Logo
শিরোনাম

শীতের কাপড়ের যত্নআত্তি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কাপড়ের ভেতরে থাকা কেয়ার লেবেলগুলো আমাদের সবার কাছেই অস্বস্তির কারণ। ছোট ছোট ফন্টের লেখা আর বিচিত্র সব আইকন আমাদের কাছে অর্থহীন মনে হয়। কাপড় কিনে বাসায় আনার সঙ্গে সঙ্গেই সাধারণত এ অংশটি কেটে ফেলা হয়; কিন্তু এই লেবেলগুলোতে সঠিকভাবে কাপড় ধোয়ার নিয়ম ও কীভাবে যত্ন নিলে পোশাকটি দীর্ঘস্থায়ী হবে এসব বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেওয়া থাকে। সে তথ্য অনুযায়ী যত্ন নিলে পোশাকের রং এবং কাপড় ভালো থাকে।

কাপড়ের যত্নে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো ধোয়া। আর বিশেষ ধরনের ফেব্রিক ও অন্যান্য উপাদানে তৈরি শীতের পোশাক বাকি সব কাপড়ের সঙ্গে একইভাবে ধুলে পোশাকের কিছু অপূরণীয় ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। শীতে উল বা অন্যান্য বিশেষ উপাদানে তৈরি শীতের কাপড়গুলোর সঠিকভাবে যত্ন নিলে পছন্দের শাল, সোয়েটার ও অন্যান্য গরম পোশাকগুলো দীর্ঘদিন ব্যবহার করা যায়।

শীতের পোশাক পানিতে ভেজালে অনেক সময় সাধারণ কাপড়ের তুলনায় ভারি হয়ে যায়। এতে সঠিকভাবে ধোয়া ও পোশাক থেকে পানি ঝরানো কষ্টসাধ্য হয়ে দাঁড়ায়। একই সঙ্গে আর্দ্রতার কারণে শীতের কাপড়ের ভেতরে স্যাঁতসেতে ভাবও চলে আসে। এ কারণে পোকামাকড় ও জীবাণুর বিস্তার হতে পারে। তাই শীতের কাপড় পরবার আগে অবশ্যই একবার ধুয়ে নেওয়া আবশ্যক। অন্যান্য ঋতুতে কাপড় ধোয়া তুলনামূলক সহজ মনে হলেও, শীতকালে ওই একই পরিমাণ কাপড় ধোয়া বেশি কষ্টসাধ্য মনে হয়। বিশেষ করে, শহুরে ব্যস্ত জীবনের ফাঁকে প্রতিদিনের ব্যবহার্য ৩ স্তরের কাপড় ধোয়া অনেকের কাছেই বিরক্তিকর মনে হতে পারে।

যারা নিজের স্বাস্থ্যের মতো করে কাপড়েরও যত্ন নিতে চান, তাদের জন্য এখন বাজারে আধুনিক ফিচারের বিভিন্ন ওয়াশিং মেশিন রয়েছে। খুব সহজেই ওয়াশিং মেশিন কাপড়ের যত্ন নেওয়া যায়। সঙ্গে রয়েছে কাপড়ে জমে থাকা ধুলা ও জীবাণুর বিরুদ্ধে রাফ-অ্যান্ড-টাফ ব্যবস্থা। শীতের কাপড়ের যত্নে টপ লোড ওয়াশিং মেশিন একটি ভালো অনুষঙ্গ হতে পারে। বাজারে এখন স্যামসাংসহ নানা ব্র্যান্ডের ওয়াশিং মেশিন পাওয়া যায়। স্যামসাংয়ের টপ লোড ওয়াশিং মেশিনে ডিজিটাল ইনভার্টার প্রযুক্তি থাকায় ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয় করে। এর ওবল টেকনোলজি কাপড়ের জট পাকানো ও নষ্ট হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে। এতে হাইজিন সিস্টেম সুবিধা থাকায় ৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায়ও কাপড় ধোয়া সম্ভব হয়। এই প্রক্রিয়ায় কাপড়ে থাকা ৯৯.৯ শতাংশ ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস হয় এবং পুরোনো ও তেল চিটচিটে দাগও সহজে পরিষ্কার হয়।

প্রয়োজনীয় ফিচারের পাশাপাশি, স্যামসাংয়ের ওয়াশিং মেশিনে রয়েছে ম্যাজিক ডিসপেনসার। এ ছাড়া রয়েছে ডিপ সফটনার। পাশাপাশি ডিভাইসটির যে কোনো সমস্যা সহজে সমাধান করার জন্য রয়েছে স্মার্ট চেক এবং আরও অনেক আধুনিক ফিচার।

নিউজ ট্যাগ: শীতের কাপড়

আরও খবর

আজকের রাশিফল: জেনে নিন কেমন কাটবে দিন ?

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩

অ্যাকনে যখন মাথার ত্বকে

বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩




শীতে চোখ ভালো রাখবে যে ৫ খাবার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অন্যান্য ঋতুর মতো শীতেও রয়েছে সংক্রমণসহ বিভিন্ন অসুখের ভয়। এসময় কাশি, সর্দি, গলা ব্যথা, জ্বর ইত্যাদিতে ভুগতে হয় বেশি। শীতের এই সময়ে চোখের যত্ন কিংবা চোখের স্বাস্থ্যের প্রতি আমরা খুব একটা মনোযোগী থাকি না। যে কারণে এই সময়ে চোখের শুষ্কতা, অস্বস্তি, চুলকানি, জ্বালাপোড়া, চোখ ব্যথা এমনকী মাথা ব্যথায়ও ভুগে থাকেন অনেকে। শীতে তাপমাত্রা কম থাকা এবং বাতাসে আর্দ্রতা কমে যাওয়ার কারণে এসব সমস্যা আরও বেড়ে যায়। তাই এসময় চোখের বাড়তি যত্ন নেওয়া জরুরি। শীতে বিভিন্ন সবজি ও ফল রাখুন আপনার খাবারের তালিকায়, যেগুলো চোখের জন্য উপকারী। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

গাজর: আমাদের চোখ ভালো রাখার জন্য যেসব খাবার রয়েছে তার ভেতরে সবার আগেই আসে গাজরের নাম। এতে থাকা বিটা ক্যারোটিন চোখ ভালো রাখার কাজে সাহায্য করে। সেইসঙ্গে এতে থাকা লুটিন নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট চোখের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। গাজর কাঁচা খেলে বেশি উপকার পাবেন। খেতে পারেন গাজরের জুসও। বিভিন্ন রান্নায়ও যোগ করতে পারেন উপকারী এই সবজি।

মিষ্টি আলু: মিষ্টি আলুতেও আছে গাজরের মতো বিটা ক্যারোটিন। এটি দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়। সেইসঙ্গে দূর করে রাতকানা রোগের ঝুঁকিও। এই সবজিতে থাকা অন্যান্য উপাদানও চোখের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে কাজ করে। এই আলু সেদ্ধ করে, পুড়িয়ে বা এটি দিয়ে বিভিন্ন রেসিপি তৈরি করে খেতে পারেন। যেভাবেই খান না কেন, মিষ্টি আলু আপনার চোখ ভালো রাখতে কাজ করবে।

পেয়ারা: শুধু ভিটামিন এ-ই নয়, ভিটামিন সি-ও আমাদের চোখ ভালো রাখতে কার্যকরী। পেয়ারায় থাকে প্রচুর ভিটামিন সি। নিয়মিত পেয়ারা খেলে তা চোখে ছানি পড়ার সমস্যা থেকে দূরে রাখতে সাহায্য করবে। সেইসঙ্গে ভালো রাখবে দৃষ্টিশক্তিও। ভিটামিন সি যুক্ত এই ফল আমাদের দাঁতের জন্যও সমান উপকারী।

আমলকি: শীতের সময়ে আমলকি পাওয়া যায়। এটি প্রতিদিনের খাবারে যোগ করার রয়েছে অনেক সুফল। তার মধ্যে অন্যতম হলো আমলকি চোখ ভালো রাখার কাজে সাহায্য করে। এই ফলে থাকে প্রচুর ভিটামিন সি। আমাদের দৃষ্টিশক্তি বাড়ায় এবং কর্নিয়াতে কোলাজেন বজায় রাখতে সাহায্য করে।

সবুজ শাক: শীতের মৌসুমে কেবল বিভিন্ন ধরনের সবজিই নয়, পাওয়া যায় নানা ধরনের শাকও। এর মধ্যে পালং, শরিষা, মুলা, ডাটা, মেথি শাক অন্যতম। সবুজ রঙের এসব শাক আমাদের চোখ ভালো রাখতে দারুণ কার্যকরী। এসব শাকের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য চোখের স্বাস্থ্য ভালো রাখার কাজে সাহায্য করে। তাই এই শীতে প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখুন সবুজ শাক।


আরও খবর

৮ ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে ভর্তি

বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩




‘একতারা’ প্রতীক পেলেন হিরো আলম

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বগুড়া-৪ ও বগুড়া-৬ দুই আসনের উপনির্বাচনে আবারও সিংহ প্রতীক নিয়ে লড়তে চেয়েছিলেন আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। তবে তাকে দেওয়া হয়েছে একতারা প্রতীক। বুধবার দুপুর ২টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক সাইফুল ইসলাম হিরো আলমের হাতে তার বরাদ্দকৃত প্রতীক তুলে দেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক সাইফ ইসলাম ব‌লেন, মহামান‌্য হাই‌কোর্ট থে‌কে আমরা আদেশ পেয়েছি। আমাদেরকে হিরো আলমকে প্রতীক বরাদ্দের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেই নির্দেশনার আলোকে আজকে বগুড়া-৪ এবং বগুড়া-৬ এই দুটি আসনের উপনির্বাচনের জন্য তাকে একতারা’ প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হলো।’

প্রতীক বরাদ্দ পেয়ে হিরো আলম বলেন, আ‌মি সিংহ প্রতীক নি‌য়ে নির্বাচন কর‌তে চে‌য়ে‌ছিলাম। কিন্তু প্রতীক‌টি অন‌্য একটি রাজ‌নৈ‌তিক দলের নিবন্ধনে থাকায় আমি পাইনি। এতে আফ‌সোস নেই। বিকল্প প্রতীক হিসেবে আমি একতারা’ চয়েস করেছিলাম। সেটিই পেয়েছি।’

‘একতারা’ প্রতীক পছন্দ করার কারণ জানতে চাইলে হিরো আলম বলেন, আমি অভিনয় জগতের মানুষ। অভিনয় ও গান নিয়ে আমার কাজ। এ জন্য একতারা প্রতীক পছন্দ করেছি। প্রতীকটি পেয়ে আমি খুব খুশি।’

হিরো আলম আরও বলেন, গতবারের মতো এবারও অনেক যুদ্ধ করে আমাকে প্রার্থিতা পেতে হয়েছে। কেন এরকম বারবার হয়রানি করা হয় জানি না।’

স্বঘোষিত হিরো বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠ হওয়ার ব্যাপারে আমি পুরোপুরি আশাবাদী। পাশাপাশি সাধারণ মানুষ তাদের সেবা করার জন্য আমাকেই সুযোগ দেবেন বলে আমি নিশ্চিত। আমি আগামীকাল থেকেই নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করব। আমার তো এমনিতেই দেরি হয়ে গেছে। আমি সোশ্যাল মিডিয়া এবং ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাইব।’

এর আগে ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিংহ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেছিলেন হিরো আলম। তবে জিততে পারেননি। আরও একবার সংসদ সদস্য হওয়ার মিশনে নেমেছেন ফেসবুক ও ইউটিউবের এই ভাইরাল তারকা।

দলীয় সিদ্ধান্তে দুটি আসন থেকে বিএনপির সংসদ সদস্যরা পদত্যাগ করায় বগুড়া-৪ ও বগুড়া-৬ আসনে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ভোট গ্রহণের জন্য তফসিল ঘোষণা করেছে ইসি। এই দুই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে মনোনয়নপত্র কিনে প্রার্থী হয়েছেন হিরো আলম। দুটি আসনেই তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে লড়বেন।

যদিও দুটি আসনেই তার মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেছিল নির্বাচন কমিশন- ইসি। কারণ হিসেবে বলা হয়, হিরো আলমের ১ শতাংশ ভোটার তালিকায় গরমিল পাওয়া গেছে। সেখানে কয়েকজন ভোটারের সমর্থন না পাওয়ায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। আইনি লড়াইয়ে মঙ্গলবার তা ফিরে পান হিরো আলম।

একই ভাবে ২০১৮ সালের নির্বাচনেও প্রাথমিক অবস্থায় তার প্রার্থিতা বাতিল করেছিল নির্বাচন কমিশন। সে বারও হাইকোর্টে রিট আবেদন করে তা ফিরে পেয়েছিলেন হিরো আলম।


আরও খবর

আপাতত দেশে আসছে না 'পাঠান'

বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩




বিশ্বে প্রথম নাকে দেওয়ার করোনা ভ্যাকসিন বাজারে আনল ভারত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নাকে দেওয়া করোনা ভ্যাকসিন বিশ্বে প্রথম বাজারে এনেসে ভারত। এর নামা দেওয়া হয়েছে ইনকোভ্যাক। বৃহস্পতিবার দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. মনসুখ মান্দাভিয়া এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং এই ভ্যাকসিনের উদ্বোধন করেছেন।

ভারতীয় রুপিতে এর দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৮০০ টাকা। হায়দরাবাদ-ভিত্তিক ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থা ভারত বায়োটেক এ ভ্যাকসিন তৈরি করেছে। সরকারের কাছে প্রতিষ্ঠানটি এ ভ্যাকসিন বিক্রি করবে ৩২৫ রুপিতে আর বেসরকারি হাসপাতালেগুলোতে বিক্রি হবে ৮০০ রুপিতে।

গত বছরের ডিসেম্বরে প্রাথমিক দুই ডোজ করোনা টিকা যারা নিয়েছেন, তারা বুস্টার ডোজ হিসেবে ইনকোভ্যাক’ নিতে পারবেন বলে অনুমোদন দেয় দেশটির সরকার।

ভারতের ওষুধের মান নিয়ন্ত্রক সংস্থা সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন (সিডিএসসিও) ১৮ বছর বা তার বেশি বয়সীদের জন্য জরুরি পরিস্থিতিতে নাকে দেওয়ার ভ্যাকসিন ইনকোভ্যাক’ ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। ইনকোভ্যাকের দু’টি ডোজ ২৮ দিনের ব্যবধানে ব্যবহার করতে হবে।

তবে যারা করোনাভাইরাসের সতর্কতা বা বুস্টার ডোজ নিয়েছেন তারা নাকের ভ্যাকসিন নিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন ভারতের সরকারের ভ্যাকসিন টাস্ক ফোর্সের প্রধান।

ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক ভারত বায়োটেকের মতে, এখন যে কেউ চাইলে কোউইন (CoWin) ওয়েবসাইটে গিয়ে ইনকোভ্যাকের ডোজ নেওয়ার জন্য অ্যাপয়েন্টমেন্ট বুক করতে পারবেন।


আরও খবর



ট্রেন্ডি মেকআপের খুঁটিনাটি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | ৫৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ট্রেন্ডি, মানেই সমসাময়িক নিত্যনতুন সবকিছু। মেকআপও কিন্তু এর থেকে পিছিয়ে নেই। রেট্রো, ক্ল্যাসিক, বাঙালিয়ানা, বলিউড, স্মোকি, উইন্টার, নো মেকআপ লুক, ডিউই গ্লো মেকআপ, মোনোক্রোম্যাটিক, এয়ারব্রাশ, মিনারেল মেকআপ, ৬০ বা ৭০ দশকের ফিরে আসা মেকআপ ট্রেন্ড, আরও কত-কী! আজকাল বিভিন্ন টিউটোরিয়াল দেখে নিজেই ঘরে বসে এই মেকআপ ট্রিক অ্যান্ড ট্রিকসগুলো শিখে নিচ্ছেন সবাই। 

লাউড মেকআপ উইথ ব্রাইট ব্লাশ : পুরো মেকআপে ভারী ভাব নিয়ে আসতে একটি উজ্জ্বল রঙের ব্লাশঅনই যথেষ্ট। দিনের পার্টি হোক বা রাতের, উইন্টার হোক বা সামার পার্টিমেকআপে উজ্জ্বল ব্লাশ ভালোই মানায়। এখন বিভিন্ন ব্র্যান্ডই বোল্ড পিচ বা পাঞ্চি পিংক কালারের ব্লাশগুলোতে অনেক শেড বাজারে এনেছে। মেকআপে ব্রাইট ব্লাশ দিয়ে অভিজাত লুক আনতে এই রঙের শেডগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

নো মেকআপ লুক : স্নিগ্ধ সাজ কে না পছন্দ করে? এটি দেখতে যেমন সুন্দর লাগে, তেমনি খুব একটা পরিশ্রম ছাড়াই ফ্ললেস লুক পেয়ে যাবেন নো মেকআপ লুকে। এই লুকের জন্য ফাউন্ডেশন যেন হালকা কাভারেজের হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। ময়েশ্চারাইজের সঙ্গে ফাউন্ডেশন মিক্স করেও স্কিনে অ্যাপ্লাই করলে ভালো হয়। এর সঙ্গে হালকা শেডের ব্লাশঅন, হালকা আই মেকআপ, ক্রিম ফর্মুলার লিপস্টিক, চিকন করে আইলাইনার বা আইলাইনার ছাড়া শুধু মাসকারা দিয়েই কমপ্লিট করতে পারেন এই লুক। 

ট্যান মেকআপ : রং ফরসাকারী মেকআপের চেয়ে এখন ট্যান একটা লুক সবাই একবার হলেও মেকআপে ট্রাই করতে চান। বিশেষ করে কন্ট্যুর করার পর যে লুকটি পাওয়া যায়, সেই লুককেই ট্যান মনে হয়। একেবারে ন্যাচারাল একটি লুক নিয়ে আসে এই মেকআপ। এই লুকের জন্য কয়েক ফোঁটা ট্যানিং সিরামের সঙ্গে ময়েশ্চারাইজার মিক্স করে জো, নাক, চিক লাইনে অ্যাপ্লাই করে নিতে হবে। এর ওপর স্কিন টোনের সঙ্গে ম্যাচিং লুজ পাউডার দিয়ে ফিনিশিং টাচ দিয়ে কমপ্লিট করুন আপনার ট্যান মেকআপ লুক। 

মোনোক্রোম্যাটিক মেকআপ : ম্যাট হোক বা গ্লসি, ব্রাইট হোক বা হালকা কালারমুখে অল ওভার একটি রং দিয়ে মেকআপ সেরে নিতে পারবেন এই লুকে। আইশ্যাডো, ব্লাশঅন, লিপস্টিকএসব একই রঙের হওয়া চাই এই মেকআপ লুকের জন্য। সেই সঙ্গে নেইল কালার, ড্রেস ও জুতা বা স্যান্ডেলও একই রঙের হতে পারে। মিনিমাল মোনোক্রম, পারফেক্টলি পিচ, রোজি রাসবেরি, ওয়ার্ম নিউট্রালস, রেট্রো গ্ল্যামসএ রকম অনেক লুকই নিতে পারেন মোনোক্রোম্যাটিক ক্যাটাগরিতে। ড্রামাটিক, লাউড মেকআপ লুকের জন্য এই মেকআপ একদম পারফেক্ট। 

ডিউই মেকআপ : ডিউই স্কিন লুকের জন্য হাইলাইটার ক্রিমস ও বামস। আর এই মেকআপ লুকের শুরুতে অবশ্যই ম্যাট প্রাইমার ব্যবহার করতে ভুলবেন না। তবে লিপস্টিকের ক্ষেত্রে আবার লিপ গ্লস ব্যবহার করাই শ্রেয়। চিক বোন, নাকের সামনের দিকে ঠোঁটের ওপর আলতো করে, থুতনিতে হালকা করে হাইলাইটার ক্রিম লাগিয়ে নেবেন। ওভারঅল লুকে দেখবেন একটি গর্জিয়াস ভাব চলেই এসেছে।

নিউজ ট্যাগ: ট্রেন্ডি মেকআপ

আরও খবর

আজকের রাশিফল: জেনে নিন কেমন কাটবে দিন ?

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩

অ্যাকনে যখন মাথার ত্বকে

বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩




বিজিবির নতুন ডিজি নাজমুল হাসান

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) নতুন মহাপরিচালক (ডিজি) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মেজর জেনারেল এ কে এম নাজমুল হাসান। গতকাল মঙ্গলবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

নাজমুল হাসানকে প্রেষণে নিয়োগ দিয়ে তার চাকরি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগে ন্যস্ত করা হয়েছে। নাজমুল হাসান বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

অন্যদিকে বিজিবির মহাপরিচালকের দায়িত্ব চালিয়ে আসা মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদকে সেনাবাহিনীতে ফিরিয়ে নিতে তার চাকরি ন্যস্ত করা হয়েছে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগে।


আরও খবর