Logo
শিরোনাম

সব রেকর্ড ভেঙে ভারতে একদিনে করোনায় ৬১৩৮ মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতে করোনাভাইরাসে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা আগের সব রেকর্ডকে ছাপিয়ে গেছে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬ হাজার ১৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিশ্বের অন্য কোনও দেশে এর আগে একদিনে এত বেশি মানুষের মৃত্যু হয়নি। এর আগে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু ভারতেই হয়েছিল।

গত মে মাসের মাঝামাঝিতে সাড়ে ৪ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। তখন দেশটিতে একদিনে ৪ হাজার ৫২৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পর গত কয়েক মাস তাণ্ডব চালায় এই ভাইরাস। এক পর্যায়ে দৈনিক সংক্রমণ ৪ লাখ পার হয়ে যায়।

এদিকে বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত হয়েছে ২ কোটি ৯১ লাখ ৮২ হাজার ৭২ জন। আর মারা গেছে ৩ লাখ ৫৯ হাজার ৬৯৫ জন।

অন্যদিকে করোনায় এ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এ পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছে ৩ কোটি ৪২ লাখ ৬৪ হাজার ৭২৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ১৩ হাজার ৪৯৪ জন। এছাড়া ব্রাজিল, মেক্সিকো, স্পেন, ইতালি, যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে করোনা ছোবল অব্যাহত আছে।

উল্লেখ্য, এই মহামারিতে বিশ্বে এ পর্যন্ত ১৭ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৭৫০ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ৩৭ লাখ ৭৬ হাজার ২৬১ জন। সুস্থ হয়েছে ১৫ কোটি ৮৬ লাখ ৬৮ হাজার ৯৩৮ জন।



আরও খবর



করোনায় বিশ্বে একদিনে প্রাণ গেল প্রায় ৯ হাজার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দীর্ঘ একবছরেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বব্যাপী তাণ্ডব চালানো প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাবিশ্বে মারা গেছেন ৮ হাজার ৯৬৯ জন। একই সময়ে কভিডে আক্রান্ত হিসেবে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৫৩৩ জন। আর সেরে উঠেছেন ৩ লাখ ৯২ হাজার ৮৩৫ জন।

শুক্রবার (১৮ জুন) সকাল সাড়ে ৮টায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

এর একদিন আগে বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে ৯ হাজার ৪৪১ জনের মৃত্যু তথ্য জানিয়েছিল ওয়ার্ল্ডোমিটার। আর ওই সময়ে নতুন শনাক্ত হয়েছিলেন ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৬২৩ জন।

আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যান ভিত্তিক ওয়েসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বে এপর্যন্ত মোট ১৭ কোটি ৮১ লাখ ৯৫ হাজার ৯২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছেন ৩৮ লাখ ৫৭ হাজার ৭৯৪ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৬ কোটি ২৬ লাখ ৯২ হাজার ৭৫৪ জন।

বিশ্বে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় যুক্তরাষ্ট্র এখনো সবার ওপরে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে তিন কোটি ৪৩ লাখ ৭৭ হাজার ৫৯২ জনের। এরমধ্যে মারা গেছেন ৬ লাখ ১৬ হাজার ৪৪০ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮৬ লাখ ৪১ হাজার ৪৩৯ জন।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ৯৭ লাখ ৬১ হাজার ৯৬৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৩ লাখ ৮৩ হাজার ৫২১ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮৫ লাখ ৭৩ হাজার ২১ জন।

তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল, চতুর্থ স্থানে রয়েছে ফ্রান্স, পঞ্চম স্থানে তুরস্ক, ষষ্ঠ স্থানে রাশিয়া, সপ্তম যুক্তরাজ্য, অষ্টম ইতালি, নবম আর্জেন্টিনা এবং দশম স্থানে রয়েছে কলম্বিয়া।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



বঙ্গবন্ধুর ৪ খুনির রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিল করে প্রজ্ঞাপন জারি

প্রকাশিত:রবিবার ০৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪ খুনির রাষ্ট্রীয় পদক ও খেতাব বাতিল করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। রবিবার (৬ জুন) বিকেলে মন্ত্রণালয়ের উপসচিব রথীন্দ্র নাথ দত্ত স্বাক্ষরিত এ প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

আত্মস্বীকৃত চার খুনি হলেন- লে. কর্নেল শরিফুল হক ডালিম, লে. কর্নেল এস এইচ এম এইচ এম বি নুর চৌধুরী, লে. এ এম রাশেদ চৌধুরী ও নায়েক সুবেদার মোসলেম উদ্দিন খান।

এ বিষয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুসহ অন্যান্য শহীদদের হত্যা মামলায় আত্মস্বীকৃত আদালত কর্তৃক মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এই ৪ খুনির মুক্তিযুদ্ধের বীরত্বসূচক খেতাব থাকা জাতির জন্য লজ্জাজনক সেজন্য এ গেজেট বাতিল করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৯ ফেব্রুয়ারি জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) ৭২তম সভায় ৪ খুনির রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিলের সুপারিশ করা হয়েছিল।


আরও খবর



ইয়াস উপকূল থেকে ৪৬৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে (লাইভ)

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ইয়াসলাইভ লিংক এখনও ৪৬৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। ঘূর্ণিঝড়টি ঘণ্টায় ১০-১৫ কিলোমিটার গতিবেগে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও উড়িষ্যার দিকে অগ্রসর হচ্ছে। যদি গতিপথ পরিবর্তন না করে তবে ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশে আঘাত হানার সম্ভাবনা নেই।

সাতক্ষীরা আবহাওয়া অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জুলফিকার আলী বলেন, ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্র বাংলাদেশের উপকূলে না হলেও এর প্রভাবে উপকূলীয় এলাকায় ঝড়ো হাওয়া, জলোচ্ছ্বাসসহ ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ মে) রাত থেকে এর প্রভাব শুরু হবে। বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ মে) সকাল থেকে সাতক্ষীরার আবহাওয়া স্বাভাবিক থাকলেও আকাশে মেঘের আনাগোনা রয়েছে। এ ছাড়া উপকূলীয় এলাকায় বাতাসের গতিবেগ বৃদ্ধি পেয়েছে। নদীতে জোয়ার থাকায় ঢেউগুলো আছড়ে পড়ছে বাঁধে।

ইয়াস সম্পর্কিত ১০ নম্বর বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার (২৫ মে) সকালে ঢাকার আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ইয়াস উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর ও আরও ঘনীভূত হয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর পূর্বাভাসে আরও জানিয়েছে, প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া আকারে ১১৭ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকট সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলালকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

অনুকূল আবহাওয়া পরিস্থিতির কারণে প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে ২৬ মে ভোর নাগাদ উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় পৌঁছাতে পারে।

বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ঘূর্ণিঝড়টি আজ সকাল ৬টায় (২৫ মে) চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৫২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল।

মঙ্গলবার রাত ৯টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা ও ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে বিচ্ছিন্নভাবে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অনেক জায়গা থেকে প্রশমিত হতে পারে।

নিউজ ট্যাগ: ঘূর্ণিঝড় ইয়াস

আরও খবর



মা-বাবা-বোনকে হত্যা মামলায় ৪ দিনের রিমান্ডে মেহজাবিন

প্রকাশিত:রবিবার ২০ জুন ২০21 | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর কদমতলীতে মা, বাবা ও  ছোট বোনকে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার মেহজাবিন ইসলাম মুনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রবিবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাসের আদালত এ রিমান্ডের আদেশ দেন।

আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন (জিআর) শাখা এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

আদালত সূত্র জানায়, রবিবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামিকে আদালতে হাজির করে তার ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তার ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে রাজধানীর কদমতলীতে একই পরিবারের মা, বাবা ও বোনকে হত্যার ঘটনায় মেহজাবিন ইসলাম মুন ও তার স্বামী শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।


আরও খবর



রাজশহীতে করোনায় আরও ১০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও করোনার উপসর্গ নিয়ে ১০ জন মারা গেছেন। শুক্রবার (১৮ জুন) সকাল ৮টা থেকে শনিবার (১৯ জুন) সকাল ৮টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে তাদের মৃত্যু হয়। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, যে ১০ জন মারা গিয়েছেন তাদের মধ্যে তিনজন করোনায়, ছয়জন করোনার উপসর্গ নিয়ে এবং একজন করোনামুক্ত হয়ে মারা গেছেন। এরমধ্যে রাজশাহীর ৫ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৫ জন। করোনা সংক্রমণ ও উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে এসেছিলেন তারা।

শামীম ইয়াজদানী জানান, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের দুই ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৩৭৬ জনের আর করোনা শনাক্ত হয়েছে ১১৩ জনের। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩০.০৫ শতাংশ।

এদিকে জেলা প্রশাসনের ঘোষণা অনুযায়ী আজ ৯ম দিনের মতো চলছে রাজশাহী মহানগরীতে সর্বাত্মক লকডাউন। এ সর্বাত্মক লকডাউন দ্বিতীয় দফায় ২৪ তারিখ মধ্যরাত পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এর আগে প্রথম দফায় ১৭ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত লকডাউন ছিলো।

সর্বাত্মক লকডাউন পরিস্থিতি সবসময় অবলোকন করছেন প্রশাসন। কিন্তু রাজশাহী নগরীর মানুষ লকডাউন মানলেও আর্থিক প্রতিষ্ঠান অর্থাৎ ব্যাংক-বীমা, কাঁচাবাজার খোলা রাখা ও আম পরিবহন ও বিপণনের জন্য বেশ কিছু মানুষকে বিভিন্ন সময়ে বাইরে চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে।


আরও খবর