Logo
শিরোনাম

পূজায় পছন্দের পোশাক না পেয়ে কলেজছাত্রের আত্মহত্যা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় দরিদ্র বাবা পূজায় চাহিদামতো পোশাক দিতে না পারায় এক কলেজছাত্র অভিমানে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের ছোট কঞ্চি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম কনক চন্দ্র সরকার (১৯)। তিনি নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের ছোট কঞ্চি গ্রামের দিনমজুর খগেন চন্দ্র সরকারের ছেলে। তিনি উপজেলার হাটকড়ই ডিগ্রি কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

নন্দীগ্রাম থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ এ তথ্য দিয়েছেন।

স্বজনরা জানান, খগেন চন্দ্র সরকার দিনমজুরি করে সংসার ও সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ বহন করেন। এতে তাকে হিমশিম খেতে হয়। দুর্গাপূজা শুরুর আগে তিনি ছেলে কনককে পোশাক কেনার জন্য এক হাজার টাকা দেন। ওই টাকায় শার্ট, প্যান্ট ও জুতা না হওয়ায় কনক আরও দুই হাজার টাকা দাবি করেন।

বাবা আর টাকা দিতে না পারায় কনক অভিমান করেন। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে কনক শয়নকক্ষের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

তবে এর আগে ঘরে উচ্চ শব্দে সাউন্ড বক্স চালু করেন। বাড়ির লোকজন টের পেয়ে রশি কেটে তার নিথর মরদেহ নামিয়ে আনেন।

নন্দীগ্রাম থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, কলেজছাত্রের মরদেহ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে তার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ব্যাপারে নন্দীগ্রাম থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।


আরও খবর



অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠাচ্ছে জার্মানি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১ | ৫০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অবৈধভাবে বসবাসরত ৮১৬ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাচ্ছে জার্মান সরকার। দেশটিতে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ জার্মান সরকারের চাপের মুখে আটককৃত ৮১৬ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাতে হচ্ছে। তবে জার্মানি থেকে যাদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে তাদের বিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে যাচাই করা হয়েছে।

আগামী ২৬ অক্টোবর প্রায় অর্ধশত অভিবাসনে ব্যর্থ বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে৷ ফেরত পাঠানোর দিনে যেকোনো ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় সঙ্গে থাকবে কমপক্ষে জার্মানির ১৫০ জনের বিশেষ একটি বাহিনী।

ইতোমধ্যে বার্লিনের বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে ভিসাও নিয়েছেন বলে জানান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। তিনি আরও বলেন, দীর্ঘদিন ধরে দেশটির বিভিন্ন প্রদেশে আটককৃত বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠাতে এই কঠিন সিদ্ধান্ত।


আরও খবর



নুরুল হক ও রেজা কিবরিয়ার বিরুদ্ধে মামলার আবেদন

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ১৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
গত মঙ্গলবার ঢাকার পল্টনের প্রিতম জামান টাওয়ারে রেজা কিবরিয়া জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গে জোট করে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের ঘোষণা দিয়েছেন, যা দেশের প্রচলিত আইন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থী

নতুন রাজনৈতিক দল গণ অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক রেজা কিবরিয়া ও সদস্যসচিব নুরুল হকসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন করা হয়েছে। বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মো. আল মামুন মামলার এ আবেদন করেন। যা সাধারণ ডায়েরি (জিডি) হিসেবে গ্রহণ করেছে পুলিশ।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর শাহবাগ থানায় রেজা কিবরিয়া ও নুরুল হক ছাড়াও যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলার ওই আবেদন করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক হামলার নির্দেশ ও এতে মদদদানের অভিযোগসহ রাষ্ট্রদ্রোমূলক অপরাধের অভিযোগ করা হয়েছে।

আবেদনে বলা হয়, ১৫ অক্টোবর দুর্গাপূজার বিজয়া দশমীর দিনে গণ অধিকার পরিষদ নামের জঙ্গি ও সাম্প্রদায়িক সংগঠনের স্থানীয় কতিপয় নেতা বিএনপি-জামায়াতের প্রত্যক্ষ ইন্ধনে এবং নুরুল হক ও রেজা কিবরিয়ার নির্দেশে চট্টগ্রামের জে এম সেন হলসহ বিভিন্ন পূজামণ্ডপে হামলা চালানো হয়। এ ঘটনার পরপরই যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমান ফেসবুক লাইভে এসে ওই ঘটনা অস্বীকার করে দেওয়া এক বক্তব্যের মাধ্যমে দেশে ধর্মীয় বিভেদ ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে বৈধ সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন।

আবেদনে আরও বলা হয়, গত মঙ্গলবার ঢাকার পল্টনের প্রিতম জামান টাওয়ারে রেজা কিবরিয়া জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গে জোট করে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের ঘোষণা দিয়েছেন, যা দেশের প্রচলিত আইন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থী। এ ছাড়া নুরুল হক চট্টগ্রামের জে এম সেন হল পূজামণ্ডপে হামলাকারীদের নিরপরাধ বলে বক্তব্য দিয়েছেন, যা সাম্প্রদায়িক হামলাকে উসকে দেওয়ার শামিল। হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা রেজা কিবরিয়া, নুরুল হক ও তারেক রহমানদের প্রত্যক্ষ নির্দেশে হয়েছে। এসবের মাধ্যমে তারা রাষ্ট্রদ্রোমূলক অপরাধ করেছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা আবশ্যক।

বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদূত হাওলাদার বলেন, এটি একটি রাজনৈতিক বিষয়। এটি যাচাই-বাছাই করে দেখা হবে।তারপর মামলা নেওয়ার মতো হলে আমরা মামলা নেব।

নিউজ ট্যাগ: ড. রেজা কিবরিয়া

আরও খবর



২৪ ঘণ্টায় আরও সাতজনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩০৬

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭ হাজার ৮৪১ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া দেশে নতুন করে ৩০৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১৫ লাখ ৬৮ হাজার ৫৬৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে ২৮৮ জন। এ নিয়ে দেশে মোট ১৫ লাখ ৩২ হাজার ৪৬৮ জন করোনা থেকে সুস্থ হলো।

আজ বুধবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৩৩টি ল্যাবে ১৯ হাজার ৯৫১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নমুনা সংগ্রহ করা হয় ১৯ হাজার ৯১৮টি। করোনা শনাক্তের হার এক দশমিক ৫৩ শতাংশ। এই পর্যন্ত গড় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ২৬ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন সাতজন মৃত্যুবরণকারীর মধ্যে পুরুষ তিনজন ও নারী চারজন। এ পর্যন্ত পুরুষ মৃত্যুবরণ করেছেন ১৭ হাজার ৮২৭ জন ও নারী ১০ হাজার ১৪ জন। মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে দুজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে একজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে একজন ও ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে দুজন।

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে তিনজন, চট্টগ্রাম বিভাগে একজন, রাজশাহী বিভাগে একজন, খুলনা বিভাগে দুজন। এ ছাড়া সরকারি হাসপাতালে ছয়জন ও বেসরকারি হাসপাতালে একজন মৃত্যুবরণ করেছে।

দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। ওই বছরের ১৮ জুন তিন হাজার ৮০৩ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে লাখ ছাড়িয়েছিল করোনার রোগী। সেদিন পর্যন্ত মোট শনাক্ত ছিল এক লাখ দুই হাজার ২৯২ জন। এ ছাড়া দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে গত বছরের ১৮ মার্চ।


আরও খবর

আরও ১৭৩ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

করোনায় মৃত্যু কমেছে, শনাক্ত বেড়েছে

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




রেইনট্রি হোটেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ ছাত্রী ধর্ষণ মামলার রায় আজ

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর বনানীর রেইনট্রি হোটেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী ধর্ষণ মামলার রায় আজ বুধবার (২৭ অক্টোবর)। মামলায় অভিযুক্ত আপন জুয়েলার্সের কর্ণধার দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদসহ ৫ জনের বিষয়ে রায় দিবেন আদালত। ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম কামরুন্নাহার এ রায় ঘোষণা করবেন।

এর আগে, ১২ অক্টোবর রায় ঘোষণার দিন ধার্য ছিল। কিন্তু বিচারক অসুস্থ থাকায় পরবর্তী রায় ঘোষণার জন্য ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর ভারপ্রাপ্ত বিচারক ২৭ অক্টোবর (বুধবার) দিন ধার্য করেন।

গত ৩ অক্টোবর রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য এ দিন ধার্য করেন আদালত। একইসঙ্গে জামিনে থাকা সাফাতসহ পাঁচ আসামির জামিন বাতিল করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

২০১৭ সালের ৭ জুন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের (ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার) পরিদর্শক ইসমত আরা এমি পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করেন। ওই বছরের ১৯ জুন একই ট্রাইব্যুনাল আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন।

অভিযোগপত্রে, আসামি সাফাত আহমেদ ও নাঈম আশরাফ ওরফে এইচ এম হালিমের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (১) ধারায় ধর্ষণের অভিযোগ করা হয়েছে। এছাড়া মামলার অন্য ৩ আসামি সাফাত আহমেদের বন্ধু সাদমান সাকিফ, দেহরক্ষী রহমত আলী ও গাড়িচালক বিল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে ওই আইনের ৩০ ধারায় ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ২৮ মার্চ রাত ৯টা থেকে পরদিন সকাল ১০টা পর্যন্ত অভিযুক্তরা মামলার বাদী, তার বান্ধবী ও বন্ধুকে আটকে রাখে। অস্ত্র দেখিয়ে ভয় প্রদর্শন ও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। বাদী ও তার বান্ধবীকে জোর করে একটি কক্ষে নিয়ে যায় আসামিরা। বাদীকে সাফাত আহমেদ ও তার বান্ধবীকে নাঈম আশরাফ একাধিকবার ধর্ষণ করে।

অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়, সাদমান সাকিফকে দুই বছর ধরে চেনেন মামলার বাদী। তার মাধ্যমেই ঘটনার ১০ থেকে ১৫ দিন আগে সাফাতের সঙ্গে দুই শিক্ষার্থীর পরিচয় হয়। ওই দুই শিক্ষার্থী সাফাতের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে যান। সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী তাদের বনানীর ২৭ নম্বর রোডে রেইনট্রি হোটেলে নিয়ে যান। হোটেলে যাওয়ার আগে বাদী ও তার বান্ধবী জানতেন না যে, সেখানে পার্টি হবে। তাদের বলা হয়েছিল, এটা একটা বড় অনুষ্ঠান, অনেক লোকজন থাকবে। অনুষ্ঠান হবে হোটেলের ছাদে।

সেখানে যাওয়ার পর তারা কাউকে দেখেননি। সেখানে আরও দুই তরুণী ছিলেন। বাদী ও তার বান্ধবী সাফাত ও নাঈমকে ওই দুই তরুণীকে ছাদ থেকে নিচে নিয়ে যেতে দেখেন। এ সময় বাদীর বন্ধু ও আরেক বান্ধবী ছাদে আসেন। পরিবেশ ভালো না লাগায় তারা চলে যেতে চান। এ সময় অভিযুক্তরা তাদের গাড়ির চাবি শাহরিয়ারের কাছ থেকে নিয়ে নেয় এবং তাকে মারধর করেন। ধর্ষণের সময় গাড়িচালককে ভিডিও করতে বলেন সাফাত।



আরও খবর



শিশুদের সংস্কৃতিচর্চা সম্প্রীতির সোপান : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে শিশুদের সংস্কৃতিচর্চাকে অপরিহার্য বলে বর্ণনা করেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। সেইসাথে মানুষের মাঝে অসাম্প্রদায়িক চেতনা বিস্তারে সাংবাদিকদের এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় শিশু সংগঠক ও সাংবাদিক রফিকুল হক (দাদু ভাই) স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

শিশু প্রতিভা বিকাশের লক্ষ্যে তথ্যমন্ত্রী বাংলাদেশ টেলিভিশনে শিশু-কিশোরদের নতুন কুঁড়ি অনুষ্ঠানটি আবার চালু করতে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান এবং সংবাদপত্রগুলোতে সাপ্তাহিকভাবে শিশুতোষ পাতা প্রকাশের অনুরোধ করেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আমাদের দেশে মাঝেমধ্যে যে জঙ্গিবাদ-মৌলবাদের আস্ফালন এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অপচেষ্টা হয়, এসব আরও কমে যাবে যদি আমরা শিশুদেরকে সংস্কৃতিমনা হিসেবে গড়তে পারি, তাদের ভেতরে আমাদের অসাম্প্রদায়িক চেতনা সঞ্চার করতে পারি।


আরও খবর