Logo
শিরোনাম

সাধারণ সম্পাদক পদে নিপুণের দায়িত্ব পালনে বাধা নেই

প্রকাশিত:সোমবার ২১ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে প্রাথমিকভাবে জয়ী জায়েদ খানের প্রার্থিতা বৈধ বলে দেওয়া হাইকোর্টের রায় স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে নিপুণের লিভ টু আপিল গ্রহণ করেছেন আদালত।

আজ সোমবার (২১ নভেম্বর) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন। নিপুণের আইনজীবীরা জানান, এই আদেশের ফলে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করবেন নিপুণ আক্তার।

এর আগে জায়েদ খানকে শিল্পী সমিতির সম্পাদক ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট। পরবর্তী সময়ে তা স্থগিত করে স্থিতাবস্থা দেন চেম্বার আদালত। আজ হাইকোর্টের রায় স্থগিত রেখেছেন আপিল বিভাগ।


আরও খবর



ঘুসের লেনদেন এখন ডলারে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঘুস লেনদেনে এখন টাকা নয় মুদ্রা হিসেবে ডলারের লেনদেন হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। সিলেট জেলা কারাগারে একই নামের একজনের পরিবর্তে অন্যজন চাকরি করছেন- এ সংক্রান্ত রিট আবেদনের শুনানিতে বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এমন মন্তব্য করেন।

জহুরুল ইসলাম নামে একজনের পরিবর্তে কারাগারে চাকরি করছেন একই নামের অন্যজন- এ সংক্রান্ত রিটের শুনানি হয়। মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা এ শুনানিতে অংশ নেন।

আদালতে রিটকারীর পক্ষে শুনানিতে আইনজীবী ছিলেন মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

শুনানিতে আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, একজন চাকরিপ্রার্থী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। তারপরেও তাকে জয়েন (যোগদান) না করিয়ে একই নামে অন্য একজনকে চাকরি করতে দেওয়া হয়। এমন অভিযোগ ওঠায় চাকরিপ্রার্থী রিট করেছেন।

এসময় রিটকারীর পক্ষের আইনজীবীর উদ্দেশে হাইকোর্ট বলেন, এসব বিষয়ে তো দুদক ব্যবস্থা নিতে পারে। দুদক কী এগুলো দেখছে না? আপনারাই চাকরির সুযোগ করে দিয়েছেন।তখন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, এ জন্যই তো আমরা এসেছি। আদালত আইনজীবীকে বলেন, এখন আসছেন। ধরা খাওয়ার পরে।

তখন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বাশার বলেন, টেলিভিশনে প্রতিবেদন হয়েছে, সিলেট কারাগারে চাকরি না পেয়েও ২০০ কারারক্ষী কাজ করছেন। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৮৮ জনকে পাওয়া গেছে যাদের চাকরি না হলেও কাজ করছেন। ওই প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আজ শুনানি হয়েছে।

এসময় আদালত আইনজীবীদের উদ্দেশে বলেন, গণেশ যদি সব জায়গায় রাজত্ব করে, তাহলে তো হলো না। আর এখন তো টাকায় নয়, ঘুস লেনদেন হয় ডলারের মাধ্যমে।

শুনানির একপর্যায়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, গণমাধ্যমে দেখা যায়, ঘুস লেনদেনে বস্তায় বস্তায় টাকা লেনদেন হয়। তখন বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারক বলেন, এখন আর টাকায় নয়, ঘুস নিচ্ছে ডলারে।

ছদ্মবেশ ধারণ ও বিভিন্ন জাল-জালিয়াতি করে চট্টগ্রাম এবং সিলেটে ২০০ জন কারারক্ষী চাকরি করছে বলে গণমাধ্যমে খবর প্রচারিত হয়। পরে কারা কর্তৃপক্ষ তদন্ত করে ৮৮ জনের বিরুদ্ধে জালিয়াতির প্রমাণ পায়। এর মধ্যে তিনজনকে পাওয়া যায়, যারা একজনের পরিবর্তে আরেকজন চাকরি করছেন।

নিউজ ট্যাগ: ঘুস লেনদেন

আরও খবর

রোনালদোকে টপকে গেলেন মেসি

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২




বিএনপি আন্দোলন করতে জানে না: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি বলে আমাদের নিরাপদে প্রস্থান নিতে, শেখ হাসিনাকে ক্ষমতা থেকে বিদায় নিতে। কোন মুখে তারা এমন কথা বলে? তারা তো আন্দোলন করতেই জানে না। তারা মুখে দেশনেত্রী বলে ফেনা তোলে অথচ নেত্রীর জন্য একটি মিছিলও করতে পারে না। আজ শনিবার বিকেলে গাজীপুর শহরের রাজবাড়ী মাঠে মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপি এখন দিনের আলোতে অমাবস্যা দেখে, পূর্ণিমার রাতেও অমাবস্যা দেখে। তারা দেশের উন্নয়ন দেখে না। তারা বলে শুধু জনতার ঢল, অথচ তাদের সিলেটে জনতার ঢেউ নেই, সেখানে আছে সুরমার ঢেউ।

তিনি বলেন, গাজীপুরের সম্মেলনে শুধু মহানগরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত আছেন, জেলার নেতাকর্মীরা তো বাদই আছে, আর সিলেটের বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ হচ্ছে পাঁচটি জেলা নিয়ে। এর চাইতে গাজীপুরে পাঁচগুণ বেশি জনসমাগম হয়েছে। মাঠে জায়গা না পেয়ে কয়েক কিলোমিটার পর্যন্ত মানুষ দাঁড়িয়ে এ অনুষ্ঠান শুনছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির এখন বড় জ্বালা পদ্মা সেতু হয়ে গেছে। বঙ্গবন্ধু কর্ণফুলী টানেলও হয়ে গেল, মেট্রোরেলও হয়ে গেল।

তিনি বলেন, দেখতে দেখতে ১৩ বছর, মানুষ বাঁচে কয় বছর। এখন খেলা হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে, লুটপাটের বিরুদ্ধে, হাওয়া ভবনের বিরুদ্ধে। তাই খেলার জন্য সবাইকে প্রস্তুত হতে হবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপির সমাবেশগুলোতে খানপিনা ভালোই হচ্ছে। কাঁথা, বালিশ, হাঁড়ি-পাতিল নিয়ে সাত দিন আগে থেকেই সমাবেশস্থলে চলে যাচ্ছে। তারা গরুর মাংস খাচ্ছে, মুরগির মাংস খাচ্ছে। এরপরেও বিএনপির আন্দোলন রঙিন খোয়াবেই থাকবে। তারা এখন বিদেশিদের কাছে নালিশ করে নালিশ পার্টি হিসেবে পরিচিত হয়েছে। বিএনপি জনগণ কর্তৃক প্রত্যাখ্যাত।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ডিসেম্বর বিজয়ের মাস, তারা যদি মাঠে নামে তাহলে রাজপথে খেলা হবে। তারা শেখ হাসিনাকেও সম্মান করতে জানে না। শেখ হাসিনাকে হাসিনা বলে ডাকে অথচ শেখ হাসিনা দয়া করে তাদের নেত্রীকে দণ্ডিত হওয়া সত্ত্বেও বাড়িতে থাকতে দিয়েছে।

গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লাহ খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আতাউল্লাহ মন্ডলের সঞ্চালনায় সম্মেলেনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী ও গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম মোজাম্মেল হক, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য শামসুন্নাহার ভূঁইয়া, রুমানা আলী টুসি, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরণ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এদিন সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে নেতৃত্ব বাছাই করা হয়। গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে আজমত উল্লাহ খান ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আতাউল্লাহ মন্ডলের নাম ঘোষণা করেন ওবায়দুল কাদের। এর আগে ২০১৫ সালে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের প্রথম কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল।

 


আরও খবর



কলম্বিয়ায় বিমান দুর্ঘটনা, নিহত ৮

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ নভেম্বর 20২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কলম্বিয়ার একটি আবাসিক এলাকায় বাড়ির ওপর আটজনকে বহনকারী ছোট বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। এতে সব আরোহী নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। সোমবার (২১ নভেম্বর) দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মেডেলিনে এ ঘটনা ঘটে।

সকালে ওলায়া হেরেরা বিমানবন্দর থেকে উড়োজাহাজটি উড্ডয়ন করে এবং একটি বাড়িতে বিধ্বস্ত হওয়ার আগে ইঞ্জিনের ত্রুটি ধরা পড়ে। বিমানটি থেকে কালো ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়।

বিমানবন্দরের টুইটার অ্যাকাউন্টে জানানো হয়, বিমানটিতে থাকা আটজনের মধ্যে ছয়জন যাত্রী এবং দুইজন ক্রু। তাদের সবাই নিহত হয়েছে। তবে বাড়িটিতে কেউ আহত বা নিহত হয়েছে কি না, সেই বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এর আগে মেয়র ড্যানিয়েল কুইন্টেরো টুইটারে লেখেন, বেলেন রোজালেস সেক্টরে বিমান দুর্ঘটনা ঘটেছে। পূর্ণ সক্ষমতা দিয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা করছে সরকার।

তিনি বলেন, বিমানটি দুই ইঞ্জিনের একটি পাইপার ছিল, যা মেডেলিন থেকে চকোর পার্শ্ববর্তী বিভাগের পিজারোর পৌরসভার দিকে যাচ্ছিল। বিমানটি উড্ডয়নের সময় ইঞ্জিনে ত্রুটির সংকেত দেয় এবং পরে সেটি ওলায়া হেরেরা বিমানবন্দরে ফিরে আসতে পারেনি।

জরুরি পরিষেবাগুলোর প্রকাশ করা ছবিতে দেখা যায়, বিমানটি একটি বাড়িতে বিধ্বস্ত হয়। এতে বাড়িটি ধ্বংস হয়। দমকল কর্মীরা বিক্ষিপ্ত টাইলস এবং ধসে পড়া ইটের দেয়ালের মধ্যে আগুন নেভাতে কাজ করছে। মেডেলিন একটি সরু উপত্যকায় অবস্থিত, যা আন্দিজ পর্বতমালা বেষ্টিত।

২০১৬ সালে ব্রাজিলের চ্যাপেকোয়েনস ফুটবল দলকে বহনকারী একটি বিমানের জ্বালানি ফুরিয়ে যায় এবং শহরের কাছে পাহাড়ে বিধ্বস্ত হয়। এতে ১৬ খেলোয়াড়সহ ৭৭ আরোহীর মধ্যে ৭১ জনের মৃত্যু হয়।


আরও খবর



বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ হলে কী লাভ? কত টাকা আয়?

প্রকাশিত:রবিবার ২০ নভেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অলিম্পিকের চেয়ে বর্তমানে বিশ্বে সবচেয়ে বড় ক্রীড়া ইভেন্ট ফুটবল বিশ্বকাপ। এবার জমজমাট আসরটি বসেছে আরব রাষ্ট্র কাতারে। খেলায় চোখ রাখতে যাচ্ছেন পাঁচশো কোটিরও বেশি ফুটবল প্রেমিক। আর ১০ লাখ মানুষ সরাসরি এসেছেন মহাযজ্ঞ উপভোগ করতে। আয়োজক দেশগুলো কী বিশ্বকাপ থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারে? করলেও কি পরিমাণ হতে পারে, এমন প্রশ্ন অনেকের মনে।

টিকিট, পণ্য বিক্রি থেকে শুরু করে স্পন্সরপিশ, পুরস্কারের অর্থ এবং পর্যটককে ঘিরে বিপুল অর্থ ব্যয় হয়ে থাকে। কিন্তু একটি আয়োজক দেশ কি এতে আর্থিকভাবে লাভবান হয়ে থাকে? সহজ উত্তর হলো, না।

বিশ্বকাপের আগে মহাপরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামে আয়োজক দেশ। প্রস্তুতির অংশ হিসেবে আগে থেকেই অবকাঠামো উন্নয়ন, দেশি-বিদেশি পর্যটকদের জন্য আধুনিক হোটেল নির্মাণসহ নানা খাতে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার ব্যয় করে থাকে। কিন্তু এসব খরচের বেশিরভাগই উঠে আসে না। বিশেষ করে নগদ অর্থের ক্ষেত্রে।

বিশ্বকাপ থেকে অবশ্যই বিপুল অর্থ আয় হয়, যেমন রাশিয়ায় ২০১৮ সালে বিশ্বকাপের টিভি স্বত্ব বিক্রি হয়েছিল ৪৬০ কোটি মার্কিন ডলারে। যার পুরো অর্থটাই যায় ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার কাছে।

টিকিট বিক্রিতে যে আয় হয় তার শতাভাগ মালিকও ফিফা। ২০১৮ সালে মার্কেট রাইটস বিক্রি করে আয় হয় একশো কোটি মার্কিন ডলার। যদিও মাসব্যাপী ফুটবল টুর্নামেন্ট পরিচালনার মূল খরচ বহন করে থাকে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থাটি। এবারের আয়োজক দেশ কাতারকে ১৭০ কোটি মার্কিন ডলার দেওয়ার কথা রয়েছে তাদের। বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া দলগুলোর জন্য রয়েছে ৪৪ কোটি ডলারের পুরস্কার। বিশ্বকাপ আয়োজন, অবকাঠামো, সড়ক, রেলপথ নির্মাণসহ সবকিছু মিলিয়ে প্রায় ২০০ বিলিয়ন ডলারের বেশি খরচ করেছে কাতার।

প্রায় মাসব্যাপী বিশ্বকাপে কয়েক লাখ লোকের সমাগম হবে দেশটিতে। এতে পর্যটন ব্যবসা, হোটেল ও রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীদের আয় বৃদ্ধি পাবে। তবে এই খরচ তুলতে অতিরিক্ত সক্ষমতার প্রয়োজন। কেননা বিশ্বকাপ আয়োজনের পেছনে ব্যয় সাধারণত স্বল্প মেয়াদে উৎপন্ন রাজস্বের চেয়ে বেশি হয়ে থাকে। তাই সংক্ষিপ্ত সময়ে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে আয়োজক দেশের।

তবে পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করলে সেই দেশের অর্থনীতিতে দীর্ঘমেয়াদি সুফল আসার সম্ভবনা রয়েছে। বিশ্বকাপের চূড়ান্ত বাঁশি বাজার পরও নতুন সড়ক এবং পরিবহন ব্যবস্থা দেশের অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখবে।

নিউজ ট্যাগ: কাতার বিশ্বকাপ

আরও খবর

রোনালদোকে টপকে গেলেন মেসি

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২




ফরিদপুরে সমাবেশ শেষে বাস চলাচল শুরু

প্রকাশিত:শনিবার ১২ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ফরিদপুরে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ শেষে অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার বাস চলাচল শুরু হয়েছে। শনিবার (১২ নভেম্বর) বিকেল ৫টার দিকে সমাবেশ শেষ হওয়ার পরই বাস চলাচল করতে দেখা যায়। এর আগে মহাসড়কে সকল প্রকার অবৈধ ত্রি-হুইলার বন্ধের দাবিতে জেলা বাস মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ ৩৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘট ডাকে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) সকাল ৯টা থেকে জেলা বাস মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে শহরে মাইকিং করা হয়। মাইকিংয়ে বলা হয়, মহাসড়কে সকল প্রকার অবৈধ ত্রি-হুইলার (নছিমন, করিমন, ভটভটি, মাহিন্দ্র, ব্যাটারিচালিত রিকশা, ইজিবাইক ও ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল) চলাচল বন্ধের দাবিতে শুক্রবার (১১ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে শনিবার (১২ নভেম্বর) রাত ৮টা পর্যন্ত ফরিদপুরের সকল পথে বাস ও মিনিবাস বন্ধ থাকবে। তবে শনিবার বিকেলে ধর্মঘটের ৩ ঘণ্টা বাকি রেখেই ৩৫ ঘণ্টা পর বাস চলাচল শুরু হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জোবায়ের জাকির জানান, শনিবার বিকেল থেকে অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার বাস চলাচল শুরু হয়েছে। যাত্রীদের ভোগান্তির কথা মাথায় রেখে নির্ধারিত সময়ের আগেই ধর্মঘট তুলে নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, খালেদা জিয়ার মুক্তি, তত্ত্বাবধায়ক সরকার, সংসদকে বিলুপ্ত, সরকারের পদত্যাগ, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম কমানোসহ বিভিন্ন দাবিতে এসব বিভাগীয় গণসমাবেশ করছে বিএনপি। এর আগে চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, খুলনা, রংপুর ও বরিশাল বিভাগে গণসমাবেশ করেছে দলটি।


আরও খবর