Logo
শিরোনাম

কারিগরি জটিলতায় ডিএসই’তে লেনদেন বন্ধ

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন সাময়িক বন্ধ হয়ে গেছে। রবিবার (১৮ জুলাই) বেলা ১১টা ৯ মিনিটের পরেই লেনদেন বন্ধ হয়ে যায়। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১১টা ৫০ মিনিটে সমস্যার সমাধান হয়নি।

এ বিষয়ে ডিএসইর জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুর রহমান বলেন, কারিগরি ত্রুটির কারণে লেনদেন সাময়িক বন্ধ রয়েছে।

তিনি বলেন, সমস্যা দ্রুত সমাধানের চেষ্টা চলছে। সমস্যার সমাধান হলেই আবার লেনদেন শুরু হবে।


আরও খবর

ব্যাংকে লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১




আফগানিস্তানে যুদ্ধ করছে ১০ হাজার পাকিস্তানি

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ২৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিদেশে গিয়ে পাকিস্তানকে একহাত নিলেন আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। দেশটিতে চলমান সংঘাতে তালেবানকে সহযোগিতা করার অভিযোগ তুললেন ইমরান খানের দেশের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার উজবেকিস্তানের রাজধানী তাসখন্দে তিনি পাকিস্তানের তীব্র সমালোচনা করেন।

আন্তর্জাতিক এ সম্মেলনে পাকিস্তানের তীব্র সমালোচনা যেমন করেছেন তেমনই আফগানিস্তানে শান্তি ফেরাতে দেশটির সাহায্যও চান ঘানি।

তিনি পাকিস্তানের প্রতি আহ্বান জানান, দেশটি যেন তার প্রভাবকে যথাযথভাবে কাজে লাগিয়ে এর মাধ্যমে আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং শত্রুতা দূর করতে সাহায্য করে।

ঘানি তার বক্তব্যে বলেন, গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর ধারণা অনুযায়ী, তালেবানের হয়ে যুদ্ধ করার জন্য গত মাসেই পাকিস্তান এবং অন্যান্য জায়গা থেকে আফগানিস্তানে ১০ হাজারের বেশি মানুষ এসেছেন।

এসময় তালেবানেরও তীব্র সমালোচনা করেন তিনি। তিনি বলেন, তালেবান বলেছিল, তারা শহর এবং প্রাদেশিক রাজধানীগুলোতে হামলা চালাবে না। কিন্তু তারা কথা রাখছে না। তারা শহরে এবং প্রদেশের রাজধানীগুলোতে অব্যাহতভাবে হামলা চালাচ্ছে।

সম্মেলনে তালেবান এবং তার সমর্থকদের প্রতি কঠোর বার্তা দিয়েছেন ঘানি।

তিনি বলেন, আমরা তালেবান এবং তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে প্রস্তুত আছি। রাজনৈতিক সমাধানই এগিয়ে যাওয়ার মূলমন্ত্র- তারা এটা না বোঝার আগ পর্যন্ত আমরা লড়াই চালিয়ে যাব।

এরপর আফগান প্রেসিডেন্ট জানিয়ে দিলেন তিনি শান্তি চান।

যুদ্ধ বন্ধে তালেবানকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে ঘানি বলেন, এই যুদ্ধ বন্ধে আফগান সরকারের সঙ্গে কাজ করার পাশাপাশি ধ্বংসাত্মক সাম্প্রতিক হামলা বন্ধে তালেবানের প্রতি আহ্বান জানাই।


আরও খবর



মিষ্টি চৌধুরী তৃতীয় লিঙ্গের এক সংগ্রামী মানুষ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৯৭জন দেখেছেন
Image

সাভার থেকে সাব্বির হোসেন:

মিষ্টি চৌধুরী তৃতীয় লিঙ্গের পরিচয়ে বেড়ে ওঠা মিষ্টির পথচলাও আর বাকি আট-দশজনের মতোই ছিল। হিজড়া বলে তিরস্কার শুনতে হতো অনেক। কিন্তু মিষ্টি আজ একজন রাজনৈতিক নেতা। অন্য দশজন মানুষের মতো সম্মান নিয়ে বেঁচে আছেন। 

জানা গেছে, দীর্ঘদিনের লালিত বাসনাকে বাস্তবে রূপ দিতে একদিন দ্বারস্থ হন সাভার আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা দৌলার। রাজনীতির হাতেখড়ি তার হাতেই। ধীরে ধীরে ঢাকা-১৯ আসনের সংসদ সদস্য, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, সাভার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম রাজীবের সংস্পর্শে আসেন। এই তিনজনের সাহচার্যে রাজনৈতিক মাঠে পদচারণা শুরু করেন মিষ্টি চৌধুরী। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সাভার শাখায় সহ-দপ্তর সম্পাদক পদ লাভ করেন তিনি। রাজনীতিতে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ মিষ্টি চৌধুরী। বিষয়টি নিজের জন্য নিজ কমিউনিটির জন্য অত্যন্ত আনন্দের, গর্বের হিসেবেই দেখছেন মিষ্টি। তবে তার এই উত্তরণের পথ এত সহজ ছিল না। তিনি ছোটবেলা থেকেই রাজনীতি করার প্রবল ইচ্ছে পুষে রাখতেন মনের ভেতর। হৃদয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ আর মস্তিষ্কে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্ব তাঁকে পুলকিত করতো। কিন্তু তার পায়ে পায়ে যে বাধা পদে পদে উপহাস, বঞ্চনা, নির্যাতনই যেন নিয়তি ছিল তাঁর।  অনেক চড়াই-উৎরাইয়ের পর হিজড়া বা তৃতীয় লিঙ্গের একজন মানুষ হয়ে উঠেন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। লিঙ্গের বৈষম্য দূর করে তিনি এখন অন্য সাধারণ দশজনের একজন। সম্মানের সাথে রাজপথে এবং নিজ কর্মে তিনি বলিয়ান হয়ে উঠেন।

তবে স্বীকৃতি পেলেও সাধারণ জনগণের চোখে এখনো তারা আমাদের সমাজের থেকে আসা ভিন্ন এক জাতি । সবস্থানে যেন মস্ত বড় এক বাধা । তবুও জীবন যুদ্ধে বেঁচে থাকার সংগ্রাম।  শেকল ভেঙে ছুঁতে চায় আলো মিষ্টি চৌধুরী। শত বাধা পেরিয়ে তিনি পাড়ি দিতে চান তার নীল আকাশের স্বপ্নে।

আর দশটা সাধারণ ছেলেদের মত তার ছেলেবেলা কেটেছে ধামরাই ও টাঙ্গাইলে। তিনি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করেন।

মিষ্টি চৌধুরী এ প্রতিবেদককে বলেন তাঁর বেড়ে উঠার গল্প। বয়সের সাথে সাথে নিজের শারীরিক পরিবর্তন তিনি বুঝতে পারেন। পারিবারিক লাঞ্ছনা ও সমাজকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে বেঁচে থাকার তাগিদে যুক্ত হোন তার কমিউনিটির (হিজড়া) মানুষের সাথে। তিনি ছেলেবেলাতে যে স্বপ্ন দেখে বড় হয়েছেন তা ধীরে ধীরে বাস্তবায়নের রূপ ধারণ করে একদিন।

এশিয়া মহাদেশের সর্ববৃহৎ দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাভার উপজেলা শাখার উপ-দপ্তর সম্পাদক পদ লাভ করেন তিনি। তিনি রাজনীতিতে নিজেকে আওয়ামী লীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে দেখতে চেয়েছেন বলে জানান। ধর্মীয়ভাবে তিনি ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসী।  ব্যক্তি জীবনে তার আইডল হিসেবে মনে করেন ঋতুপর্ণ ঘোষকে। যিনি ওপার বাংলার জনপ্রিয় পরিচালক। তার সারাদিনের দুঃখ-কষ্ট ভুলে থাকেন তার গর্ভধারিণী মায়ের মুখ দেখে। তিনি আরো বলেন, দিন শেষে যখন বাসায় ফিরি মায়ের মুখের হাসি দেখে এক ঝলকে চলে যায়। ব্যক্তি জীবনে শারীরিক প্রতিবন্ধী ও সাধারণ জনগণকে নিয়ে অদূর ভবিষ্যতে কাজের পরিকল্পনা করছেন। সামাজিক যে ভেদাভেদ আমরা অনেকেই মনে করি, এক অর্থে বলতে গেলে আমরা সবাই মানুষ। কেউ নিজে নিজে শারীরিক সমস্যা নিয়ে জন্ম হয় না। উপরওয়ালা ও প্রাকৃতিক ভাবে আমার আপনার আমাদের সবারই জন্ম। আমরা মানুষ আমাদের বেঁচে থাকার অধিকার আছে এই সমাজে ।

মিষ্টি চৌধুরী জানান. ছাত্ররাজনীতি থেকেই তার রাজনীতিতে আসা। ছেলেবেলা থেকে বঙ্গবন্ধুর নীতি-আদর্শ বুকে ধারণ করেই বড় হয়েছি।  আমি প্রমাণ করে দিয়েছি তৃতীয় লিঙ্গের মানুষেরাও অন্য দশ জনের মত মানসম্মান নিয়ে বেঁচে থাকার যোগ্যতা রাখেন।


আরও খবর



জন্মদিনের রেশ যেন কাটছেই না ঋতাভরী চক্রবর্তীর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঋতাভরী চক্রবর্তী চুটিয়ে এনজয় করছেন। এক মাস পরেও গিফট আসছে তাঁর বাড়িতে। এবার নায়িকা ছুটি কাটাচ্ছেন। পুলে নেমে বিকিনিতে ঝড় তুললেন অভিনেতা। ব্ল্যাক প্রিন্টেড বিকিনিতে স্টানিং ঋতাভরী। সঙ্গে গলায় মানানসই নেক পিস।

জলে নেমে রীতিমতো নাচলেন নায়িকা। ক্যাটরিনা কাইফ (Katrina Kaif) অভিনীত গান ও ঋতাভরীর কোমরের ঠুমকায় কুপোকাত ফ্যানেরা। খোয়াব দেখে ঝুটে মুটে গান ব্যাকগ্রাউন্ডে, জলকেলিতে ব্যস্ত নায়িকা। লাস্যময়ী অবতারে ধরা দিলেন তিনি (Ritabhari Chakraborty)। এই ভিডিয়ো ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে অনুরাগীদের সঙ্গে ভাগ করে নিলেন তিনি। ভক্তরা লভ ইমোজি দিয়ে ভরিয়ে দিলেন কমেন্ট বক্স। 'সুপার হট' তকমা দিলেন নেটিজেনরা।


আরও খবর



করোনা: চট্টগ্রামে একদিনে রেকর্ড ১৫ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চট্টগ্রাম জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে গত এক দিনে আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা সংক্রমণ শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ। সিভিল সার্জন কার্যালয় জানিয়েছে,  মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া এই ১৫ জনের মধ্যে ১০ জন চট্টগ্রাম মহগানগরী এলাকার এবং বাকি পাঁচজন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা ছিলেন।

এর আগে গত ১১ জুলাই চট্টগ্রাম জেলায় এক দিনে সর্বোচ্চ ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। সেদিন ৭০৯ জনের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছিল।

সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি জানান, চট্টগ্রামের ১২টি ল্যাবে ২৫৩৭টি নমুনা পরীক্ষা করে গত এক দিনে আরও ৯২৫ জনের করোনাভাইরাস পজিটিভি এসেছে। নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৬ দশমিক ৪৬ শতাংশ।

নতুন রোগীদের মধ্যে ৫৫৩ জন মহানগরী এলাকার এবং বাকি ৩৭২ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। উপজেলাগুলোর মধ্যে রাউজানে ৮০ জন, হাটহাজারীতে ৬৮ জন এবং ফটিকছড়ি উপজেলায় ৪৭ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর আগে সোমবারে চট্টগ্রামে ৭৬৫ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল, মৃত্যু হয়েছিল ছয় জনের।

মহামারী শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত চট্টগ্রামে মোট ৭২ হাজার ৫৯২ জন কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে; তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৮৫৬ জন।


আরও খবর



ভেনিজুয়েলায় পুলিশ সন্ত্রাসী সংঘর্ষ : নিহত ২৬

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ জুলাই 20২১ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভেনিজুয়েলায় মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীদের সঙ্গে পুলিশের ভয়াবহ সংঘর্ষে অন্তত ২৬ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ৩৮ জন। শনিবার দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সারমেন মেলেনদেজ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সংবাদমাধ্যম রয়টার্সের খবরে জানা গেছে, রাজধানী কারাকাসের উত্তর-পাশ্চিমাঞ্চলে গত এক সপ্তাহ ধরে চলা সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেলেনদেজ বলেন, দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২২ জন সন্ত্রাসী ও ৪ জন পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়েছে। আহত ৩৮ জনের মধ্যে ১০ জন পুলিশের সদস্য রয়েছে। ২৮ জন সাধারণ মানুষও গুরুতর আহত হয়েছেন। সংঘর্ষের সময় আতঙ্কে অনেক বাসিন্দা ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন।

এদিকে, দেশটির বিরোধী দলীয় সেতারা অভিযোগ করছেন, সন্ত্রাসী দমনের নামে প্রেসিডেন্ট মাদুরো আসলে বিরোধী দলকে দমন করছেন।


আরও খবর