Logo
শিরোনাম

সারাদেশে ৫০ মডেল মসজিদ উদ্বোধন আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশের ৫০ উপজেলায় দৃষ্টিনন্দন ৫০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র আজ উদ্বোধন করা হবে।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকাল সাড়ে ১০টায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে একযোগে আধুনিক ও সুসজ্জিত এই মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

এই প্রকল্পের আওতায় সারাদেশে ৫৬০ টি মসজিদ নির্মাণের প্রকল্প হাতে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।  প্রথম দফার ৬০ টি মডেল মসজিদ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রংপুর, সিলেট ও খুলনায় ভার্চুয়ালি সংযুক্ত থাকবেন এই প্রকল্পের অন্যতম পরিকল্পক সরকার প্রধান শেখ হাসিনা। এই মসজিদগুলোতে ১৩টি বিশেষ সুবিধার মধ্যে মসজিদে হজ্জ যাত্রীদের প্রশিক্ষণসহ পবিত্র হজ্ব পালনের জন্য ডিজিটাল নিবন্ধনের ব্যবস্থা থাকবে।

সুবিধাগুলোর মধ্যে আরও রয়েছে- নারী ও পুরুষদের পৃথক ওজু ও নামাজ আদায়ের সুবিধা,  প্রতিবন্ধি মুসল্লিদের টয়লেটসহ নামাজের পৃথক ব্যবস্থা, ইসলামিক বই বিক্রয় কেন্দ্র, ইসলামিক লাইব্রেরী, অটিজম কর্ণার, ইমাম ট্রেণিং সেন্টার, ইসলামিক গবেষণা ও দীনি দাওয়া কার্যক্রম, পবিত্র কুরআন হেফজখানা, শিশু ও গণশিক্ষায় ব্যবস্থা, দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আবাসন ও অতিথিশালা, লাশ গোসল ও কফিন বহনের ব্যবস্থা, ইমামের প্রশিক্ষণ, ইমাম-মুয়াজ্জিনের আবাসনসহ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে কর্মকর্তা কর্মচারীদের অফিসের ব্যবস্থা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই উদ্যোগকে বিশ্বে দৃষ্টান্ত বলে দাবি করেছেন প্রকল্প পরিচালক নজিবুর রহমান।



আরও খবর



‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস জনিত রোগের চিকিৎসা দেশে ব্যয়বহুল’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১০৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মিউকোরমাইকোসিস (ব্ল্যাক ফাঙ্গাস) জনিত রোগের চিকিৎসা দেশে ব্যয়বহুল। তার প্রধান কারণ ওষুধের দাম এবং নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের সেবা। এই রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ তৈরি করে একটি মাত্র কোম্পানি। আর তাদের কাঁচামাল আসে ভারত থেকে। তাই সেখানেও আছে অপ্রতুলতা রয়েছে। আর স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে-  ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ সহজলভ্য করতে কাজ করা হচ্ছে। বিশেষজ্ঞ কমিটি দ্বারা এই রোগের চিকিৎসার জন্য একটি গাইডলাইন প্রস্তুত করার কাজ চলছে। তবে গাইডলাইন না থাকলেও বেসিক ট্রিটমেন্ট চালাচ্ছেন চিকিৎসকরা। 

রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সন্দেহজনক রোগীর জ্বর রয়েছে। তবে তার শারীরিক অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল। কিন্তু চূড়ান্ত মতামত দিতে আরও সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন বারডেম হাসপাতালের রেসপিরেটরি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন। সেখানে উপসর্গ দেখে চিকিৎসকরা ধারণা করেন তিনি ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত। তবে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) জানিয়েছে, এটা নিশ্চিত হতে হলে তাদের সব পরীক্ষা শেষ করতে হবে।

ভারতের ব্ল্যাক ফাঙ্গাস ছড়িয়েছে ব্যাপকভাবে। সেখানে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১১ হাজার ৭১৭ জন। ভারতের গুজরাট, মহারাষ্ট্র ও অন্ধপ্রদেশের আক্রান্তের হার সবচেয়ে বেশি। গত সপ্তাহে ভারতে করোনাভাইরাসের রোগীদের মধ্যে মিউকরমাইকোসিস (ব্ল্যাক ফাঙ্গাস) শনাক্ত হলে এটিকে মহামারি ঘোষণা করার নির্দেশ দেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এতে সংক্রমিত প্রায় ৫০ শতাংশ মানুষ মারা যাচ্ছে। আর যারা বেঁচে যাচ্ছেন তাদের মধ্যে একটি অংশের চোখ অপসারণ করতে হচ্ছে।

অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন জানান, এই রোগীর বয়স ৫৩ বছর। তার অ্যাজমা, অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস এবং উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে। চিকিৎসা নেওয়ার পর তার অবস্থার কতটা উন্নতি  হলো জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা এখনই বলা  সম্ভব হচ্ছে না। তার চিকিৎসাটা দীর্ঘমেয়াদি। দুই থেকে ছয় সপ্তাহ পর্যন্ত চিকিৎসা দিতে হয়,কিন্তু তার চিকিৎসা শুরু হয়েছে মাত্র কয়েকদিন হলো।

চিকিৎসকদের মতে , ব্ল্যাকফাঙ্গাসের চিকিৎসা মূলত নির্ভর করে সংক্রমণের তীব্রতার ওপর। সেজন্য কিছু ওষুধ আছে, আবার তীব্রতা বেশি হলে ইনজেকশন প্রয়োগ হয়। এই চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধের দাম বেশি হওয়ায় এবং রোগীর নিবিড় পর্যবেক্ষণের প্রয়োজন হয় বলে এই চিকিৎসা ব্যয়বহুল।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা নাজমুল ইসলাম বলেন, মিউকোরমাইকোসিস বা কালো ছত্রাক একটি বিরল রোগ। এটি খুব বেশি মানুষের হয় বলে তথ্য-উপাত্ত বলে না। অবশ্যই এর চিকিৎসা অনেক ব্যয়বহুল এতে কোনও সন্দেহ নেই। বিষয়টি নিয়ে গত কিছু দিন ধরে আমরা ক্রমাগত কাজ করছি এবং একটি গাইড লাইন দেওয়ার চেষ্টা করছি। ব্ল্যাক ফাঙ্গাস মোকাবিলায় যেসব ওষুধ ব্যবহার করতে হয়, সেসব কীভাবে সহজলভ্য করা যায় সে বিষয়টি নিয়েও আমরা কাজ করছি। আমরা খুব অল্প সময়ের মধ্যে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা দেব। তার কারণ হলো এই ওষুধগুলো সহজে পাওয়া যায় না। এই পরিস্থিতির কেউ যেন সুযোগ নিতে না পারে সে বিষয়টি মাথায় রেখে আমরা অগ্রসর হচ্ছি।

প্রিভেন্টিভ মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরী বলেন, ফাঙ্গাস প্রতিরোধে একটি ওষুধ আছে। আবার কোন কোন সময় ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের জন্য ইঞ্জেকশন দেওয়ার প্রয়োজন হয়। এই ওষুধের দামটি বেশি আবার অনেকেরই আইসিইউ সাপোর্ট প্রয়োজন হয়। যার কারণে চিকিৎসা ব্যয়বহুল।

তিনি আরও বলেন, এই রোগের চিকিৎসা নির্ভর করে মূলত তীব্রতার ওপর। এজন্য কোন ফর্মুলা নেই। মাইল্ড রোগী, মোডারেট রোগী এবং সিভিয়ার রোগীর চিকিৎসা ব্যবস্থায় একেক সময় লাগে। আমরা এখন যে বেসিক ট্রিটমেন্ট দিচ্ছি এটিকেই গাইডলাইনে অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে।

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ইনজেকশন প্রস্তুত করে শুধুমাত্র বিকন ফারমাসিউটিক্যালস। এই ওষুধের ৫০ মি লি পরিমানের একটি ভায়ালের খুচরা মুল্য ১৫ হাজার টাকার কিছু বেশি। তবে প্রচলিত ওষুধ না হওয়ায় এর উৎপাদন এবং সরবরাহ কম। আর অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করেই এগুলো প্রস্তুত করতে হয় বলে অন্য কেউ তা তৈরি করতে চায় না বলে জানিয়েছেন বিকন ফারমাসিউটিক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. এবাদুল করিম।

তিনি বলেন, এই ওষুধ প্রস্তুত করতে খুবই অত্যাধুনিক প্রযুক্তির প্রয়োজন হয়। আর এটার কাঁচামাল যেমন অনেক দামি আবার প্রযুক্তিও দামি। যার কারণে বেশি সংখ্যক কোম্পানি পারেও না এটা বানাতে। আমাদের কাছে বর্তমানে যেটুকু স্টক আছে তাই আছে। এমনিতে তো চাহিদা অনেক কমই ছিল। এখন হঠাৎ করে এখানে চাহিদা দেখা দিয়েছে। আবার বাজার থেকে অবৈধ পথে ভারতেও চলে যেতে পারে, এজন্য আমরা সতর্কতার সঙ্গে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। কাঁচামালের জন্য জন্য আমরা বলেছি, তাদের আজকে জানানোর কথা। কাঁচামাল বেশিরভাগই ভারত থেকেই আসে। সেখানেও তো সংকট। 

তিনি আরও বলেন, ভারত নিজেদের চাহিদা পূরণ করেই পারছেন না। যে কারণে একটু শংকার মধ্যে আছি। আমরা আশা করি হয়তো কিছু একটা ম্যানেজ করতে পারবো। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আমরা চেষ্টা করছি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, যারা বয়স্ক, যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেছে, তাদেরকে বেশি করে এই বিষয়ে সতর্ক হতে হবে। আমি ইতোমধ্যে বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানিকে নির্দেশনা দিয়েছি যাতে এই ফাঙ্গাসের জন্য যে ধরনের ওষুধ প্রয়োজন সেটা যেন এখন থেকেই তৈরি করে। আল্লাহ না করুক যদি এখানে রোগী বাড়ে, তাহলে যেন যথাযথ চিকিৎসা করা যায়।

প্রসঙ্গত এসব ছত্রাক পরিবেশে বিশেষ করে মাটি, পঁচে যাওয়া জৈব পদার্থ যেমন: পঁচা ফলমূল, পাতা বা পশুর বিষ্ঠায় ছড়িয়ে থাকে। এসব ছত্রাককে ল্যাবরেটরির কৃত্রিম মিডিয়াতে যখন বৃদ্ধি করা হয়, এদের রং হয় গাঢ় বাদামি বা কালো। তাই এদের ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা কালো ছত্রাক বলা হয়। এই ছত্রাকের সংক্রমণ ছোঁয়াচে নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।


নিউজ ট্যাগ: ব্ল্যাক ফাঙ্গাস

আরও খবর



‘নুসরতের আগত সন্তানের বাবা আমি নই’, সাফ জানিয়ে দিলেন নিখিল জৈন!

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১০৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সম্প্রতি খবর ছড়িয়েছে- মা হতে চলেছেন টলিউড অভিনেত্রী নুসরত জাহান। যার সত্যতা জানতে সংবাদমাধ্যম থেকে একের পর এক ফোন এসেছে তাঁর মোবাইলে। জবাবে নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন বলেছেন, তিনি নুসরতের সন্তানের বাবা নন। তিনি হতবাক এই সত্যিটা তাঁকে বারবার বলতে হচ্ছে। কিন্তু কেন? 

নিখিল বলেন, "আমি জানিও না নুসরত মা হতে চলেছে। এই খবর আমার কাছে আসেনি। আসার পথও বন্ধ। আমরা কেউ কারও সাথে যোগাযোগ রাখি না। নুসরত আর আমি অনেকদিন থেকেই আলাদা থাকি। নয়-নয় করে ছ’মাস হয়ে গেল।"

সংবাদমাধ্যম থেকে শুরু করে নেটমাধ্যম- সব জায়গাতেই নুসরত এখন অভিনেতা ‘ইয়াশের প্রেমিকা’। এর মধ্যে আর কোনও লুকোছাপা নেই। ইনস্টাগ্রাম ঘাটলেই ‘ইয়াশরত’ কখন কোথায় যাচ্ছেন? কী করছেন? সব স্পষ্ট। কোন দিন একসঙ্গে তাঁরা গাড়িতে ছিলেন, অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় আর তনুশ্রী চক্রবর্তীর সঙ্গে কোথায় আড্ডা দিচ্ছিলেন, সব কিছুই এখন নেটাগরিকদের নজরে।

তবে প্রেম করেই বিয়ে করেন অভিনেত্রী নুসরত জাহান আর নিখিল জৈন। যদিও নুসরতের এই দ্বিতীয় বিয়ের রেজিস্ট্রেশন হয়নি। নিখিল এবং নুসরত বিয়ের পর থেকেই 'কাপল গোলস' দিতে শুরু করেন। ক্রমশ নিখিলের ব্যবসার মুখ হয়ে উঠেছিলেন অভিনেত্রী। অন্যদিকে নিখিলও নুসরতকে খুশিতে ভরিয়ে রাখতেন। 

অবশ্য এই সম্পর্কের জন্য নিখিল তাঁর পরিবারের সঙ্গেও লড়াই করেছিলেন। বন্ধুদের সঙ্গেও খানিকটা দূরত্ব তৈরি হয়েছিল তাঁর। তবে কিছু দিনের মধ্যেই বিয়ের একঘেয়েমি কাটাতে নতুন করে প্রেমে পড়েন নুসরত।

স্থানীয় দরগাতেও ঘুরতে গিয়েছিলেন তিনি। সঙ্গী হয়েছিলেন ইয়াশ দাশগুপ্ত। সেখানে দু’জনের একসঙ্গে যাওয়ার ভিডিও প্রকাশ্যে এনেছিল ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো।

এর পরে দ্রুত বদলে যেতে থাকে নিখিল-নুসরতের সম্পর্কের সমীকরণ। নুসরত বালিগঞ্জের ফ্ল্যাটে একা থাকতে শুরু করেন। আর ইয়াশ এখন বেশিরভাগ সময় ওই ফ্ল্যাটেই নুসরতের সঙ্গে সময় কাটান। নিখিল শুধু নুসরত নয়, তাঁর পরিবারের সঙ্গেও আর কোনও সম্পর্ক রাখেননি। 

এ বিষয়ে নিখিল বলেন, "এখন যে নতুন সঙ্গীর সঙ্গে ও আছে, তার সঙ্গেই ভাল থাকুক। ঈশ্বর ওদের মঙ্গল করুন। গত ছ’মাস ধরে ওর সঙ্গে আমার সম্পর্ক নেই। আমি একজন সাধারণ মানুষ। আমার পরিবারের মূল্যবোধ নিয়ে আমি ভাল আছি।" 


নিউজ ট্যাগ: নুসরত জাহান

আরও খবর



ইসরায়েলকে দেশ হিসেবে স্বীকার করি না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৬ জুন ২০২১ | ৯০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইসরায়েলকে দেশ হিসেবে স্বীকার করি না, তাই সে দেশে কোনো বাংলাদেশি গেলে শাস্তি পেতে হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বুধবার (২৬ মে) সকালে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় ফিলিস্তিনের জনগণের জন্য চিকিৎসা সরঞ্জাম হস্তান্তর শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এসব চিকিৎসা সরঞ্জাম বাংলাদেশে নিযুক্ত ফিলিস্তিন রাষ্ট্রদূত ইউসেফ এস ওয়াই রামাদানের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

বাংলাদেশের পাসপোর্ট থেকে এক্সেপ্ট ইসরায়েল লেখা বাদ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন আরও বলেন বলেন, ফিলিস্তিনের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক আগের মতো রয়েছে। বাংলাদেশ ফিলিস্তিনি জনগণের সমর্থনে কাজ করে যাবে।

ড. মোমেন বলেন, বাংলাদেশের কোনো কোনো গণমাধ্যম পাসপোর্ট সংশোধন নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি করছে। তবে ইসরায়েল নিয়ে আমাদের অবস্থান খুব সুস্পষ্ট। ফিলিস্তিন নীতিতে আমাদের অবস্থান পরিবর্তন হয়নি।



আরও খবর



১৪ থেকে ১৬ জুন গ্যাস সংকটে থাকবে পুরো দেশ

প্রকাশিত:সোমবার ১৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৫১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সাগরে বৈরী আবহাওয়ার কারণে এলএনজি সরবরাহে বিঘ্ন ঘটায় ১৪ থেকে ১৬ জুন তিনদিন সারাদেশে গ্যাসের সংকট থাকবে।

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈরী আবহাওয়ার কারণে সাগর উত্তাল থাকায় বিঘ্ন ঘটছে এলএনজি খালাসে। এর ফলে প্রতিদিন অন্তত ৪০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাইপলাইনে সরবরাহ করা সম্ভব হবে না। এজন্য ১৪-১৬ জুন পর্যন্ত তিন দিন আবাসিক, শিল্প, বিদ্যুৎ ও বাণিজ্যিক কাজে গ্যাস সরবরাহ ব্যাহত হবে।

তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী ইকবাল মো. নুরুল্লাহ বলেন, বৈরী আবহাওয়ার কারণে এলএনজি ঢুকতে পারছে না। আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী তিন দিন আবহাওয়া খারাপ থাকবে। ফলে এলএনজি নামাতে পারবে না। এ কারণেই আগামী তিনদিন সারা দেশে গ্যাসের স্বল্প চাপ বিরাজ করবে।

নিউজ ট্যাগ: তিতাস গ্যাস

আরও খবর



স্কুলছাত্রীকে বাড়িতে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ, আটক-২

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৯৩জন দেখেছেন
Image

পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে বাড়িতে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (২৯ মে) বিকেলে এ ঘটনায় দুই যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

আটক মাসুম হাওলাদার (৩০) জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার একটি গ্রামের আ. রহমান হাওলাদারের ছেলে ও তরিকুল ইসলাম (১৮) বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ উপজেলার সন্ন্যাসী এলাকার মোয়াজ্জেম খানের ছেলে।

ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর নানী জানান, বৃহস্পতিবার (২৭ মে) বিকেলে মোড়েলগঞ্জ থেকে ছবি তুলতে তাদের পাশের উপজেলা ইন্দুরকানীর ঘোষের হাটবাজারে যান তার নাতনী। তখন নাতনীর সঙ্গে আগে থেকে পরিচিত তরিকুল ইসলামের দেখা হয়। এ সময় তরিকুলের দুলাভাই মাসুম হাওলাদার তাদের দেখে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন।

পরে স্কুলছাত্রীকে নিজের বাড়িতে না নিয়ে দক্ষিণ এনামুল মৃধার বাড়িতে নিয়ে যান তরিকুল। এসময় তাকে আটকে রেখে দুদিন ধরে ধর্ষণ করেন তারা।

এদিকে শুক্রবার (২৮ মে) রাতে খোঁজাখুঁজির একপর্যায় স্কুলছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা ইন্দুরকানী পুলিশের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে।

ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির জানান, ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মাসুক ও তরিকুলকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।

 


আরও খবর