Logo
শিরোনাম

শিশুদের ওপর অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ট্রায়াল স্থগিত

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
টিকাটি নিয়ে নিরাপত্তাজনিত কোনো ইস্যু নেই বলে জানিয়েছেন অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক অ্যান্ড্রু পোলার্ড। তিনি বলেন, বিজ্ঞানীরা আরও তথ্য হাতে নিয়ে রাখতে চাইছেন

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি নভেল করোনাভাইরাসের টিকা শিশুদের শরীরে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ স্থগিত করা হয়েছে। বয়স্কদের এই টিকা দেওয়ার পর সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কারণে শিশুদের ওপর টিকার পরীক্ষা বন্ধ রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ কথা জানিয়েছে। গত ফেব্রুয়ারিতে ছয় থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশুদের ওপর অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ট্রায়াল শুরু হয়েছে। ৩০০ স্বেচ্ছাসেবী শিশু ট্রায়ালে অংশ নিতে রেজিস্ট্রেশন করেছে।

এই টিকা নেওয়ার পর রক্ত জমাট বাঁধার সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার অভিযোগ খতিয়ে দেখতে গবেষণা চালাচ্ছে যুক্তরাজ্যের মেডিসিন্স অ্যান্ড হেলথকেয়ার প্রোডাক্টস রেগুলেটরি এজেন্সি (এমএইচআরএ)। এদের কাছ থেকে তথ্য পাওয়ার আগ পর্যন্ত শিশুদের ওপর ট্রায়াল স্থগিত রাখতে চাইছে টিকা উৎপাদনকারী অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা কর্তৃপক্ষ।

তবে, টিকাটি নিয়ে নিরাপত্তাজনিত কোনো ইস্যু নেই বলে জানিয়েছেন অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক অ্যান্ড্রু পোলার্ড। তিনি বলেন, বিজ্ঞানীরা আরও তথ্য হাতে নিয়ে রাখতে চাইছেন।

অন্যদিকে, ইউরোপিয়ান মেডিসিন্স এজেন্সির (ইএমএ) নিরাপত্তা কমিটি জানিয়েছে, তারা এখনও কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছায়নি এবং পর্যবেক্ষণ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এর আগে ইউরোপের ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি ও স্পেনসহ ১৩টি দেশ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা প্রয়োগ স্থগিত করেছিল। ইএমএর আশ্বাসে তারা আবার টিকাটির প্রয়োগ শুরু করেছে।

যুক্তরাজ্যের এমএইচআরএ বলছে, অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ঝুঁকির চেয়ে এর থেকে পাওয়া উপকারের পাল্লা অনেক ভারী। এর আগে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, যাদের তারিখ দেওয়া হচ্ছে, তাদের উচিত সেই অনুযায়ী টিকা নেওয়া।

দেশটিতে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি দুটি টিকা প্রয়োগ চলছে। তৃতীয় হিসেবে মডার্নার টিকারও অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাজ্য সরকার। যুক্তরাজ্যে এ পর্যন্ত তিন কোটি ১৬ লাখ মানুষ করোনার টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন। আর ৫৪ লাখ মানুষ দ্বিতীয় ডোজ নিতে পেরেছেন।

ছয় কোটি ৬৬ লাখ মানুষের দেশ যুক্তরাজ্যের হাতে ৪৫ কোটি ৭০ লাখ ডোজ কোভিড-১৯ টিকার মজুত রয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। এর মধ্যে ১০ কোটি ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি। এই বিশাল মজুদে যুক্ত হতে যাচ্ছে মডার্নার টিকা।


আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




ভাঙ্গায় ট্রেনের সাথে নসিমনের ধাক্কায় শিবচরের ২ যুবক নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ২১ মার্চ 20২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মাদারীপুর থেকে দেলোয়ার হোসাইন

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় রাজশাহীগামী মধুমতি এক্সপ্রেস নামে রেলগাড়ীর সাথে নসিমনের (শ্যালো ইঞ্জিনচালিত) সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দুজন।

শনিবার (২০ মার্চ) দুপুর দুইটার দিকে ভাঙ্গার নোয়াপাড়ার জানদি নামকস্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, শিবচর উপজেলার দত্তপাড়ার আনন্দবাজার গ্রামের আরব ফরাজির ছেলে রফিক ফরাজি (৩৫) ও একই গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে সোহেল মিয়া (২১)।

ভাঙ্গা রেল স্টেশনের ম্যানেজার মো. শাজাহান জানান, রাজশাহী হতে মধুমতি এক্সপ্রেসটিপ ভাঙ্গা স্টেশনের মাত্র এক কিলোমিটার দুরে থাকতে জানদি রেল ক্রসিং অতিক্রম করার সময় ওই নসিমনটি রেল ক্রসিং পেরিয়ে ট্রেনের সাথে ধাক্কা খায়। একজন চালক ও তিনজন আরোহীসহ নসিমনটি তাল গাছের গুড়ি নিয়ে যাচ্ছিলো।

তিনি জানান, জানদির ওই রেলক্রসিংয়ে পথচারী ও পরিবহন চালকদের নিজ দ্বায়িত্বে সড়ক পারাপার হওয়ার নির্দেশ সম্বলিত একটি সাইনবোর্ড টানানো রয়েছে। কিন্তু তারা ওই ঘোষণা না মেনেই রেলের ক্রসিং পেরিয়ে রেলপথে উঠে আসে।

ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের দ্বায়িত্বরত চিটকিৎসক আক্তারুজ্জামান নিহতদের পরিচয় পরিচয় নিশ্চিত করে জানান, এ দুর্ঘটনায় আবুল হোসেন নামে গুরুতর আহত আরো একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


আরও খবর



লরির সঙ্গে মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেল দুই যন্ত্রশিল্পীর

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন দেশের সংগীতাঙ্গনের দুই পরিচিত মুখ প্যাড ও পার্কাসন বাদক হানিফ (৪১) এবং প্যাড বাদক পার্থ গুহ (৫০)। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কনটেইনারবাহী লরি ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে দুজনের মৃত্যু হয়। নিহত দুজন মিউজিশিয়ান ছিলেন।

শনিবার (১৩ মার্চ) ভোর ৫টা ২৫ মিনিটে চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার সোনাপাহাড় এলাকায় মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

একই দুর্ঘটনায় আরও ছয়জন আহত হয়েছেন। এ ছয়জনের মধ্যে লুৎফর ও বিউটি বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

হাইওয়ে পুলিশের জোরারগঞ্জ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মো.ইছহাক জানান, চালকসহ ৮ জন নিয়ে ঢাকা থেকে একটি মাইক্রোবাস কক্সবাজার যাচ্ছিল। আর লরি ছিল ঢাকামুখী।

মীরসরাইয়ের সোনাপাহাড় এলাকায় বিশ্বরোডের মুখে ইউটার্নে লরিটি মহাসড়কের ঢাকামুখী অংশ অতিক্রম করে চট্টগ্রামমুখী অংশে ঢুকে যায়। এ সময় চট্টগ্রামমুখী মাইক্রোবাসের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। পুলিশ ও স্থানীয়রা মিলে মাইক্রোবাসের চালকসহ আট যাত্রীকে স্থানীয় মাস্তাননগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

সেখানে পার্থ প্রতীমকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। গুরুতর আহত তিনজনকে চমেক হাসপাতালে নেওয়া হয়।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়িতে দায়িত্বরত এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার  জানান, আহত তিনজনের মধ্যে হানিফ আহমেদকে হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বিউটি ও লুৎফর হাসপাতালের ২০ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিসের মীরসরাই স্টেশন অফিসার জসিম উদ্দিন জানান, লরির ধাক্কায় মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে গেছে। লরি এবং মাইক্রোবাস মহাসড়ক থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

লরিটি পুলিশ আটক করেছে। তবে লরির চালক কাউকে পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন হাইওয়ে পুলিশের এসআই ইছহাক।

চট্টগ্রাম মঞ্চ সংগীতশিল্পী সংস্থার সভাপতি আলাউদ্দিন তাহের বলেন, ঢাকা থেকে কক্সবাজারে একটি প্রোগ্রামে অংশ নেয়ার জন্য যাচ্ছিলেন। দুর্ঘটনায় দুজন মারা গেছেন। এদের মধ্যে পার্থ অক্টোপ্যাড বাজাতেন। হানিফ অক্টোপ্যাড-ড্রাম বাজাতেন। আহত হয়েছেন সংগীতশিল্পী বিউটিও।

নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।


আরও খবর



বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ওভার কমিয়ে বাংলাদেশের লক্ষ্য দাঁড়ালো ১৪৮

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৯১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে বাংলাদেশের সামনে লক্ষ্য ১৪৮ রান। দুই দফা বৃষ্টির কারণে বন্ধ থাকার পর ৪ ওভার তথা ২৪ বল কমিয়ে আনা হয়েছে। অর্থাৎ এই রান তাড়া করতে হলে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দল পাচ্ছে ৯৬ বল তথা ১৬ ওভার।

বৃষ্টির সম্ভাবনা মাথায় রেখে টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তবে ঠিক সময়েই শুরু হয়েছিল খেলা। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের ইনিংস পুরোটা শেষ হওয়ার আগেই দফায় দফায় বৃষ্টিতে দুইবার বন্ধ হয়ে যায় খেলা।

প্রথমে ১৩তম ওভারের দ্বিতীয় বল করার পর আর এবার ১৮তম ওভারের পঞ্চম বল করার নামল বৃষ্টি। যার ফলে ঢেকে দেয়া হয়েছে মাঠ, বন্ধ করে দেয়া হয়েছে খেলা। দ্বিতীয়বার বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার আগে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৭.৫ ওভারে ৫ উইকেটে ১৭৩ রান।

এরপর লম্বাসময় ধরে বৃষ্টি চলায় সেখানেই থামিয়ে দেয়া হয়েছে খেলা। ফলে বাংলাদেশের সামনে এখন লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ১৬ ওভারে ১৪৮ রান। খেলা বন্ধ হওয়ার আগে মাত্র ২৭ বলে ফিফটি করা ফিলিপস ৩১ বলে ৫৮ এবং মিচেল ১৬ বলে ৩৪ রান করেছেন।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই মারমুখী খেলতে থাকেন দুই ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও ফিন অ্যালেন। নাসুম আহমেদের করা প্রথম ওভারে দুই চারের মারে নিয়ে নেন ৯ রান, সাইফউদ্দিনের করা পরের ওভারে আসে আরও ৭ রান। নিজের দ্বিতীয় ওভারে প্রথম বলে বাউন্ডারি হজম করেও ৪ রানের বেশি দেননি নাসুম।

ইনিংসের চতুর্থ ওভারে প্রথমবারের মতো বোলিং পরিবর্তন করেন মাহমুদউল্লাহ। সাইফউদ্দিনের জায়গায় আনা হয় তাসকিন আহমেদকে। তার প্রথম বলেই ডিপ মিডউইকেট দিয়ে বিশাল ছক্কা মারেন অ্যালেন। ঘুরে দাঁড়াতে সময় নেননি তাসকিন। সুযোগ তৈরি করেন পরের বলেই।


আরও খবর



রুমিন ফারহানাকে হুইপ হিসেবে বিএনপির মনোনয়ন

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
রুমিন ফারহানা হলিক্রস স্কুল থেকে মাধ্যমিক এবং ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করার পর লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিভাগে তার স্নাতক সম্পন্ন করেন

সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ও বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানাকে জাতীয় সংসদের হুইপ হিসেবে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। রুমিন ফারহানা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সুপ্রিম কোর্টের এই আইনজীবী ২০১৯ সালের ২৮ মে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেয়ে সংরক্ষিত নারী আসন-৫০ নং আসন থেকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রথম বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির একমাত্র নারী সদস্য হিসেবে জাতীয় সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছেন।

রুমিন ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য। তিনি আইন ও রাজনীতির পাশাপাশি বাংলাদেশি লেখক ও সাংবাদিক হিসেবে পরিচিত। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত দৈনিক ইত্তেহাদ পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার ইসলামপুরে মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা অলি আহাদ রাজনীতিবিদ ও স্বাধীনতা পুরস্কার বিজয়ী ভাষাসৈনিক।

রুমিন ফারহানা হলিক্রস স্কুল থেকে মাধ্যমিক এবং ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করার পর লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিভাগে তার স্নাতক সম্পন্ন করেন এবং যুক্তরাজ্যের লিংকনস্‌ ইন থেকে ব্যারিস্টার ডিগ্রি অর্জন করেন।


আরও খবর



ছাত্র পেটানো কওমি আলেমের ছয় মাসের কারাদণ্ড

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কওমি মাদ্রাসায় নয় বছর বয়সী শিশুকে বেত্রাঘাতের ঘটনায় মায়ের করা মামলায় এক শিক্ষকের কারাদণ্ড দিয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একটি আদালত।

সম্প্রতি বিভিন্ন মাদ্রাসায় ছাত্র নিপীড়নের অভিযোগ উঠার মধ্যে প্রথম এমন রায় এল।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের কলেজ পাড়ার ক্বারীমীয়া ক্বেরাতুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক মঈন উদ্দীনকে ছয় মাস থাকতে হবে বন্দি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মুখ্য বিচারিক হাকিম মাসুদ পারভেজ এ রায় দেন।

মামলার বিবরণ অনুযায়ী, ২০১৮ সালের ১১ ও ১৩ আগস্ট দুই দফায় নয় বছর বয়সী মো. ইব্রাহিমকে বেদম মারধর করেন শিক্ষক মঈন উদ্দীন।

পিটুনিতে ছেলেটির অবস্থা সঙ্গীন হয়ে পড়লে তাকে নিজেই হাসপাতালে নিয়ে যান। এ সময় খবর পেয়ে শিশুটির বাবা মা তাকে উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

ইব্রাহিমের মা হোসনে আরা বেগম ২০১৮ সালের ২৯ আগস্ট আদালতে মামলার আবেদন করেন মঈন উদ্দীনের বিরুদ্ধে। আদালত তার আবেদন গ্রহণ করে পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দেয়।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করা এপিপি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সাক্ষ্যপ্রমাণে মঈন উদ্দীনের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীকে সহায়তা করা আইনজীবী নাছির মিয়া বলেন, ছেলেটিকে পড়া দিয়েছিলেন শিক্ষক মঈন উদ্দিন। সে পড়া না পাড়ায় তাকে বেত দিয়ে উন্মত্তের মতো পেটাতে থাকেন তিনি। এতে ছেলেটির সারা শরীরে দাগ বসে যায়।

রায় ঘোষণার সময় আদালতে শিশুটির বাবা মা ছিলেন না। তার চাচা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

আইনজীবী নাছির মিয়া বলেছেন, বিচারকের রায়ে বাদীপক্ষ সন্তোষ জানিয়েছে।

আসামিপক্ষে আদালতে ছিলেন সৈয়দ তানভীর কাউসার।

তিনি পিটুনি দেয়ার যুক্তি দেখিয়ে বলেন, ছাত্রকে শাসন করতে শিক্ষক হিসেবে তিনি (মঈন উদ্দিন) বেত্রাঘাত করেছিলেন। তবে অবস্থা বেগতিক দেখে কিন্তু নিজেই তার চিকিৎসা করান। আমি মনে করি তিনি ন্যায়বিচার পাননি। আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করব।

বাংলাদেশে কওমি মাদ্রাসায় ব্যাপকভাবে ছাত্র পেটানো ও বলাৎকারের অভিযোগ আছে। এসব ঘটনায় প্রায়শই শিক্ষার্থীদের মৃত্যুর খবরও আসে গণমাধ্যমে। যা নিয়ে সম্প্রতি ব্যাপক আলোচনাও হচ্ছে।

গত এক সপ্তাহে চট্টগ্রামের হাটহাজারী, সাতকানিয়া ও রংপুরের গঙ্গাচড়ায় তিনটি ঘটনা সামনে এসেছে।

অভিভাবকদের মধ্যে ইদানীং এসব ঘটনা নিয়ে সচেতনতা বাড়ছে। তারা প্রায়ই মামলা করছেন। যদিও বিচারে সাজার হার বেশ কম।


আরও খবর