেষ্টা করেও সমাধান করতে পারিনি। প্রশাসনের কাছে আবেদন এলাকায় শান্তি ফেরাতে তারা যেন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। উভয়পক্ষের নয় জনকে আটক করে থানায় এনেছি। প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর

একসঙ্গে বাবা-ছেলের এসএসসি পাস

মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২




কাতার বিশ্বকাপের সবচেয়ে দামি দল কাদের?

প্রকাশিত:শুক্রবার ১১ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর 2০২2 | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্বকাপের ডামাডোল বাজছে। সেটি আবার একইসাথে ক্রিকেট ও ফুটবলের। অস্ট্রেলিয়ায় শেষের পথে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, আর কাতারে শুরুর পথে ফুটবল বিশ্বকাপ। খেলা-পাগল বাঙালির যেন এক মহানন্দ।

ক্রিকেট যেহেতু শেষের দিকে তাই ফুটবলে আসা যাক। এবার বিশ্বকাপে টাকার অংকে কোন দল সবচেয়ে দামি বা মূল্যবান? ভেবেছিলেন প্রথম দিকে ব্রাজিল কিংবা আর্জেন্টিনা থাকবে? না, সেটি হয়নি। দামি দলের তকমা লাগিয়ে প্রথম সারিতে রয়েছে ইংল্যান্ড এবং তার পরেই ফ্রান্স।

জার্মানভিত্তিক ওয়েবসাইট ট্রান্সফরমারক্ট থেকে খেলোয়াড়দের বাজার মূল্যের ডেটা ব্যবহার করে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা বলছে, বিশ্বকাপে সবচেয়ে মূল্যবান স্কোয়াড হবে ইংল্যান্ডের। থ্রি লায়ন্সের একাধিক খেলোয়ার রয়েছেন, যাদের মূল্য ৮০ মিলিয়ন ইউরোর বেশি (৮০০ কোটি টাকার বেশি)। এর মধ্যে হ্যারি কেইন, ফিল ফোডেন এবং জেডন সানচো রয়েছেন। ইংল্যান্ডের স্কোয়াড মূল্য ১.৩৫ বিলিয়ন ইউরো (সাড়ে ১৩ হাজার কোটি টাকার বেশি)।

পরবর্তী সবচেয়ে মূল্যবান স্কোয়াড ফ্রান্সের। মূলত কিলিয়ান এমবাপ্পে, ত্রিস্তোফা এনকুনকু, রাফায়েল ভারানে, কিংসলে কোমান এবং জুল কুন্দের মতো খেলোয়াড়দের কারণে ফ্রান্সের স্কোয়াড মূল্যবান। তাঁদের মূল্য ১.১৩ বিলিয়ন ইউরো (১১ হাজার কোটি টাকার বেশি)।

এছাড়া ব্রাজিলের মূল্য ১০ হাজার কোটি টাকার উপরে (১.০৬ বিলিয়ন ইউরো) এবং আর্জেন্টিনার ৭৬৪.৫ মিলিয়ন ইউরো। কাতার বিশ্বকাপে সবচেয়ে মূল্যবান খেলোয়ার কে? তিনি হলেন ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপ্পে। তাঁর ব্যক্তিগত মূল্য ১৬০ মিলিয়ন ইউরো (১ হাজার ৬০০ কোটি টাকার বেশি)। নরওয়ের স্ট্রাইকার এরলিং হল্যান্ডের মূল্যও ১ হাজার কোটি টাকার উপরে।

টাকার মূল্যে কয়েকটি শ্রেষ্ঠ দল

১. ইংল্যান্ড : ১.৩৫ বিলিয়ন ইউরো

২. ফ্রান্স : ১.১৩ বিলিয়ন ইউরো,

৩. ব্রাজিল : ১.০৬ বিলিয়ন ইউরো

৪. স্পেন : ১.০৩ বিলিয়ন ইউরো

৫. জার্মানি : ১.০২ বিলিয়ন ইউরো

৬. পর্তুগাল : ৯৩৮ মিলিয়ন ইউরো

৭. আর্জেন্টিনা : ৭৬৪ মিলিয়ন ইউরো প্রায়।


আরও খবর

রোনালদোকে টপকে গেলেন মেসি

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২




‘সরকার পতনের হাঁকডাক দিয়ে লাভ নেই, নির্বাচনে আসুন’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ১৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকার পতনের হাঁকডাক দিয়ে লাভ নেই। সমাবেশের অনুমতি চেয়েছেন, অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আপনাদের সমাবেশে কেউ বাধা দিবে না। রাজশাহী ও ঢাকায় বলা হয়েছে, পরিবহন ধর্মঘট না দিতে।

তিনি বলেন, ফখরুল গতকাল বলেছেন, সরকারকে নিরাপদ প্রস্থান নিতে। আমি বলতে চাই, নিরাপদ প্রস্থানের একমাত্র পথ হচ্ছে নির্বাচন। নির্বাচনেই প্রমাণ হবে, কারা বিজয়ী হবে আর কাদের পতন হবে। বিএনপিকে আবারও বলতে চাই, নির্বাচনে আসুন। এরপরেও বাড়াবাড়ি করলে খবর আছে।’ বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, খেলা হবে। অপেক্ষা করুন, নির্বাচনে খেলা হবে। ডিসেম্বরে খেলা হবে। বিএনপির আগুন আর লাঠির বিরুদ্ধে খেলা হবে। আগুন আর লাঠি নিয়ে এলে খেলা হবে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে, ভোট চুরির বিরুদ্ধে, ভুয়া ভোটার তালিকার বিরুদ্ধে খেলা হবে।

তিনি বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু উনারা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছেন না। ফখরুলের মুখে মধু আর অন্তরে বিষ। এরই নাম ফখরুল। ফখরুল সাহেব অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আপনাদের মিটিংয়ে কেউ বাধা দেবে না। আমরা রাজশাহীতেও বলে দিয়েছি, সেখানে যেন পরিবহন ধর্মঘট না করে। ঢাকায়ও পরিবহন ধর্মঘট হবে না, নেত্রী বলে দিয়েছেন।

ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ফখরুল এখন নাটক শুর করছে। কী নাটক? কোথাও সমাবেশ দিলে সাত দিন আগে থেকে প্রচার করেন, বাধা দেওয়া হচ্ছে। মিথ্যাচার করেন, সরকার বাধা দিচ্ছে। কুমিল্লাতে তো কেউ বাধা দেয়নি।

ওবায়দুল কাদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, সমাবেশের অনুমতি দেওয়ার পরেও যদি বাড়াবাড়ি করেন, লাফালাফি করেন, আগুন নিয়ে নামেন। লাঠির সঙ্গে জাতীয় পতাকা লাগিয়ে মাঠে নামেন, তাহলে খবর আছে।

তিনি বলেন, আমরা শান্তি চাই। আমরা ক্ষমতায় আছি। ক্ষমতায় থেকে আমরা কেন অশান্তি করবো? মানুষকে কেন আতঙ্কে রাখবো? আমরা মানুষকে শান্তিতে রাখতে চাই।

বিশ্ব পরিস্থিতি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, যুদ্ধের কারণে নিষেধাজ্ঞা থাকায় আমরা একটু বিপদে আছি। মানুষ কষ্টে আছে। অভাবী মানুষ, স্বল্প আয়ের মানুষ কষ্টে আছে। এটা শেখ হাসিনা নিজেই স্বীকার করেন। চেষ্টা করছেন তিনি। এখনো বাংলাদেশে সোমালিয়া-সুদানের মতো দুর্ভিক্ষ হয়নি। এখনও আমরা অনেক দেশের তুলনায় ভালো আছি। শেখ হাসিনা ভালো থাকলে বাংলাদেশ ভালো থাকবে।

তিনি বলেন, তারেক লন্ডনে বসে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে, মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তাই তারেকের হাওয়া ভবনের অর্থ পাচারের বিরুদ্ধে খেলা হবে। বাংলাদেশ থেকে কত টাকা পাচার করা হয়েছে, শেখ হাসিনা তা খতিয়ে দেখছেন। সব টাকা উদ্ধার করা হবে। তারেক রহমানসহ সব টাকা পাচারকারীর টাকা উদ্ধার করা হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য পাগল হয়ে গেছে। বেশি পাগলামি করলে পাগলা গারদে অথবা পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। ষড়যন্ত্রকারীরা ঐক্যবদ্ধ। তারা ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। ঐক্যবদ্ধ থাকলে কোনো শক্তি আওয়ামী লীগকে পরাজিত করতে পারবে না।


আরও খবর