Logo
শিরোনাম

‘রাজ কুন্দ্রাই পর্ন ইন্ডাস্ট্রিতে এনেছিল’, বিস্ফোরক পুনম পাণ্ডে ও শার্লিন চোপড়া

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৯৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জনপ্রিয় বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা। অ্যাডাল্ট কনটেন্ট তৈরির অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করেছে মুম্বাই পুলিশ।

এদিকে রাজের গ্রেপ্তারের পর থেকে নানা চলঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। শিল্পার স্বামীর হাত ধরেই নাকি অ্যাডাল্ট দুনিয়ায় পা রেখেছেন বলিউড অভিনেত্রী পুনম পাণ্ডে ও শার্লিন চোপড়া। মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে এমনটায় জানানো হয়েছে।

খোলামেলা সাহসী দৃশ্যের জন্য আলোচিত শার্লিন ও পুনম। প্রায় সামাজিক যোগামধ্যমে ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেন তারা। সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, অনেক আগেই রাজ কুন্দ্রার এই কাজের তথ্য মহারাষ্ট্রের সাইবার সেলকে দিয়েছিলেন দুই অভিনেত্রী। বহু আগে রাজের প্রজেক্টে কাজ করেছিলেন পুনম-শার্লিন।

জানা যায়, প্রতিটি কাজের জন্য ৩০ লাখ রুপি পেতেন শার্লিন। এমন ১৫ থেকে ২০টি প্রজেক্টে কাজ করেছেন তিনি। রাজ কুন্দ্রা ছাড়াও আরো কয়েকজন এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বলে তার দাবি।

এদিকে মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, চলতি বছরের শুরুর দিকে রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া যায়। এরপর মামলা দায়ের হয়। সোমবার (১৯ জুলাই) তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়। এদিন রাতেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি ভারতে তৈরি অ্যাপের মাধ্যমে পর্নো কনটেন্ট বিদেশের একটি ওয়েবসাইটে আপলোড করতেন। এই কাজে উঠতি অভিনেত্রী-মডেলদের জড়ানো হয়েছে। প্রতি প্রজেক্টের জন্য আড়াই লাখ রুপি পর্যন্ত দেওয়া হতো।

২০০৯ সালে রাজ কুন্দ্রাকে বিয়ে করেন শিল্পা। ২০১২ সালে তাদের ছেলে ভিয়ানের জন্ম হয়। গত বছর রাজ ও শিল্পার ঘরে আসে কন্যা সামিশা। গ্রেপ্তারের পর শিল্পা ও রাজের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বক্তব্য দেওয়া হয়নি।



আরও খবর



দি মারিয়ার গোলে এগিয়ে গেল আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কোপা আমেরিকার ফাইনালে শুরুতেই এগিয়ে গেলো আর্জেন্টিনা। ম্যাচের ২১ মিনিটের মাথায় দুর্দান্ত এক চিপ শটে ব্রাজিল গোলরক্ষক এডারসনকে পরাস্ত করে নিজ দলকে এগিয়ে দিয়েছেন অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া।

১৪ বছর পর বড় কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে গোলের দেখা পেয়েছে আর্জেন্টিনা। কোপা আমেরিকার ফাইনালে ব্রাজিলের বিপক্ষে ডি মারিয়ার গোলে এগিয়ে গিয়েছে আলবিসেলেস্তারা। আজ রোববার সকালে ৬টায় রিও দে জেনেইরোর মারাকানা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হয়।

শুরু সমান তালে খেলতে থাকে উভয়ই। ১৩তম মিনিটের মাথায় দারুণ এক আক্রমণ সাজায় ব্রাজিল। তবে আর্জেন্টিনার ডিফেন্ডারদের বাধা শট নিতে ব্যর্থ হন নেইমার-রিচার্লিসনরা। ২১তম মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে নেন ডি মারিয়া। তার দুর্দান্ত গোলে ১৫ বছর পর বড় কোনো আসরের ফাইনালে গোলের দেখা পেয়েছে আর্জেন্টিনা।

ফাইনাল ম্যাচে আর্জেন্টিনা সবশেষ গোলের দেখা পেয়েছিলো কনফেডারেশন্স কাপে ব্রাজিলের বিপক্ষে। তাও আবার ১৬ বছর আগে। সেবার ব্রাজিল তাদের ৪-১ গোলের ব্যবধানে উড়িয়ে দেয়। এরপর কোপার দুই আসর ও বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠলেও গোলের দেখা পায়নি মেসি-আগুয়েরোরা।


আরও খবর



মহিলা ডাবলসের প্রথম রাউন্ডেই বাদ পড়ে গেলেন সানিয়া মির্জা

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ২৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টোকিও অলিম্পিকে ম্যাটে নেমেই অনন্য এক কীর্তি গড়েছেস ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। ভারতের প্রথম মহিলা অ্যাথলেট হিসেবে চারটি অলিম্পিকে নামার রেকর্ড গড়লেন তিনি।

আর এই কীর্তি গড়ার দিনেও আলো ছড়াতে পারলেন না অলিম্পিকের মঞ্চে। মহিলা ডাবলসের প্রথম রাউন্ডে বাদ পড়ে গেলেন তিনি। আশা জাগিয়েও সফল হতে পারল না সানিয়া মির্জা ও অঙ্কিতা রায়না জুটি।

মহিলা টেনিসের কথা উঠলেই আলোচনায় থাকেন ভারতীয় ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের স্ত্রী ভারতীয় সেনসেশন সানিয়া মির্জা। ক্যারিয়ারে ভুরিভুরি অর্জন থাকলেও অলিম্পিক মঞ্চে নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারলেন না তিনি। রবিবার আধিপত্য বিস্তার করে শুরুটা হলেও পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাকে।

ইউক্রেনের যমজ বোনের জুটি লাইয়ুড মাইলা কিচেনক ও নাদিয়া কিচেনকের কাছে হেরেছেন সানিয়া-অঙ্কিতা। নাটকীয়তায় ভরা এই ম্যাচ ইউক্রেনের এই যমজ বোন ০-৬, ৭-৬ (০), ১০-৮ জিতে নেন তারা।

লাস্যময়ী টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা তার ক্যারিয়ারে গ্র্যান্ড স্লাম জিতেছেন ছয়বার। এটি ছিল তার চতুর্থ অলিম্পিক। মহিলা ডাবলসে তিনি এবার বেছে নিয়েছিলেন তরুণ খেলোয়াড় অঙ্কিতা রায়নাকে। সানিয়াকে নিয়ে টেনিসে পদক জেতার স্বপ্ন দেখছিল ভারত, সেটা পূরণ হলো না। অবশেষে মহিলা ডাবলসের প্রথম রাউন্ডে বাদ পড়ে গেলেন তিনি। 


আরও খবর



হুটহাট গুলি চলে যুক্তরাষ্ট্রে, ৩ দিনেই নিহত ১৫০

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রে সশস্ত্র সংঘাত বেড়ে গেছে। দেশটির সবচেয়ে বড় উৎসব স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের ঘনঘটার মাঝেই কমপক্ষে ১৫০ জন নিহত হয়েছেন গোলাগুলির ঘটনায়। গত ৭২ ঘণ্টায় রক্তাক্ত এই সহিংসতা হয়েছে। স্থানীয় সময় শুক্রবার থেকে রবিবার পর্যন্ত ৪০০ গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।  গান ভায়োলেন্স আর্কাইভের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যম সিএনএন।

গান ভায়োলেন্স দাবি করেছে, তালিকা এখনও সম্পর্ণ নয়। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। ভুক্তভোগী বা তাদের পরিবারকে সংগঠিত সহিংসতার তথ্য দিতে অনুরোধ জানিয়েছে একাধিক রাজ্যের পুলিশ। স্বাধীনতা দিবসের উৎসবের মাঝে যুক্তরাষ্ট্রে রক্তাক্ত এই সংঘাতের ঘটনা বিরল।

সিএনএনের প্রতিবেদন বলছে, শুধু নিউইয়র্কেই শুক্রবার থেকে রবিবার পর্যন্ত ২১ জায়গায় গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে ২৬ জন ভূক্তভোগী হয়েছেন। স্বাধীনতা দিবস ৪ জুলাই ১২ জায়গায় গোলাগুলি হয়েছে। এতে ১৩ জন ভুক্তভোগী হয়েছেন।

অবশ্য আগের বছর ২৫টি ঘটনায় গুলি করা হয় ৩০ জনকে। এ কথা জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ বিভাগ। এর মধ্যে ৪ জুলাই ১২টি ঘটনায় গোলাগুলির শিকার হয়েছে ১৩ জন। গত বছর একই দিনে ৮টি ঘটনায় ভুক্তভোগী হয় ৮জন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এখানে গোলাগুলি বেড়েছে বলে জানানো হয়।

পুলিশ বলছে, গত বছরের এই সময়ের চেয়ে ৪০ ভাগ সহিংসতা বেড়েছে। আর ৭৬৭টি ঘটনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৮৫ জন।

শিকাগো পুলিশ সুপার ডেভিড ব্রাউনের মতে, বছরের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং সপ্তাহান্ত ছিল এবারের স্বাধীনতা দিবস। ৮৩ জন মানুষকে গুলি করা হয় এ সময়, যাদের মধ্যে নিহত হয় ১৪ জন। এর মধ্যে ৫ ও ৬ বয়সী মেয়ে শিশুও রয়েছে। আছে সেনা সদস্যও।

এ ছাড়া আটলান্টা, ভার্জিনিয়া, ডালাসসহ একাধিক এলাকায় সংগঠিত সহিংসতার তথ্য প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যমগুলো।



আরও খবর



বেনাপোলে দুই মাসে ফিরেছে ৫৬৬৬ বাংলাদেশি, পজিটিভ ১২৩

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বেনাপোল প্রতিনিধি :

বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে দুই মাসে (গত ২৬ এপ্রিল থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত) ভারতে আটকে পড়া পাঁচ হাজার ৬৬৬ জন বাংলাদেশি যাত্রী ফেরত এসেছেন। এদের মধ্যে ১২৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে।

ভারত থেকে করোনা সংক্রমণ (পজিটিভ) নিয়ে এসেছেন ১৩ জন বাংলাদেশি যাত্রী। একই সময়ে ভারত থেকে এসেছে ৩৪ জনের মৃতদেহ। চিকিৎসা নিতে গিয়ে এসব বাংলাদেশিরা ভারতের বিভিন্ন হাসপাতালে মারা যান।

সর্বশেষ আজ শনিবার (বেলা ১২টা পর্যন্ত) দেশে ফিরেছেন ৫৭ জন যাত্রী। কোয়ারেন্টিনে অবস্থানকালীন অন্যান্য মারা গেছেন চারজন।

কলকাতার বাংলাদেশি উপহাইকমিশন থেকে অনাপত্তিপত্র (এনওসি) এবং করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ সনদ নিয়ে ভারতে আটকে পড়া যাত্রীরা গত দুই মাস আগ থেকে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন দিয়ে দেশে ফেরত আসা শুরু করেন। বেনাপোল, ঝিকরগাছা ও যশোরের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬৮১ জন। যশোরের বাইরে অন্যান্য জেলায় আছেন ১১ জন। এদের মধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন শেষে বাসায় ফিরে গেছেন চার হাজার ৪১৩ জন। করোনা পজিটিভ ২০৭ জনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালের ডেডিকেটেড ইউনিটে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। যশোরের বাইরে অন্য হাসপাতালের করোনা জোনে পাঠানো হয়েছে ২৭৭ জনকে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, বাংলাদেশ সরকার ভারতের করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট সংক্রমণরোধে ২৬ এপ্রিল থেকে ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এতে করে ভারতে আটকা পড়ে কয়েক হাজার বাংলাদেশি পাসপোর্টযাত্রী। সেসব আটকা পড়া পাসপোর্ট যাত্রীদের নিজ দেশে ফিরতে হলে কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশি উপহাইকমিশন থেকে এনওসি নিয়ে ও ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আরটিপিসিআর ল্যাবের করোনা টেস্টের সনদ নিয়ে দেশে ফেরার নির্দেশনা দেন বাংলাদেশ সরকার। যেসব যাত্রী করোনায় আক্রান্ত বা উপসর্গ নিয়ে দেশে ফিরছেন উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের তত্বাবধানে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের ডেডিকেটেড ইউনিটে পাঠানো হচ্ছে।

যশোরের জেলা প্রশাসক মোঃ তমিজুল ইসলাম খান বলেন, ভারত থেকে আসা ৫ হাজার ৬৬৬ জনের মধ্যে ১২৩ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। তাদের নির্ধারিত আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। শনিবার পর্যন্ত ৪ হাজার ৪৩১ জনকে নিজ নিজ বাড়িতে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



চেক ক্লিয়ারিংয়ে নতুন সময়সূচি

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
পাঁচ লাখ টাকার বেশি অংকের চেক ক্লিয়ারিংয়ের জন্য বেলা ১২ টার মধ্যে পাঠাতে হবে। এসব চেক বিকাল ৩ টার মধ্যে নিষ্পত্তি হবে। আর যেকোনো রেগুলার চেক বেলা সাড়ে ১২টার মধ্যে ক্লিয়ারিং হাউজে পাঠাতে হবে

আগামী ১৫ জুলাই থেকে কঠোর লকডাউন শিথিল করায় আন্তঃব্যাংক চেক নিষ্পত্তির নতুন সময়সূচি দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বুধবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেমস ডিপার্টমেন্ট থেকে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। নির্দেশনাটি সব ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশনা অনুযায়ী, করোনা পরিস্থিতিতে নিরবচ্ছিন্ন ব্যাংকিং ও পরিশোধ সেবা কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে জরুরি আন্তঃব্যাংক লেনদেনের সুবিধার্থে বিধিনিষেধ চলাকালীন সময়ে বাংলাদেশ ব্যাংকে স্থাপিত রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট বা আরটিজিএস, স্বয়ংক্রিয় চেক নিকাশ ঘর (বাংলাদেশ অটোমেটেড ক্লিয়ারিং হাউজ-বিএসিএইচ বা ব্যাচ) এবং বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ডস্ ট্রান্সফার নেটওয়ার্ক (বিইএফটিএন)- এই তিন প্ল্যাটফর্মের কার্যক্রমও সীমিত পরিসরে চালু থাকবে।

এসব সেবার মাধ্যমে এক শাখা থেকে অন্য শাখায় বা অন্য ব্যাংকের গ্রাহককে অর্থ পরিশোধ ও স্বয়ংক্রিয় চেক নিষ্পত্তি করে থাকে।

বাংলাদেশ অটোমেটেড ক্লিয়ারিং হাউজ-বিএসিএইচর মাধ্যমে হাই ভ্যালু চেক (৫ লাখ টাকার বেশি) এবং রেগুলার ভ্যালু চেকের (৫ লাখ টাকার কম) নিকাশ ব্যবস্থার নতুন সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে। নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, ১৫, ১৮ ও ১৯ জুলাই এই তিন দিন চেক ক্লিয়ারিংয়ের সময়।

পাঁচ লাখ টাকার বেশি অংকের চেক ক্লিয়ারিংয়ের জন্য বেলা ১২ টার মধ্যে পাঠাতে হবে। এসব চেক বিকাল ৩ টার মধ্যে নিষ্পত্তি হবে। আর যেকোনো রেগুলার চেক বেলা সাড়ে ১২টার মধ্যে ক্লিয়ারিং হাউজে পাঠাতে হবে। এসব চেক বিকাল ৫ টার মধ্যে নিষ্পত্তি হবে।

রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট-আরটিজিএস এর লেনদেন হবে সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। তবে কাস্টমস শুল্ক সংক্রান্ত করাদি, ফি, চার্জ প্রভৃতি পরিশোধ ও আন্তঃব্যাংক লেনদেন আরটিজিএস-এর মাধ্যমে বিকাল ৫টা পর্যন্ত পরিশোধ করা যাবে।

১৭ ও ২০ জুলাই চেক ক্লিয়ারিংয়ের সময়:

পাঁচ লাখ টাকার বেশি অংকের চেক ক্লিয়ারিংয়ের জন্য সকাল সাড়ে ১১টার মধ্যে পাঠাতে হবে। এসব চেক দুপুর ১ টার মধ্যে নিষ্পত্তি হবে। আর যেকোনো রেগুলার চেক বেলা ১২টার মধ্যে ক্লিয়ারিং হাউজে পাঠাতে হবে। এসব চেক বেলা আড়াইটার মধ্যে নিষ্পত্তি হবে।

রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট-আরটিজিএস এর লেনদেন হবে সকাল ১০টা থেকে বেলা ২ টা পর্যন্ত। তবে কাস্টমস শুল্ক সংক্রান্ত করাদি, ফি, চার্জ প্রভৃতি পরিশোধ ও আন্তঃব্যাংক লেনদেন আরটিজিএস-এর মাধ্যমে বিকাল ৩টা পর্যন্ত পরিশোধ করা যাবে।

বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ডস্ ট্রান্সফার নেটওয়ার্ক (বিইএফটিএন) সেবা বিদ্যমান নিয়মে চলবে বলে নির্দেশনায় বলা হয়েছে।

ঈদের পর লকডাউন চলাকালীন চেক ক্লিয়ারিংয়ের সময় (২৫ জুলাইয়ের পর থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত)। পাঁচ লাখ টাকার বেশি অংকের চেক ক্লিয়ারিংয়ের জন্য সকাল সাড়ে ১১টার মধ্যে পাঠাতে হবে। এসব চেক দুপুর ১টার মধ্যে নিষ্পত্তি হবে। আর যেকোনো রেগুলার চেক বেলা ১২টার মধ্যে ক্লিয়ারিং হাউজে পাঠাতে হবে। এসব চেক বেলা আড়াইটার মধ্যে নিষ্পত্তি হবে।

রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট-আরটিজিএস এর লেনদেন হবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত। তবে কাস্টমস শুল্ক সংক্রান্ত করাদি, ফি, চার্জ প্রভৃতি পরিশোধ ও আন্তঃব্যাংক লেনদেন আরটিজিএস-এর মাধ্যমে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত পরিশোধ করা যাবে।


আরও খবর

ব্যাংকে লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১