Logo
শিরোনাম

পূবালী ব্যাংকে চাকরির সুযোগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে পূবালী ব্যাংক লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটিতে অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার’ পদে মোট তিন জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী যোগ্য প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম:

অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার (সিভিল)।

পদসংখ্যা:

মোট তিন জন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা:

স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বা সিভিল অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে বিএসসি পাস প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। পদ সংশ্লিষ্ট কাজে দুই বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। অনূর্ধ্ব ৩০ বছর বয়স পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

বেতন:

৫৭,৪৯০ টাকা। অন্যান্য সুবিধা প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া:

আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে (www.pubalibangla.com) আবেদন করতে পারবেন। আবেদন করার সময় সদ্য তোলা রঙিন ছবি ও স্বাক্ষর স্ক্যান করে সংযুক্ত করতে হবে।

আবেদনের শেষ তারিখ:

২৬ মে, ২০২২।

নিউজ ট্যাগ: চাকুরীর খবর

আরও খবর

পদ্মা ব্যাংকে চাকরির সুযোগ

শুক্রবার ১৩ মে ২০২২




বিলুপ্ত ফসল ‘চীনা-১’ ফিরিয়ে আনছে ব্রি

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শর্করা বা কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবারের চাহিদা মেটাতে নতুন ফসল উৎপাদনের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি)। এরই অংশ হিসেবে ভোলায় প্রথমবারের মতো পরীক্ষামূলক আবাদ হয়েছে বিলুপ্ত বারি চীনা-১। দানা জাতীয় ফসলটি দেখতে অনেকটা ধানের মতো। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ৫০ বছর আগে ফসলটি আবাদ হলেও, পরে তা বিলুপ্ত হয়ে যায়। এই ফসল ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে ভোলায় পরীক্ষামূলকভাবে আবাদ করা হয়। পরীক্ষামূলক আবাদেই সফলতা দেখতে পেয়েছেন কৃষি বিভাগের গবেষকরা। ১৫টি পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ দানাদার এই খাদ্য ফসলটি প্রথম আবাদে কৃষকদেরও আগ্রহ বেড়েছে। আগামীতে ব্যাপক পরিসরে আবাদের কথা ভাবছে কৃষি বিভাগ।

ভোলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. হাসান ওয়ারেসুল কবির জানান, এক সময় গ্রাম-বাংলার মাঠে-ঘাটে বিস্তীর্ণ ফসলের ক্ষেতে চীনা ফসলের আবাদ করতেন কৃষকরা। পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ সেই ফসল তেমন জনপ্রিয়তা পায়নি। শস্যের দাম বৃদ্ধি, কৃষকদের সচেতনতার অভাব ও স্থানীয়ভাবে পরিচিতি না থাকাসহ বিভিন্ন কারণে বিলুপ্ত হয়ে যায় ফসলটি। সেই ফসল সংরক্ষণ ও ধরে রাখতে উদ্যোগ নিয়েছে ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট। বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে দেশের কোন জেলায় ফসলটি আবাদে উপযোগী, সেটা পরীক্ষার কার্যক্রম শুরু করেন গবেষকরা। এক পর্যায়ে ভোলা ও নোয়াখালীতে পরীক্ষামূলক ফসলটির আবাদে কৃষকদের উৎসাহী করলেও, শুধু ভোলাতেই সফলতা পেয়েছে কৃষি বিভাগ। এখানকার আবহাওয়া উপযোগী থাকায় এ বছরের শুরুর দিকে পরীক্ষামূলক আবাদ করা হয়।

ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের গোলকপুর ও কালাশা গ্রামে ১০ শতাংশ জমিতে  চীনা শস্যের চাষাবাদ হয়েছে। ফলনও হয়েছে বাম্পার। এতে চাষিরা খুশি। চাঁপুর ইউনিয়নের কালাশা গ্রামের চাষি খোরশেদ বলেন, এর আগে বহু ধরনের ধান ও বিভিন্ন ফসলের আবাদ করেছি। এই প্রথম ছয় শতাংশ জমিতে চীনা ফসল আবাদ করি। উপজেলা কৃষি অফিস আমাকে বীজ, সার, ওষুধ ও প্রশিক্ষণ দিয়ে সহযোগিতা করেছে। অল্প পরিশ্রমে ভালো ফলন হয়েছে। হোলকপুর গ্রামের চাষি আবুল কালাম বলেন, এবার চার শতাংশ জমিতে চীনা ফসলের আবাদ করেছি। ফলন অনেক ভালো হয়েছে। কোনও রোগ বা পোকামাকড়ের আক্রমণ হয়নি। আগামীতে আরও বেশি জমিতে আবাদ করবো।

কৃষি বাতায়নের তথ্য অনুযায়ী, পানি জমে না এমন বেলে দোআঁশ মাটি বারি চীনা-১ চাষের জন্য উপযোগী। বপনের সময় মধ্য-কার্তিক থেকে পৌষ মাস (নভেম্বর থেকে মধ্য জানুয়ারি)। বীজ ছিটিয়ে ও সারিতে, উভয় পদ্ধতিতেই বোনা যায়। ছিটিয়ে বুনলে হেক্টরপ্রতি ২০ কেজি এবং সারিতে বুনলে ১৮ কেজি বীজের প্রয়োজন হয়। সারিতে চারা গজানোর পর ৬-৮ সেমি দূরত্বে একটি করে চারা রেখে বাকি চারা তুলে ফেলতে হবে। চীনার এই জাতে সাধারণত রোগবালাই কম। পোকার আক্রমণ দেখা দিলে আক্রমণের ব্যাপকতা বুঝে কার্বোফুরান ৫ জি (তারপোকার ক্ষেত্রে) জাতীয় দানাদার কীটনাশক (ফুরাডান, ব্রিফার ইত্যাদি) হেক্টরপ্রতি ১৮ কেজি হারে বীজ বপনের সময় প্রয়োগ করতে হবে। কাটুই পোকার জন্য প্রতি লিটার পানির সাথে ৫ মিলি ক্লোরোপাইরিফস ২০ ইসি জাতীয় কীটনাশক মিশিয়ে চারাগাছগুলোর গোড়ায় মাটি ভিজিয়ে ভালোভাবে স্প্রে করে পোকা দমন করা যাবে।

সাধারণত প্রতি হেক্টরে আউশ ধান উৎপাদন হয় তিন মেট্রিক টন। তথ্য বাতায়ন বলছে, বারি চীনা-১ জাতের এই শস্যেরও একই রকম ফলন হবে। তবে আউশ ধানের জীবনকাল সাধারণত ১২০ দিন। বারি চীনা-১ জাতের ফসলের জীবনকাল সম্পর্কে কোনও তথ্য এখনও জানায়নি ব্রি।

বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বরিশাল অঞ্চল) বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. ছয়েমা খাতুন বলেন, অধিক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ চীনা ফসলটি আগে আবাদ হলেও, তা বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছিল। এটি ভাতের পাশাপাশি পায়েস হিসেবে বেশ সুস্বাদু। আমরা এ বছর বিলুপ্তপ্রায় ফসলটি আবাদে সফলতা পেয়েছি। আগামীতে সারাদেশে এর আবাদ করার পরিকল্পণা নেওয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে খাদ্য উৎপাদন হবে অন্যদিকে পাশাপাশি পুষ্টির চাহিদাও পূরণ হবে।


আরও খবর



মাদারীপুরে ২১ কেজি গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন

Image

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

মাদারীপুরে ২১ কেজি ৭শ গ্রাম গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্প।

শনিবার সন্ধায় র‌্যাবের একটি দল সদর উপজেলার খোয়াজপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পখিরা এলাকার আছমত আলী খান সেতুর টোল প্লাজার পূর্ব পাশে সড়কে অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক কর। এসময় অভিযানকালে একটি পিকআপ ও ২১ কেজি ৭শ গ্রাম গাঁজাসহ তাদের গ্রেফতার করে।

আটককৃতরা হলেন, কুমিল্লা জেলার চর দক্ষিন থানার উলুন গ্রামের মোঃ খোকন মিয়ার ছেলে মোঃ নুরুল ইসলাম (২০) ও একই জেলার রাজাপাড়া গ্রামের আকবর হোসেনের ছেলে মোঃ হাসান মাহমুদ (১৯)। র‌্যাবের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ খোরশেদ আলম আজ দুপুরে গণমাধ্যমকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

র‌্যাব জানান, শনিবার সন্ধায় র‌্যাবের একটি বিশেষ দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় পরিমান আটককৃত আসামীদের নিকট থেকে ২১ কেজি ৭শ গ্রাম গাঁজা, মাদক ক্রয় বিক্রয় কাজে ব্যবহৃত ২১টি মোবাইল, ৩টি সীমকার্ড, মাদক পরিবহন কাজে ব্যবহৃত ০১টি পিকআপ, ০১টি স্টীল শীট এবং নগদ ১ হাজার ২০০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব আরো জানায়, আটককৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাব জানতে পারে যে, ধৃত আসামীরা পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী এবং তারা দীর্ঘদিন ধরে কুমিল্লা থেকেচাঁদপুর ফেরিঘাট ব্যবহার করে মাদারীপুর, বরিশাল, গোপালগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকায় গাঁজাসহ বিভিন্ন ধরণের অবৈধ মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। আসামীদেরকে উদ্ধারকৃত গাঁজা ও অন্যান্য আলামতসহ মাদারীপুর সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যপারে মাদারীপুর সদর মডেল থানায় একটি মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে।


আরও খবর



দুই বছর পর জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনা মহামারির কারণে দুই বছর বন্ধ থাকার পর হাইকোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ মাঠে পবিত্র ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের জামাত শুরু হয়। প্রধান ঈদ জামাতের ইমামতি করেন জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের খতিব মুফতি রুহুল আমীন।

জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে প্রধান বিচারপতি, সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতি, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, বিদেশি কূটনীতিক, বিভিন্ন বাহিনীর প্রধান, রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিসহ সাধারণ মুসল্লিরাও ঈদের নামাজ আদায় করেন। 

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে জাতীয় ঈদগাহে প্রধান ঈদ জামাত প্রস্তুতি নেওয়া হয়। সিটি করপোরেশনের হিসেবে জাতীয় ঈদগাহে একসঙ্গে ৩৫ হাজার মানুষের নামাজ পড়ার সক্ষমতা থাকলেও অনেক বেশি মুসল্লি প্রধান ঈদ জামাতে অংশ নেন।

জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে জায়গা না পেয়ে শত শত মুসল্লি হাইকোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহের সামনের রাস্তায় ঈদের নামাজ আদায় করেন।প্রধান ঈদ জামাত থেকে দেশ ও জনগণ এবং মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ ও শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।


আরও খবর



যে কারণে ১৪ মাস পর শাকিবের সঙ্গে ছবি দিলেন বুবলী

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সুপারস্টার শাকিব খানের নায়িকা হয়ে ঢালিউডে পা রাখেন শবনম বুবলী। ২০১৬ সালে বসগিরি’র মাধ্যমে এই জুটির সূচনা। এরপর টানা দশটি সিনেমা উপহার দিয়েছেন তারা। জুটি হিসেবেও সাফল্যও পেয়েছেন। একের পর এক এত সিনেমায় জুটি বাঁধার সুবাদে গুঞ্জন ছড়ায়, শাকিব ও বুবলী প্রেম করছেন। কখনো কখনো সেই গুঞ্জন বিয়ে এমনকি সন্তান হওয়া পর্যন্ত ছড়িয়েছে। তবে এগুলো নিছক ভিত্তিহীন গুজব বলেই উড়িয়ে দিয়েছেন তারকাদ্বয়।

অনেকদিন ধরে শোনা যাচ্ছে, শাকিবের সঙ্গে বুবলীর মধুর সম্পর্ক আর নেই। শাকিবের গণ্ডি থেকে বের হয়ে অন্য নায়কদের সঙ্গেই কাজে ব্যস্ত বুবলী। অন্যদিকে শাকিবও ব্যস্ত তার মতো করে। এসব নিয়ে ইতিবাচক-নেতিবাচক নানান জল্পনা শোনা যায়। সিনেমায় একসঙ্গে কাজের সুবাদে আগে প্রায়শই শাকিবের সঙ্গে ছবি দিতেন বুবলী। এর মাধ্যমে দর্শকদের নতুন তথ্য দিতেন কিংবা সিনেমা দেখার আহ্বান জানাতেন। তবে খেয়াল করে দেখা গেল, গত ১৪ মাস ধরে শাকিবের সঙ্গে কোনো ছবি ফেসবুকে আপলোড করেননি বুবলী। এ থেকে দূরত্বের বিষয়টা দৃষ্টিগোচর হয়।

দীর্ঘদিন পর অবশেষে শাকিবের সঙ্গে ছবি দিলেন বুবলী। শনিবার (২৩ এপ্রিল) বিদ্রোহী’ সিনেমার শুটিংয়ের ফাঁকে তোলা একটি স্থিরচিত্র শেয়ার করেন নায়িকা। যেখানে তাকে দেখা যাচ্ছে শাকিবের সঙ্গে হাস্যোজ্বল রূপে বসে আছেন।

ছবিটির সঙ্গে বুবলী কিছু কথাও বলেছেন। তিনি লিখেছেন, সিনেমা পুরোনো হোক কিংবা নতুন হোক, ভালো হোক কিংবা বেশি ভালো হোক , যাই হোক না কেনো দিন শেষে আমাদের অভিনীত এবং আমাদের শ্রম আছে। অথবা সিনেমার সাথে সম্পৃক্ততা থাকুক বা না থাকুক, সব সিনেমাই আমাদের হওয়া উচিত, নিজেদের ভাবা উচিত। বিদ্রোহী’ আসছে এবারের ঈদুল ফিতরে।”

আসন্ন রোজার ঈদে মুক্তি পাচ্ছে শাকিব ও বুবলী অভিনীত সিনেমা বিদ্রোহী’। শাপলা মিডিয়া প্রযোজিত সিনেমাটি কয়েক বছর আগে নির্মিত হয়েছে। এর মুক্তি উপলক্ষে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রচারণা চালানো হচ্ছে বটে। তবে শাকিব সিনেমাটি নিয়ে নীরবতা পালন করছেন। তিনি ব্যস্ত আছেন গলুই’ নিয়ে। এস এ হক অলিক পরিচালিত এই সিনেমায় তার নায়িকা পূজা চেরি। এটিও মুক্তি পেতে যাচ্ছে ঈদে। শাকিব চুপ থাকলেও বুবলী নিজের জায়গা থেকে সরব। কয়েকদিন আগে তিনি এই সিনেমার পোস্টারও শেয়ার করেছেন।  উল্লেখ্য, এর আগে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে শাকিবের সঙ্গে ছবি শেয়ার করেছিলেন বুবলী। সেটি ছিল লিডার: আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমার মহরতে তোলা। 

নিউজ ট্যাগ: শবনম বুবলী

আরও খবর



মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ভাড়া ২০, সর্বোচ্চ ৯০ টাকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

স্বপ্নের মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ২০ টাকা, আর সর্বোচ্চ ৯০ টাকা ভাড়া প্রস্তাব করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছে ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ (ডিটিসিএ) সূত্র।

ডিটিসিএর নির্বাহী পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) নীলিমা আখতার সংবাদমাধ্যমকে বলেন, মেট্রোরেলের ভাড়া হিসেবে আমরা একটি প্রস্তাব তৈরি করেছি। সেখানে মেট্রোরেলে চড়লেই সর্বনিম্ন ২০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ৯০ টাকা ভাড়ার প্রস্তাব রয়েছে। তবে, ভাড়া এখনো চূড়ান্তভাবে নির্ধারণ করা হয়নি।

তিনি বলেন, এটা অনেক কম। কারণ, এসি বাসে চড়লে এর থেকে অনেক বেশি ভাড়া লাগে। সেই তুলনায় ভাড়া অনেক কম। শিগগিরই প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের প্রস্তাব উপস্থাপন করা হবে। তিনি চূড়ান্ত অনুমোদন দিলেই পরে এটা কার্যকর হবে।

সূত্র জানায়, মেট্রোরেলে ওঠার পর সর্বনিম্ন ২০ টাকা ভাড়া দিয়ে ২ স্টেশন পর্যন্ত যেতে পারবেন একজন যাত্রী। পরবর্তী প্রতি স্টেশনে যেতে বাড়তি ১০ টাকা করে ভাড়া দেওয়া লাগবে। উত্তরার ৩টি স্টেশন ছাড়া অন্য সব স্টেশনের প্রতিটির মধ্যে দূরত্ব ১ কিলোমিটার বা তার কম। ফলে প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া প্রায় ১০ টাকা হবে। আর উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত একজন যাত্রীর ৯০ টাকা ভাড়া হবে।

মেট্রোরেলের ভাড়া পরিশোধে থাকছে স্মার্ট কার্ড টিকিটিং ব্যবস্থা। এতে দুই ধরনের টিকিটের ব্যবস্থা থাকবে। একটা হচ্ছে স্থায়ী কার্ড। এই কার্ড রিচার্জ করে পুরো বছর বা মাসে যাতায়াত করা যাবে। এ কার্ড কিনতে ২০০ টাকা দিতে হবে। এরপর ২০০ থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত রিচার্জ করা যাবে। আর অন্যটি হবে সাময়িক কার্ড, যা প্রতি যাত্রায় দেওয়া হবে।


আরও খবর