Logo
শিরোনাম

সব অনিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অননুমোদিত ও অনিবন্ধিত সব নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী সাত দিনের মধ্যে বিটিআরসি চেয়ারম্যান ও প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যানকে এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন দুই রিটকারী আইনজীবী জারিন রহমান ও রাশিদা চৌধুরী নীলু।

এর আগে গত ৫ মে সংবেদনশীল সংবাদসহ যেকোনও খবর প্রকাশের ক্ষেত্রে সংবাদমাধ্যমগুলোর জন্য নৈতিক নীতিমালা’ প্রণয়ন চেয়ে সংশ্লিষ্টদের একটি আইনি নোটিস পাঠানো হয়। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিটিআরসি চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যানকে এ নোটিস প্রেরণ করা হয়। তবে সে নোটিসের কোনও জবাব না পেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন আইনজীবী জারিন রহমান ও রাশিদা চৌধুরী নীলু।

রিট আবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি রাজধানীতে ২১ বছরের এক মেয়ের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় দণ্ডবিধি আইনের ৩০৬ ধারায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়। এ ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে দেশের সংবাদমাধ্যমগুলোর মধ্যে, বিশেষ করে বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে অগ্রহণযোগ্যভাবে নিউজ পরিবেশন করা হয়েছে। অথচ এসব সংবাদ পরিবেশনা বন্ধে বিটিআরসি কিংবা প্রেস কাউন্সিল কোনও উদ্যোগ গ্রহণ করেনি।

‘এমতাবস্থায় বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল কর্তৃক সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে নৈতিক নীতিমালা প্রণয়ন জরুরি হয়ে উঠেছে। একইসঙ্গে দেশে অনিবন্ধিত নিউজ পোর্টালগুলো চালু থাকার পরও বিটিআরসি কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। তাই এসব পোর্টালের রেজিস্ট্রেশনও জরুরি।’

ওই রিটের শুনানি নিয়ে ন্যাশনাল অনলাইন মাস মিডিয়া পলিসি-২০১৭’ অনুযায়ী দেশে অননুমোদিত ও অরেজিস্ট্রিকৃত অনলাইন মিডিয়াগুলো কেন বন্ধ করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।


আরও খবর

১০টি দৈনিক পত্রিকার ঘোষণাপত্র বাতিল

মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১




বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ড. ফেরদৌসী পেলেন 'র‌্যামন ম্যাগসেসে পুরস্কার'

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
ড. ফেরদৌসী কাদরী বলেন, আমি আনন্দিত ও সম্মানিত বোধ করছি। র‌্যামন ম্যাসসেসেকে এ জন্য ধন্যবাদ জানাই। এ পুরস্কার আমি আমার জন্মভূমি বাংলাদেশের প্রতি উৎসর্গ করলাম

এশিয়ার নোবেল খ্যাত 'র‌্যামন ম্যাগসেসে পুরস্কার' পেলেন বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ড. ফেরদৌসী কাদরী। 

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টার দিকে ফিলিপাইন থেকে র‌্যামন ম্যাগসেসে পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। র‌্যামন ম্যাগসেসের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞানী ফেরদৌসী কাদরী আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র বাংলাদেশের (আইসিডিডিআরবি) সিনিয়র বিজ্ঞানী। কলেরার টিকা নিয়ে গবেষণা ও সাশ্রয়ী দামে টিকা সহজলভ্য করে লাখো প্রাণ রক্ষায় কাজ করেছেন তিনি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিকাবিষয়ক বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ছিলেন তিনি। পুরস্কার ঘোষণার সময় র‌্যামন ম্যাগসেসে কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, লাখো মানুষের উপকারে টিকার উন্নয়নে তার নিবেদিত ভূমিকার জন্য এ পুরস্কার দেওয়া হলো।

পুরস্কার পাওয়ায় ম্যাগসেসে কমিটিকে ধন্যবাদ জানিয়ে এক ভিডিও বার্তায় ড. ফেরদৌসী কাদরী বলেন, আমি আনন্দিত ও সম্মানিত বোধ করছি। র‌্যামন ম্যাসসেসেকে এ জন্য ধন্যবাদ জানাই। এ পুরস্কার আমি আমার জন্মভূমি বাংলাদেশের প্রতি উৎসর্গ করলাম। সেই সঙ্গে আমার প্রতিষ্ঠান আইসিডিডিআরবিকে উৎসর্গ করছি। এ প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন ধরে আমার কাজ এগিয়ে নিতে সহযোগিতা করেছে।

ফেরদৌসী কাদরী বলেন, আমি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ বাংলাদেশ এবং পুরো বিশ্বের কাছে। আমি ঋণী আমার পরিবারের কাছে। আমার স্বামী ও তিন সন্তানের কাছে। তারা আমাকে সহযোগিতা করেছেন বিগত দিনগুলোতে।

ফেরদৌসী কাদরী তার বার্তায় বাকি জীবন জনস্বাস্থ্যের উন্নয়নে উৎসর্গ করার প্রতিশ্রুতি দেন।


আরও খবর



উপকূলীয় এলাকায় ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টি হতে পারে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপটি উড়িষ্যা ও ঝাড়খণ্ডের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এ কারণে দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিশেষ করে উপকূলীয় এলাকায় ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। পাশাপাশি ঢাকাসহ দেশের একাধিক জেলায় বৃষ্টি বাড়তে পারে।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আবহাওয়াবিদ মো. রুহুল কুদ্দুছ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

আবহাওয়া অফিস জানায়, আগামী ২৪ ঘণ্টায় দেশের খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের ‍অধিকাংশ জায়গায় এবং ঢাকা, রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের ‍অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

এছাড়া উপকূলীয় এলাকায় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিতে বলা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: গভীর নিম্নচাপ

আরও খবর

দেশের কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টির শঙ্কা

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




আশ্রয়ণের ঘর হাতুড়ি-শাবল দিয়ে ভাঙা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কিছু মানুষ মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের অধীনে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর হাতুড়ি-শাবল দিয়েছে ভেঙে তা মিডিয়ায় প্রচার করেছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যারা ঘর ভেঙেছে তাদের নামের তালিকাসহ তদন্ত প্রতিবেদন নিজের হাতে রয়েছে বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) গণভবনে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভার সূচনা বক্তব্যে এ কথা জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, সব থেকে দুর্ভাগ্য হলো আমি যখন সিদ্ধান্ত নিলাম প্রত্যেকটা মানুষকে আমরা ঘর করে দেবো, আমাদের দেশের কিছু মানুষ এত জঘন্য চরিত্রের, আমি কয়েকটা জায়গায় হঠাৎ দেখলাম যে কি ঘর ভেঙে পড়ছে, কোন জায়গায় ভাঙা ছবি ইত্যাদি দেখার পরে পুরো সার্ভে করালাম কোথায় কী হচ্ছে। সেখানে আমরা প্রায় দেড় লাখের মতো ঘর তৈরি করে দিয়েছি।

শেখ হাসিনা বলেন, ৩শটা ঘর (ভেঙেছে)- বিভিন্ন এলাকায় কিছু মানুষ নিজে থেকে গিয়ে হাতুড়ি-শাবল দিয়ে সেগুলো ভেঙে ভেঙে তারপর মিডিয়ায় সেগুলো ছবি তুলে দিচ্ছে। তাদের নাম-ধাম এগুলো একদম এনকোয়ারি করে সবগুলো বের করা হয়ে গেছে। আমার কাছে সে পুরো রিপোর্টটা আছে, মানে যারা গরিবের জন্য ঘর করে দিচ্ছি, তারা এইভাবে যে ভাঙতে পারে, সেই ছবিগুলো দেখলে, দেখা যায়।

ঘর ভেঙে পড়ার পেছনের কারণ মিডিয়া অনুসন্ধান করেনি অভিযোগ করে সরকার প্রধান বলেন, মিডিয়া এগুলো ধারণ করে প্রচার করে, তারা কিন্তু এটা কিভাবে হলো, সেটা কিন্তু  না।

তদন্তে ৯টি জায়গায় দুর্নীতি পাওয়া গেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, কয়েকটা জায়গায় গেছে, যেমন একজায়গায় ৬০০ ঘর সেখানে হয়তো ৩/৪ টা ঘর, ঐ যে প্রবল বৃষ্টি হলো যখন ঐ জন্য মাটি ধসে কয়েকটা ঘর নষ্ট হয়েছে। মাত্র ৯টা জায়গায় আমরা পেয়েছিলাম যেখানে কিছুটা দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে, মাত্র ৯টা জায়গায়।

আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের অধীনে ঘর নির্মাণে সবাই আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি দেখেছি যে প্রত্যেকে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছে। তারা মনে করেছে যাদের অফিসারদের ওপর দায়িত্ব দিয়েছিলাম। আমাদের ইউএনও-ডিসি সমস্ত কর্মচারীরা ছিল তারা কিন্তু অনেকে নিজেরা এগিয়ে এসেছে এই ঘরগুলো তৈরিতে সহযোগিতা করার জন্য।

তিনি বলেন, যারা ইট তৈরি করে তারাও এগিয়ে এসেছে, অল্প পয়সায় তারা ইট দিয়ে দিয়েছে। এভাবে সবাই। সবার সহযোগিতা, আন্তরিকতাটাই বেশি। কিন্তু এর মধ্যে দুষ্টু বুদ্ধির কিছু, এটাই হচ্ছে সবচেয়ে কষ্টকর। যখন এটা গরিবের ঘর সেখানে হাত দেয় কিভাবে।

নেতা-কর্মীসহ সংশ্লিষ্টদের আরও সর্তক থাকার নির্দেশনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যাই হোক আমরা সেগুলো মোকাবেলা করেছি তবে আমাদের নেতা-কর্মীদের এ ব্যাপারে আরও সর্তক থাকা দরকার।



আরও খবর

অভিভাবকরা স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১




মুক্তিযোদ্ধাকে মারধরের ঘটনায় ইউপি সদস্য আটক

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

লোহাগাড়ার চরম্বা ইউনিয়নে মুক্তিযোদ্ধাকে মারধরের ঘটনায় ওসমান গণি (৪২) নামে এক ইউপি সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার সন্ধ্যায় ওই ইউপি সদস্যকে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নিজ গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি ইউনিয়নের বিবিবিলা এলাকার পশ্চিমপাড়ার মৃত আবদুল আলমের ছেলে ও ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য। মারধরের শিকার মুক্তিযোদ্ধা অতীন্দ্র লাল নাথ (৭০) একই এলাকার পূর্ব নাথপাড়ার মৃত শ্যামা চরণ নাথের ছেলে।

জানা গেছে, এলাকায় চলাচলের রাস্তা বন্ধ করা নিয়ে স্থানীয় দুপক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এ ঘটনা কেন্দ্র করে ওসমান গণি মেম্বার মুক্তিযোদ্ধা অতীন্দ্র লাল নাথের ওপর চড়াও হন। পরে শনিবার সকালে তিনি মুক্তিযোদ্ধাকে পাড়ার চা দোকানে দেখলে গালাগাল করতে থাকেন। একপর্যায়ে ওসমান গণির নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধাকে মারধর করা হয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন।

ঘটনার দিন বিকালে ইউপি সদস্য ওসমান গণি, কায়ছার হামিদ, মোস্তাক মিয়া, আদিল, আবদুল করিম, অনিল নাথসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৫-৬ জনকে আসামি করে থানায় মামলা রুজু করা হয়। এর পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওসমান মেম্বারকে গ্রেফতার করে।

মুক্তিযোদ্ধা অতীন্দ্র লাল নাথকে মারধরের ঘটনায় এলাকার অন্যান্য বীর মুক্তিযোদ্ধার মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

লোহাগাড়া থানার ওসি (তদন্ত) ওবাইদুল ইসলাম জানান, মুক্তিযোদ্ধাকে মারধরের ঘটনায় এক ইউপি সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার সকালে তাকে চট্টগ্রাম আদালতে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্যান্য আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর

২০০ টাকার জন্য বাবাকে পিটিয়ে খুন

বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১




নুসরতকে নিয়ে দ্বিতীয় বার পোস্ট করলেন তসলিমা নাসরিন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টালিউড অভিনেত্রী ও সংসদ সদস্য নুসরাত জাহানকে নিয়ে আবারও ফেসবুকে পোস্ট করলেন নারীবাদী লেখিকা তসলিমা নাসরিন। আগের বার তিনি পোস্টে নুসরাতের প্রশংসা করলেও এবার ভিন্ন মত দেখা গেল। নুসরাতকে একহাত নিয়েছেন নির্বাসিত এ লেখিকা।

বুধবার রাতে নুসরাতের সন্তানের বাবার পরিচয় প্রকাশ্যে এসেছে। নুসরাতের ছেলের নাম, বাবার নাম, মায়ের নাম নথিভুক্ত হয়েছে কলকাতা পৌরসভার সাইটে। সেখানেই পাওয়া গেছে ঈশানের বার্থ সার্টিফিকেট। এতদিন ধরে তার সন্তানের বাবার পরিচয় নিয়ে যে ধোঁয়াশা তৈরি করেছিলেন নুসরাত, তা কেটে গেল এক নিমেষে। নিজের মুখে স্বীকার না করলেও পৌরসভার সাইটের মাধ্যমে সবই প্রকাশ্যে আনলেন নুসরাত। বাবার নামের পাশে লেখা দেবাশীষ দাশগুপ্ত ওরফে যশ।

অনেকেই ভেবেছিলেন, নুসরাত নিজেকে সিঙ্গেল মাদার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করবেন। জানা গেছে, পৌরসভায় গিয়ে সেই বিষয়ে খোঁজ খবরও নিয়ে এসেছিলেন তিনি। নুসরাতের সন্তান জন্মের পর থেকে তার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন কলকাতার একাধিক সিঙ্গেল মাদার। কঠিন পথে একা লড়াই করছেন বলে বহু মানুষ আগে থেকেই সমর্থন জানিয়েছিলেন তাকে। তাদের মধ্যে অন্যতম একজন তসলিমা নাসরিন। নুসরাতকে এভাবে দেখবেন, এ কথা হয়ত ভাবেননি তিনি। তাই তাকে পুরুষতন্ত্রের ছক ভাঙা নারীদের দলে ফেলতে চাইলেন না আর।

তসলিমা লিখেছেন, প্রচুর লেখালেখি, প্রচুর স্বাগত জানানো, শুভেচ্ছা জানানো, স্যালুট জানানো এসব বরং এক্সট্রাঅরডিনারি সাহসী এবং পুরুষতন্ত্রের ছক ভাঙা মেয়েদের জন্য তোলা থাকুক। ট্র্যাডিশনাল মেয়েদের পেছনে সময় নষ্ট করা, তাদের বাহবা দেওয়া আপাতত স্থগিত থাকুক।

নুসরাতকে নিয়ে ঠিক দেড় মাস আগে সম্পূর্ণ ভিন্ন পোস্ট করেছিলেন তসলিমা। লেখিকার মতে, শুধুমাত্র শুক্রাণুর জন্যই সন্তান ধারণের সময় পুরুষের ওপর নির্ভরশীল নারী। এ জায়গা থেকে তিনি আগের পোস্টে লিখেছিলেন, এমনও দিন আসবে যে দিন মেয়েদের স্টেম সেল থেকে স্পার্ম তৈরি হবে। অথবা স্পার্ম তৈরি হবে মেয়েদের বোন ম্যারো থেকে। আরও লিখেছিলেন, নুসরাত প্রতিষ্ঠিত মেয়ে। কারওর দাসীবাঁদী নয়। নিজের ইচ্ছের মূল্য দিতে জানে। সে তার সন্তানকে ভালো মানুষ করবে, এ আমার বিশ্বাস।

তারপর বুধবার রাতের ঘটনা। তসলিমার চোখে বিশেষ জায়গায় থাকা নুসরাত যেন দলে চলে গেলেন সাধারণে। তসলিমা লিখেছেন, কলকাতার অভিনেত্রী নুসরাতকে যতটা না বিল্পবী তার চেয়ে বেশি ভেবে নিয়েছিলাম। ভেবেছিলাম নুসরাত তার সন্তানকে শুধু নিজের সন্তান হিসেবে পরিচয় দেবে। কার স্পার্ম সে নিয়েছে গর্ভবতী হওয়ার জন্য, সেটা মোটেও উল্লেখযোগ্য ব্যাপার হবে না। কিন্তু না, নুসরাত আসলে অন্য যেকোনো রমণীর মতোই রমণী।

তসলিমার দাবি, সন্তানের বাবার নাম যদি নিতেই হতো, তা হলে এতদিনের লুকোচুরির কোনো মানে নেই। তসলিমা জানান, তিনি যদি জানতে পারেন যে নুসরাত গোপনে যশকে বিয়ে করেছে, তা হলেও অবাক হবেন না তিনি। তাই তার প্রশ্ন, যেকোনো ট্র্যাডিশনাল মেয়ের চেয়ে নুসরাতের তফাৎটা কোথায়?


আরও খবর