Logo
শিরোনাম

সারাদেশে একদিনে করোনায় মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ জুলাই 2০২1 | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ২০৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশের উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ১০৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদিকে রোগীর চাপে হাসপাতালগুলোতে হিমশিম অবস্থা।

লকডাউনেও থামানো যাচ্ছে না আক্রান্তের হার। করোনা হটস্পট রাজশাহীতেও মৃত্যু ও সংক্রমণের হার আগের মতোই। আর রোগীর চাপ সামলাতে দিশেহারা হাসপাতালগুলো। তৈরি হয়েছে শয্যা ও অক্সিজেন সংকট। নিচে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন জেলার করোনার চিত্র তুলে ধরা হলো-

রাজশাহী:

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ১২ জন ও উপসর্গে ৫ জনের মত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে রাজশাহীর ১০ জন, ৩ জন চাঁপাইনবাবগঞ্জের,  নাটোরের ২ জন, নওগাঁর একজন ও পাবনার একজন করে। হাসপাতালটিতে গত দুদিনে ৩৯ জনের মৃত্যু হলো। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৭৬ জন করোনা রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

কুষ্টিয়া:

কুষ্টিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। মারা যাওয়া সাত জনের মধ্যে চারজন কুষ্টিয়া সদর উপজেলার এবং বাকি তিন জন দৌলতপুর, কুমারখালী এবং মিরপুর উপজেলার বাসিন্দা। এ পর্যন্ত ২১৮ মারা গেছেন। ৩৪২ নমুনা পরীক্ষায় ১৩৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪০ দশমিক ০৫ শতাংশ।

চুয়াডাঙ্গা:

চুয়াডাঙ্গায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা সবাই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯৪ জন।

কিশোরগঞ্জ:

কিশোরগঞ্জে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তি বাজিতপুর উপজেলার বাসিন্দা। একই সময়ে ৩১৯ জ‌নের নমুনা পরীক্ষা ক‌রে ৯৬ জ‌নের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তদের মধ্যে ৫৪ জনই কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার। এর পরই ভৈর‌বে ১৭ জন। এ ছাড়া হো‌সেনপু‌রে ২ জন, ক‌রিমগ‌ঞ্জে ৭ জন, পাকু‌ন্দিয়ায় ৩ জন, ক‌টিয়াদী‌তে ৫ জন, পাকু‌ন্দিয়ায় একজন, ক‌টিয়াদী‌তে ৫ জন, কু‌লিয়ারচ‌রে ৫ জন ও বা‌জিতপু‌রে দুজন শনাক্ত হ‌য়।

সাতক্ষীরা:

সাতক্ষীরায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা সবাই সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। ৪৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের ৩৫ দশমিক ৫ শতাংশ।

টাঙ্গাইল:

গত ২৪ ঘণ্টায় টাঙ্গাইলে করোনায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা সবাই টাঙ্গাইল ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ২৩৫ জন। আক্রান্তের হার ৪৪ দশমিক ৬৭ শতাংশ।

বরিশাল:

বরিশালে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আরও ৭ জন মারা গেছেন। তারা সবাই বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এর মধ্যে একজন করোনা আক্রান্ত ছিলেন। ২৪ ঘণ্টায় ১৯৩ জন করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ১০৩ জন পজিটিভ। শনাক্তের হার ৫৩ দশমিক ৩৬।

চট্টগ্রাম:

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে চট্টগ্রামে আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার দুজন, মহানগরে দুজন। একই সময়ে ১২৩২ জনের নমুনা পরীক্ষায় আরও ৪২১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

খুলনা:

খুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আরও ১১ জন মারা গেছেন। মৃত একজন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনায় ৮ জন ও উপসর্গ নিয়ে একজন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালে একজন ও বেসরকারি গাজী মেডিকেলে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহ মেডিকেলে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

যশোর:

যশোরে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে সদর হাসপাতালে আরও ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৪ জন ও উপসর্গ নিয়ে ৫ জন মারা গেছেন। এ ছাড়া ২৪ ঘণ্টায় ৯০৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৮০ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩১ শতাংশ।

বগুড়া:

গত ২৪ ঘণ্টায় বগুড়ায় করোনায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরা সবাই বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল  ৪০৪ জন। একই সময়ে ৩৮০ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৬ শতাংশ।

নওগাঁ

নওগাঁয় গত ২৪ ঘণ্টায় ক‌রোনায় ৩ জ‌নের মৃত‌্যু হয়েছে। তারা সবাই জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এই সময়ে ২৩৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

নাটোর

করোনায় আক্রান্ত গত ২৪ ঘণ্টায় নাটোর সদর হাসপাতালে একজনের মৃত্যু হয়েছে। নাটের সদর হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এই সময়ে ১৮৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪২ দশমিক ১৬ শতাংশ। জেলায় বিভিন্ন বাসা ও হাসপাতালে ১ হাজার ৮০৮ জন করোনা রোগী চিকিৎসাধীন আছেন। মোট আক্রান্ত ৩ হাজার ৯২৬ জন। মৃত্যু ৫৭ জন।

নড়াইল

নড়াইলে করোনায় আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে ২৪৬ টি নমুনা পরীক্ষায় ৭৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪০ দশমিক ২ শতাংশ। এ নিয়ে মোট করোনায় আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়াল ৭৩৩ জনে।

সিলেট

সিলেট বিভাগে করোনার উপসর্গ নিয়ে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরা সবাই শহীদ শামসুদ্দিন আহমেদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এই সময়ে আক্রান্ত হয়েছে ৩০২ জন। তাদের মধ্যে সিলেটে ১১৭ জন, সুনামগঞ্জে ১০ জন, হবিগঞ্জে ২৫ জন, মৌলভীবাজারে ৫২ জন। এছাড়া ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩৭১ জন করোনা রোগী ভর্তি রয়েছে।

নোয়াখালী:

গত ২৪ ঘণ্টায় নোয়াখালীতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১৩৪ জনে। একই সময়ে ৪৫৪টি নমুনা পরীক্ষায় ১৩৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। তাদের মধ্যে সদরে ৪৪, সুবর্ণচরে ৪, বেগমগঞ্জে ৩৩, সোনাইমুড়ীতে ১৩, চাটখিলে ৬, সেনবাগে ৪, কোম্পানীগঞ্জে ১৯ ও কবিরহাট উপজেলায় ১১জন রোগী নতুন শনাক্ত হয়েছে।

 


আরও খবর



বায়তুল মোকাররমে ঈদুল আজহার ৫ জামাত

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬১জন দেখেছেন
Image

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ঈদুল আজহার পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। পর্যায়ক্রমে সকাল ৭টায় প্রথম জামাত, দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টা, তৃতীয় জামাত সকাল ৯টা, চতুর্থ সকাল ১০টা এবং পঞ্চম ও শেষ জামাত সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হবে।

রবিবার (১৮ জুলাই) ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। কোভিড-১৯ মহামারির কারণে এবারও হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত হবে না।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী ১০ জিলহজ মোতাবেক ২১ জুলাই সারাদেশে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হবে। ঈদুল আযহা উপলক্ষে প্রতিবছরের মতো এবারও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পর্যায়ক্রমে পাঁচটি ঈদের নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

প্রথম জামাত সকাল ৭টা অনুষ্ঠিত হবে। এতে ইমাম থাকবেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মো. মিজানুর রহমান। মুকাব্বির থাকবেন বায়তুল মুকাররমের মুয়াজ্জিন মো. আতাউর রহমান।

দ্বিতীয় জামাত হবে সকাল ৭ টায়। এতে ইমাম থাকবেন বায়তুল মোকারমের পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মুহিব্বুল্লাহিল বাকী নদভী। মুকাব্বির থাকবেন মুয়াজ্জিন হাফেজ ক্বারী কাজী মাসুদুর রহমান।

সকাল ৯টায় হবে ঈদের তৃতীয় জামাত। পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক এই জামাতে ইমামতি করবেন, মুকাব্বির থাকবেন হাফেজ ক্বারী হাবিবুর রহমান মেশকাত।

চতুর্থ জামাতে ইমামতি করবেন পেশ ইমাম মাওলানা মহিউদ্দীন কাসেম, মোকাব্বির হবেন মুয়াজ্জিন ক্বারী মো. ইসহাক। এই জামাতটি সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে।

পঞ্চম ও শেষ জামাত হবে সকাল সাড়ে ১০টা ৪৫ মিনিটে। এতে ইমামতি করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুহাদ্দিস হাফেজ মাওলানা ওয়ালিয়ূর রহমান খান। মুকাব্বির থাকবেন বায়তুল মোকাররমের প্রধান খাদেম মো. শহীদুল্লাহ।

এই ৫টি জামাতে কোনও ইমাম অনুপস্থিত থাকলে বিকল্প ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মুফতী, ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

বত‍র্মান করোনা পরিস্থিতিতে বিবেচনায় ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের জারীকৃত বিজ্ঞপ্তি অনুসরণ করে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পবিত্র ঈদুল আযহার নামাজ আদায়ের জন্য মসজিদের খতিব-ইমাম, ধর্মপ্রাণ মুসল্লি ও সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হয়েছে।


আরও খবর

পবিত্র ঈদুল আজহা আজ

বুধবার ২১ জুলাই 20২১




শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ২০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

২০২২ সালের মাধ্যমিক স্তরের (এসএসসি) এবং উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। দেশে চলমান কঠোর বিধিনিষেধের কারণে এ অ্যাসাইনমেন্ট স্থগিত করা হয়েছে।

শনিবার (২৪ জুলাই) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) এ সংক্রান্ত অফিস আদেশ জারি করেছে।

আদেশে জানানো হয়, ২০২২ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য জাতীয় শিক্ষাক্রম এবং পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) প্রণীত অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম গত ১৪ জুন থেকে চলমান রয়েছে। ইতোমধ্যে গ্রেডভিত্তিক চতুর্থ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করা হয়েছে। কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে সরকার আরোপিত বিধিনিষেধের কারণ এ অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত স্থগিত থাকবে।

ইতিমধ্যে ঈদুল আজহার আগে প্রথম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট কাজ দেওয়া হয়েছে। সেটি শেষ করে জমা দেওয়ার পর দ্বিতীয় সপ্তাহের কাজ দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। এদিকে ২০২২ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট স্থগিত করা হলেও তবে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম চলমান রয়েছে।



আরও খবর



ভূমধ্যসাগর থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশী বাংলাদেশিসহ ১৭৮ জন উদ্ধার, মৃত ২

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৯২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভূমধ্যসাগরের তিউনিসিয়া উপকূল থেকে ভাসমান অবস্থায় বাংলাদেশিসহ ১৭৮ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে তিউনিসিয়ার নৌবাহিনী। তারা নৌকায় অবৈধভাবে লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপের উদ্দেশে যাত্রা করছিলেন। এ সময় দুজনের মরদেহও উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারকৃতদের বেশিরভাগই বাংলাদেশি। অন্যরা হলো ইরিত্রিয়া, মিসর, মালি ও আইভরি কোস্টের নাগরিক। রোববার তিউনিসিয়া উপকূল থেকে তাদেরকে উদ্ধার করা হয়।

তিউনিসিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মদ যেকরি জানান, অভিবাসনপ্রত্যাশীরা নৌকায় ভূমধ্যসাগর দিয়ে ইউরোপ যাচ্ছিল। পথে তাদের নৌকা ভেঙে যায় এবং সেটি ডুবে যেতে থাকে। পরে সংকেত পেয়ে তিউনিসিয়া নৌবাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদেরকে উদ্ধার করে।

এর আগে গত ২৫ জুন ভূমধ্যসাগরে ভাসমান অবস্থা থেকে ২৬৪ বাংলাদেশিকে উদ্ধার করা হয়। এরপর এসব অভিবাসনপ্রত্যাশীকে তিউনিসিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় বেন গুয়েরদেন বন্দরে পৌঁছাতে সাহায্য করে দেশটির নৌবাহিনী। পরে তাদের আইওএম এবং রেড ক্রিসেন্টের হাতে তুলে দেয়া হয়।

 এদিকে, জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরের তথ্য মতে, চলতি বছরের শুরু থেকে এপ্রিল পর্যন্ত ১১ হাজারের বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর হয়ে ইউরোপের পথে যাত্রা করে। এ সংখ্যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় শতকরা ৭০ ভাগ বেশি।

 


আরও খবর



প্রবাসী আয়ে রেকর্ড

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনার মধ্যেও গেলো ২০২০-২১ অর্থবছরে দেশে রেমিট্যান্সে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। প্রবাসীরা ২ হাজার ৪৭৭ কোটি ৭৭ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। যা টাকার হিসাবে দুই লাখ ১০ হাজার ৬১০ কোটি টাকার বেশি। এর আগে কোনো অর্থবছরে এত পরিমাণ রেমিট্যান্স আসেনি বাংলাদেশে।

সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য মতে, গেলো অর্থবছরের শেষ মাস জুনে প্রবাসীরা ১৯৪ কোটি ডলার মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। ফলে পুরো অর্থবছরে দেশে রেমিট্যান্সের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৪৭৭ কোটি ৭৭ লাখ ডলার।

এদিকে গেল ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রবাসীরা সরকারি ৬টি ব্যাংকের মাধ্যমে ৬১০ কোটি ৬২ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছে। বিশেষায়িত একটি ব্যাংকে এসেছে ৪১ কোটি ৩০ লাখ ডলার। বেসরকারি ৩৯টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিট্যান্স এসেছে এক হাজার ৮১৪ কোটি ৪০ লাখ ডলার। আর বিদেশি ৮ ব্যাংকে এসেছে ১১ কোটি ৪৫ লাখ ডলার।

বাংলাদেশে কার্যরত ব্যাংকগুলোর মধ্যে গত অর্থবছরে একক ব্যাংক হিসেবে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স এসেছে বেসরকারি ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডে। ব্যাংকটিতে ৭৪৫ কোটি ৭৬ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। এর পরই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৮২ কোটি ৩২ লাখ ডলার রেমিট্যান্স এসেছে অগ্রণী ব্যাংকে। ২৪৯ কোটি ডলার রেমিট্যান্স এনে তৃতীয় অবস্থানে আছে ডাচ বাংলা ব্যাংক। সোনালী ব্যাংকে এসেছে ১৫৩ কোটি ডলার রেমিট্যান্স।

অন্যদিকে রেমিট্যান্সের প্রবাহ চাঙ্গা থাকায় ইতিবাচক অবস্থায় রয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। জুন মাস শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৬ দশমিক ৪২ বিলিয়ন ডলার বা প্রায় ৪ হাজার ৬৪২ কোটি ডলার। প্রতি মাসে ৪ বিলিয়ন ডলার আমদানি ব্যয় হিসেবে মজুদ এ বৈদেশিক মুদ্রা দিয়ে সাড়ে ১১ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো সম্ভব।

উল্লেখ্য, বৈধ পথে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স পাঠাতে উৎসাহ দিতে ২০১৯ সালের ১ জুলাই থেকে ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা দিচ্ছে সরকার। অর্থাৎ কোনো প্রবাসী ১০০ টাকা দেশে পাঠালে তার সঙ্গে আরও ২ টাকা যোগ করে মোট ১০২ টাকা দিচ্ছে ব্যাংকগুলো। কোনো কোনো ব্যাংক ৩ শতাংশ হারে প্রানোদনা দিচ্ছে।


আরও খবর

ব্যাংকে লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১




কাল থেকে পঞ্চগড়ে সকল পশুর হাট বন্ধ ঘোষণা

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৫১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:

সারাদেশের ন্যায় পঞ্চগড়ে চলমান কঠোর বিধিনিষেধের পাশাপাশি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে জেলার সকল পশুহাট বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী রবিবার (৪ জুলাই) থেকে এটি কার্যকর করা হবে বলে জানা যায়।

তবে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত কোন ভাবেই গরুর হাট বসানো যাবে না বলে জানা গেছে। তবে এর মাঝে যদি ডিজিটাল প্লাটফ্রম অনলাইনে কেউ গরু বিক্রির উদ্দোগ নেয় তবে তাদের উৎসাহীত করা হবে।

শনিবার (৩ জুলাই) সন্ধায় পঞ্চগড় সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, পঞ্চগড়ে করোনার সংক্রামন কিছুটা বেড়ে যাওয়ার পাশাপাশি গরুর হাট বসায় মানুষের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে জেলা প্রশাসনের সাথে কথা বলে পঞ্চগড় সদরের ৫টি গরুর হাটসহ জেলার মোট ১১টি গরুর হাট রবিবার থেকে বন্ধ থাকবে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে।

এর আগে দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এ বিষয়ে আলোচনা সভায় পঞ্চগড় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফ হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আমিনুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম, পঞ্চগড় পৌর মেয়র জাকিয়া খাতুন, পঞ্চগড় রাজনগর গরু হাটের ইজারাদার মোশারফ হোসেন উপস্থিত থেকে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

নিউজ ট্যাগ: পঞ্চগড় পশুরহাট

আরও খবর