Logo
শিরোনাম

রাজশাহীতে ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রীসহ নিহত ৩

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহীতে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক দম্পতিসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। আজ বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়কের পবা উপজেলার মুরারিপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার ঘাসিয়ালপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুস সাত্তার (৫৫), তাঁর স্ত্রী ফেরদৌসি বেগম (৪৭) এবং গোমস্তাপুর উপজেলার বাগডাস গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক আনসার আলী (৪৫)।

দামকুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব হোসেন জানান, আব্দুস সাত্তার তাঁর অসুস্থ স্ত্রীকে নিয়ে গোমস্তাপুর থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। পথে রাজশাহীর গোদাগাড়ী থেকে ওই অটোরিকশায় রায়হান শুভ নামের আরেক যুবক উঠেন। সিএনজি অটোরিকশাটি পবা উপজেলার মুরারিপুর এলাকায় আসার পর চাঁপাইনাবগঞ্জগামী একটি খালি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ফেরদৌসি বেগম ও সিএনজির চালক আনসার আলী নিহত হন। আহত হন দুজন। স্থানীয়রা আহত আব্দুস সাত্তার ও রায়হান শুভকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুস সাত্তার মারা যান। আহত শুভর অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

ওসি আরও জানান, দুর্ঘটনার পর ট্রাকের চালক-হেলপার পালিয়েছেন। ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া সিএনজিচালিত অটোরিকশাটিও উদ্ধার করা হয়েছে।


আরও খবর

নওগাঁয় পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




লাল-সবুজে উদ্ভাসিত অস্ট্রেলিয়ার দুই ঐতিহাসিক স্থাপনা

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দিনের আলো যখন হারিয়ে যাচ্ছিল ঠিক তখনই মিটমিট করে জ্বলে ওঠে ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে পাওয়া লাল-সবুজ পতাকা। তবে বাংলাদেশে নয়, লাল-সবুজে আলোকিত হলো অস্ট্রেলিয়ার দুটি ঐতিহাসিক স্থাপনা স্টোরি ব্রিজ ও ভিক্টোরিয়া ব্রিজ। কুইন্সল্যান্ডে শহর ব্রিসবেনের এ দুটি উল্লেখযোগ্য স্থাপনা শহরের একেবারে প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত। অস্ট্রেলিয়ার কোনো বিশেষ স্থাপনা বাংলাদেশের পতাকার রঙে আলোকিত করার ঘটনা এটাই প্রথম।

আর এ আয়োজনটি সম্ভব হয়েছে ড. জিশু দাস গুপ্ত ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন ব্রিসবেন ইনকের (ব্যাব) উদ্যোগে এবং অস্ট্রেলিয়ান লোকাল গভর্নমেন্টের সহযোগিতায়।

স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় পূর্ণভাবে আলো জ্বলে ওঠে এই দুই ব্রিজে। তখন ব্রিসবেন নদীর পানিতে উজ্জ্বলভাবে প্রতিফলিত হয় বাংলাদেশের পতাকার রঙ।

এদিন ব্রিসবেনে বসবাসকারী বাংলাদেশিরা মিলিত হন স্টোরি ব্রিজের নিচে। সারাদিন চলতে থাকা বৃষ্টি উপেক্ষা করে সবাই একসঙ্গে গলা মিলিয়ে গেয়ে ওঠেন- আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি এ যেন অন্য এক অনুভূতি। বিদেশের মাটিতে নিজের দেশের পতাকা দেখতে পারার আনন্দ উপচে পড়ে সবার চোখেমুখে।

ব্যাবের প্রেসিডেন্ট মুনির রহমান বলেন, একজন গর্বিত বাংলাদেশি হিসেবে এই অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। আমাদের অনেক দিনের প্রচেষ্টার ফলে এ আয়োজন করা সম্ভব হয়েছে। এটি আমাদের সূচনা মাত্র। আমরা আগামী দিনে ব্রিসবেন তথা গোটা অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশকে তুলে ধরব আরও উঁচু থেকে উঁচুতে, যা হবে আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য দেশের প্রতি দায়িত্ব এবং ভালোবাসার দৃষ্টান্ত।

২০১৮ সাল থেকে এ আয়োজনের চেষ্টা করা হলেও এবারই সম্ভব হলো।

এ আয়োজনের স্বপ্নদ্রষ্টা ড. জিশু দাস গুপ্ত বলেন, ২০১৮ সাল থেকে আমার ও কমিউনিটির সব সদস্যের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ চেষ্টার ফলেই আমাদের এ অর্জন। আমরা চাই এ অর্জন ছড়িয়ে পড়ুক পৃথিবীর আনাচে-কানাচে। জ্বলে উঠুক বাংলাদেশের নাম।

নিউজ ট্যাগ: অস্ট্রেলিয়া

আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্যারেড স্কয়ারে ‘মুজিব চিরন্তন’ উদযাপন শুরু

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে জাতীয় পর্যায়ে দশ দিনব্যাপী অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে, আগামী ২৬ মার্চ পর্যন্ত চলবে।

বুধবার বিকাল সাড়ে ৪টায় জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে শিশুদের কণ্ঠে জাতীয় সংগীতের পরিবেশনার মধ্য দিয়ে এ অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে।অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করছেন জনপ্রিয় অভিনেতা সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান ‍নূর।

দশ দিনব্যাপী এই আয়োজনের মূল থিম মুজিব চিরন্তন। সূচনার দিনের (বুধবার) আয়োজনের থিম ভেঙেছে দুয়ার এসেছ জ্যোতির্ময়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত রয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।সভাপতিত্ব করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাঙালির ইতিহাসের অনন্য এই উদযাপন মুহূর্তে সঙ্গী হয়েছেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইবরাহিম মু. সালেহ এবং ফার্স্ট লেডি ফাজনা আহমেদ। অনুষ্ঠানস্থলে তাদের অভ্যর্থনা জানান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম অনুষ্ঠানে উপস্থিত রয়েছেন। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ রেহানা, রাষ্ট্রপতির স্ত্রী রাশিদা খানম এবং স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী রয়েছেন।

আর চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ভিডিও বার্তা দেবেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত আছেন মন্ত্রিপরিষদের সদস্য ও আওয়ামী লীগের নেতারা। এছাড়াও জাতীয় বরেণ্য ব্যক্তিরাও অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন।

উল্লেখ্য, দশ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে ১৭, ১৯, ২২, ২৪ ও ২৬ মার্চ- এই পাঁচ দিন বিদেশি অতিথিরা উপস্থিত থাকবেন। এই পাঁচ দিনের অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করে সীমিত আকারে ৫০০ জন আমন্ত্রিত অতিথি উপস্থিত থাকবেন। যাদের মধ্যে রয়েছেন বিভিন্ন দেশের প্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থাপ্রধান ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা। এই পাঁচ দিন দর্শকরা উপস্থিত থাকতে পারবেন। অনুষ্ঠান প্রতিদিন বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটে শুরু হয়ে রাত ৮টায় শেষ হবে। প্রতিদিনের অনুষ্ঠানে সন্ধ্যা ৬টা থেকে ৬টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ৩০ মিনিটের বিরতি থাকবে। প্রতিদিন থাকবে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। যোগদানকারীদের অনুষ্ঠানের আগে কোভিড সনদ সংগ্রহ করতে হবে। কোভিড টেস্টের কার্যকারিতা থাকবে ৪৮ ঘণ্টা। টেস্টের জন্য ৫টি সেন্টারও ঠিক করে দেওয়া হয়েছে। তবে যে পাঁচ দিন দর্শকরা থাকতে পারবেন না, সেই দিনগুলোর অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হবে।

এছাড়া এই পাঁচ দিনের অনুষ্ঠানসহ অন্য পাঁচ দিনের অনুষ্ঠানমালায় বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান, সরকারপ্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধান এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের ধারণকৃত বক্তব্য প্রদর্শন করা হবে। প্রত্যেক দিনের অনুষ্ঠান টেলিভিশন চ্যানেল, অনলাইন মিডিয়া এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

অনুষ্ঠানমালার দ্বিতীয় দিন ১৮ মার্চ: আয়োজনের থিম মহাকালের তর্জনী। সে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেবেন কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেন।

১৯ মার্চ: অনুষ্ঠান যতকাল রবে পদ্মা যমুনা। এতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে উপস্থিত থাকবেন।

২০ মার্চ: তারুণ্যের আলোকশিখা। এই অনুষ্ঠানে ওআইসির সেক্রেটারি জেনারেল ড. ইউসেফ আল ওথাইমিন শুভেচ্ছা বক্তব্য দেবেন।

২১ মার্চ: আয়োজন ধ্বংসস্তূপে জীবনের গান। এতে দেশীয় একাডেমিশিয়ানরা বক্তব্য দেবেন।

২২ মার্চ: আয়োজন বাংলার মাটি আমার মাটি। এদিন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারী উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া শুভেচ্ছা বার্তা দেবেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইউশিহিদে সুগা।

২৩ মার্চ: নারীমুক্তি, সাম্য ও স্বাধীনতা। এদিন ইউনেসকোর ডিজি উপস্থিত থাকবেন।

২৪ মার্চ: শান্তি-মুক্তি ও মানবতার অগ্রদূত। এদিন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং উপস্থিত থাকবেন। শুভেচ্ছা বার্তা দেবেন ক্যাথলিক খ্রিষ্টানদের সর্বোচ্চ ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস।

২৫ মার্চ: গণহত্যার কালরাত্রি ও আলোকের অভিযাত্রা। এদিন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী চুং স্যু-কুয়েন এবং তাকাশি হাওয়াকাওয়ার পুত্র ওসামু হাওয়াকাওয়া শুভেচ্ছা বার্তা দেবেন।

২৬ মার্চ: আয়োজন স্বাধীনতার ৫০ বছর ও অগ্রগতির সুবর্ণরেখা। এদিন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত থাকবেন। পাশাপাশি রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকবেন।


আরও খবর



বিমান বহরে আকাশতরী ও শ্বেতবলাকা উড়োজাহাজের উদ্বোধন

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ১২২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে নতুন যুক্ত হওয়া দ্বিতীয় ও তৃতীয় ড্যাশ ৮-৪০০ আকাশতরী ও শ্বেতবলাকা উড়োজাহাজের উদ্বোধন করেছেন।

রোববার (১৪ মার্চ) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি।

বাংলাদেশ ও কানাডা সরকারের মধ্যে জিটুজি ভিত্তিতে উড়োজাহাজ দুটি কেনা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উড়োজাহাজ দুটির নাম রেখেছেন আকাশতরী ও শ্বেতবলাকা।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স অত্যাধুনিক ড্যাশ ৮-৪০০ দুটি উড়োজাহাজ বহরে যুক্তের মাধ্যমে অভ্যন্তরীণ ও স্বল্প দূরত্বের আন্তর্জাতিক রুটগুলোতে ফ্লাইট ফ্রিকোয়েন্সি বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে সরকার।

জানা গেছে, কানাডার নামী এয়ারক্রাফট নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডি হ্যাভিল্যান্ড নির্মিত অত্যাধুনিক নতুন ড্যাশ ৮-৪০০ উড়োজাহাজে ৭৪টি সিট আছে। ড্যাশ-৮ বিমান খুব ছোট রানওয়ে থেকে উড্ডয়ন ও স্বল্প খরচে নিরবচ্ছিন্ন এবং মসৃণ উড্ডয়নের জন্য পরিচিত।

পাশাপাশি বেশি লেগস্পেস, এলইডি লাইটিং এবং প্রশস্ত জানালা রয়েছে। পরিবেশবান্ধব এবং অধিক সুযোগ-সুবিধা সমৃদ্ধ এ উড়োজাহাজে রয়েছে হেপা ফিল্টার প্রযুক্তি। যা কিনা মাত্র ৪ মিনিটেই ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাসসহ অন্যান্য জীবাণু ধ্বংস করার মাধ্যমে উড়োজাহাজের অভ্যন্তরের বাতাসকে বিশুদ্ধ করে থাকে।


আরও খবর



হেফাজতের সঙ্গে জঙ্গি সংগঠনগুলো সম্পৃক্ত থাকতে পারে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হরতালে দেশের নানা এলাকায় সহিংস হয়ে উঠা হেফাজতে ইসলামকে সতর্ক করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, তাদের এসব পথ থেকে সরে আসার আহ্বান জানাচ্ছে সরকার। অন্যথায় সরকারের জানমাল রক্ষা ও দেশের শান্তি শৃঙ্খলা সরকার কঠোর হবে।

দেশের বিভিন্ন এলাকায় সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় হামলার পর রবিবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলে তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিগত তিন দিন কিছু উচ্ছৃঙ্খল ব্যক্তি ধর্মীয় উত্তেজনা ছড়িয়ে ভূমি অফিস, থানা, রাজনৈতিক ব্যক্তিদের বাড়িতে হামলা চালাচ্ছে। হরতাল দিয়ে ভাঙচুর করার অধিকার তো তাদের নেই। বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়া, বাচ্চাদের রাস্তায় নামিয়ে দেয়া, এসব অধিকার তাদের নেই। সরকার কঠোরভাবে এসব দমন করবে।

রবিবার হেফাজতের হরতালে ঢাকার কেন্দ্রস্থল শান্ত থাকলেও তাদের কর্মীরা সহিংস হয়ে উঠেছে নারায়ণগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, হবিগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকায়। গত শুক্র ও শনিবারও চট্টগ্রামের হাটহাজারী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব চালিয়েছে সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

কেন তাদের আইনের আওতায় আনা যাচ্ছে না- এমন প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, আমরা ধৈর্যের সঙ্গে দেখছি। আমরা তাদের আইনের আওতায় আনব।

২০১৩ সালের শাপলা চত্বরে তাণ্ডবের পর অভিযানের মুখে ঘরে ফেরা হেফাজতের হঠাৎ করে সহিংস হয়ে উঠায় কারও ইন্ধন থাকতে পারে বলেও মনে করেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, বাঁশের কেল্লার সম্পৃক্ততা থাকতে পারে। আগে যারা জঙ্গি সংগঠনগুলো ছিল, তারাও এর সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী বিষয়গুলো দেখভাল করছে। আমরা তাদের আইনের আওতায় আনব।


আরও খবর



দেশে পৌঁছালো মেট্রো রেলের কোচ

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ এপ্রিল ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জাপান থেকে মেট্রোরেলের কোচের প্রথম চালান বাগেরহাটের মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছেছে। এসব কোচ নিয়ে ছেড়ে আসা জাহাজ এমভি এসপিএম ব্যাংকক মোংলা বন্দরের প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে।

জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনশিয়েন্ট স্টিমশিপ কো. লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক ওহিদুজ্জামান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওহিদুজ্জামান বলেন, জাপানের কোবে বন্দর থেকে ৬টি কোচ নিয়ে জাহাজ এমভি এসপিএম ব্যাংকক এখন মোংলা বন্দরে ভিড়ার অপেক্ষায় রয়েছে। আজ (বুধবার) বিকালেই পুরোপুরিভাবে মোংলা বন্দরের জেটিতে ভিড়বে। পরে বন্দরের ৯ নম্বর ইয়ার্ডে কোচগুলো খালাস হবে।

রাজধানীবাসীর যানজট মুক্তির স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলছে মেট্রোরেলের কাজ। ২০১২ সালের জুলাই থেকে প্রকল্পটির বাস্তবায়ন মেয়াদ শুরু হয়। উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ মেট্রোরেল-৬ বাস্তবায়নে খরচ হচ্ছে ২১ হাজার ৯৮৫ কোটি। এর মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ৫ হাজার ৩৯০ কোটি ৪৮ লাখ টাকা এবং জাপান আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থার (জাইকা) ঋণ থেকে ১৬ হাজার ৫৯৪ কোটি ৫৯ লাখ টাকা ব্যয় করা হচ্ছে।যার ৭৫ শতাংশ ঋণ হিসেবে দিচ্ছে জাপান সরকারের সহযোগিতা সংস্থা জাইকা।

২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মেট্রোরেলে যাত্রী পরিবহন শুরু করা যাবে বলে আশা করছে সরকার।


আরও খবর